ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব বাড়ানোর সেরা ৫ টি টিপস এন্ড ট্রিকস

টিউন বিভাগ ইউটিউবিং
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 4
Sonic টিউনার, টেকটিউনস, গাইবান্ধা, রংপুর

আসসালামু আলাইকুম। টেকটিউনস এর নতুন আরো একটি টিউনে আপনাকে স্বাগতম। আমি স্বপন আছি আপনাদের সাথে, আশাকরি সকলেই অনেক ভালো আছেন। আমাদের আজকের টিউনের বিষয় হলো ইউটিউবের কিছু টিপস এন্ড ট্রিক নিয়ে, ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব বাড়ানোর টিপস এন্ড ট্রিকস। একটি চ্যানেলে বেশি সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর অথবা বেশি সাবস্ক্রাইবার থাকা অনেক বেশি জরুরি। কেননা বেশি সাবস্ক্রাইবার থাকলে ভিডিও তৈরি করতে ইচ্ছা বেশি থাকে। এছাড়াও বেশি সাবস্ক্রাইবার থাকলে অনলাইন থেকে কিছু ইনকামের স্বপ্ন টি পূরণ করতে পারবেন। এছাড়াও আপনার চ্যানেলে বেশি সাবস্ক্রাইবার থাকলে আপনার চ্যানেলের প্রতিটি ভিডিওতে ভিউয়ারদের বিশ্বস্ততা এবং ভিডিও অতি দ্রুত ভাইরাল হওয়ার সম্ভবনা অনেক বৃদ্ধি পায়।

চ্যানেলে বেশি সাবস্ক্রাইবার থাকলে সেই ইউটিউব চ্যানেল থেকে ইনকামের অনেকগুলো পথ খুলে যায়। এতে একটি ইউটিউব চ্যানেলের মালিকানাধীন অ্যাডস পাবলিশার্স ব্র্যান্ড বা তৃতীয় পক্ষগুলির সাথে একটি ভালো সম্পর্ক স্থাপনের সুযোগ পাওয়া যায়। আপনার চ্যানেলে বেশি সাবস্ক্রাইবার থাকলে সেখান থেকে আর্থিক উপার্জনের সুযোগ বৃদ্ধি হয়, যেমন ইউটিউব পার্টনারশিপ প্রোগ্রাম, বিভিন্ন বিজ্ঞাপণ আয়, ওয়েবসাইট স্পনসর, প্রোডাক্টস স্পনসর ইত্যাদি।

এছাড়াও বেশি সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর অন্যতম কারণ হল চ্যানেলের মান উন্নয়ন করা, অর্থ উপার্জনের সুযোগ বৃদ্ধি করা। আপনি ইউটিউবে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা অনেক বেশি হলে আপনি আপনার ভিডিও কন্টেন্টগুলির গুণগত মান সর্বোচ্চ মানের সাথে তুলনা করতে পারেন। এছাড়াও, আপনার চ্যানেলের ভিউয়ারদের বিশ্বস্ততা ও আপনার চ্যানেলের মান বৃদ্ধি জন্য আপনার প্রিয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়ানো প্রয়োজন। তাই আপনার চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা বাড়ানোর জন্য আপনাকে কিছু টিপস এন্ড ট্রিকস ফলো করতে হবে৷ এতে আপনি আপনার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইব সংখ্যা অনেক দ্রুত বাড়াতে পারবেন। তো চলুন জেনে নেই ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব বাড়ানোর সেরা টিপস্ এন্ড ট্রিকসগুলো।

১. নিয়মিত ভিডিও আপলোড করুন

ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব বাড়ানোর জন্য নিয়মিত ভিডিও আপলোড করা অনেক বেশি জরুরি। এতে ইউটিউব আপনার ভিডিওগুলো বেশি বেশি ভিজিটর কাছে পৌঁছে দিবে। ভিজিটররাও দেখবে আপনি তাদের নিয়মিত নতুন নতুন আপডেট সম্পর্কে অবগত করছেন। তারা চাইবে না তাদের নিয়মিত আপডেট পেতে বাঁধা থাকুক। তাই তারা আপনার চ্যানেল খুব সহজেই সাবস্ক্রাইব করবে৷ যার ফলে আপনার চ্যানেলে সাবক্সাইব সংখ্যাও বেড়ে যাবে।

নিয়মিত ভিডিও আপলোড বলতে প্রতিদিন একটি করে ভিডিও দিবেন সেই কথা আপনাকে বলা হয় নাই। এখানে আপনাকে বোঝানো হয়েছে একটি নিদিষ্ট নিয়ম মেনে ভিডিও আপলোড করুন৷ যেমনঃ ১ দিন বা ২ দিন পর পর একটি নিদিষ্ট দিনে ভিডিও আপলোড করুন অথবা সপ্তাহের নিদিষ্ট একটি দিনে প্রতি সপ্তাহে ভিডিও আপলোড করুন অথবা মাসের নিদিষ্ট একটি তারিখে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করুন। এমন ধারাবাহিক নিয়ম বজায় রাখলে খুব সহজেই আপনার ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব সংখ্যা বেড়ে যাবে।

২. মানসম্মত ভিডিও তৈরি করা

ভিডিও তৈরি করার সময় ভিডিও যেন মানসম্মত হয় সেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে। কারণ আপনার চ্যানেলের ভিডিওগুলো যদি মানসম্মত ভিডিও হয় তাহলে ভিউয়াররা আপনার চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করবে। চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর জন্য ভিডিও কোয়ালিটির উপর নজর দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আপনার ভিডিওগুলো যদি মানসম্মত না হয় বা তা দশকের জন্য অরুচি পূর্ণ হয় তাহলে আপনার ভিডিও না দেখেই দর্শক চলে যাবে। যার ফলে আপনার চ্যানেলে সাবক্সাইব আসবে না।

চ্যানেলের ভিডিওগুলো মানসম্মত করার জন্য আপনাকে যে বিষয়গুলোর উপর খেয়াল রাখতে হবে তা হলোঃ

  • ভিডিওতে সঠিক তথ্য দেওয়া হয়েছে কি না তা নিশ্চিত করা।
  • ভিডিওর প্রয়োজন অনুযায়ী নিদিষ্ট দৈর্ঘ্য রাখা। অযথা অনেক বড়ো ভিডিও না বানানো।
  • ভিডিওতে অডিও কোয়ালিটি ভালো কি না সেদিকে খেয়াল রাখা যেমনঃ গাড়ির চলাচল শব্দ, হর্ন বাজার শব্দ ইত্যাদি যেন ভিডিওতে না থাকে।
  • ভিডিওর বিষয়গুলো সুন্দর করে গুছিয়ে উপস্থাপন করা।

মানসম্মত ভিডিওগুলো তৈরি করার জন্য আপনি এই কয়েকটি পয়েন্ট ভালো করে মনে রাখলেই খুব সহজেই ভালো গুণাগুন ভালো কোয়ালিটি সম্পূর্ণ ভিডিও বানাতে পারবেন।

৩. ভিডিও থাম্বনেইল এবং টাইটেল আকর্ষণীয় করুন

ইউটিউব ভিডিওতে ভালো ভিউয়ার অথবা ভিডিওতে ভালো ক্লিক পেতে ইউটিউব ভিডিও থাম্বনেইল এবং ভিডিও টাইটেল আকর্ষণীয় করার বিকল্প কিছু নাই। আপনার ইউটিউব ভিডিও থাম্বনেইল এবং টাইটেল যত বেশি আকর্ষণীয় হবে আপনার ভিডিওতে ভিউ ততো বেশি হবে। আর ভিউ যত বেশি হবে আপনার চ্যানেলে ততো দ্রুত সাবস্ক্রাইব বেশি হবে।

তাই ভিডিও ভাইরাল হওয়া থেকে শুরু করে ভিডিওতে বেশি ভিউ, বেশি ইম্প্রেশন, বেশি ক্লিক পাওয়ার জন্য অবশ্যই আপনার ভিডিও টাইটেল এবং ভিডিও থাম্বনেইল যাতে আকর্ষণীয় হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। এতে আপনার ইউটিউব চ্যানেল দ্রুত গ্রো করবে।

৪. সোশ্যাল মিডিয়াতে ভিডিও শেয়ার করুন

যেকোনো ভিডিও সহজেই ভাইরাল করার জন্য বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া বেশ জনপ্রিয় একটি মাধ্যম। তাই আপনার চ্যানেল অথবা আপনার ভিডিও খুব সহজে দ্রুত ভাইরাল করার জন্য আপনার ইউটিউব ইডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন। এতে আপনার ভিডিওতে ভিউজ আসবে। ইম্প্রেশন বেশি হবে। আপনার ওয়াচ টাইম বাড়বে। মনিটাইজ পলিসি পূরণ হবে। সব থেকে মজার ব্যাপার হলো অন্য অন্য মাধ্যম থেকে আপনি খুব সহজেই সোশ্যাল মিডিয়া দ্বারা আপনার চ্যানেলে অনেক বেশি সাবক্সাইব গেইন করতে পারবেন৷ বর্তমানের জনপ্রিয় কিছু সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম হলোঃ

  • FaceBook
  • Instagram
  • TikTok
  • Pinterest
  • Linkedin
  • X (Twitter)

একটি ইউটিউব চ্যানেল যখন শুরুর দিকে নতুন অবস্থায় থাকে তখন সহজেই অনেক বেশি ভিউ বা সাবক্সাইব থাকে না। যার ফলে ভিডিওতে মিনিট, লাইক, টিউমেন্ট, সাবক্সাইব সংখ্যা কিছুই থাকে না৷ নতুনদের জন্য ভিডিওতে অনেক বেশি ভিউ আনার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও শেয়ার করা অন্যতম একটি মাধ্যম হবে পারে।

৫. অন্যান্য ইউটিউবারদের সাথে ভালো সম্পর্ক করুন

ইউটিউব চ্যানেলে অনেক দ্রুত অনেক বেশি সাবক্সাইব বা ভিউ আনার জন্য অন্যান্য ইউটিউবারদের সাথে ভালো সম্পর্ক আপনার জন্য সেরা একটি উপায় হতে পারে। কারণ অন্যান্য ইউটিউবারদের সাথে ভালো সম্পর্ক হলে তারা আপনার চ্যানেল বা ভিডিও তাদের বড়ো চ্যানেলে প্রমোশন করবে। যার ফলে তাদের চ্যানেল থেকে অনেক বেশি ভিউ ও সাবস্ক্রাইব আপনার চ্যানেলে আসবে। এতে আপনি অনেক কম সময়ে অনেক বেশি ভিউ বা সাবস্ক্রাইব জেনারেট করতে পারবেন।

আপনি যদি আপনার ইউটিউব চ্যানেল বা আপনার ভিডিওতে অনেক বেশি ভিউজ আনতে চান তাহলে অন্যান্য ইউটিউবারদের সাথে ভালো সম্পর্কের বিকল্প কিছু হতে পারে না। তাই আপনার চ্যানেলে অল্প সময়ে অনেক বেশি সাবক্সাইব বারাতে চাইলে অবশ্যই অন্যান্য ইউটিউবারদের সাথে ভালো সম্পর্ক গড়ে তুলুন৷

শেষ কথা

আজকের টিউনে আলোচনা করা বিষয়গুলো আপনাকে সফল হতে সহায়তা করবে। কারণ আমরা যারা নতুন ইউটিউব চ্যানেল খুলি অথবা নতুন অবস্থায় ইউটিউব মার্কেটিং করি তারা প্রায়শই একটি সমস্যার সম্মুখীন বেশি বেশি হয় সেটি হলো কোথায় থেকে কী করবো? কীভাবে শুরু করবো? ইত্যাদি। আপনারা যারা নতুন ইউটিউব করতে চাচ্ছেন তারা প্রথম অবস্থায় অথবা প্রাথমিক অবস্থায় আমার টিপস এন্ড ট্রিকগুলো ফলো করতে পারেন। এতে অনেক অল্প সময়ে অনেক বেশি ভিউ আর সাবস্ক্রাইব গেইন করতে পারবেন। তবে সব কথার এক কথা আপনাকে কষ্ট করতে হবে৷ মনে রাখবেন দুনিয়ায় কষ্ট ছাড়া কিছুই পাওয়া সম্ভব নয়। আর কষ্ট ছাড়া কিছু পাওয়া গেলে তার মূল্য থাকে না। ঠিক তেমনি কিছু পেতে চাইলে আপনাকে কষ্ট করতে হবে, পরিশ্রম করতে হবে তবেই আপনি সফল হবেন। পরিশ্রম করতে পারে না বলেই অনেকে আজ ইউটিউবে অসফল।

তো বন্ধুরা এভাবেই আপনারা খুব সহজে আপনাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবক্সাইব সংখ্যা বাড়াতে পারবেন। তো বন্ধুরা এই ছিল আমাদের আজকের টিউন, ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব বাড়ানোর সেরা ৫ টি টিপস এন্ড ট্রিকস! আশাকরি টিউন টি আপনাদের একটু হলেও হেল্পফুল হবে। আজকের মতো এখানেই বিদায় নিচ্ছি, দেখা হবে পরবর্তী টিউনে নতুন কোন বিষয় নিয়ে। ততক্ষণ অবধি সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং টেকটিউনস এর সাথেই থাকবেন।

Level 4

আমি স্বপন মিয়া। Sonic টিউনার, টেকটিউনস, গাইবান্ধা, রংপুর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 55 টি টিউন ও 28 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

টেকনোলজি বিষয়ে জানতে শিখতে ও যেটুকু পারি তা অন্যর মাঝে তুলে ধরতে অনেক ভালো লাগে। এই ভালো লাগা থেকেই আমি নিয়মিত রাইটিং করি। আশা করি নতুন অনেক কিছুই জানতে ও শিখতে পারবেন।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস