Womp 3D – 3D মডেল তৈরি করা এখন আরও সহজ

টিউন বিভাগ টিপস এন্ড ট্রিকস
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 34
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

আসসালামু আলাইকুম টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? আশা করছি ভাল আছেন। বরাবরেই মত আজকেও চলে এসেছি নতুন টিউন নিয়ে। আজকে আমরা অলোচনা করব কীভাবে 3D মডেল তৈরি করবেন সেটা নিয়ে।

Womp 3D কী?

3D মডেল তৈরি করা এবং পাবলিশ করার অসাধারণ একটি ওয়েবঅ্যাপ হল Womp 3D। দারুণ ব্যাপার হল চমৎকার এই ওয়েবঅ্যাপটি আপনি ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। এই অ্যাপটি বিশেষ করে ব্রাউজার ফ্রেন্ডলি করে ডিজাইন করা যার ফলে যেকোনো ডিভাইস থেকে যেকোনো সময় এক্সেস করা যাবে।

3D মডেল তৈরি করতে, Womp উদ্ভাবনী এবং রিভোলেশনারি ফ্লুইড 3D ম্যাটারিয়াল ব্যবহার করবে। এই ম্যাটারিয়ালের মাধ্যমে আপনি Womp ব্যবহার করে বিভিন্ন শেইপ Melt, Merge এবং  Subtract করে জটিল জটিল 3D মডেল, এনিমেশন এমনকি 3D প্রিন্টও করতে পারবেন। এই ওয়েবঅ্যাপ এ রয়েছে কোলাব করে কাজ করার ব্যবস্থা।

Womp 3D

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট @ Womp 3D

Womp 3D এর ফিচার

চলুন Womp 3D এর ফিচার গুলো সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক

Material: এখানে রয়েছে  Goopy Fluid-like 3D ম্যাটারিয়াল। এই ম্যাটারিয়াল গুলো দিয়ে বানানো শেইপ গুলো সহজেই একে অপরের সাথে Merge এবং Subtract করা যাবে। এ ছাড়া আপনি Metal, Plastic, Glass, Jelly, Rubber জাতীয় কিছু তৈরি কররা জন্যও বিভিন্ন ম্যাটারিয়াল ব্যবহার করতে পারেন।

Lighting: এটি হাইলি কাস্টমাইজ একটি ফিচার, Womp এর সাহায্যে আপনি আপটু ১৬ টি লাইট ব্যবহার করে আপনার 3D সিন তৈরি করতে পারবেন দিতে পারবেন দারুণ Exposure এবং Shadow।

Objects: Womp এর Alpha ভার্সনে আপনি Spheres, Cylinders, Cubes এবং Curves এর মত অবজেক্ট পাবেন। অসংখ্য 3D হ্যান্ডেল ব্যবহার করে প্রতিটি অবজেক্ট এর সাইজ, শেইপ, পজিশন, তিনটি Axes এ পরিবর্তন করতে পারবেন।

Video recording: আপনি চাইলে 3D মডেল গুলোর ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন। এবং সিস্টেমে সেগুলো ডাউনলোড করতে পারবেন।

Cloud storage: মডেল তৈরি করার সময় আপনাকে সেভ করার জন্য চিন্তা করতে হবে না, অটোমেটিক্যালি আপনার ডিজাইন ক্লাউডে সেভ হতে থাকবে।

Download: আপনি আপনার মডেল গুলো বিভিন্ন ইমেজ ফরমেট যেমন PNG, JPG, TAG, BMP এবং OBJ, PLYT, STL এর মত 3D ফরমেটে ডাউনলোড করতে পারবেন।

Womp 3D এর ইন্টারফেস

এবার চলুন Womp 3D এর ইন্টারফেস নিয়ে আলোচনা করা যাক,

Womp এর ইউজার ইন্টারফেসটি বেশ সিম্পল এবং ব্যবহার করারও সহজ। ইউজার ইন্টারফেসকে কয়েকটা সেকশনে ভাগ করা হয়েছে।

Top toolbar: এখান থেকে আপনি অবজেক্ট এড করতে পারবেন, মডেলে ব্যবহার করার জন্য ম্যাটারিয়াল সিলেক্ট করতে পারবেন, ব্যাকগ্রাউন্ড কালার কনফিগারের পাশাপাশি লাইটিং ও ইচ্ছে মত সেট করতে পারবেন।

Left panel: এই প্যানেলে সকল অবজেক্ট লিস্ট করা আছে যেগুলো আপনি ডিজাইনে ব্যবহার করতে পারবেন। অবজেক্ট মোডিফাই এবং লক এখান থেকেই আপনি করবেন।

Right panel: এই প্যানেল ব্যবহার করে আপনি ভার্চ্যুয়ালি যেকোনো 3D মডেল কনফিগার করতে পারবেন। যেমন আপনি ফাকা জায়গায় ক্লিক করলে প্যানেলের মাধ্যমে আপনি লাইটিং এবং এনভায়রনমেন্ট কনফিগার করতে পারবেন। একই সাথে যেকোনো অবজেক্ট সিলেক্ট করলে আপনি ইচ্ছে মত সেটা কনফিগার করতে পারবেন যেমন শেইপ চেঞ্জ করা ব্যাকগ্রাউন্ড চেঞ্জ করা।

আপনি কোন মডেলকে ঘুরাতে চাইলে সেখানে ক্লিক করুন লেফট মাউস বাটন দিয়ে ড্র‍্যাগ করুন, Pan করতে চাইলে রাইট মাউস বাটন ব্যবহার করে ড্র‍্যাগ করুন। জুম ইন বা আউট করতে মাউস হুয়িল ঘুরান।

আপনি যখন কোন কোন অবজেক্ট এবং এর Edge এবং Vertices, এ মাউস হোভার করবেন তখন হ্যান্ডেল রিলেটেড অনেক অবজেক্ট দেখতে পাবেন। অবজেক্ট গুলো মুভ, রিসাইজ, এবং রুটেড করার মত কাজ এখান থেকে করতে পারবেন।

Womp 3D কীভাবে কাজ করে

চলুন দেখে নেয়া যাক কিভাবে আপনি Womp 3D  আপনি ব্যবহার করবেন।

প্রথমে Womp 3D এর লিংকে যান। গুগল একাউন্ট দিয়ে লগইন করুন। লগইন করার পর আপনার সামনে Womp ড্যাশবোর্ড ওপেন হবে। আপনি চাইলে কমিউনিটির ডিজাইন করা মডেল গুলো সিলেক্ট করতে পারেন অথবা সম্পূর্ণ নতুন করে শুরু করতে পারেন।

নতুন করে শুরু করতে স্ক্রিনের উপরে বাম পাশ থেকে ‘New File’ এ ক্লিক করুন।

উপরের ‘Objects’ আইকনে ক্লিক করে ব্যাসিক ব্লক যেমন, Cube, Sphere, Cylinder সিলেক্ট করতে পারেন। অন্য দের শেয়ার করা ডিজাইনও সিলেক্ট করতে পারেন।

টপ টুলবারের সেকেন্ড আইকন থেকে ম্যাটারিয়াল সিলেক্ট করতে পারেন। যেকোনো অবজেক্ট সিলেক্ট করতে সেটাতে ক্লিক করুন প্রয়োজন ম্যাটারিয়াল চেঞ্জ করুন।

ব্যাকগ্রাউন্ড কালার চেঞ্জ করতে টুলবারের তিন নাম্বার আইকনে ক্লিক করুন।

Context Sensitive Right প্যানেল এনেভল করতে যেকোনো ডিজাইনে ক্লিক করুন এই প্যানেল থেকে আপনি ইচ্ছে মত সব কিছু কাস্টমাইজ করতে পারবেন। লাইটিং বা এনভায়রনমেন্ট চেঞ্জ করতে যেকোনো ফাকা জায়গায় ক্লিক করুন এবং রাইট প্যানেল থেকে বিভিন্ন অপশন বেছে নিন। তাছাড়া টুলবার থেকে ‘Lighting’ আইকনে ক্লিক করেও একই কাজ করতে পারেন।

যেকোনো অবজেক্ট এর Shape, Size, Position, Angle ইত্যাদি মডিফাই করতে যেকোনো অবজেক্ট সিলেক্ট করুন এবং হ্যান্ডেল ব্যবহার করুন। দুটি অবজেক্টকে কাছাকাছি এনে আপনি সেটা মার্জ এবং সাবট্রেক্ট করতে পারবেন।

আপনার মডেল ডিজাইন করা কমপ্লিট হলে শেয়ার বাটনে ক্লিক করে আপনি কমিউনিটিতে এটি পাবলিশ করতে পারেন অথবা ইমেজ এবং 3D মডেলে এটি ডাউনলোড করতে পারেন।

ডিজাইনের টপ রাইট থেকে আপনি ভিউ চেঞ্জ করতে পারেন।

আপনি যদি 3D design এর ভিডিও রেকর্ড করতে চান তাহলে Share বাটনের পাশের ‘Record a video’ তে ক্লিক করুন। Stop বাটনে ক্লিক করলে ভিডিও কমপ্লিট হবে। বিভিন্ন রেজুলেশনে আপনি ভিডিও করতে পারবেন এবং সেটা লোকাল ড্রাইভে সেভ করতে পারবেন।

একটা কথা বলে রাখা ভাল, বর্তমানে Womp, গুগল ক্রোম ছাড়া অন্য কোন ব্রাউজারে সাপোর্ট করে না।

শেষ কথা

অনেক ভাবেই 3D মডেল তৈরি করা যায় তবে Womp 3D কিছুক্ষণ ব্যবহার করে এর সাথে অন্য কিছুর পার্থক্য আপনি ধরতে পারবেন। চমৎকার এই ওয়েবঅ্যাপ টি আপনাকে দেবে অসংখ্য কাস্টমাইজেশনের সাথে দুর্দান্ত 3D মডেল তৈরির অভিজ্ঞতা।

বলা যায় এই টিউনে আপনি নতুন কিছু জানতে পেরেছেন, তো আজকে এই পর্যন্তই পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভাল থাকুন আল্লাহ হাফেজ।

Level 34

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 568 টি টিউন ও 200 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 112 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস