ব্লগিং ও ব্লগারের A-Z [পর্ব-০২] :: কিভাবে থীম কাষ্টমাইজেশন এবং আপলোড করবেন সাথে অনেক কিছু!!!

ব্লগিং ও ব্লগারের A-Z

সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা।
আশা করি ভিজিটর বন্ধুরা সবাই ভাল আছেন। গত কালকের টিউটোরিয়াল আলোচনা এবং ইবুকটি পড়ে হয়ত ব্লগার সম্পর্কে বেশ কিছু সম্যক ধারনা পেয়েছেন। নতুবা নিজের নামে অনেকেই ব্লগার আইডি ওপেন করে ফেলেছেন। আজকের টিউটোরিয়াল পর্বে আপনাদেরকে দেখাব কিভাবে থীম/টেমপ্লেট নিয়ে কাজ করবেন এবং পচ্ছন্দের থীমগুলো আপলোড করবেন। এমনিতে গতকালকের ইবুকে সেখানে আলোচনা ছিল। তারপরও আরেকটু রিভিউ করব।
 
ব্লগারে আপনি যখন একাউন্ট ওপেন করতে যান সেখানে এমনিতেই থীম সিলেক্ট হিসাবে গুগল ১৫/২০টি থীম আপলোড করে রাখে। এই থীমগুলোকে কাষ্টমাইজ বা সাজিয়ে নিলেই একটি অসাধারন সাইটে রুপদান করা সম্ভব।

প্রায় ৮০% ব্যবহারকারী গুগলের ডিফল্ট থীমগুলো ব্যবহার করে থাকেন। তারপরও অনেকে বলবেন গুগলের থীমগুলো অনেকটা সাদামাটা। হ্যা বন্ধুরা কথা ঠিক আছে। এখানে আপনি যদি সাইটে গ্যাজেট যোগ করে নেন তাহলে সাইটটি ভালোভাবে সাজানো সম্ভব। অবশ্য গ্যাজেট নিয়ে পরবর্তী পোস্টে আলোচনা করব।

আমি মনে করি প্রাথমিকভাবে গুগলের থীম নিয়ে কাজ করাটাই বুদ্ধিমানের মত কাজ। কারন গুগলের থীম গুলো SEO Friendly, সহজে সার্চ মেশিনে অআপনার সাইটটি খুজে নিবে, তাছাড়া সাইটটি লোড হতে সময় নিবে না। অপরদিকে পরবর্তীতে যারা Google Ad sense নিয়ে কাজ করবেন তাদের বাড়তি সুবিধা দিবে। তারপরও অনেকেই গুগল বাদে বিভিন্ন সাইটের ফ্রি থীম ব্যবহার করেন নিজের ব্লগার সাইটে। হ্যা এই রকম নেটে সার্চ করলে হাজার সাইট পাওয়া যাবে যেখানে ব্লগার সাইটের ফ্রিভাবে অনেক থীম পাওয়া যায়। আপনি ইচ্ছা করলে সেখান হতে থীমটি নামিয়ে ব্লগার সাইটে অআপলোড করে নিতে পারেন। তবে অভিজ্ঞজনদের পরামর্শ হলো- ফ্রি থীমগুলো ব্যববহার না করাটাই ভালো। এখানে এই থীমগুলোতে অনেক সময় Malicious Code ইনপুট করা থাকে, ফলে সাইটের ভাইরাস সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে।


তাছাড়া অধিকাংশ ফ্রি থীমগুলোতে SEO Friendly না থাকাতে সাইট ওপেন করতে অনেক সময় নেই এবং আরো কত কি সমস্যা আছে!! তবে ফ্রি মধ্যও কিছু থীম ভালো আছে যেগুলো অনেক ডেভেলপার নিজে তৈরি করে ফ্রিভাবে বিতরন করে থাকেন। সেই জন্য নিজে নিশ্চিত হতে হবে ঐ থীমগুলো সাইটে ব্যবহার করবেন কি? যাইহেক এখন ফ্রি সাইটের থীমগুলো আপনার সাইটে ব্যবহার করবেন বা করবেন না সেটা সম্পূর্ণ আপনার ইচ্ছা। অপরিদকে যারা পেইড থীম ব্যবহার করেন সেটা সম্পূর্ণ ব্যাপার। কেননা, পেইড থীমে এই রকম কোন সমস্যা থাকেনা, সকল সুবিধাই বিদ্যমান থাকে, নিজে অনেক কিছুই সংযোজন করতে পারবেন, কলসেন্টার সুবিধা আছে ইত্যাদি। এই থীমগুলো ক্রয় করতে প্রায় ৫০ ডলারের মত অর্থ খরচ করতে হয়।

এখানে অনেক প্রফেশনাল ইউজার আছেন যারা নিজেরা থীম বানিয়ে ব্যবহার করে থাকেন। এই জন্য এইচ.টি.এম.এল কিংবা কোডিং প্রোগ্রাম সম্পর্কে ভালো ধারনা থাকতে হয়। অবশ্য এমন কিছু ইউটিলিটি রয়েছে যার মাধ্যমে ব্লগ বা ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের থীম বানানো সম্ভব। আমি নিজেও উক্ত ইউটিলিটি ব্যবহার করছি। এর নাম হল- ডাউনলোড লিংক। পরবর্তীতে যদি লেখার সুযোগ হয় তাহলে উক্ত কাজের কথা পোস্ট করব। উদাহরন স্বরুপ অআমার সাইট বর্ণচূড়া ব্লগে আমি অামাদের কাষ্টমাইজেশন করা থীমটি ব্যবহার করছি।

থীম ব্যবহারের বিষয়াবলী:

ব্লগার সাইটে থীম ব্যবহারের কিছু কৌশল রয়েছে। যেমন- আপনি অআজ থেকে শুরু করে পরবর্তী সময় পর্যন্ত কোন থীমটি ব্যবহার করবেন তা নিশ্চিত হতে হবে। কেননা, ব্লগার সাইটে এক থীম হতে অন্য থীম পরিবর্তন করলে অনেক বিষয়াবলী যেমন- এইচ.টি.এম.এল কোড, গ্যাজেট গুলো পরিবর্তন হয়ে যায়। ফলে,আপনার সাজানো সাইট হ-য-ব-র-ল হয়ে যেতে পারে এবং পূনরায় সাজাতে আবার অযথা অনেক সময় নষ্ট করতে হবে। তাই বুদ্ধিমানের কাজ হল- কোন থীমটি ব্যবহার করবেন তা সিলেক্ট করা এবং সাইট একবার সাজানো হয়ে গেলে তা কোনরুপ পরিবর্তন না করা (বিশেষ করে থীম অপশন)। অবশ্য যারা ব্লগার সাইটে অভিজ্ঞ তাদের এটি একটি মামুলি সমস্যা। সত্যি কথা বলতে কি- নেটে সার্চ দিয়ে দেখবেন অনেকেরই বিভিন্ন নামে ব্লগ অআইডি ওপেন করা অআছে। কিন্তু এতসব সমস্যার কারনে ব্লগার সাইটে ব্লগিং করার আগ্রহ হারিয়ে ফেলার এটাই অন্যতম কারন। তাছাড়া এখানে অনেক সময় ও ধৈর্যর প্রয়োজন আছে।
 

যাইহোক এবার কিভাবে থীম ব্যবহার কিংবা আপলোড করবেন তা আলোচনা করছি-

১। প্রথমে আপনার ব্লগার একাউন্টে প্রবেশ করুন >বামপাশের ড্যাশবোর্ড হতে Template বাটনে ক্লিক করুন> নিচে দেখুন গুগলের অনেক ডিফল্ট টেমপ্লেট এসেছে সেখান হতে একটি সিলেক্ট করুন > এখন আপনি যদি অন্য কোন থীম টেমপ্লেট ব্যবহার করতে চান তাহলে উপরের ট্যাগের ব্যাকআপ বাটনে ক্লিক করুন।

 
২। বর্তমানে আপনার যে টেমপ্লেটটি আছে তা ডাউনলোড তথা ব্যাকআপ করে রাখতে পারেন। মনে করি কোন ফ্রি সাইট হতে আপনি টেমপ্লেট ডাউনলোড করেছেন তাহলে সেটি সিলেক্ট করুন> এবার আপলোডে ক্লিক করুন তাহলে প্রিভিউ হিসাবে আপনার সাইটে নতুন টেমপ্লেটটি দেখতে পারবেন।
৩। এবার আবার টেমপ্লেট মেনুতে ফিরে যান> কাষ্টমাইজে ক্লিক করুন।

ব্যাস এভাবেই আপনি যে কোন থীম/ টেমপ্লেট ডাউনলোড ও আপলোড করতে পারবেন।

(বি:দ্র- পোস্টের আলোচনার শুরুতেই বলেছিলাম, এই ভাবে এক থীম হতে অন্য থীম/ টেমপ্লেট আপলোড করলে অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়ে যাবে। এখানে যদি আপনি পূর্বের কোন টেমপ্লেট ডাউনলোড করে পূনরায় আপলোড করতে যাবেন তখনো একই সমস্যা দেখাবে)
 
যারা ফ্রিভাবে ব্লগার থীম খুজছেন তারা নিচের সাইট হতে নামিয়ে নিতে পারেন- এই রকম কিছু সাইট আছে যেগুলো হল-

http://www.btemplates.com

http://www.bloggerthemes.net

http://www.spiceupyourblog.com/best-free-blogger-templates-html

http://www.instantshift.com/best-free-blogger-templates-around/

http://mashable.com/plus-new-and-beautiful-blogger-templates/

Level 1

আমি এএমডি আব্দুল্লাহ্। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 157 টি টিউন ও 1050 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

সম্মানীয় ভিজিটর বন্ধুগন! সবাইকে আন্তরিক সালাম ও ভালবাসা। আশা করি ভাল আছেন। পর সংবাদ যে, আমরা একটি ব্লগ সাইট তৈরি করেছি। সাইটটি সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম শিক্ষা ও প্রযুক্তি নির্ভর। প্রযুক্তি, শিক্ষা, কম্পিউটার বিষয়ক যেমনঃ অনলাইন ইনকাম, ফ্রিল্যান্স, টিউটোরিয়াল, মুভি, গেমস, সফটওয়্যার, ভ্রমন, ইতিহাস, ভূগোল, কার্টুন, ধর্ম, টেক সংবাদ, এবং সংবাদপত্র ফিউচার...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Blogger.com er site gulo ki vabe full screen kora jabe ?

প্রিয় টিউনার,

আপনি ভুল ভাবে আপনার চেইন টিউনের শিরোনাম গুলো দিচ্ছেন। আপনি পর্ব হিসেবে টিউনের শিরোনাম গুলো –

চেইন টিউনের নাম [পর্ব-০১] :: চেইন টিউনের ভিতরের বিষয়বস্তু …

চেইন টিউনের নাম [পর্ব-০২] :: চেইন টিউনের ভিতরের বিষয়বস্তু ….

চেইন টিউনের নাম [পর্ব-০৩] :: চেইন টিউনের ভিতরের বিষয়বস্তু

এর অর্থ প্রথমে চেইন টিউনের নাম, এরপর (স্পেস দিয়ে) স্কয়ার ব্রাকেটের ( [ ] ) মধ্যে পর্ব হাইফেন (-) দিয়ে দুই সংখ্যায় পর্বের নম্বর। স্কয়ার ব্রাকেটের ( [ ] ) ভিতরে কোন স্পেস দিবেন না। এরপর (স্পেস দিয়ে) ডাবল কোলন (::) এর পরে (স্পেস দিয়ে) চেইন টিউনের ভিতরের বিষয়বস্তু॥ এই ফরমেটে চেইন টিউনের শিরোনাম গুলো লিখুন।

এই চেইনের পূর্বের পর্ব গুলোর শিরোনাম গুলোও যদি ‘টেকটিউনস চেইন টিউনের’ শিরোনাম মোতাবেক করা না থাকে তবে সব গুলো এখনই সংশোধন করুন ও পরবর্তী সকল চেইন টিউনে সঠিক ভাবে চেইন টিউনের শিরোনাম দিন।

টিউনের শিরোনাম গুলো ‘টেকটিউনস চেইন টিউনের’ শিরোনাম মোতাবেক সঠিক ভাবে সংশোধন করে আপডেট করে এই টিউমেন্টটির প্রতুত্তর (রিপ্লাই) দিন। টেকটিউনস থেকে আপনার টিউন গুলো চেইন করে দেওয়া হবে।

চেইন টিউন কীভাবে প্রক্রিয়া হয় তা জানতে ‘টেকটিউনস সজিপ্র’ https://www.techtunes.co/faq এর ‘চেইন টিউন’ অংশ দেখুন। ধন্যবাদ।

    হ্যা নিয়মনীতি অনুসরন পূর্বক টাইটেল/চেইন ঠিক করে দিয়েছি।