বিনা খরচে যেভাবে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ফ্রি ট্রাফিক পাবেন.. [১৮১৭ শব্দের একটি মেগা টিউনের চেষ্টায়] – ডিজে আরিফ

আসসালামুয়ালাইকুম,

আশা করি সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমতে সকলে ভালো আছেন।

নতুন বা পুরনো সব ব্লগারই চান তাদের ব্লগে ভিজিটর আসুক, সবাই নিজের ব্লগের দিকে ট্রাফিক জেনারেট করতে চায়। ব্লগিং এর দুনিয়ায় প্রতিনিয়ত নতুন নতুন পন্থা তৈরি হচ্ছে ব্লগে ট্রাফিক জেনারেট করার জন্য। আমাদের দেশের বাহিরের ব্লগাররা যেহেতু হাই স্পিড নেট পাচ্ছে এবং তাদের জন্য অনলাইনে টাকা লেনদেন তেমন ঝামেলার বিষয় না, তাই তারা অনেকেই বিভিন্নভাবে এসইও এক্সপার্ট হায়ার করছে, গুগল এডওয়্যারডসের মত এডভারটাইসিং মিডিয়া গুলো ব্যবহার করে ট্রাফিক জেনারেট করছেন, অন্য কোন ব্লগারকে টাকা প্রদানের মাধ্যমে নিজের ব্লগের রিভিউ লেখাচ্ছেন, ফেসবুক এডভারটাইসিং করছেন।

আমাদের দেশের প্রায় সকল ব্লগারই নেটে টাকা খরচ করতে ইচ্ছুক নন ট্রাফিক জেনারেট করতে, সকলেই ফ্রি বা টাকা ছাড়া ট্রাফিক পাবার পদ্ধতি খোঁজেন এবং সেই পথেই কাজ করেন। নিম্নে কোন টাকা-পয়সা খরচ করা ছাড়াই যে পদ্ধতি অবলম্বন করে ট্রাফিক পাওয়া সম্ভব সেগুলো তুলে ধরা হল:

১.ব্লগ কমেন্টিং - ট্রাফিক পাওয়ার সবচেয়ে সোজা এবং কার্যকর পদ্ধতি এটি। অন্য ব্লগে কমেন্ট করার মাধ্যমে আপনি আপনার নিজের ওয়েবসাইট বা ব্লগের একটা লিঙ্ক সেখানে দিয়ে আসতে পারবেন(অবশ্যই তা কমেন্টে না, "Website" নামে একটা শূন্যস্থান থাকে সেখানে আপনি আপনার ব্লগের ঠিকানা ব্যবহার করবেন।)

ব্লগের কমেন্ট করার সময় স্প্যমিং না করে যুক্তিযুক্ত এবং সঠিক কমেন্ট করুন এবং যথাসম্ভব কমেন্টকে ইউনিক কমেন্ট করার চেষ্টা করুন। সুন্দর-সাবলীল ভাষায় কমেন্ট করুন। ব্লগ কমেন্টিং এর মাধ্যমে ট্রাফিক পেতে হলে প্রচুর ট্রাফিক পায় এমন ওয়েবসাইটগুলোকে বেছে নেয়া যেতে পারে।

কমেন্ট করার আগে পোস্টটি একবার পড়ে নিবেন, এতে পোস্ট সম্পর্কে ধারণা পাবেন, তারপর সেই ধারণার উপর ভিত্তি করে কমেন্ট করবেন, এতে কমেন্ট এপ্রুভ হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। সব সময় নিজের নিশ বা সমজাতীয় ব্লগগুলোতে কমেন্ট করবেন।

ফ্রি ট্রাফিক

২.বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে জয়েন করুন -বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে জয়েন করে আপনি আপনার ব্লগের পাবলিসিটি করতে পারেন, তবে তাই বলে অতিরিক্ত করবেন না, তা স্প্যামের আওতায় পড়ে। ফেসবুক, টুইটার, ডিগ, স্ট্যাম্বল আপন সহ নানা সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট এবং বুকমারকিং সাইটে ব্লগের পাবলিসিটি করলে ভালো ট্রাফিক পাওয়া যেতে পারে, তবে এ ক্ষেত্রে ব্লগের বাউন্স রেট বেড়ে যেতে পারে অনেক, তবুও এই সবের মাধ্যমে কিছু নিয়মিত পাঠক পাওয়া যেতে পারে, যারা হয়তোবা নির্দ্বিধায় আপনার ব্লগের পাবলিসিটি করবে, যেমন কারো আপনার ব্লগের কোন পোস্ট পছন্দ করে সেটা ফেসবুকে শেয়ার করলে তার বন্ধুরাও আপনার ব্লগে আসতে পারে, এমন করে তারাও তাদের ভালো লাগা পোস্ট শেয়ার করতে পারে,এভাবে করে ভালো মানের ট্রাফিক পাওয়া সম্ভব।

৩.ফ্রি রিপোর্ট তৈরি করুন - যদিও এটা মোটামুটি একটু কঠিন কাজই বটে, তবুও যদি পাঠক মহলে চাহিদা আছে এমন কোন বিষয়ে ভালো মানের কোন রিপোর্ট লিখে (সেখানে বিভিন্ন স্থানে নিজের ব্লগকে রেফার করে) পাবলিশ করতে পারেন এবং নিজের ব্লগ, বিভিন্ন ফোরাম ইত্যাদির মাধ্যমে সেটা ছড়িয়ে দিতে পারেন তবে সেখান থেকে ভালো মানের ট্রাফিক পাওয়া যাবে, আর এইখান থেকে পাওয়া অধিকাংশ ট্রাফিকই অনেক মূল্য বহন করে, অর্থাৎ এরা ভালো মানের ভিজিটর।

৪.সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন সম্পর্কে জানুন- সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন জানা এবং এর সঠিক প্রয়োগ ঘটানো ট্রাফিক জেনারেট করার পদ্ধতিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি কার্যকর। এর মাধ্যমে সরাসরি সার্চ ইঞ্জিন (যেমনঃ গুগল, ইয়াহু, বিং) থেকে আপনি ভিজিটর পাবেন, আর এই ক্ষেত্রে যে ভিজিটর পাবেন তারা অনেক উচ্চ মানে ভিজিটর হবে, কারণ তারা যদি আপনাকে সার্চ ইঞ্জিন মারফত পেয়ে থাকে তার মানে এই যে তার ওই বিষয়ে জানার আগ্রহ আছে এবং সে জানতে চায় ঐ বিষয়ে, তাই গুগলের মত সার্চ ইঞ্জিনে আধিপত্য বিস্তার করতে পারলে ভালো ভিজিটর পাওয়া সম্ভব। তাই এসইও শেখা উচিৎ, সব না পারলেও অন্তত বেসিক জ্ঞানগুলো জানা উচিৎ।

৫.ইউটিউবে ভিডিও পাবলিশ করুন - ইউটিউবের গুণাগুণ সম্পর্কে বিস্তারিত না বলে সরাসরি প্রধান কথায় চলে যাই। দর্শক মহলে চাহিদা আছে, এমন বিষয়ে ভিডিও তৈরি করুন এবং তা ইউটিউবে আপলোড করুন। ইউটিউবে আপলোড করার পূর্বে আপনার ভিডিওর মান যতটুকু উন্নত করা যায় ততটুকু করার চেষ্টা করুন, একটা ভালো মানের ভিডিও দিতে পারলে সেই ভিডিও টি কারো ভালো লাগে তবে সে সেটা বিভিন্ন জায়গায় শেয়ার করবে, ফলে আপনার ভিডিও দাম বেড়ে যাবে, ইউটিউবে ভিডিওর জন্য ডিটেইলস লেখার জায়গা থাকে সেখানে আপনার ব্লগের লিঙ্ক দিয়ে দিতে পারেন, তবে তা যেন কোন ভাবেই স্প্যাম না মনে হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এমন ভিডিও পাবলিশ করুন যা আপনার ব্লগের নিশ এর সাথে মিলে।

৬.সমজাতীয় ব্লগে গেস্ট পোস্ট করুন - এটি ব্লগে হাই কোয়ালিটি এবং নিয়মিত ভিজিটর পাওয়ার সবচেয়ে দারুণ এবং সবচেয়ে মোক্ষম পন্থা, এখানে আপনার বেশি কিছু করা লাগবে না, শুধুমাত্র যে ব্লগে গেস্ট পোস্ট করবেন সে ব্লগের নিয়মকানুন মেনে, ওই নিশ এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ইউনিক বা অরিজিনাল নিজের লেখা পোস্ট করুন, এতে আপনি ওই ব্লগের নিয়মিত পাঠক যারা তাদের সরাসরি আপনার ব্লগের দিকে আকর্ষণ করতে পারবেন। এটি একদম রেডিমেড হাই কোয়ালিটি ট্রাফিক পাওয়ার মোক্ষম উপায়।

এছাড়াও আরো কিছু পদ্ধতি আছে যেগুলোর ডিটেইলস না দিয়ে শুধু পয়েন্ট গুলো দিচ্ছি -

৭.অন্য ব্লগের লিঙ্ক নিজের ব্লগের সামঞ্জস্যপূর্ণ স্থানে দিন, এতে ট্র্যাক-ব্যাক হিসেবে তার ব্লগে নিচে আপনার লিঙ্ক প্রকাশিত হবে।

৮.ফোরাম মার্কেটিং করতে পারেন।

৯.আর্টিকেল মার্কেটিং করা যেতে পারে।

১০.কারো সাথে লিঙ্ক এক্সচেঞ্জ করার মাধ্যমে ট্রাফিক পেতে পারেন, তবে এক্ষেত্রে খুব কম ভিজিটর পাওয়া যায়।

১১.ইয়াহু আন্সারস এ বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিন, এবং ওই প্রশ্নের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কোন ব্লগ পোস্ট আপনার ব্লগে থাকলে লিঙ্ক শেয়ার করে দিন।

তো আজ এ পর্যন্তই, আশা করি আমার লেখা আপনার ভালো লেগেছে। আমার লেখা সম্পর্কে আপনার ভালো লাগা-মন্দ লাগা, উপদেশ, অনুরোধ যাই থাক কমেন্টে লিখতে ভুলবেন না। আপনাদের মূল্যবান কমেন্টের অপেক্ষায় রইলাম।

পোস্ট, যদিও খুব ভালো লিখিনা, তবুও নিজের সাধ্যমত লিখার চেষ্টা করবো...

নতুন বা পুরনো সব ব্লগারই চান তাদের ব্লগে ভিজিটর আসুক, সবাই নিজের ব্লগের দিকে ট্রাফিক জেনারেট

করতে চায়। ব্লগিং এর দুনিয়ায় প্রতিনিয়ত নতুন নতুন পন্থা তৈরি হচ্ছে ব্লগে ট্রাফিক জেনারেট করার জন্য।

আমাদের দেশের বাহিরের ব্লগাররা যেহেতু হাই স্পিড নেট পাচ্ছে এবং তাদের জন্য অনলাইনে টাকা লেনদেন

তেমন ঝামেলার বিষয় না, তাই তারা অনেকেই বিভিন্নভাবে এসইও এক্সপার্ট হায়ার করছে, গুগল

এডওয়্যারডসের মত এডভারটাইসিং টুলগুলো ব্যবহার করে ট্রাফিক জেনারেট করছেন, অন্য কোন ব্লগারকে

টাকা প্রদানের মাধ্যমে নিজের মত করে নিজের ব্লগের রিভিউ লেখাচ্ছেন, অটোরেস্পণ্ডার ব্যবহার করছেন,

ফেসবুক এডভারটাইসিং করছেন...

এগুলো আমাদের দেশে অসম্ভব না হলেও বেশ দুরূহ ব্যাপার... তার ওপর আমাদের দেশের প্রায় সকল ব্লগারই

নেটে টাকা খরচ করতে ইচ্ছুক নন ট্রাফিক জেনারেট করতে, সকলেই ফ্রি বা টাকা ছাড়া ট্রাফিক পাবার পদ্ধতি

খোঁজেন এবং সেই পথেই কাজ করুন... নিম্নে কোন টাকা-পয়সা খরচ করা ছাড়াই যে পদ্ধতি অবলম্বন করে

ট্রাফিক পাওয়া সম্ভব সেগুলো তুলে ধরা হল...

১.ব্লগ কমেন্টিং - ট্রাফিক পাওয়ার সবচেয়ে সোজা এবং কার্যকর পদ্ধতি এটি। অন্য ব্লগে কমেন্ট করার মাধ্যমে

আপনি আপনার নিজের ওয়েবসাইট বা ব্লগের একটা লিঙ্ক সেখানে দিয়ে আসতে পারবেন(অবশ্যই তা কমেন্টে

না, "Website" নামে একটা শূন্যস্থান থাকে সেখানে আপনি আপনার ব্লগের ঠিকানা ব্যবহার করবেন।)

ব্লগের কমেন্ট করার সময় স্প্যমিং না করে যুক্তিযুক্ত এবং সঠিক কমেন্ট করুন এবং যথাসম্ভব কমেন্টকে ইউনিক

কমেন্ট করার চেষ্টা করুন। সুন্দর-সাবলীল ভাষায় কমেন্ট করুন। ব্লগ কমেন্টিং এর মাধ্যমে ট্রাফিক পেতে হলে প্রচুর

ট্রাফিক পায় এমন ওয়েবসাইটগুলোকে বেছে নেয়া যেতে পারে।

কমেন্ট করার আগে পোস্টটি একবার পড়ে নিবেন, এতে পোস্ট সম্পর্কে ধারণা পাবেন, তারপর সেই ধারণার উপর

ভিত্তি করে কমেন্ট করবেন, এতে কমেন্ট এপ্রুভ হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। সব সময় নিজের নিশ বা সমজাতীয়

ব্লগগুলোতে কমেন্ট করবেন।

২.বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে জয়েন করুন -বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে জয়েন করে আপনি

আপনার ব্লগের পাবলিসিটি করতে পারেন, তবে তাই বলে অতিরিক্ত করবেন না, তা স্প্যামের আওতায় পড়ে।

ফেসবুক, টুইটার, ডিগ, স্ট্যাম্বল আপন সহ নানা সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট এবং বুকমারকিং সাইটে ব্লগের

পাবলিসিটি করলে ভালো ট্রাফিক পাওয়া যেতে পারে, তবে এ ক্ষেত্রে ব্লগের বাউন্স রেট বেড়ে যেতে পারে

অনেক, তবুও এই সবের মাধ্যমে কিছু নিয়মিত পাঠক পাওয়া যেতে পারে, যারা হয়তোবা নির্দ্বিধায় আপনার ব্লগের

পাবলিসিটি করবে, যেমন কারো আপনার ব্লগের কোন পোস্ট পছন্দ করে সেটা ফেসবুকে শেয়ার করলে তার

বন্ধুরাও আপনার ব্লগে আসতে পারে, এমন করে তারাও তাদের ভালো লাগা পোস্ট শেয়ার করতে পারে,এভাবে

করে ভালো মানের ট্রাফিক পাওয়া সম্ভব।

৩.ফ্রি রিপোর্ট তৈরি করুন - যদিও এটা মোটামুটি একটু কঠিন কাজই বটে, তবুও যদি পাঠক মহলে চাহিদা আছে

এমন কোন বিষয়ে ভালো মানের কোন রিপোর্ট লিখে (সেখানে বিভিন্ন স্থানে নিজের ব্লগকে রেফার করে) পাবলিশ

করতে পারেন এবং নিজের ব্লগ, বিভিন্ন ফোরাম ইত্যাদির মাধ্যমে সেটা ছড়িয়ে দিতে পারেন তবে সেখান থেকে

ভালো মানের ট্রাফিক পাওয়া যাবে, আর এইখান থেকে পাওয়া অধিকাংশ ট্রাফিকই অনেক মূল্য বহন করে, অর্থাৎ

এরা ভালো মানের ভিজিটর...

৪.সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন সম্পর্কে জানুন- সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন জানা এবং এর সঠিক প্রয়োগ ঘটানো

ট্রাফিক জেনারেট করার পদ্ধতিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি কার্যকর... এর মাধ্যমে সরাসরি সার্চ ইঞ্জিন (যেমনঃ

গুগল, ইয়াহু, বিং) থেকে আপনি ভিজিটর পাবেন, আর এই ক্ষেত্রে যে ভিজিটর পাবেন তারা অনেক উচ্চ মানে

ভিজিটর হবে, কারণ তারা যদি আপনাকে সার্চ ইঞ্জিন মারফত পেয়ে থাকে তার মানে এই যে তার ওই বিষয়ে

জানার আগ্রহ আছে এবং সে জানতে চায় ঐ বিষয়ে, তাই গুগলের মত সার্চ ইঞ্জিনে আধিপত্য বিস্তার করতে

পারলে ভালো ভিজিটর পাওয়া সম্ভব... তাই এসইও শেখা উচিৎ, সব না পারলেও অন্তত বেসিক জ্ঞানগুলো

জানা উচিৎ।

৫.ইউটিউবে ভিডিও পাবলিশ করুন - ইউটিউবের গুণাগুণ সম্পর্কে বিস্তারিত না বলে সরাসরি প্রধান কথায় চলে

যাই... দর্শক মহলে চাহিদা আছে, এমন বিষয়ে ভিডিও তৈরি করুন এবং তা ইউটিউবে আপলোড করুন।

ইউটিউবে আপলোড করার পূর্বে আপনার ভিডিওর মান যতটুকু উন্নত করা যায় ততটুকু করার চেষ্টা করুন, একটা

ভালো মানের ভিডিও দিতে পারলে সেই ভিডিও টি কারো ভালো লাগে তবে সে সেটা বিভিন্ন জায়গায়

শেয়ার করবে, ফলে আপনার ভিডিও দাম বেড়ে যাবে, ইউটিউবে ভিডিওর জন্য ডিটেইলস লেখার জায়গা থাকে

সেখানে আপনার ব্লগের লিঙ্ক দিয়ে দিতে পারেন, তবে তা যেন কোন ভাবেই স্প্যাম না মনে হয়... বেশিরভাগ ক্ষেত্রে

এমন ভিডিও পাবলিশ করুন যা আপনার ব্লগের নিশ এর সাথে মিলে...

৬.সমজাতীয় ব্লগে গেস্ট পোস্ট করুন - এটি ব্লগে হাই কোয়ালিটি এবং নিয়মিত ভিজিটর পাওয়ার সবচেয়ে দারুণ

এবং সবচেয়ে মোক্ষম পন্থা, এখানে আপনার বেশি কিছু করা লাগবে না, শুধুমাত্র যে ব্লগে গেস্ট পোস্ট করবেন সে

ব্লগের নিয়মকানুন মেনে, ওই নিশ এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ইউনিক বা অরিজিনাল নিজের লেখা পোস্ট করুন, এতে

আপনি ওই ব্লগের নিয়মিত পাঠক যারা তাদের সরাসরি আপনার ব্লগের দিকে আকর্ষণ করতে পারবেন... এটি

একদম রেডিমেড হাই কোয়ালিটি ট্রাফিক পাওয়ার মোক্ষম উপায়...

এছাড়াও আরো কিছু পদ্ধতি আছে যেগুলোর ডিটেইলস না দিয়ে শুধু পয়েন্ট গুলো দিচ্ছি -

৭.অন্য ব্লগের লিঙ্ক নিজের ব্লগের সামঞ্জস্যপূর্ণ স্থানে দিন, এতে ট্র্যাক-ব্যাক হিসেবে তার ব্লগে নিচে আপনার লিঙ্ক

প্রকাশিত হবে...

৮.ফোরাম মার্কেটিং করতে পারেন।

৯.আর্টিকেল মার্কেটিং করা যেতে পারে।

১০.কারো সাথে লিঙ্ক এক্সচেঞ্জ করার মাধ্যমে ট্রাফিক পেতে পারেন, তবে এক্ষেত্রে খুব কম ভিজিটর পাওয়া যায়।

১১.ইয়াহু আন্সারস এ বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিন, এবং ওই প্রশ্নের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কোন ব্লগ পোস্ট আপনার

ব্লগে থাকলে লিঙ্ক শেয়ার করে দিন...

তো আজ এ পর্যন্তই, আশা করি আমার লেখা আপনার ভালো লেগেছে... আমার লেখা সম্পর্কে আপনার ভালো

লাগা-মন্দ লাগা, উপদেশ, অনুরোধ যাই থাক কমেন্টে লিখতে ভুলবেন না... আপনাদের মূল্যবান কমেন্টের

অপেক্ষায় রইলাম...

আসসালামুয়ালাইকুম,

আশা করি সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমতে সকলে ভালো আছেন। হাসান ভাইয়ের ব্লগে এটি আমার প্রথম অতিথি পোস্ট, খুব একটা ভালো লিখিনা, তবুও নিজের সাধ্যমত লেখার চেষ্টা করবো।

নতুন বা পুরনো সব ব্লগারই চান তাদের ব্লগে ভিজিটর আসুক, সবাই নিজের ব্লগে ট্রাফিক পেতে চায়। ব্লগিংয়ের দুনিয়ায় ট্রাফিক পাওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত নতুন নতুন পন্থা তৈরি হচ্ছে। প্রবাসী ব্লগাররা যেহেতু দ্রুত গতির ইন্টারনেটের সুবিধা পাচ্ছেন আর যেহেতু তাদের জন্য অনলাইনে টাকা লেনদেন তেমন ঝামেলার বিষয় না, তাই তারা অনেকেই বিভিন্নভাবে এসইও কনসালটেন্ট নিয়োগ করছেন, গুগল এডওয়ার্ডের মত এডভারটাইসিং টুলগুলো করছেন, নিজের ব্লগের রিভিউ লিখতে অন্য ব্লগারদের আমন্ত্রন জানাচ্ছেন, অটোরেস্পণ্ডার ব্যবহার করছেন, ফেসবুক এডভারটাইসিং করছেন ইত্যাদি ইত্যাদি।

এগুলো আমাদের দেশে অসম্ভব না হলেও বেশ দুরূহ ব্যাপার। তার উপর আমাদের দেশের প্রায় সকল ব্লগারই নেটে টাকা খরচ করতে ইচ্ছুক নন ট্রাফিক জেনারেট করতে, সকলেই ফ্রি বা টাকা ছাড়া ট্রাফিক পাবার পদ্ধতি খোঁজেন এবং সেই পথেই কাজ করুন... নিম্নে কোন টাকা-পয়সা খরচ করা ছাড়াই যে পদ্ধতি অবলম্বন করে ট্রাফিক পাওয়া সম্ভব সেগুলো তুলে ধরা হল...

Level 0

আমি ডিজে আরিফ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 60 টি টিউন ও 1484 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি আরিফ, সাধারণ একজন আরিফ! চাই অসাধারণ কিছু করতে, সম্ভব কিনা জানিনা কিন্তু ইচ্ছাশক্তির বলে অনেক কিছুই করতে চাই। ব্লগিং - এর সাথে পরিচয় খুব বেশি দিনের না, তবুও বিষয়টাকে ব্যাপকভাবে উপভোগ করছি। ভালো মানের ব্লগার হওয়ার ইচ্ছা আছে। বর্তমানে আমি দশম শ্রেণীতে ঢাকার স্বনামধন্য বিদ্যালয়ে পড়ালেখা করছি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

অনেক ভাল হয়েছে।আশাকরি আরো অনেক কিছু জানতে পারব আপনার থেকে।

    ধন্যবাদ নাইম ভাই, ঈনশাল্লাহ আমি যতটুকু পারি জানানোর চেষ্টা করবো…

    ধন্যবাদ আলমাস… তো তোমার ইবুক ডট ইএক্সই কবে পাচ্ছি হাতে? 😆

Level 0

আরিফ অনেক সুন্দর হয়েছে। 🙂

দারুণ পোস্ট, চালিয়ে যান। সবার কাজে লাগবে আশা করি।

কারও লাগু্ক না লাগুক আমার লাইগা গেছে । ধন্যবাদ । আপনাকেই দরকার কিছু টিপস লাগবে । পারসনাল ভাবে যোগাযোগ করবো ।

    তোমাকে অসঙ্খ্য ধন্যবাদ হ্যা পারসোনাল ভাবে যোগাযোগ করতে পারো আমাকে মেইল করো আমি ডিটেইলস বলে দিব…

nice.asa kori baklink baranor jonno kichu tips diben.
sorry for english.laptop a avro setup kora nai

    যে টিপস গুলো উপরে দেয়া আছে, এগুলো মেইনটেইন করলেই ভালো পরিমাণের ব্যাকলিঙ্ক জেনারেট করতে পারবেন…

valo laglo. Ei tune ta amar jonno khub upokari . Ami nije ki SEO korte pari? Amar notun blog: http://techpress24.blogspot.com/ suggestion dile upokrito hatam.

    আপনার ওয়েবসাইটটা ব্লগস্পট এ তৈরি তাই ভালোভাবে এসইও করা হয়েছে কিনা বোঝা সম্ভব না…

    Level 0

    ব্লগস্পট এ seo করার অনেক টিউটো গুগলে তে পাবেন.
    আপনি যে পথে হাটেন, সেই পথে
    যা মানুষ খোজে , যা মানুষ ভাবে .. এমন কিছু. নিয়ে , এমন কিছুর উপর লিখে যেতে থাকেন. করে যেতে থাকেন.
    seo আপনার পিছু পিছু হাটবে.
    seo পাবার প্রথম শর্ত হলো seo নিয়ে না ভেবে ইউনিক কন্টেন্ট এর প্রতি একনিষ্ঠ লক্ষ রাখা.
    ও আরেকটা কথা .,গুগলে আপনার সাইট ঘুরে গেসে., যাবার সময় ১২৬ টা লিঙ্ক আর ২৩ টা ছবি ইনডেক্স করে গেছে

Level 0

দারুণ পোস্ট,

আরও ভালভাবে বুঝতে পারলাম । সুন্দর গোছালো ও সুন্দর ভাবে লিখেছেন । ধন্যবাদ ।

    আপনারা ভালোভাবে বুঝতে পারলেই টিউন সার্থক… ধন্যবাদ আতিক ভাই।

কাজের টিউন – অনেক ধন্যবাদ। প্রিয়তে…

ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য । আমিও আমার ব্লগে এইভাবে ট্রাফিক জেনারেট করে থাকি । তবে নতুন আনেক কিছুই শিখেছি ।

    আপনাকেও ধন্যবাদ মিরাজ ভাই, নতুন কি কি শিখলেন জানালেন না? 😆

বাহ! সুন্দর টিউন 😀

    বাহ! আপনার পরীক্ষা চলে তবুও কমেন্ট করছেন… 😀

Level 0

আমি নতুন ভাবে ব্লগিং শুরু করলাম । আমারও কাজে লাগবে। ধন্যবাদ

    নতুনভাবে শুরু করলেন মানে, আপনি নিউবায় ব্লগার, সে হিসেবে আপনার কাজে লাগরই কথা, ধন্যবাদ।

ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য।

আরও বড় আশা করেছিলাম। তুই যেই হিসাবে ফাটাইলি, দারুণ লাগলো!

    ধন্যবাদ দোস্ত, আরো বড়? থাক আরেকটু সময় যাক, আরো নিত্য-নতুন পদ্ধতির উদ্ভব ঘটুক তখন না হয় আরো বড় দিব…

জটিল লাগল আরিফ ভাই{Muziqman Muziq}