পড়াশোনা মনে রাখার সেরা ৫ টি ব্রেন হ্যাক ট্রিক

Level 4
Sonic টিউনার, টেকটিউনস, গাইবান্ধা, রংপুর

আসসালামু আলাইকুম। টেকটিউনস এর নতুন আরো একটি টিউস এ আপনাকে স্বাগতম। আমি স্বপন আছি আপনাদের সাথে টেকটিউনস এর নতুন আরো একটি টিউনে। আমরা আজকাল পড়াশোনা মনে রাখার জন্য কতো কিছুই না করে থাকি। পড়া মনে রাখার জন্য আপনি যা যা করেন তা সবিই কি আপনাকে সন্তুষ্ট করে? হয়তো উত্তরে আপনি বলবেন না, একদম না। কারণ হিসাবে জানতে চাইলে আপনি বলবেন অনেক জোরে জোরে উচ্চারন করে পড়াশোনা করি কিন্তু পড়া মনে থাকে না কেনো? অথবা আপনি হয়তো বলবেন একটু আগে যা পড়ি একটু পরেই আর সেটা মনে থাকে না। এগুলো কিন্তু আমার আপনার জন্য কম একটি বিষয়। আমরা যারা স্টুডেন্ট আছি তারা প্রায় ৯৫% এর বেশি ছেলে মেয়ে বলবেন আমি পড়াশোনা করি কিন্তু পড়া মনে থাকে না বা পড়া হয় না। তো আজকে আমি তাদের জন্য সেরা ৫ টি ব্রেন হ্যাক ট্রিক শেয়ার করবো যা আপনি ফলো করলে আপনার ব্রেন বা মস্তিষ্ক আপনার কাছে হার মানতে বাধ্য হবে। তো চলুন আজকের পড়া মনে রাখার ব্রেন হ্যাক ট্রিক শেয়ার করা যাক।

১. পড়াশোনা মনে রাখতে পর্যাপ্ত ঘুম

পড়াশোনা মনে রাখতে পর্যাপ্ত ঘুমের বিকল্প আর কিছুই নাই। আপনাকে প্রতদিন অবশ্যই পর্যাপ্ত পরিমান ঘুমাতে হবে। অনেক বেশি রাত জেগে ফোন চাপা বা অনলাইনে ঘুরাঘুরি অথবা বেশিক্ষন ফোনে কথা বলা আপনার পড়া মনে না রাখার প্রধান কারণ হতে পারে। সারাদিনের অনেক কাজের পর আমার ব্রেন বা মস্তিষ্ক ক্লান্ত হয়ে যায়। একমাত্র ঘুমের মাধ্যমে আমাদের মস্তিষ্কের ক্লান্তি দূর হয়। তাই আমাদের মস্তিষ্ককে সার্প/ধারালো/প্রখর রাখতে পর্যাপ্ত ঘুমের কোনো বিকল্প নাই। মস্তিষ্কের ক্লান্তি দূর না করে আপনি সারাদিন পরাশোনা বা অন্য কোন কাজে ব্যাস্ত থাকলে আপনার মস্তিষ্কে পড়া ধারন ক্ষমতা কমে যেতে পারে। তাই মস্তিষ্ককে প্রখর রাখতে আপনার জন্য পর্যাপ্ত ঘুম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

২. একটু পর পর পড়া

আপনি যখন পড়তে বসেন তখন হয়তো আপনি একসাথে প্রায় ৩/৪ টা বা তার ও বেশি বই পড়ে থাকেন অথবা আপনি কোন একটি বই পড়া শুরু করলে একসাথে ২/৩ অধ্যায় একঘন্টায় পড়ে শেষ করে দেন। কিন্তু এমন কখনোই করা উচিত নয়। আপনি একসাথে অনেক বেশি নয় বরং অল্প অল্প করে বেশি সময় নিয়ে পড়া উচিত। মনে করুন আপনি একটি গল্প বা উপন্যাস এর একপাতা পরলেন। তারপর আর পড়ার দরকার নাই। এবার বই বন্ধ করে রাখুন। তারপর ওই এক পাতাই কিছুক্ষন মন দিয়ে ভাবতে থাকুন। বুঝুন সেখানে কি লেখা আছে। ওই এক পাতার মূল কাহিনি কি বা কি বোঝানো হলো সেখানে। এইভাবে একটু একটু পড়ার পর বিরতি নিয়ে ভাবতে থাকুন আবার কিছুক্ষন পর বই মেলে বাকি একটু অংশ পড়ুন, ইনশাআল্লাহ আপনার পড়া আগের থেকেও বেশি মনে থাকবে।

৩. অন্যর সাথে পড়া আলোচনা করা

আপনি যখন কোন একটা বিষয় পড়বেন তখন চেষ্টা করবেন আপনার পড়া অংশ টুকু যতোটা পারেন ২/১ জনের সাথে শেয়ার করবেন। অথবা আপনারা কয়েকজন ফ্রেন্ড মিলে একটা পড়ার আলাদা আলাদা মোষ্ট কমন বিষয় গুলো আলোচনা করুন। মনে করুন আপনার এক বন্ধুকে উপন্যাস এর যেটুকু পরলেন সেটুকুতে কি বুঝতে পারলেন সেটা তাকে আপনি বোঝানোর চেষ্টা করুন। এমনকি তাকে সেই গল্পের ভালো ভালো টুইষ্ট গুলো মজার ছলে বলার চেষ্টা করুন। এতে আপনারা পড়া মনে রাখার চাঞ্জ কয়েকগুনে বেরে যাবে।

৪. অন্য মনোযোগী না হওয়া

বর্তমানে আমাদের ডিজিটাল প্রযুক্তির যুগে এসেই কিন্তু শিক্ষার হার বেরেছে কিন্তু শিক্ষার মান কমেছে। আপনাকে আপনার মাঝে থেকে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার এর নেশা ঝেরে ফেলতে হবে। এইতো আপনার বর্তমান এর কথাই আপনি ভাবুন। এখন যদি আপনি পড়তে বসেন ১০/১৫ মিনিট পড়ার পর আপনি কি করবেন জানেন কি? হয়তো জানেন না! আমি বলছি কি করবেন - আপনি এখন ১০ মিনিট পড়ার পর অবশ্যই একবার না হয় একবার আপনার ফোন টি হাতে নিবেন আর এই সাধের ফেসবুকে কি চলছে সেটি দেখতে চাইবেন। ফলে পড়ার মাঝে আপনি অমনোযোগী হয়ে গেলেন। আর আপনার এই অভ্যাস টাই আপনার পড়া মনে থাকার মূল কারণ। আপনার মাঝে যদি এই পড়ার মাঝে ফোন চাপার অভ্যাস থেকে থাকে তাহলে সেটি বাদ দিন। নয়তো আপনি কখনো পড়াশোনা মনে রাখার যুদ্ধে সফল হতে পারবেন না।

৫. টেকনিক দিয়ে পড়া মনে রাখা

পড়া মনে রাখার জন্য নিত্যনতুন টেকনিক এর জুরি নেই। টেকনিক্যাল সিষ্টেমে পড়া আপনার ব্রেন কে কয়েকগুন বেশি পড়া মনে রাখতে সহায়তা করবে। তাই আপনি যখন কোন পড়া পড়বেন তখন সেই পড়াটা টেকনিক্যাল ভাবে মনে রাখার চেষ্টা করবেন। একটু উদাহন দিয়ে বুজানো যাক - মনে করুন আপনি বইয়ে পড়লেন ❝নাট❞ নাট মানে ❝বাদাম❞ এখন আপনি ধরুন ❝বাদাম❞ মনে রাখতে পারছেন কিন্তু ইংরেজি ❝নাট❞ টা মনে রাখতে পারছেন না। সেক্ষেত্রে আপনাকে টেকনিক খুঁজে বের করতে হবে। আপনি শুধুমাত্র আপনাকেই এই টেকনিক এর জন্মদাতা হতে হবে ❝নাট❞ মনে রাখতে হলে আপনাকে টেকনিক্যাল ভাবতে হবে যে ❝ কলের থাকে নাট❞ আর এখানে নাট মানে বাদাম। ও আচ্ছা হ্যা এইবার কিন্তু সহজেই আপনার মনে থাকবে যে বাদাম মানে কলের নাট হা হা হা আই মিন ❝নাট মানে বাদাম❞। ঠিক এইভাবেও আপনাকে পড়া মনে রাখার জন্য নিত্যনতুন টেকনিক এর জন্ম দিতে হবে। তবেই আপনার মনে রাখা কয়েকগুনে বেরে যাবে।

তো বন্ধুরা এই ছিলো আজকে আমাদের পড়াশোনা মনে রাখার সেরা ৫ টি ব্রেন হ্যাক ট্রিক। আশাকরি আজকের এই টিউন এর মাধ্যমে আপনাদের সামান্যতম হলেও উপকারে আসবে। দেখা হবে টেকটিউনস এর নতুন আরো একটি টিউনে ততোক্ষন পর্যন্ত সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আর টেকটিউনস এর সাথেই থাকবেন। আসসালামু আলাইকুম।

Level 4

আমি স্বপন মিয়া। Sonic টিউনার, টেকটিউনস, গাইবান্ধা, রংপুর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 39 টি টিউন ও 24 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

টেকনোলজি বিষয়ে জানতে শিখতে ও যেটুকু পারি তা অন্যর মাঝে তুলে ধরতে অনেক ভালো লাগে। এই ভালো লাগা থেকেই আমি নিয়মিত রাইটিং করি। আশা করি নতুন অনেক কিছুই জানতে ও শিখতে পারবেন।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস