কিভাবে আপনার ইউটিউব ভিডিওতে বেশি বেশি ভিউ আনবেন

Level 4
ওয়ার্ড কাউন্সিলর, ১নং ভোলাহাট ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নম্বর ওয়ার্ড, রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

সুপ্রিয় পাঠকগণ, আসসালামু আলাইকুম। সবাই কেমন আছেন?আশাকরি ভাল আছেন। কারন টেকটিউনসের সাথে থাকলে সবাই ভাল থাকে। আমিও আপনাদের দোয়ায় ভাল আছি। আজকে আমি আবারো চলে এসেছি আপনাদের জন্য নতুন আরো একটি কার্যকরী টপিক নিয়ে। আপনি হয়তো টিউন এর টাইটেল দেখে বুঝে গেছেন আজকের টিউনটি কি সম্পর্কিত।

আজকের টিউনে আমি আপনাদের দেখাবো কিভাবে আপনি আপনার ইউটিউব ভিডিওতে ভিউ আনবেন। সেটা 100% কার্যকরী উপায় এবং আপনি কিছু দিনের মধ্যে আপনার ইউটিউব চ্যানেল কে মনিটাইজেশন করে ফেলতে পারবেন। আমরা জানি, ভিউ মানেই সাবস্ক্রাইবার এবং ভিউ মিনেই ওয়াচ টাইম। অর্থাৎ ভিউ হলে সাবস্ক্রাইব এবং ওয়াচ টাইম এমনিতেই আপনার চ্যানেলে পূর্ণ হয়ে যাবে। আমরা জানি ইউটিউব চ্যানেলকে মনিটাইজেশন করতে 1000 সাবস্ক্রাইবার এবং 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম প্রয়োজন। কিন্তু সাধারণ মানুষের পক্ষে এটা পূর্ণ করা বেশ কঠিন। কিন্তু আপনার ইউটিউব ভিডিও গুলি সঠিক ভাবে আপলোড করেন, তাহলে অবশ্যই এক থেকে দুই মাসের মধ্যে আপনার ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন হয়ে যাবে।

তো এখন কথা হল কিভাবে আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলে ভিউ আনতে পারবেন!? আপনি বিভিন্ন জায়গায় আপনার চ্যানেলের লিংক শেয়ার করে থাকেন। এতে করে অনেক ভিউ পান। কিন্তু সেটা আপনার চ্যানেলের জন্য ক্ষতিকারক। এটা কি আপনি জানেন!? যখন লিংক থেকে কোন আপনার চ্যানেলে ভিউ আসবে তখন ইউটিউবের রোবট দেখবে আপনার চ্যানেলে এক্সটার্নাল ভিউ বেশি। তখন আপনার চ্যানেলকে তারা রেংকে করবে না এবং আপনার কোনো ভিডিওই তারা ভাইরাল করবে না। কিন্তু আপনার কোন ভিউ যদি সার্চ থেকে আসে তাহলে অবশ্যই ইউটিউব আপনার ভিডিওগুলো কে ভাইরাল করে দেবে। একটি ভিডিওতে সার্চ থেকে প্রায় 100 থেকে 200 ভিউয়ার্স আসলেই ইউটিউব এর রোবট 90% আপনার ভিডিও ভাইরাল করে দেয়। কিন্তু এই 100 থেকে 200 ভিউ আপনি কোথায় পাবেন?

এর জন্য আপনাকে জানা প্রয়োজন কিভাবে আপনি আপনার চ্যানেলে ভিউ আনবেন এবং আমার এই টিউনে আমি আপনাদের সেটাই দেখাবো। আমার এই টিউনটি একেবারে নতুনদের জন্য যারা নতুন ইউটিউব চ্যানেল খুলেছেন কিন্তু আনতে পারছেন না, শুধুমাত্র তাদের জন্য। তো আর বেশি কথা বাড়িয়ে লাভ নেই চলুন শুরু করা যাক। ভিউ আনার জন্য আমরা অনেকেই নিজে নিজেই আমাদের ভিডিওগুলি তে ভিউ করে ভিউয়ার্স বাড়াই কিংবা নিজে নিজে সার্চ করে আমার চ্যানেলে গিয়ে নিজে নিজে আমরা চ্যানেল ভিউ করি।

কিন্তু এটা আমাদের চ্যানেলের জন্য ক্ষতিকারক। যদি অন্য কোন মোবাইল থেকে অন্য কোন ভিউয়ার্স আপনার ভিডিও ভিউ করে তাহলে শুধু আপনার ভিডিওগুলো ভাইরাল হতে পারে। এজন্য আপনাকে যে বিষয়টি জানা প্রয়োজন সেটি হল SEO। আপনারা হয়তো সকলে এটা শুনে থাকবেন SEO কি। SEO হলো সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (Search Engine Optimization) যেটার মাধ্যমে আপনার ভিডিওগুলি মানুষ সার্চ করলে খুঁজে পাবে। কিভাবে আপনার ভিডিওগুলি SEO করবেন তা আমি এই টিউনে আলোচনা করব।

১. আপনার চ্যানেলকে ভালোভাবে সাজান

আপনার চ্যানেলকে ভালোভাবে সাজানোর জন্য প্রথমে আপনার চ্যানেলের ডেসক্রিপশন জুরুন। ডিসক্রিপশন এ প্রথম লাইনে আপনার চ্যানেলের নাম দেবেন। দ্বিতীয়তঃ আপনার চ্যানেলের সেটিং-এ গিয়ে কীওয়ার্ড লেখায় ক্লিক করে ওইখানে আপনার চ্যানেলের সম্পর্কিত কিছু কীওয়ার্ড দিন।

২. কেমন কনটেন্ট তৈরি করবেন

আপনার ভিডিও গুলি বানানোর আগে আপনাকে নিশ্চিত হয়ে যেতে হবে যে, কোন কন্টেন্ট নিয়ে আপনি ভিডিও বানাবেন। যে কনটেন্ট নিয়ে ইউটিউবে অনেক ভিডিও রয়েছে সেই কনটেন্ট নিয়ে ভিডিও বানানোর দরকার নেই। প্রথমত আপনি দেখবেন কোন জিনিসটা মানুষ সার্চ করে কিন্তু সঠিক ভাবে সেগুলোর ভিডিও ইউটিউবে নেই। আপনি সেই বিষয়গুলো নিয়ে ইউটিউব এ ভিডিও বানান।

৩. আকর্ষণীয় থাম্বনেল যুক্ত করুন

আপনার ভিডিওতে ভিউ আনার জন্য সর্বপ্রথম যে বিষয়টি আপনাকে করতে হবে সেটি হল আকর্ষণীয় থাম্বনেল। আপনার থাম্বনেল দেখে কিন্তু ভিউয়ার্স না আপনার ভিডিওতে ক্লিক করবে। তাতে করে আপনার ভিউও আসবে। এজন্য প্রথমত আপনাকে আপনার ভিডিওর থামনেল ভালো করতে হবে। এমন থাম্বনেল তৈরি করবেন যাতে করে ভিউওয়াস রা আপনার থাম্বনেল দেখে মুগ্ধ হয়ে যাই। সে যেন বাধ্য থাকে আপনার ভিডিও টিতে ক্লিক করার জন্য।

৪. আপনার ভিডিওতে ট্যাগ যুক্ত করুন

ভিডিওতে ভিউ আনার জন্য এবং সার্চে আপনার ভিডিওকে প্রথমে আনার জন্য যে বিষয়টি জরুরি সেটি হল ট্যাগ। আপনার ইউটিউব ভিডিওতে আপনি ট্যাগ হিসাবে যে যে ওয়ার্ডগুলো ব্যবহার করবেন তা লিখে ইউটিউব এ সার্চ করলে আপনার ভিডিওটি সে পাবে। এজন্য আপনাকে কার্যকরী কিছু ট্যাগ যুক্ত করতে হবে। আপনি কিভাবে আপনার ভিডিও গুলোতে সঠিকভাবে ট্যাগ ব্যবহার করবেন তা আমি আমার পরের টিউনে বলে দেব।

৫. ডিসক্রিপশন

আপনারা যখন ভিডিও আপলোড দেন তখন অনেকেই ডিসক্রিপশন এ কিছু লেখা না। ডিসক্রিপশন এ আপনি প্রথমে আপনার ভিডিওর টাইটেল টা দিবেন। তারপর আপনার ভিডিওটি কি সম্পর্কিত সেগুলো কিছু বিশ্লেষণ করে লিখবেন। আপনার ডিসক্রিপশন যত বড় হবে সার্চ ইঞ্জিনে ততো আপনার ভিডিওটি র্যাঙ্কে উঠবে।

৬. নিয়মিত ভিডিও আপলোড করুন

আপনার ইউটিউব চ্যানেল কে র‌্যাংক করানোর জন্য যে বিষয়টি সব থেকে জরুরি সেটি হলো নিয়মিত ভিডিও আপলোড করা। নিয়মিত ভিডিও আপলোড না করলে আপনার চ্যানেল কোনদিন ও সবার সামনে আসবে না। এর জন্য আপনাকে প্রতি সপ্তাহে দুই থেকে তিনটি করে ভিডিও অবশ্যই আপলোড করতে হবে।

আপনি উপরিউক্ত সকল বিষয় গুলো ভালো করে আপনার চ্যানেলে করতে পারলে আমি 100% নিশ্চয়তার সাথে বলতে পারি -10 থেকে 20 দিনের মধ্যে আপনার চ্যানেল র্যাঙ্ক করবে। কিন্তু ভাইরাল হওয়ার জন্য আপনাকে অন্য টেকনিক ফলো করতে হবে। ভাইরাল হওয়ার জন্য আপনাকে যে বিষয়গুলো করতে হবে তা আমি অবশ্যই আমার পরের কোন টিউনে আপনাদের বলে দেবো। কিন্তু প্রথমে আপনাদের জরুরি আপনার ভিডিওগুলি র‌্যাংকে ওঠানো। এজন্য আমি উপরে যে স্টেপগুলো বলে দিলাম সে স্টেপ গুলো ফলো করে আপনার চ্যানেলকে এবং ভিডিওগুলি SEO করতে থাকেন। অবশ্য একদিন ভালো সফলতা পাবেন। তো সুপ্রিয় পাঠক গন, আজকে এটুকুই রইল। আজকের টিউনটি আপনাদের কোন উপকারে এসে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন। সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং টেকটিউনসের সাথে থাকুন।

আসসালামু আলাইকুম।

Level 4

আমি মো: আহাসানুল কবির। ওয়ার্ড কাউন্সিলর, ১নং ভোলাহাট ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নম্বর ওয়ার্ড, রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 37 টি টিউন ও 93 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 6 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

আপডেট করেছি ।আবার রিভিউ করেন

আপডেট করেছি ।আবার রিভিউ করেন

নির্দেশনা [০৩]

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউনটি ‘টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হতে পারছে না।

কারণ:

১. টিউনে সঠিক রেজুলেশন ও সঠিক ডাইমেনশন এর ইমেইজ যোগ করা হয়নি।
২. আইটেমের হেডিং এর অধীনে একই ইমেইজ যোগ করা হয়েছে।
৩. আইটেমের হেডিং এর অধীনে যোগ করা ইমেইজ টেক্সট যোগ করা হয়েছে।

টেকটিউনস টিউন গাইডলাইন অনুযায়ী টিউনে

১. লো-রেজুলেশন ও লো ডাইমেনশন এর ইমেইজ যোগ করা যায় না।
২. আইটেমের হেডিং এর অধীনে একই ইমেইজ যোগ করা যায় না। প্রতিটি আইটেমের হেডিং এর অধীনে ভিন্ন ভিন্ন ইমেইজ যোগ করতে হয়।
৩. আইটেমের হেডিং এর অধীনে যোগ করা ইমেইজে টেক্সট যোগ করা যায় না।

টিউন গাইডলাইন অনুযায়ী লিস্ট বেইসড টিউনে লিস্টের প্রতিটি আইটেমের হেডিং এর অধীনে, আইটেমের সাথে প্রাসঙ্গিক, আইটেমকে রিপ্রেজেন্ট করে এমন ও ‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ অনুসরণ করে ছবি/ইমেইজ থাকতে হয়।

লিস্ট বেইসড টিউনে লিস্টের প্রতিটি আইটেমের হেডিং এর অধীনে যোগ করা ইমেইজের ডাইমেনশন 1920X1080 px হতে হয়। লিস্ট বেইসড টিউনে লিস্টের প্রতিটি আইটেমের হেডিং এর অধীনে যোগ করা ইমেইজের ডাইমেনশন 1920×1080 এর বেশি বা ইমেইজের ডাইমেনশন 1920×1080 px এর বেশি কম হওয়া যায় না। ইমেইজের ডাইমেনশন Exact 1920×1080 px হতে হয়।

অর্থাৎ টিউনে যোগ করা ‘ইমেইজের Aspect Ratio’ Exact 16:9 ও ‘ইমেইজের ডাইমেনশন’ Exact 1920X1080 px হতে হয়।

করণীয়:

‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ এ উল্লেখ করা Copyright Free এবং Royalty-Free Stock Photo সোর্স থেকে আপনার টিউনের সাথে প্রাসঙ্গিক ছবি/ইমেইজ খুঁজে বের করুন ও টিউনে Exact 1920×1080 px ডাইমেনশনে ছবি/ইমেইজ যোগ করুন।

যদি, টিউনের সাথে প্রাসঙ্গিক, আপনার খুঁজে পাওয়া ছবি/ইমেইজটি Exact 1920×1080 px ডাইমেনশনে না থাকে তবে ‘ইমেইজের Aspect Ratio’ Exact 16:9 ও ‘ইমেইজের ডাইমেনশন’ Exact 1920X1080 px রেখে রিসাইজ করে টিউনে যুক্ত করুন।

উদারহরণ সরূপ টিউন ১, টিউন ২ লক্ষ করুন:

টিউনে

  1. ‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ এ উল্লেখ করা Copyright Free এবং Royalty-Free Stock Photo সোর্স থেকে টিউনের সাথে প্রাসঙ্গিক ছবি/ইমেইজ খুঁজে বের করে Exact 1920×1080 px ডাইমেনশনে ছবি/ইমেইজ টিউনে যুক্ত করা হয়েছে।
  2. Copyright Free এবং Royalty-Free Stock Photo সোর্সে খুঁজে পাওয়া ইমেইজটি Exact 1920×1080 px ডাইমেনশনে না থাকায় ‘ইমেইজের Aspect Ratio’ Exact 16:9 ও ‘ইমেইজের ডাইমেনশন’ Exact 1920X1080 px রেখে রিসাইজ করে টিউনে যুক্ত করা হয়েছে।

আপনার যদি ফটোশপ, ইমেইজ রিসাইজ, ইমেইজের Aspect Ratio, ইমেইজের ডাইমেনশন সর্বপরি গ্রাফিক্স এডিটিং সম্পর্কে বেসিক আইডিয়া না থাকে তবে ‘ইমেইজের Aspect Ratio’ Exact 16:9 ও ‘ইমেইজের ডাইমেনশন’ Exact 1920X1080 px রেখে ইমেইজ রিসাইজ করতে টিউনে সঠিক রেজুলেশন ও সঠিক ডাইমেনশন এর ইমেইজ রিসাইজ গাইডলাইন ও গাইডলাইনে উল্লেখিত টুল ব্যবহার করুন। টিউনে সঠিক রেজুলেশন ও সঠিক ডাইমেনশন এর ইমেইজ রিসাইজ গাইডলাইন ও গাইডলাইনে উল্লেখিত টুলের মাধ্যমে গ্রাফিক্স এডিটিং এর বেসিক না জানা থাকলেও খুবই সহজে ও দ্রুত ‘ইমেইজের Aspect Ratio’ Exact 16:9 ও ‘ইমেইজের ডাইমেনশন’ Exact 1920X1080 px রেখে ইমেইজ রিসাইজ করতে পারবেন।

খেয়াল করুন: আপনার যদি ফটোশপ, ইমেইজ রিসাইজ, ইমেইজের Aspect Ratio, ইমেইজের ডাইমেনশন সর্বপরি গ্রাফিক্স এডিটিং সম্পর্কে বেসিক আইডিয়া না থাকে তবে ‘ইমেইজের Aspect Ratio’ Exact 16:9 ও ‘ইমেইজের ডাইমেনশন’ Exact 1920X1080 px রেখে ইমেইজ রিসাইজ করতে অবশ্যই এবং অবশ্যই টিউনে সঠিক রেজুলেশন ও সঠিক ডাইমেনশন এর ইমেইজ রিসাইজ গাইডলাইন ও গাইডলাইনে উল্লেখিত টুল ব্যবহার করুন। আপনার যদি গ্রাফিক্স এডিটিং সম্পর্কে বেসিক আইডিয়া না থাকে তবে অন্য যে কোন অনলাইন বা অ্যাপ রিসাইজ টুল ব্যবহার করে ইমেইজ রিসাইজ করবেন না কেননা টিউনে সঠিক রেজুলেশন ও সঠিক ডাইমেনশন এর ইমেইজ রিসাইজ গাইডলাইন ও গাইডলাইনে উল্লেখিত টুলটি ইমেইজ রিসাইজ করতে ইমেইজের কোয়ালিটি যথা সম্ভব ঠিক রাখে এবং ইমেইজ রিসাইজ করতে ইমেইজকে Squeeze করে না।

আপনার যদি গ্রাফিক্স এডিটিং সম্পর্কে বেসিক আইডিয়া না থাকে তবে অন্য ইমেইজ রিসাইজ টুল দিয়ে ইমেইজ রিসাইজ করতে আপনার ‘ইমেইজের Aspect Ratio’ Exact 16:9 ও ‘ইমেইজের ডাইমেনশন’ Exact 1920X1080 px নাও হতে পারে এবং ইমেইজ রিসাইজ করতে ইমেইজ Squeeze হয়ে যেতে পারে। টেকটিউনস টিউন গাইডলাইন অনুযায়ী Squeezed ইমেইজ টিউনে যোগ করা যায় না।

নির্দেশনা মোতাবেক টিউনের সকল ইমেইজ ঠিক করুন।

খেয়াল করুন: আপনার এই টিউন সংশোধনের জন্য আপনাকে সর্বোচ্চ ৫ বার নির্দেশনা দেওয়া হবে। এই ৫ বার নির্দেশনার মধ্যে আপনি যদি টিউন সঠিক ভাবে ও নির্ভুল ভাবে সংশোধনে ব্যর্থ হোন তবে এই টিউন টি ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হবে না এবং ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য বাতিল হবে। নির্দেশনার ক্রমিক নম্বর নির্দেশনার শুরুতে নির্দেশনা [০১], নির্দেশনা [০২] এভাবে দেওয়া থাকে।

উপরের নির্দেশিত সংশোধন করে এই টিউমেন্টের রিপ্লাই দিন।

খেয়াল করুন, এই টিউমেন্টের রিপ্লাই বাটনে ক্লিক করে রিপ্লাই না করে টিউনে টিউমেন্ট করলে তার নোটিফিশেন ‘টেকটিউনস কন্টেন্ট অপস’ টিম পাবে না। তাই অবশ্যই এই টিউমেন্টের রিপ্লাই বাটনে ক্লিক করে রিপ্লাই করুন।

নির্দেশনা [০৪]

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউনটি ‘টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হতে পারছে না।

কারণ:

টিউনে ইমেইজ ‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ অনুযায়ী হয়নি। টিউনে ইমেইজ Full Size হিসেবে যুক্ত না করে Large সাইজ হিসেবে যুক্ত করা হয়েছে।

করণীয়:

টিউনে ইমেইজ ‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ অনুযায়ী টিউনে ইমেইজ Large সাইজ হিসেবে যুক্ত না করে Full Size হিসেবে যুক্ত করে ঠিক করে আপডেট করুন।

খেয়াল করুন: আপনার এই টিউন সংশোধনের জন্য আপনাকে সর্বোচ্চ ৫ বার নির্দেশনা দেওয়া হবে। এই ৫ বার নির্দেশনার মধ্যে আপনি যদি টিউন সঠিক ভাবে ও নির্ভুল ভাবে সংশোধনে ব্যর্থ হোন তবে এই টিউন টি ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হবে না এবং ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য বাতিল হবে। নির্দেশনার ক্রমিক নম্বর নির্দেশনার শুরুতে নির্দেশনা [০১], নির্দেশনা [০২] এভাবে দেওয়া থাকে।

উপরের নির্দেশিত সংশোধন করে এই টিউমেন্টের রিপ্লাই দিন।

খেয়াল করুন, এই টিউমেন্টের রিপ্লাই বাটনে ক্লিক করে রিপ্লাই না করে টিউনে টিউমেন্ট করলে তার নোটিফিশেন ‘টেকটিউনস কন্টেন্ট অপস’ টিম পাবে না। তাই অবশ্যই এই টিউমেন্টের রিপ্লাই বাটনে ক্লিক করে রিপ্লাই করুন।

নির্দেশনা [০৫]

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউনটি ‘টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হতে পারছে না।

কারণ:

টিউনে ইমেইজের পর লাইন ব্রেক যোগ করা হয়নি। ফলে ইমেইজের সাথে টেক্সট সংলগ্ন হয়ে গিয়েছে।

টেকটিউনস স্ট্যান্ডার্ড টিউন ফরমেটিং গাইডলাইন অনুযায়ী টিউনে ইমেইজের পর Single লাইন ব্রেক যোগ করতে হয় যেন ইমেইজের সাথে টেক্সট সংলগ্ন হয়ে না যায়।

করণীয়:

টিউনের প্রতিটি ইমেইজ চেক করুন। টিউনে প্রতিটি ইমেইজের পর Single লাইন ব্রেক (Line Break) যোগ করা আছে কিনা যেন ইমেইজের সাথে টেক্সট সংলগ্ন হয়ে না যায়। যে যে ইমেইজের পর Single লাইন ব্রেক (Line Break) নেই সে সে ইমেইজের পর কিবোর্ড থেকে Enter চেপে Single লাইন ব্রেক (Line Break) যুক্ত করুন যেন ইমেইজের সাথে টেক্সট সংলগ্ন হয়ে না যায়।

উদাহরণ সরূপ এই টিউনটি দেখুন। টিউনটিতে প্রতিটি ইমেইজের পর Single লাইন ব্রেক (Line Break) যোগ করা আছে যেন ইমেইজের সাথে টেক্সট সংলগ্ন হয়ে না যায়।

Single লাইন ব্রেক (Line Break) যোগ করার সময় খেয়াল রাখুন যেন Single লাইন ব্রেক যোগ করতে গিয়ে Double লাইন ব্রেক (Line Break) যোগ করা না হয়। সেক্ষেত্রে ইমেইজ এর পর টেক্সট এর দূরত্ব অনেক বেশি হয়ে যাবে। যা টেকটিউনস স্ট্যান্ডার্ড টিউন ফরমেটিং গাইডলাইন অনুযায়ী নয়।

খেয়াল করুন: আপনার এই টিউন সংশোধনের জন্য আপনাকে সর্বোচ্চ ৫ বার নির্দেশনা দেওয়া হবে। এই ৫ বার নির্দেশনার মধ্যে আপনি যদি টিউন সঠিক ভাবে ও নির্ভুল ভাবে সংশোধনে ব্যর্থ হোন তবে এই টিউন টি ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হবে না এবং ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য বাতিল হবে। নির্দেশনার ক্রমিক নম্বর নির্দেশনার শুরুতে নির্দেশনা [০১], নির্দেশনা [০২] এভাবে দেওয়া থাকে।

উপরের নির্দেশিত সংশোধন করে এই টিউমেন্টের রিপ্লাই দিন।

খেয়াল করুন, এই টিউমেন্টের রিপ্লাই বাটনে ক্লিক করে রিপ্লাই না করে টিউনে টিউমেন্ট করলে তার নোটিফিশেন ‘টেকটিউনস কন্টেন্ট অপস’ টিম পাবে না। তাই অবশ্যই এই টিউমেন্টের রিপ্লাই বাটনে ক্লিক করে রিপ্লাই করুন।

আপডেট করেছি । আবার রিভিউ করেন ।