অনলাইনে ইনকাম করার সহজ উপায়-Toto Bangla

totobangla

অনলাইনে ইনকাম করার সহজ উপায়

অনলাইন ইনকাম@ বর্তমানে বাংলাদেশে বেকারত্বের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার ফলে। প্রায় অধিকাংশ ছেলে-মেয়েরা গভীরভাবে ঝুকে পড়ছে অনলাইন ইনকামের উপর। অনেকে স্বপ্ন দেখছে অনলাইন ইনকামের মাধ্যমে নিজের ক্যারিয়ার গড়ার।

অনলাইন ইনকাম এমন একটি পথ। যেখানে নিজেই নিজের বস হয়ে স্বাধীনভাবে কাজ করা যায়। এমন প্রবাদগুলো শোনার পর উঠতি বয়সি ছেলে-মেয়েদের তো স্বপ্নের শেষ নেই। সবাই ভাবছে ঘরে বসেই যদি টাকা ইনকাম হয়। তাহলে কেন শুধু চাকরির পেছনে ছুটবো?

চাকরির পিছনে না ছুটে সবাই অনলাইনে আশাকরি পাওয়ার মতোই।
আর এ প্রতিযোগীতায় টিকে থাকতে হলে নির্দিষ্ট গাইডলাইন ফলো করে এগুতে হবে। যদি সঠিক পথে এগিয়ে যেতে পারেন। তাহলে আপনিও পারবেন অনলাইনে সাফল্যর সাথে নিজের ক্যারিয়ার গড়তে। আর ভুল পথে গেলে আপনার মহামূল্যবান সময় এবং শ্রম দুটোই বৃথা যাবে। আপনার সময় এবং শ্রম যেন বৃথা না যায়। সেজন্য অনলাইনে ইনকাম করার একটা পূনাঙ্গ গাইডলাইন নিয়ে এসেছি।

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার প্রাথমিক ধারনা।

আমরা সবাই শুরুতে মনে করি অনলাইনে বসে থেকেই হাজার হাজার ডলার ইনকাম করা যায়। আবার অনেকে মনে করে অনলাইনে শুধু ওকে বাটনে ক্লিক করে করেই মনে হয় টাকা ইনকাম করা যায়।
আশাকরি জীবনে দেখে থাকি।

বাস্তবিক জীবনে যেমন কোনো কাজ/চাকরি করার পর। সেই কাজ অনুযায়ী টাকা/বেতন পাওয়া যায়। ঠিক তেমনি অনলাইনেও ইনকাম করতে হয়। পার্থক্য শুধু একটা অফলাইন আর একটা অনলাইন।

আমরা শুধু অন্যর মুখ থেকে কিংবা অন্য কারও ইনকাম দেখে। যখন নিজেকেও প্রস্তুত করি অনলাইন থেকে ইনকাম করার। অধিকাংশ ব্যক্তিরাই কিছু কিছু ভুল করে থাকি। শুরুতে বুঝে উঠতে পারিনা যে, কিভাবে আমরা অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবো।
তো কিভাবে অনলাইন থেকে ইনকাম করা যায় এবং কিভাবে সেই টাকা হাতে পাবেন। সে সম্পর্কে শুরুতেই আলোচনা করা যাক।

হাউ টু আর্ন মানি ফ্রম অনলাইন?

অনলাইন জব: আমরা বাস্তবিক জীবনে যেমন কোথাও চাকুরি করে বেতন পাই। ঠিক তেমনি অনলাইনেও চাকুরি করার মাধ্যমে ইনকাম করতে হয়। আর অনলাইন থেকে পাওয়া
এই ইনকামকে বলা হয়:

১. ফ্রিল্যান্সি
২. আউটসোর্সিং

উপরে বর্ণিত ফ্রিল্যান্সিং এবং আউটসোর্সিং দুটোই অনলাইন ইনকাম করতে পারলেও। এই দুটো বিষয় কিন্তু এক না।

ফ্রিল্যান্সিং কি: বর্তমানে অনলাইন থেকে ইনকামের প্রধান স্বর্নদুয়ার হলো ফ্রিল্যান্সিং। যখন আপনি কোনো বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে পারবেন। আর সেই দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে অনলাইন হতে যা ইনকাম করবেন। মূলত সেই ইনকামকেই বলা হয় ফ্রিল্যান্সিং।
ধরুন, আপনি একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার। আপনি খুব ভালো মানের ডিজাইন তৈরি করতে পারেন। এই যে আপনি ডিজাইন তৈরি করছেন। এটাই হলো আপনার দক্ষতা।
যদি আপনার মাঝে গ্রাফিক্স ডিজাইনের দক্ষতা সুক্ষ হয়ে থাকে। তাহলে বিভিন্ন কোম্পানি আপনার কাছ থেকে ডিজাইন নেয়ার জন্য যোগযোগ করবে।
ঠিক এভাবেই আপনি আপনার ক্যারিয়ারে ফ্রিল্যান্সিং করেই সাফল্য নিয়ে আসতে পারবেন।

আউটসোর্সিং কি : ফ্রিল্যান্সিং এবং আউটসোর্সিং অর্থগত দিক থেকে একরকম হলেও। কাজের দিক থেকে অনেক ভিন্নতা লক্ষ্য করা যায়। দুই পদ্ধতিতেই অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারলেও কাজের প্রক্রিয়া ভিন্ন।
আউটসোর্সিং মূল কাজ হলো, অনলাইন থেকে ইনকাম করা। সেটা যেভাবেই হোক, যে কোনো কাজ করেই হোক। মূলত অনলাইনে ছোটখাটো কাজ যেমন, সার্ভে করা কাজ, ফেসবুক পেজে লাইক, এড দেখে দেখে ইনকাম করা।

বর্তমানে আউটসোর্সিং এর অন্যান্য সেক্টরের মধ্যে পিটিসি সাইটে কাজ করে ইনকাম করার প্রবনতা। আগের তুলনায় অনেক বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে।

পিটিসি সাইট কি: অনলাইনে খুব সহজ উপায়ে এবং কোনো দক্ষতা ছাড়াই বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে যে ইনকাম করা যায়। মূলত সেইসব ওয়েবসাইট গুলোকে পিটিসি সাইট বলা হয়।
তবে আমি শুরুতেই পরামর্শ দিবো, এই জাতীয় সাইটে কাজ না করার। এর প্রধান কারন, প্রথমত আপনি এসব সাইটে ইনকাম করতে গিয়ে কোনো কাজ শিখতে পারবেন না। দ্বিতীয়ত, এসব সাইটে কাজ করতে গেলে প্রচুর সময় ব্যয় করতে হয়।

পিটিসি সাইটে ১ ডলার ইনকাম করতে মিনিমাম ২০-৩০ দিন পর্যন্ত লাগতে পারে। তাহলে চিন্তা করুন, ১ ডলার বাংলাদেশি টাকায় ৮০ টাকা মাএ। এই সামান্য টাকার জন্য এতোদিন পরিশ্রম করাটা কি ঠিক হবে?
এই টাইপের কাজগুলো থেকে যে ইনকাম করা যায়। সে কাজগুলোকেই বলা হয় আউটসোর্সিং। তবে আউটসোর্সিং করে যে ইনকাম হয়, তা কখনই দীর্ঘস্থায়ী হয় না। কারন এই টাইপের কাজগুলো সবসময় পাওয়া যায় না।

আর এসব কাজে তেমন একটা দক্ষতার প্রয়োজন হয় না। সেজন্য সবাই আউটসোর্সিং করেই ইনকাম করতে চায়। যার দ্বরুন এখানে প্রতিযোগীতাও অনেক বেশি।
টিপস: অনলাইন হোক কিংবা অফলাইন। মনে রাখবেন, টাকা ইনকামের কোনো পথ সহজ নয়। টাকা উপার্জন করার যে কোনো সেক্টরেই যান না কেন। সব সেক্টরেরই আপনাকে প্রতিযোগীতা করেই টিকে থাকতে হবে।

Level 0

আমি Toto Bangla। , Blogger/Writter/SeoMaster/2D Animation maker বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 3 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস