কনটেন্ট কী? কনটেন্ট এর প্রকারভেদ ও অনলাইন বিজনেসে কনটেন্ট এর গুরুত্ব 

Level 6
শিক্ষার্থী, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, গাজীপুর

কনটেন্ট হলো অনলাইন বিজনেস এর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ। আপনি যখনই অনলাইন বিজনেসকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার টিপস খুঁজবেন দেখবেন একটা কমন টিপস সবাই দিয়ে থাকে। সেটা হলো বিজনেস ওয়েবসাইট কিংবা পেইজের জন্য ভালো মানের কনটেন্ট তৈরি করা। হ্যাঁ, একটি ভালো মানের কনটেন্ট পারে আপনার সাইটে বেশি দর্শক এনগেজড করতে। আর বিজনেস সাইটে যতো বেশি দর্শক এনগেজড হবে আপনার বিজনেসের প্রচার ততো বেশি হবে। আর ব্যবসায়ের প্রচার মানেই বিক্রয়ের হার বৃদ্ধি।

'কনটেন্ট কী' এই বিষয়েই অনেকের ধারনা নেই। তাই একটি জনপ্রিয় বিজনেস ওয়েবসাইট কিংবা বিজনেস পেইজের মালিক হয়েও দর্শক এনগেজড করতে পারছে না। আজকের টিউনের মাধ্যমে জানতে পারবেন কনটেন্ট কি এবং ভালো মানের কনটেন্ট অনলাইন বিজনেস এর জন্য কতোটা গুরুত্বপূর্ণ। আরও জানতে পারবেন কনটেন্ট এর প্রকারভেদ সম্পর্কে।

কনটেন্ট কী?

কনটেন্ট এর সংজ্ঞা

কনটেন্ট কথাটির বাংলা প্রতিশব্দ হলো বিষয়বস্তু। কনটেন্ট হলো কোনো নির্দিষ্ট বিষয়বস্তুর ওপর তথ্য ও উপাত্তের সমষ্টি। একটি কনটেন্টে যতো বেশি তথ্য সংযুক্ত করা যাবে কনটেন্টটি ততো বেশি স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে এবং জনপ্রিয়তা পাবে। তবে কনটেন্টে তুলে ধরা তথ্যগুলো সুবিন্যস্ত ও বোধগম্য হওয়া বাঞ্ছনীয়। ব্যবসায়ীক উদ্যেশ্যে কিংবা জনকল্যাণমুখী কাজে সফলতা অর্জনের জন্য একটি ভালো মানের কনটেন্ট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তবে যে কোনো তথ্যকেই একটি সফল কনটেন্ট হিসেবে ধরে নেয়া যাবে না। কনটেন্ট হতে হবে কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ের ওপর শতভাগ নির্ভুল ও প্রয়োজনীয় তথ্যে সমৃদ্ধ। যাতে যে বিষয়ের ওপর কনটেন্ট তৈরি করা হয়েছে সেই বিষয় সম্পর্কে দর্শক পুরোপুরি ধারনা পায়। একটি সফল কনটেন্ট যে কোনো ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ একটি মূলধন।

কনটেন্ট এর প্রকারভেদ

কনটেন্ট এর মধ্যে যে সকল বৈচিত্র্য রয়েছে

প্রাথমিক ভাবে কনটেন্টকে দুইটি শ্রেণিতে বিভক্ত করা যেতে পারে। একটি হলো এনালগ কনটেন্ট এবং আরেকটি ডিজিটাল কনটেন্ট। তবে বর্তমানে কনটেন্ট বলতে আমরা ডিজিটাল কনটেন্টকেই বুঝে থাকি। সোজা কথা ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে যে সকল কনটেন্ট তৈরি করা হয় একে ডিজিটাল কনটেন্ট বলা হয়। এবং বর্তমানে ডিজিটাল কনটেন্টই সবথেকে বেশি ব্যবহার উপযোগী ও জনপ্রিয়।

ডিজিটাল কনটেন্ট এর মধ্যে অনেক শাখা প্রশাখা রয়েছে। যেমন: ভিডিও কনটেন্ট, অডিও কনটেন্ট, ইমেজ কনটেন্ট, টেক্সট কনটেন্ট ইত্যাদি। তবে অনলাইন বিজনেসকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাইলে ভিডিও কনটেন্ট, ইমেজ কনটেন্ট ও টেক্সট কনটেন্ট এর ওপর সবথেকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।

আপনার ব্যবসায়ের বিষয়বস্তু নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য নিয়ে ভিডিও তৈরি করে ব্যবসায়ের প্রচার করতে পারেন। এটি হবে ভিডিও কনটেন্ট। একই ভাবে আপনার ওয়েবসাইট ও বিজনেস পেইজে লেখালেখি করে ব্যবসায়ের প্রচার করতে পারেন। এটা হবে টেক্সট কনটেন্ট। আবার পণ্যের ছবির মাধ্যমে ব্যবসায়ীক উদ্যেশ্য সম্পর্কে সম্ভাব্য ক্রেতাকে ধারনা দিতে পারেন। এটা হবে ইমেজ বা ছবি কনটেন্ট।

অনলাইন বিজনেসে কনটেন্ট এর গুরুত্ব

অনলাইন বিজনেসে যে কারনে কনটেন্ট গুরুত্বপূর্ণ

অনলাইন বিজনেসকে একটু একটু করে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে ভালো মানের কনটেন্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। দর্শকদের জন্য উপকারী কনটেন্ট আপনার বিজনেস পেইজে ক্রেতা এনগেজড হতে সহায়তা করবে সেই সাথে বিক্রয় বৃদ্ধি হবে। অনলাইন বিজনেস এর জন্য কনটেন্ট এর গুরুত্ব জেনে নিন।

১. বিজনেস পেইজের ফলোয়ার বাড়বে

একটি পেইজ বা ওয়েবসাইট সেটা বিজনেস পেইজ হোক বা অন্য কোনো, যদি সেখান থেকে দর্শক উপকৃত হয় তাহংলে সেই পেইজের সাথে দর্শক নিয়মিত এনগেজড থাকে। ফলে পেইজের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পেতে থাকে। একসময় এভাবেই আপনার পেইজ বা ওয়েবসাইটটি একটি জনপ্রিয় ব্রান্ডে পরিনত হতে পারে। তাই ভালো মানের ভিডিও বা টেক্সট কনটেন্ট তৈরি করুন এবং দর্শক ধরে রাখার চেষ্টা করুন।

২. পেইজ বা ওয়েবসাইট বিশ্বস্ত অনলাইন শপ হয়ে উঠবে

অনলাইন বিজনেস এর পূর্বশর্ত হলো বিশ্বস্ততা অর্জন করা। একটি অনলাইন প্রতিষ্ঠান যতো বেশি বিশ্বস্ততা অর্জন করতে পারবে ততোই এর ব্রান্ডিং ভালো হবে। যে কেউ অনলাইনে কেনাকাটা করার আগে দেখে নেয় যে অনলাইন সাইটটি বিশ্বস্ত কিনা। নিয়মিত ভালো মানের কনটেন্ট প্রকাশ করলে আপনার প্রতিষ্ঠান সহজেই জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারবে। ফলে এটি একটি বিশ্বাসযোগ্য অনলাইন প্রতিষ্ঠানে পরিনত হবে।

৩. বিক্রয় বৃদ্ধি পাবে

সব কিছুর মূলেই রয়েছে বিক্রয়। আপনার পেইজ বা ওয়েবসাইট যতো বেশি জনপ্রিয় হবে ততোই বিক্রয় বৃদ্ধি পাবে। তাই দর্শক এনগেজড করার জন্য নিয়মিত অর্থপূর্ণ ও কার্যকরী কনটেন্ট তৈরি করুন। মনে রাখবেন আপনার পেইজে ৫০০ লোক এনগেজড থাকলে সেখান থেকে ৫০ টি অর্ডার আসতে পারে। কিন্তু এনগেজড লোকের সংখ্যাই যদি হয় ১০০ তাহলে ক্রেতার সংখ্যা কেমন হবে তা তো বুঝতেই পারছেন। তাই ক্রেতা ধরে রাখার জন্য নিয়মিত ভালো মানের কনটেন্ট তৈরি করুন। হোক সেটা ভিডিও, টেক্সট বা অন্য যে কোনো কনটেন্ট।

আপনি যদি একজন অনলাইন উদ্যোক্তা হয়ে থাকেন তাহলে আশা রাখি এই টিউনটি আপনার কাজে লাগবে। একটু আলাদা ভাবে আকর্ষণীয় ভাবে কনটেন্ট তৈরি করে দেখুন না, ক্রেতা ধরে রাখা খুব বেশি কঠিন বলে মনে হবে না। আপনার অনলাইন বিজনেস এর জন্য শুভকামনা রইল। ধন্যবাদ।

Level 6

আমি শারমিন আক্তার। শিক্ষার্থী, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, গাজীপুর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 মাস 2 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 98 টি টিউন ও 29 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 6 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস