ওয়াই-ফাই রাউটারের সিকিউরিটি বাড়াতে SSID হাইড কতটা কার্যকর?

Level 34
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

আসসালামু আলাইকুম কেমন আছেন সবাই, আশা করছি ভাল আছেন। বরাবরের মত হাজির হলার নতুন একটি টিউন নিয়ে।

আপনি বিভিন্ন ভিডিও দেখে অথবা আর্টিক্যাল পড়ে আপনার ওয়াইফাই রাউটারের সিকিউরিটি বাড়ানোর জন্য SSID হাইড রাখতে পারেন, কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এটি আপনার সিকিউরিটি বাড়াতে সাহায্য করে না। এমনকি এটি বিভিন্ন সমস্যাও তৈরি করতে পারে।

চলুন জেনে নিই SSID হাইড রাখা কতটা যুক্তিযুক্ত

হিডেন SSID সহজেই বের করে ফেলা যায়

অনেক ওয়াই-ফাই রাউটারে, SSID হাইড করার জন্য Hide অথবা invisible অপশন থাকে। এর মানে হল কোন ডিভাইস ওয়াইফাই স্ক্যান করার সময় হাইড করা নেটওয়ার্ক খুঁজে পাবে না।

রাউটার যেটা করে তা হল হাইড করা হলে নির্দিষ্ট ওয়াইফাই এর SSID নাম Becon ফ্রেমে অন্তর্ভুক্ত করে না। তবে এটি হ্যাকারদের জন্য খুবই তুচ্ছ একটি সিকিউরিটি। কোন হ্যাকার আপনার নেটওয়ার্ক ব্রেক করতে চাইলে সহজেই যেকোনো ভাবে আপনার রাউটারের SSID নাম জেনে যেতে পারে।

কেউ যখন নেটওয়ার্কে কানেক্ট হয় তখন সেটা আনইনক্রিপটেড ভাবে ব্রডকাস্ট হয়, আর তখন Wireshark এর মত ফ্রি টুল গুলো ব্যবহার করে হ্যাকাররা রাউটারের ট্রাফিক ট্র‍্যাক করে SSID বের করে ফেলতে পারে।

তো আপনি যদি হ্যাক এড়াতে SSID হাইড করার চিন্তা করে থাকেন তাহলে ভুলের মধ্যে রয়েছেন। তবে অন্য কারণে আপনি ওয়াই-ফাই নাম হাইড করতে পারেন যেমন বাচ্চাদের নির্দিষ্ট নেটওয়ার্ক থেকে দূরে রাখতে বা অন্য কারণে কিছু সেফটির জন্য SSID হাইড করার কোন মানে নেই।

SSID হাইডের অসুবিধা

ওয়াইফাই রাউটারের SSID হাইড করে আপনি আরও ঝামেলায় পড়তে পারেন যেমন, তখন নতুন ডিভাইসে অটোমেটিক আপনার রাউটার ডিসকোভার হবে না। ম্যানুয়ালি আপনাকে SSID দিয়ে কানেক্ট করতে হবে। স্মার্টফোনে Advanced সেটিংস এ গিয়ে এই কাজটি করতে হবে। তবে যেসব ডিভাইসে এত ফাংশনালিটি নাই সেসব ডিভাইসের ক্ষেত্রে বেশ ঝামেলা তৈরি হতে পারে।

কীভাবে ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্ক সিকিউর করবেন

তো এখন হয়তো বিষয়টি পরিষ্কার হয়েছেন SSID হাইড করা কোন সমাধান নয়। তাহলে কীভাবে আপনার নেটওয়ার্ক শক্তিশালী করবেন? চলুন দেখে নেয়া যাক,

  • WEP, WPA1, এবং WPA2-TKIP এনক্রিপশন মেথড গুলো এড়িয়ে চলুন
  • ওয়াই-ফাই ওপেন রাখবেন না যেখানে পাসওয়ার্ড ছাড়াই এক্সেস করা যায়
  • WPS (Wi-Fi Protected Setup), সব সময় অফ করে রাখুন এটা নিরাপদ নয়
  • Wi-Fi guest একাউন্ট ডিজেবল করে রাখুন
  • WPA2-Personal অথবা WPA3 এর মত ওয়াই-ফাই এনক্রিপশন ব্যবহার করুন
  • শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন, কেউ চাইলে তাকে পাসওয়ার্ড না বলে নিজে কানেক্ট করে দিন।
  • আপনার রাউটারে মডার্ন এনক্রিপশন সাপোর্ট না করলে রাউটার চেঞ্জ করুন।

শেষ কথা

ওয়াই-ফাইকে যথেষ্ট নিরাপদ রাখতে পারে উপরের পদক্ষেপ গুলো। এই বিষয় গুলো মেইনটেইন করতে পারলে আপনার নেটওয়ার্ক ভালই নিরাপদ থাকবে। SSID ওপেন রাখুন এটা তেমন কোন বিষয় না।

আজকে এ পর্যন্তই শীঘ্রই দেখা হবে নতুন কোন টিউনের সাথে ততদিন ভাল থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।

Level 34

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 494 টি টিউন ও 200 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 114 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস