কীভাবে Internet Provider ছাড়া Legal ভাবে ওয়াইফাই পেতে পারি?

টিউন বিভাগ ওয়াইফাই
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 15
কন্টেন্ট রাইটার, টেল টেক আইটি, গাইবান্ধা

অনেকের মনে এরকম প্রশ্ন আসে যে, আমি কি ইন্টারনেট প্রোভাইডার ছাড়া ওয়াইফাই পেতে পারি? আমার জন্য কি কোন কার্যকর Temporary Internet Service রয়েছে? আর কীভাবে আপনি Internet Provider ছাড়া Wi-Fi পাবেন? চলুন তবে, প্রশ্নের উত্তর একসাথে অন্বেষণ করা যাক।

একজন ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার বা আইএসপি হলো ইন্টারনেট সার্ভিস প্রদানের জন্য গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আমরা সর্বাধিক ভাবে আনলিমিটেড ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট থেকে ওয়াইফাই ব্যবহার করি। কিন্তু, ‌ আপনি হয়তোবা কখনো কখনো ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার ছাড়া নিজের ডিভাইসকে ওয়াইফাই এর সাথে কানেক্ট করতে চাইতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যখন নতুন কোন জায়গায় যাবেন, তখন সেখানে হয়তোবা Regular ISP এর জন্য বেশি অর্থ খরচ করবেন না।

সুতরাং, এবার আপনি প্রশ্ন করতে পারেন যে, আমি কি Internet Provider ছাড়া Wi-Fi পেতে পারি? আজকের টিউনটিতে এসব প্রশ্নগুলোর উত্তর নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা করা হবে, তাই সম্পূর্ণ টিউনটি মনোযোগ দিয়ে দেখতে থাকুন।

আমি কি ইন্টারনেট প্রোভাইডার ছাড়া ওয়াইফাই পেতে পারি?

আমি কি ইন্টারনেট প্রোভাইডার ছাড়া ওয়াইফাই পেতে পারি?

হ্যাঁ, ‌ আপনি অবশ্যই একটি ইন্টারনেট প্রোভাইডার ব্যতীত ওয়াইফাই পেতে পারেন। তবে, এগুলো কিন্তু আপনার নিত্যদিনকার ব্যবহার করা ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের মত নয়। বরং, কিছু ভিন্ন কৌশল ব্যবহার করে আপনি আপনার ডিভাইসের সাথে ওয়াইফাই কানেকশন করতে পারেন। আপনি যদি আপনার ডিভাইসে ইন্টারনেট হিসেবে ওয়াইফাই সার্ভিস পেতে চান, ‌ তাহলে কেবল আপনি এ ধরনের পদ্ধতি গুলো অবলম্বন করতে পারেন।

আজকের এই টিউটিতে এরকম পাঁচটি টপিক নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে, ‌ যেগুলো মাধ্যমে কোন ইন্টারনেট প্রোভাইডার ছাড়াই ওয়াইফাই পাওয়া যায়। আর এই প্রক্রিয়াগুলো সম্পূর্ণ Legal এবং এগুলো বেআইনি হওয়ার কোন প্রশ্নই আসবেনা। আর আপনি আপনার পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে এগুলোর মধ্যে থেকে যেকোন সময় যেকোন একটি অপশন চয়েজ করতে পারেন।

১. Mobile Wi-Fi Hotspot

Mobile Wi-Fi Hotspot

Internet Provider ওয়াইফাই পাওয়ার প্রথম এবং সহজ উপায় হল Mobile Hotspot ব্যবহার করা। আপনি যদি আপনার বাড়ি থেকে বাহিরে কোথাও ভ্রমণ করতে চান এবং সেখানে আপনার ল্যাপটপে ইন্টারনেট কানেকশনের প্রয়োজন হয়, তাহলে আপনি মোবাইল হটস্পট এর সাহায্য নিতে পারেন। কারণ বেশিরভাগ লোকের কাছেই 4G এবং 5G ফোন রয়েছে এবং সেটিতে যেকোনো একটি ইন্টারনেট প্যাক কিনে Hotspot এর মাধ্যমে ল্যাপটপ বা অন্য কোন ডিভাইসে ইন্টারনেট শেয়ার করা যেতে পারে। আর আপনি নিজের স্মার্টফোন থেকে Mobile Hotspot চালু করার মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার ল্যাপটপে ওয়াইফাই কানেকশন পেতে পারেন।

তবে, আপনার কম্পিউটারে Mobile Hotspot সেটআপ করার আগে আপনাকে অবশ্যই কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মনে রাখতে হবে।

  • মোবাইল হটস্পট ব্যবহার করতে গেলে আপনার মোবাইলে Unlimited অথবা কম টাকার Internet Plan গুলো থাকতে হবে। আপনি যদি পিসিতে বা অন্য ডিভাইসে ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ছোট ডাটা প্যাক কিনে থাকেন বা আপনার ডেটার জন্য প্রচুর অর্থ প্রদান করেন, তাহলে এটি আপনার জন্য ভালো পছন্দ নাও হতে পারে।
  • মোবাইল থেকে Hotspot এর মাধ্যমে পিসিতে ইন্টারনেট শেয়ারের আগে অবশ্যই আপনার মোবাইলে Data Limit সেট করুন এবং Windows 10/11 কম্পিউটারে Metered Connection চালু করুন। সেই সাথে প্রয়োজনে আপনার অতিরিক্ত ডাটার উপর নজর রাখুন, যাতে করে সমস্ত ডেটা একেবারে ফুরিয়ে না যায়।
  • আপনার Mobile Hotspot-এ অবশ্যই একটি পাসওয়ার্ড সেট আপ করুন এবং নিশ্চিত করুন যে, অন্য কেউ যাতে আপনার মোবাইল হটস্পট এর সাথে যুক্ত না হয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করে।
  • আপনার মোবাইলটিকে প্রয়োজনে চার্জিং ক্যাবলের সাথে যুক্ত করে রাখুন। কেননা, Hotspot এর মাধ্যমে ইন্টারনেট শেয়ার করলে, প্রচুর ব্যাটারি খরচ হতে থাকে।
  • আপনার মোবাইল ডাটা প্রোভাইডার আপনাকে Wi-Fi Hotspot Create করার সময় একটি Different Rate চার্জ করতে দেয় কিনা, তা পরীক্ষা করুন।

২. পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করুন

পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করুন

একটি ইন্টারনেট প্রোভাইডার ছাড়া আনলিমিটেড ইন্টারনেট বা ওয়াইফাই ব্যবহার করার অন্যতম একটি উপায় হল পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করা। আপনি কোথায় রয়েছেন, সেটির উপর নির্ভর করে আপনি এরকম ওয়াইফাই কানেকশন ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি যদি কোন শপিং মল, লাইব্রেরী এবং রেস্তোরাঁয় থাকেন, তাহলে সেখানে আশেপাশে বেশ কয়েকটি পাবলিক ওয়াইফাই জোন থাকতে পারে। আর এসব জায়গা থেকে আপনি Internet Provider ছাড়াই WiFi ব্যবহার করতে পারছেন।

পাবলিক প্লেসগুলোতে অনেক পাবলিক ওয়াইফাই জোন থাকতে পারে। তবে, পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করার পূর্বে আমাদেরকে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। আর তা না হলে, আমাদের নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়তে পারে।

একটি Public Wi-Fi এ Join আগে আপনাকে যে কয়েকটি বিষয় জানতে হবে:

  • একটি পাবলিক ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে লগইন বা কানেক্ট করার সময় সম্ভাব্য কিছু ঝুঁকি থাকতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যখন পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করে ইন্টারনেট ব্রাউজিং করতে যাবেন, তখন অন্য কেউ আপনার ইন্টারনেট ব্রাউজিং এর ডেটা এবং অন্যান্য তথ্য দেখতে পারে। এক্ষেত্রে আপনি হ্যাকিং এর শিকার ও হতে পারেন।
  • আপনি পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করার ক্ষেত্রে আপনার ডেটা এনক্রিপ্ট করার জন্য একটি VPN ইন্সটল করতে পারেন।
  • আপনার কাছাকাছি থাকা ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক গুলো Detect করার জন্য, আপনার ডিভাইসে একটি WiFi Finder অ্যাপ্লিকেশন ইন্সটল করতে পারেন।

৩. আপনার স্মার্টফোনটিকে Tether করুন

আপনার স্মার্টফোনটিকে Tether করুন

যদি আপনার ল্যাপটপে মাঝে মাঝেই ওয়াইফাই কানেকশনের প্রয়োজন হয়, তাহলে সবচাইতে সহজ এবং দ্রুততম উপায় হল আপনার স্মার্টফোন Tether করা। তবে, মোবাইল থেকে USB Tethering এর মাধ্যমে পিসিতে ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য অবশ্যই মোবাইল থেকে পিসিতে ইউএসবি কানেক্ট করতে হবে। আর, এটির মাধ্যমে আপনার মোবাইল থেকে সরাসরি পিসিতে ইন্টারনেট ব্যবহার হবে।

পরামর্শ:

এই পদ্ধতিতে ইন্টারনেট ব্যবহার করার আগে নিশ্চিত করুন যে, আপনি আপনার ডেটার নিরাপত্তার জন্য Android এবং iOS কি হয়েছে অবশ্যই একটি New Username এবং Password সেট করেছেন।

অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস ফোন থেকে Tethering ব্যবহার করে কোন ইন্টারনেট প্রোভাইডার ছাড়া কীভাবে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায়, সেই পদ্ধতি নিচে দেওয়া হল।

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ক্ষেত্রে:

এজন্য প্রথমে মোবাইলের Settings > Network and Internet > Hotspot and Tethering > Wi-Fi Hotspot এবং তারপর Wi-Fi Hotspot চালু করে পিসিতে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেন।

IOS ডিভাইসের ক্ষেত্রে

আপনি আইফোন থেকে Tether করার জন্য, Setting > Personal Hotspot অপশনে যান এবং তারপর এটি চালু করে দিন।

৪. Wi-Fi USB Dongle ব্যবহার করুন

Wi-Fi USB Dongle ব্যবহার করুন

আপনি আপনার পিসিতে ওয়াইফাই হিসেবে ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য চাইলে Wi-Fi USB Dongle ও ব্যবহার করতে পারেন, যা Internet Stick নামেও পরিচিত। এটি মূলত একটি ছোট্ট ডিভাইস, যা অন্যান্য ডিভাইসে Port এর মাধ্যমে সংযোগ করা হয়। এটি Mobile Hotspot বা Temporary Wi-Fi এর মতো কাজ করে। এ ধরনের ইউএসবি ডিভাইস গুলো বাজারে কয়েকশো টাকার ভেতরেই পাওয়া যায় এবং যেগুলো আপনি পিসিতে কানেক্ট করে মোবাইল থেকে হটস্পট শেয়ার করার মাধ্যমে ওয়াইফাই ব্যবহার করতে পারবেন।

বেশিরভাগ কম্পিউটার মাদারবোর্ড গুলোতে Build in Wi-Fi Cheap থাকে না। এক্ষেত্রে ওয়াইফাই ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার ব্যতীত মোবাইল থেকেও হটস্পট শেয়ার করার মাধ্যমে পিসিতে ইন্টারনেট চালানোর জন্য এ ধরনের Wi-Fi USB Dongle কিনতে পারেন।

এছাড়াও আপনি Pocket Router দিয়ে ও সকল ডিভাইসে ওয়াইফাই চালাতে পারেন। এক্ষেত্রে সেই ডিভাইসে সিম প্রবেশ যেকোন একটি ডাটা প্যাক কিনলেই, সেটি দিয়ে অন্যান্য‌ ডিভাইসে ওয়াইফাই ব্যবহার করতে পারবেন।

৫. আশেপাশের Internet Provider থেকে ইন্টারনেট শেয়ার করে নিন

Internet Provider থেকে ইন্টারনেট শেয়ার

কখনো কখনো এমন দেখা যায় যে, আশেপাশের ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারদের অনেক ভালো ওয়াইফাই কানেকশন রয়েছে। এক্ষেত্রে আপনি সেই সমস্ত বন্ধু অথবা প্রতিবেশীর সাথে আলোচনা করে ইন্টারনেট শেয়ার করে নেওয়ার চেষ্টা করতে পারেন এবং আপনার উইন্ডোজ কম্পিউটারে তাদের ইন্টারনেট শেয়ার করার জন্য বলতে পারেন। তবে অনেক সময় এরকম চেষ্টা অনেক কঠিন হতে পারে।

Windows কম্পিউটার থেকে Wi-Fi Connection Share করার জন্য নিচের পদ্ধতিটি অনুসরণ করুন।

ধাপ ১

এজন্য প্রথমে Windows এর Setting অপশনে যান এবং এজন্য Win + I কী টিপুন। আর এরপর Network and Internet অপশনটি সিলেক্ট করুন।

ধাপ ২

এবার Mobile Hotspot সিলেক্ট করুন এবং Drop-down Menu থেকে যে Wi-Fi Connection টি Share করতে চান, তা Choose করে On করে দিন। আর তাহলেই অন্যান্য ডিভাইসে ওয়াইফাই অন করে একই ওয়াই-ফাই এর সাথে কানেক্ট করা যাবে।

৬. বিনামূল্যের বা ফ্রি Temporary Wi-Fi Service ব্যবহার করুন

ফ্রি Temporary Wi-Fi Service ব্যবহার

আপনি হয়তোবা জানেন যে, কিছু ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার রয়েছে, ‌ যারা ফ্রিতে Trial এর জন্য Temporary Wi-Fi Service অফার করে থাকে। বর্তমানে বাংলাদেশে এরকম কিছু ওয়াইফাই সার্ভিস প্রোভাইডার রয়েছে, যারা কার্ডের মাধ্যমে ওয়াইফাই সার্ভিস দিয়ে থাকে। অর্থাৎ, আপনি তাদের কার্ড ক্রয় করে ১ দিন, ১৫ দিন এবং ৩০ দিনের সহ অনেক ইন্টারনেট সার্ভিস দেয়। এগুলোর মধ্যে অন্যতম রয়েছে Carnival Internet এর Wi-Fi Hat ইন্টারনেট। আমার জানামতে, তারা নতুন ব্যবহারকারীদের জন্য কয়েক ঘণ্টার জন্য ফ্রি Temporary Wi-Fi Service অফার করে থাকে।

আপনি যদি এরকম কোন এরিয়াতে থাকেন, ‌ যেখানে এ ধরনের ইন্টারনেট রয়েছে, তাহলে আপনি সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন এবং সেখান থেকে ওয়াইফাই সার্ভিস নিতে পারেন। এ ধরনের ইন্টারনেট সার্ভিস এর ব্যাপারে আরো বিস্তারিত জানার জন্য আপনি ইউটিউবে অথবা বলে সার্চ করুন।

শেষ কথা

আমাদেরকে অনেক সময় আমাদের ডিভাইসে শুধুমাত্র ওয়াইফাই দিয়েই ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হয়। উদাহরণস্বরূপ, আমরা যখন পিসিতে ইন্টারনেট ব্যবহার করার কথা ভাববো, তখন সেটিতে ইন্টারনেট ক্যাবল লাগানোর মত ব্যবস্থা নাও থাকতে পারে। আর এক্ষেত্রে একমাত্র সমাধান হলো ওয়াইফাই ব্যবহার করে ইন্টারনেট ব্রাউজ করা। আর ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার ব্যতীত ওয়াইফাই ব্যবহার করার জন্য আপনি বেশ কয়েকটি পদ্ধতির ভেতরে উপরে আলোচনা করা পদ্ধতিগুলো ও অবলম্বন করতে পারেন। আশা করছি যে, এতে করে আপনি আপনার ডিভাইসে ওয়াইফাই কানেকশন জনিত সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাবেন।

Level 15

আমি মো আতিকুর ইসলাম। কন্টেন্ট রাইটার, টেল টেক আইটি, গাইবান্ধা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 364 টি টিউন ও 93 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 61 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 3 টিউনারকে ফলো করি।

“আল্লাহর ভয়ে তুমি যা কিছু ছেড়ে দিবে, আল্লাহ্ তোমাকে তার চেয়ে উত্তম কিছু অবশ্যই দান করবেন।” —হযরত মোহাম্মদ (সঃ)


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস