পিসি তে নতুন পার্টিশন যোগ করুন , পার্টিশন এর সাইজ কমান বা বাড়ান একদম সহজে ( স্ক্রিনশট সহ বিস্তারিত )

আমাদের অনেক সময় হার্ড ডিস্ক এর পার্টিশন করার পার্টিশন এর জায়গা বাড়ানো বা কমানো  প্রভৃতির প্রয়োজন হয় তখন আমরা কতই না সফটওয়্যার খুঁজে বেড়ায় ; কখনো কখনো আবার প্যাচ ব্যবহার করে কোন কোন সফটওয়্যার কে ফুল ভার্সন ও করে ফেলি । 
আজ আমি আপনাদের জন্য একটা খুব ভালো সফটওয়্যার নিয়ে এসেছি যেটা দিয়ে আপনি খুব সহজেই হার্ড ডিস্ক এর পার্টিশন এর সাইজ কমাতে বা বাড়াতে পারবেন , নতুন পার্টিশন করতে পারবেন , হার্ড ড্রাইভ কে এরর এর জন্য চেক করতে পারবেন , পার্টিশন হাইড করতে পারবেন , একটা পার্টিশন এর পুরো কপি করতে পারবেন ; আরও আছে যেগুলো ডাউনলোড করলে বুঝতে পারবেন   । তাহলে আর দেরি কেন এখুনি ডাউনলোড করে নিন সফটওয়্যার টা । ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন । 
তো চলুন এবার দেখি কিভাবে আপনি হার্ড ডিস্ক এর পার্টিশন বাড়াতে বা কমাতে পারবেন আর নতুন পার্টিশন তৈরি করতে পারবেন ।
প্রথমে দেখেনিন কি ভাবে নতুন পার্টিশন বানাতে পারবেন । নতুন পার্টিশন বানাবার জন্য আপনাকে হার্ড ডিস্ক এর কিছু জায়গা Unllocated করতে হবে । সেটা কিভাবে করবেন তার জন্য নিচের ছবি দেখুন ।
প্রথমে আপনি সফটওয়্যারটা ইন্সটল করে ওপেন করুন । এরপর আপনি যে ড্রাইভ থেকে জায়গা কমাতে চান সেটাতে রাইট ক্লিক করুন ( আমি D Drive থেকে জায়গা কমাবো তাই D Drive সিলেক্ট করেছি ) ।

এরপর দেখবেন Move/Resize বলে একটা অপশন পাবেন সেটাতে ক্লিক করুন । এরপর একটা নতুন উইন্ডো পাবেন সেখানে একটা ছবি পাবেন যেটার নিচে পার্টিশন এর সাইজ লেখা থাকবে । ছবিটাকে শেষ অথবা শুরুর প্রান্ত থেকে টানতে থাকুন , আপনার হার্ড ডিস্ক এর পার্টিশন এর সাইজ কমিয়ে যত করতে চান তত যখন চলে আসবে ( যদি না আসে তাহলে তার নিচে থাকা arrow গুলোতে ক্লিক করবেন দেখবেন একসময় পার্টিশন এর সাইজ ঠিকই আপনার মনমত চলে আসবে ) তখন ok তে ক্লিক করবেন । 


এরপর দেখবেন কিছু জায়গা Unllocated হয়ে গেছে ।

সেখানে রাইট ক্লিক করুন দেখবেন Create বলে একটা অপশন পাবেন সেটাতে ক্লিক করুন । এরপর একটা নতুন উইন্ডো পাবেন সেটাতে Lebel এর জায়গায় নাম দিন । এরপর Create as এ Primary নাকি Logical যেটা আপনার দরকার সেটা সিলেক্ট করুন । এরপর file system , cluster size দিন আর তারপর ড্রাইভ লেটার সিলেক্ট করে ok তে ক্লিক করুন । 

সবশেষে বামদিকে একদম উপরে থাকা Apply তে ক্লিক করুন । 

এরপর নিচের মত একটা উইন্ডো এলে Yes এ ক্লিক করুন আর কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন ।
 

ব্যাস কাজ শেষ এরপর My Computer খুলে দেখুন তো আপনার একটা নতুন পার্টিশন তৈরি হয়েছে কিনা !
এভাবে আপনি খুব সহজেই হার্ড ডিস্ক এর পার্টিশন করতে পারবেন । এরপর চলুন দেখি কিভাবে পার্টিশন সাইজ বাড়াতে পারবেন । বাড়াবার জন্য আপনাকে কিছু জায়গা Unllocated করে রাখতে হবে । উপরে যেভাবে জায়গা Unllocated করলেন ঠিক সেভাবেই Unllocated করুন । মনে রাখবেন আপনি যে ড্রাইভটার জায়গা বাড়াতে চান সেটার নিচের ড্রাইভটার থেকে জায়গা Unllocated করবেন নাহলে কিন্তু কোনো লাভ হবে না । 

Unllocated করা হয়ে গেলে যে ড্রাইভটার জায়গা বাড়াতে চান সেটাতে রাইট ক্লিক করুন । এরপর দেখবেন Extend বলে একটা নতুন অপশন পাবেন সেটা সিলেক্ট করুন । 
এরপর একটা নতুন উইন্ডো খুলবে সেখান থেকে আপনি ঠিক কতটা জায়গা বাড়াতে চান সেটা সিলেক্ট করুন , যদি পুরো Unllocated স্পেসটাকে ব্যবহার করতে চান তাহলে পুরোটা সিলেক্ট করুন ।

এরপর সবশেষে apply তে ক্লিক করে ।
এভাবে আপনি হার্ড ডিস্ক এর জায়গা কমাতে বা বাড়াতে পারবেন ।
আজ এ পর্যন্তই ভালো থাকবেন , অসুবিধা হলে বা টিউন এ কোন ভুল থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন । আবার দেখা হবে আর কিছুক্ষণ পরেই নতুন একটা টিউন এ (যেহেতু আমার পরিক্ষা শেষ তাই আমি এখন একদম ফ্রী) । বিদায় ।
ফেসবুক এ আমি

Level 0

আমি Raja Banerjee। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 9 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 41 টি টিউন ও 264 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

উইন্ডোজের ডিস্ক ম্যানেজম্যান্টেই তো এই সুবিধাগুলো আছে। থার্ড পার্টির তো প্রয়োজন নেই।

    @ভীতুমেঘ: ডিস্ক ম্যানেজমেন্ট দিয়ে করা যায় কিন্তু সেটা একটু কঠিন ব্যাপার আমি অনেক চেষ্টা করেও পারিনি । তার তুলনাই এটাতে অনেক অনেক সহজে করা যায় ।

এক কথায় -চমৎকার!!!
খুব সুন্দর হয়েছে, এমন সফটওয়্যার আমার খুব দরকার ছিল; শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

পরীক্ষার পর এই ছুটিতে তোমার কাছ থেকে বেশি বেশি টিউন চাই।

    @Black Dragon: অনেক ধন্যবাদ । আমার এখন পুরো ছুটি তাই নো টেনসান ।

ভাই আমি এক ড্রাইভ থেকে জায়গা নিয়ে ফ্রী স্পেস তৈরি করেছি। কিন্তু অন্য ড্রাইভ এ অ্যাড করতে পারছি না। অনেক সফট ইউজ করেছি , কাজ হয় না।

    @Kh ফয়সাল: এই সফটওয়্যারটা ইউজ করুন ১০০ % কাজে দিবে ।

      @মানুষ: যেটার জায়গা বাড়াতে চান extend partition এ ক্লিক করে take free space from ( যেটা থেকে আপনি বাড়াতে চান সেটা সিলেক্ট করুন ) । শেষের ছবিটা ভালভাবে দেখুন ।

    Level 0

    ফয়সাল ভাই, দুইটি পার্টিশন একই ফরমেট যেমন Logical-Logical অথবা Primary-Primary হতে হবে, নইলে Add করতে পারবেন না।

      @mmr.abir: কিন্তু আপনি যদি primary থেকে স্পেস unllocated করেন তাহলে কিন্তু সেটা automatically logical এ হয়ে যাবে ।

      @mmr.abir: ভাই আমি D drive থেকে নিয়ে K drive এ এড করতে চাই (দুটাই Logical-Logical) কিন্তু extend অপশন হিডেন ।

        Level 0

        D & K মাঝে কি আরও ড্রাইভ আছে? D ও K ড্রাইভ পাশাপাশি থাকতে হবে

Level 0

আমি অনেক আগে থেকেই ব্যবহার করছি, টিউনের জন্য ধন্যবাদ।

পার্টিশন ভাংলে সব ডাটা মুছে যাবে নাকি,,,,,,,,,,,,,
আমি আগে একজন কে দিয়ে পার্টিশন ভেংগে ছিলাম তখন সব ডাটা মুছে গিয়েছিল..

    @আবু বকর জিলানী: না তেমন কোন ভয় নেয় তবে আমার মতে পার্টিশন করার আগে ডাটা গুলো backup করে রাখা ভালো । আমি এ পর্যন্ত অনেক পার্টিশন করলাম ডিলিট করলাম কিন্তু কোন অসুবিধাই হয়নি আর কোন ডাটা ডিলিটও হয়নি ।

অনেক সুন্দর হইছে । অনেক কষ্টে লিখছেন , সাথে ছবি ।

কোনটা ভাল-Easeuse Partition Master নাকি Aomei Partition Assistant?

Level 0

ভাই কি যে বিপদে পরেছিলাম তা বলে বোজাতে পারবনা।

আপনার এই সফটওয়্যারটা দিয়ে আমার হার্ড ডিস্কের c drive বাদে সবগুলো drive জোরা লাগিয়ে দিলাম। কারণটা ছিল যেমন, মুভির ড্রাইভ ফুল হয়ে গেলে অন্য ড্রাইভ এ মুভি রাখতে হয়। অর্থাৎ নির্দিষ্ট ডাটা নির্দিষ্ট ড্রাইভ এ গুসিয়ে রাখতে পারসিলাম না। যাই হক ড্রাইভ গুলো জোরা লাগালাম সব ডাটা অক্ষত রেখে। কম্পিউটার এর পর কয়েকবার অফ অন করা হয়েসে , ড্রাইভ ও এর সকল ডাটা ঠিক মতই ছিল। তারপর ভাবলাম ড্রাইভ টা defragmentation করে ফেলি। যাতে করে হার্ডডিস্ক এর ডাটা গুলো সুশৃঙ্খল হয়ে থাকে। এই কাজটা আমি আগেও অনেক বার করেছি। এতে করে হার্ডডিস্ক এর স্পীড, স্বাস্থ্য, সব কিছুই ভালো থাকে। আমার যেহেতু 1TB হার্ডডিস্ক সেহেতু আমার ৬/৭ ঘণ্টার মতো সময় লাগলো। এরপর ড্রাইভটাতে ঢোকাও হয়েছে। এবং সব ফাইল ঠিক মতই ছিল। সবসময় যে সফটওয়্যার দিয়ে করতাম ঠিক ঐ সফটওয়্যারটা দিয়েই করেছি। কিন্তু কম্পিউটার রিস্টার্ট দেয়ার পর তো আমার কলিজায় পানি নাই !!!!!!!!!!!!!!! আমার D ড্রাইভ উধাও !!!!!! কিছুক্ষন খোঁজা খুজির পর পেলাম, unallocated space ৮৮1 gb এবং free space ও ৮৮1 gb। এবং ড্রাইভ টা ব্যাবহার করতে হলে formet দিতে হবে। রাত বাজে ৪ টা । স্বপ্ন দেখছি কিনা ভাবলাম। আমি এর আগেও অনেক বার defragmentation করেছি কিন্তু এমন কখনও হয়নি, নাকি ড্রাইভ গুলো জোরা লাগিয়ে বিপদে পরলাম? এখন তো মাথা নষ্ট , এই মুহূর্তে আমার সব কিছু ঐ D ড্রাইভ এ। সর্বমোট ৮৮০ গিগাবাইট ডাটা উডাও !!!! তাও শুধু আমার না, বাসার সবার। নিজের টা তো গেলই আর অন্যদের কথা ভেবে তো আমি আরও শেষ।।

নেট ঘেঁটে অনেক গুলো সফটওয়্যার ব্যাবহার করলাম কিন্তু কোন ফল নাই। কতগুলো সফটওয়্যার তো বলেই দিল ১ দিনের উপর সময় লাগবে। ৪ ঘন্টা চেষ্টা করেও কিছু করতে পারতাম না। data recovery software দিয়েও কোন কাজ হচ্ছেনা coz ড্রাইভ এর তো কোন লেটার ই নেই। formet ও দিতে পারসিনা। যদি আবার হিতে বিপরিত হয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত আপনার এই সফটওয়্যার (MiniTool Partition Wizard Professional Edition) দিয়েই D ড্রাইভ টা উদ্দার করলাম। {প্রথমে option টা খুজে পাসছিলাম না। তাই করতে পারি নি, কিন্তু পরে পেয়ে গেলাম।} মজার বেপার কি জানেন, সময় লাগলো ১ কি ২ মিনিট।

কি যে ভয় পেয়েছিলাম তা আমিই জানি। এখন পর্যন্ত গুমাতেই পারলাম না। আল্লাহর কাছে হাজার হাজার সুক্রিয়া যে ড্রাইভ তা ফিরে পেয়েছি।

উক্ত সফটওয়্যার টা দেয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিব কিনা ভাবছি। যা গেল আমার উপর দিয়ে। মাথা এখনও গুঁড়সে। ঘুম এ পরে যাচ্ছি। সামনে আবার এক্সাম।

আরেকটা কথা, সফটওয়্যারটা কিন্তু অনেক কাজের। কিন্তু সবাই দয়া করে একটু বুজে সুনে ইহা ব্যাবহার করবেন। কারণ সফটওয়্যারটা দিয়ে এমন কিছু কাজ করা যায়, যা আপনার সব তথ্য মুছে ফেলতে পারে যা আপনি পরে কোন মতেই ফিরিয়ে আনতে পারবেন না। এটা সফটওয়্যার কোন দোষ নয়। অনেকেরই ঐ কাজ টা করার দরকার পরে । তাই সেটা সফটওয়্যার এ দেয়া আছে। আপনি শুধু একটু বুজে সুনে কাজ করবেন। না বুজলে কিছু করার দরকার নেই।

(আমি অবশ্য সব কিছু বুজে শুনে করেও ধরা খেয়েসি। তবে আমার এখানে কোন দোষ নেই, তা আমি বলতে পারব।। )

ও আপনাকে ধন্যবাদ… সফটওয়্যারটার জন্য…

হুম।। সফটওয়্যার টা অনেক কাজের……… আমার আছে।