IPv6 Address ব্যবহার করে ২টি Laptop/Desktop এর মধ্যে File/Folder Sharing পদ্ধতি

আমরা জানি IPv4 একটি ৩২ বিট নির্ভর Addressing System. IPv4 Address লিমিট- ৪, ২৯৪, ৯৬৭, ২৯৬। এমন একদিন আসবে যখন এই বিশ্বের প্রতিটি ব্যক্তি কমপক্ষে ৪-৫ টি ডিভাইস ব্যবহার করবে। আর প্রতিটি ডিভাইসের জন্য ইউনিক Address প্রয়োজন হবে। এই বিশাল পরিমাণ ইউনিক Address এর যোগান দেওয়া IPv4 Addressing System এর পক্ষে সম্ভব না। আর এই জন্যই তৈরি হয়েছে IPv6 Addressing System. IPv6 একটি ১২৮ বিট নির্ভর Addressing System. IPv6 Address লিমিট- ৩৪০, ২৮২, ৩৬৬, ৯২০, ৯৩৮, ৪৬৩, ৪৬৩, ৩৭৪, ৬০৭, ৪৩১, ৭৬৮, ২১১, ৪৫৬। তাহলে চিন্তা করুন এই বিশ্বের প্রতিটি ব্যক্তির কাছে যদি কয়েক লক্ষ ডিভাইস থাকে এবং প্রতিটি ডিভাইসে যদি একটি করে ইউনিক Address ব্যবহার করা হয় তাহলেও IPv6 Addressing System এর Address ব্যবহার করে শেষ করা সম্ভব হবে না। IPv6 Address এর একটি উদাহরণ হলোঃ “2001:0db8:85a3:0000:0000:8a2e:0370:7334”।

এই Address কে সিমপ্লিফাই করে কিছুটা ছোট করা সম্ভব। IPv6 Address ব্যবহার করতে হলে Internet Service Provider, Modem/Router, Website Hosting Server গুলোকেও একসাথে IPv6 Address ব্যবহার করতে হবে। সুতরাং এখনও আমাদেরকে IPv4 Address ব্যবহার করতে হচ্ছে। সারা বিশ্বে বর্তমানে ১% এরও কম IPv6 Address ব্যবহার হয়ে থাকে।

আজ আমি এই ভিডিও টিউটোরিয়ালে দেখিয়েছি কিভাবে IPv6 Address ব্যবহার করে ২টি Laptop/Desktop এর মধ্যে File/Folder Share করা যায়।

Level New

আমি Albert Subir Mondal। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 37 টি টিউন ও 2 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 4 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস