ক্যারিয়ার গড়ুন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট পেশায়! জেনে নিন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত

Level 6
শিক্ষার্থী, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, গাজীপুর

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বর্তমান বিশ্বে খুবই জনপ্রিয় একটি পেশা। বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশেই এই পেশার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। পাশাপাশি দিন দিন এই কাজের চাহিদা বেড়েই চলেছে। ফলে প্রতিনিয়ত মানুষ ক্যারিয়ার হিসেবে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজে দক্ষ হয়ে ওঠার চেষ্টা করছে। আপনি যদি ক্যারিয়ার নিয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নিতে না পারেন তাহলে আজকের টিউনটি পড়ার জন্য অনুরোধ রইলো।

মূলত যারা ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করে তাদেরকে বলা হয় ওয়েব ডেভেলপার। একজন সাধারণ মানের ওয়েব ডেভেলপারও মাসে বেশ ভালো একটা এমাউন্ট আয় করে থাকে। তবে ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার জন্য আপনাকে আগে সঠিকভাবে কাজ শিখতে হবে এবং ধীরে ধীরে এই সেক্টরে অভিজ্ঞ হয়ে উঠতে হবে। একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার জন্য কঠোর পরিশ্রমও করতে হবে।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ কেন শিখবেন, কীভাবে শিখবেন, কত টাকা আয় করতে পারবেন, কোথায় কাজ পাবেন সেই সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা থাকবে আজকের টিউনে। তাই দেরি না করে চলুন শুরু করা যাক।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কী?

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর সংজ্ঞা

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট সেক্টরে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে প্রথমেই আপনাকে জেনে নিতে হবে যে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট আসলে কী। আমরা প্রতিনিয়ত স্মার্টফোনে বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট ব্যবহার করে থাকি। অনেকেই হয়তো জানেন ফেসবুক, লিংকড-ইন, ইন্সটাগ্রাম সহ যে কোনো সোস্যাল মিডিয়া সাইটের নিজস্ব ওয়েবসাইট আছে। তাছাড়া গুগলে কোনো বিষয় সার্চ করলে অনেক অনেক ওয়েবসাইট এর কনটেন্ট আমাদের সামনে চলে আসে।

ইন্টারনেটে এই যে এতো এতো ওয়েবসাইট তা কিন্তু এমনি এমনি তৈরি হয়নি কিংবা এগুলো নিজে নিজে পরিচালিত হচ্ছে না। এই ওয়েবসাইট তৈরি, ওয়েবসাইট আপডেট করা, পরিচালনা করার যে কাজ এটিই মূলত ওয়েব ডেভেলপমেন্ট। সুতরাং একজন ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে আপনার কাজ হতে পারে ওয়েবসাইট তৈরি, ওয়েবসাইট এর নিয়ন্ত্রণ করা, পরিচালনা করা, ওয়েবসাইট ডিজাইন করা সহ যাবতীয় সকল কাজ। তাহলে এতোটুকু তো ক্লিয়ার হলো যে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ মূলত ওয়েবসাইট রিলেটেড।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর প্রকারভেদ

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর প্রকারভেদ

একজন ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে আপনি তিন ক্যাটাগরিতে কাজ করতে পারবেন। মূলত কাজের ভিত্তিতে ওয়েব ডেভেলপমেন্টকে তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে।

  • Front End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট
  • Back End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট
  • Full Stack ওয়েব ডেভেলপমেন্ট

চলুন সংক্ষিপ্ত ভাবে প্রতিটি কাজ সম্পর্কে একটু জেনে নেয়া যাক।

১. Front End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট

Front End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর মাধ্যমেই মূলত একটি ওয়েবসাইট এর কাজ শুরু হয়। আমরা ওয়েবসাইট এর সাধারণ যে রূপ দেখতে পাই তার মূল ডিজাইন করা হয় Front End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর মাধ্যমে। একজন Front End ওয়েব ডেভেলপার একটি ওয়েবসাইট এর বহিরাগত সকল ডিজাইন করে থাকে। কোথায় কোন কালার বসবে, কোন বাটন কীভাবে কাজ করবে, লেখার স্টাইল কেমন হবে এরকম যাবতীয় সকল ডিজাইন এই Front End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর আওতাভুক্ত।

Front End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ তুলনামূলক অনেক সহজ বলা চলে। তাই প্রাথমিক পর্যায়ে একজন ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে প্রায় সকলেই Front End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ শুরু করে। এরপর আগ্রহ থাকলে ধীরে ধীরে Back End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর দিকে আগাতে থাকে। একজন Front End ওয়েব ডেভেলপার এর HTML, CSS, Javascript সহ বেশ কিছু প্রোগ্রামিং ভাষার ওপরে দক্ষতা অর্জন করতে হয়। তাই প্রাথমিক পর্যায়ে এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর ওপরে কিছুদিন রিসার্চ করে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর দিকে আগানো বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

২. Back End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট

একটি ওয়েবসাইট এর যতোটুকু আমরা দেখি এতোটুকুই কিন্তু এর পরিসর নয়। একটি ওয়েবসাইট এর পেছন সাইট কিন্তু আমরা দেখতে পাই না। অর্থাৎ ওয়েবসাইট এর ডাটাবেজ, কোডিং, ম্যানেজমেন্ট সহ যাবতীয় অনেক বিষয়বস্তু রয়েছে। এই অভ্যন্তরীণ কার্যকলাপ গুলো যাদের দ্বারা সম্পন্ন করা হয় তারা মূলত Back End ওয়েব ডেভেলপার। আর Back End ওয়েব ডেভেলপার দের কাজগুলোকে বলা হয় Back End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট।

তুলনামূলক বেশি প্রশিক্ষণ ও অভিজ্ঞতার মাধ্যমে আপনি একজন প্রফেশনাল Back End ওয়েব ডেভেলপার হয়ে উঠতে পারবেন। Back End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর মাধ্যমেই একটি ওয়েবসাইট পরিচালনা করা হয় এবং এর যাবতীয় কার্যক্রম খুব দ্রুত সম্পন্ন করা যায়। একজন Back End ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে আপনাকে PHP, JAVA, Ruby, Python, Dot Net ইত্যাদি প্রোগ্রামিং ভাষার ওপরে দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

৩. Full Stack ওয়েব ডেভেলপমেন্ট

একই সাথে Front End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এবং Back End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করাকে বলা হয় Full Stack ওয়েব ডেভেলপমেন্ট। অর্থাৎ একজন Full Stack ওয়েব ডেভেলপার ওয়েবসাইট এর ফ্রন্ট পার্ট এর ডিজাইন করার পাশাপাশি এর ব্যাক পার্ট এর সকল কার্যক্রম পরিচালনা করে। অর্থাৎ একটি ওয়েবসাইট রান করা থেকে শুরু করে এর পরিচালনা ও ডেভেলপমেন্ট এর সকল কাজ একজন Full Stack ওয়েব ডেভেলপার নিজেই করতে পারে।

সুতরাং একজন Full Stack ওয়েব ডেভেলপারকে HTML, CSS, Javascript এর পাশাপাশি PHP, JAVA, Ruby, Python, Dot Net এর মতো প্রোগ্রামিং ভাষার ওপরে দক্ষতা অর্জন করতে হয়৷ মূলত বর্তমান ওয়েব ডেভেলপমেন্ট মার্কেটে Full Stack ওয়েব ডেভেলপার দের চাহিদা সবথেকে বেশি। তাই প্রথমে Front End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর ওপরে দক্ষ হয়ে ওঠার সাথে সাথে Back End ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ শেখার চেষ্টা করুন।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ কীভাবে শিখবেন?

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ যেভাবে শিখবেন

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট মূলত কিছুটা জটিল কাজ বললেই চলে। তাই আপনি নিজে নিজে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর বেসিক ধারনা নিতে পারলেও একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার হতে পারবেন না। এজন্য আপনাকে একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার এর আওতায় থেকে প্রশিক্ষণ নিতে হবে। একদম শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সব কাজ শিখে নিতে হবে ট্রেইনার এর কাছ থেকে। সেই সাথে সমান তালে প্রাকটিস চালাতে হবে।

বর্তমানে অনেক অভিজ্ঞ ট্রেইনার অনলাইন কোর্স বা লাইভ ক্লাস এর মাধ্যমে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ শেখায়। বিশ্বস্ত অনলাইন প্লাটফর্মে এডমিশন নিয়ে বা কোর্স করে আপনি চাইলে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ শিখতে পারেন। এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে টাকা দিয়ে কোর্স ক্রয় করতে হবে কিংবা অনলাইন ক্লাসে এডমিশন নিতে হবে। এক্ষেত্রে কম টাকায় কোর্স করার প্রলোভনে না পড়ে আপনার উচিত এমন কোনো ট্রেইনার বা প্লাটফর্ম এর শরণাপন্ন হওয়া যাদের তুলনামূলক বেশি পজিটিভ রিভিউ রয়েছে।

তাছাড়া আপনার আশেপাশের যে কোনো আইটি সেন্টারে যোগাযোগ করে দেখতে পারেন। বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি জেলায় অনেক স্বনামধন্য আইটি প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। এই সকল প্রতিষ্ঠান অভিজ্ঞ ট্রেইনার এর মাধ্যমে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে।

তাছাড়া যুব উন্নয়ন থেকে প্রায়ই ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কোর্স এর আয়োজন করা হয়। যুব উন্নয়নে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পেলে আপনার সবথেকে বেশি সুবিধা হবে। কেননা যুব উন্নয়নের সরকারি কোর্স গুলো একদম ফ্রি তে করার সুযোগ তো পাবেনই সেই সাথে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন এমাউন্ট এর দৈনিক ভাতা প্রদান করা হয়। এই সুযোগ হাতছাড়া করতে না চাইলে নিয়মিত যুব উন্নয়ন এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এর বিজ্ঞপ্তি চেক করুন।

উপরে উল্লিখিত যে কোনো উপায়ে আপনি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করতে পারবেন। আশাকরি ধৈর্য ও সময় নিয়ে কাজ শিখলে আপনি খুব দ্রুত এই সেক্টরে নিজেকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে পারবেন এবং আয় করতে পারবেন।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ কোথায় পাবেন?

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ কোথায় পাবেন

বর্তমানে সারা বিশ্বজুড়ে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। তাই কাজ জানা থাকলে আপনাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হবে না। আপনাকে কাজ খুঁজতে হবে না বরং কাজ আপনাকে খুঁজবে। আপনি বিভিন্ন পদ্ধতিতে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করে আয় করতে পারবেন। এখানে কয়েকটি উপায় তুলে ধরা হলো।

১. ফ্রিল্যান্সিং

বর্তমানে ওয়েব ডেভেলপার দের আয়ের সবথেকে জনপ্রিয় মাধ্যম হলো ফ্রিল্যান্সিং। কেননা ফ্রিল্যান্সিং হলো একটি মুক্ত পেশা। আপনি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ শিখে ফেললে ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসে দেশী বিদেশি বিভিন্ন ক্লায়েন্ট এর কাজ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার কাজ হবে চুক্তি ভিত্তিক। নির্দিষ্ট কিছু কাজের জন্য আপনি আপনার পরিশ্রম ও সময় অনুযায়ী চার্জ করতে পারবেন।

নিজের সময় ও ইচ্ছা অনুযায়ী যে কোনো সময়ে কাজ করা যায় বিধায় বেশিরভাগ ওয়েব ডেভেলপার দের কাছে ফ্রিল্যান্সিং সবথেকে জনপ্রিয় আয়ের উৎস। আর এক্ষেত্রে আয়ের কোনো সীমা পরিসীমা নেই। তাই আপনার দক্ষতা, পরিশ্রম ও প্রচেস্টার ওপরেই মূলত আপনার আয় নির্ভর করবে।

২. ফুল টাইম জব

অনেক অভিজ্ঞ ওয়েব ডেভেলপার কোনো একটি কোম্পানিতে ফুল টাইম চাকরি করেন। এক্ষেত্রে তাদের মাসিক আয়ের একটি নিশ্চয়তা থাকে। সেই সাথে একটি নির্ধারিত কাজের সময় থাকে। মূলত দৈনিক সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত তাদের ডিউটি করতে হয়। মূলত যে সকল ওয়েব ডেভেলপার কাজ করতে করতে একদম অভিজ্ঞ হয়ে যায় তারা নিশ্চিত জীবীকার তাগিদে ফুল টাইম জব এর দিকে ঝুঁকে পড়েন।

এই ধরনের চাকরি মূলত অনলাইন এবং অফলাইন দুই উপায়েই করা যেতে পারে। এটা পুরোপুরি নির্ভর করবে প্রতিষ্ঠান এর ওপর। বিশেষ করে বিদেশী প্রতিষ্ঠানে চাকরি করলে আপনি অনলাইনে কাজ করার সুযোগ পাবেন। ফুল টাইম চাকরিতে আপনি একটি হ্যান্ডসাম স্যালারি পাবেন তবে চাকরি পাওয়ার জন্য অবশ্যই আপনাকে পুরোপুরি ভাবে একজন দক্ষ ওয়েব ডেভেলপার হয়ে উঠতে হবে।

৩. পার্ট টাইম জব

অনেক স্টুডেন্ট আছে যারা পড়াশোনার পাশাপাশি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করতে চায়। তাদের জন্য পার্ট টাইম জব হবে সবথেকে ভালো উপায়। অনেক ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান প্রতিমাসে নির্দিষ্ট স্যালারির বিনিময়ে একজন পার্ট টাইম ওয়েব ডেভেলপার হায়ার করে। এক্ষেত্রে মূলত দৈনিক চার থেকে পাঁচ ঘন্টা বা তার কম সময় কাজ করতে হয়।

মূলত ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখন কালীন সময়ে কিংবা প্রফেশনাল জীবনের প্রাথমিক ধাপে আপনি এই পার্ট টাইম চাকরি নিতে পারেন। ফলে আপনার কাজের প্রাকটিসও হবে সেই সাথে কিছু অর্থও উপার্জন হবে।

৪. নিজের বিজনেস শুরু করে

আপনি একজন ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে নিজের একটি বিজনেস দাঁড় করাতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনার কাজ হবে ওয়েবসাইট বিক্রি করা। আপনি যেহেতু একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার সুতরাং ধরে নিচ্ছি যে আপনি চমৎকার সব ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন। তাই আপনি নিজেই নিজের মতো ওয়েবসাইট তৈরি করে তা বিক্রি করতে পারেন।

বর্তমান মার্কেটে অনেক ক্লায়েন্ট আছে যারা রেডি ওয়েবসাইট ক্রয় করে। আর এই রেডি ওয়েবসাইট এর মার্কট চাহিদাও বেশ ভালো। তাই আপনি যদি চান ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কে একটি মুক্ত পেশা হিসেবে গ্রহন করবেন তাহলে ওয়েবসাইট বিক্রির ব্যবসাটি হতে পারে সবথেকে ভালো পছন্দ। সুতরাং যারা কারো আওতাধীন থেকে কাজ করতে চান না তাদের জন্যও ওয়েব ডেভেলপমেন্ট হতে পারে উপযুক্ত পেশা।

শেষকথা

আশাকরি যাদের ওয়েব ডেভেলপমেন্ট পেশা সম্পর্কে কোনো ধারনা ছিল না তারাও আজ একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। আসলে কোনো কাজই কঠিন না এবং অসম্ভব না, যদি আমরা তা মন দিয়ে করতে চাই। যদি অসম্ভবই হতো তাহলে আজ আমরা এই ইন্টারনেট এর যুগ দেখতে পেতাম না। সুতরাং প্রতিযোগিতামূলক চাকরির বাজারে বেকার না থেকে ক্যারিয়ার নিয়ে একটু ভিন্ন ভাবে চেষ্টা করুন। সময় ও সুযোগ মতো প্রশিক্ষণ নিয়ে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট পেশার দিকে নিজেকে ধীরে ধীরে এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করুন।

আশাকরি আজকের টিউনটি আপনাদের ভালো লেগেছে। ডিজিটাল সেক্টরে ক্যারিয়ার সম্পর্কিত নতুন নতুন টিউন পেতে আমাকে ফলো করে রাখতে পারেন। ধন্যবাদ।

Level 6

আমি শারমিন আক্তার। শিক্ষার্থী, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, গাজীপুর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 মাস 3 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 88 টি টিউন ও 29 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 6 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস