উইন্ডোজের স্পীড বাড়াতে সেরা ৩ টি মেথড

Level 34
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

আসসালামু আলাইকুম টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? আশা করছি ভাল আছেন। বরাবরেই মত আজকেও চলে এসেছি নতুন টিউন নিয়ে। আজকে আমি আমাদের পিসির কমন একটি সমস্যার সমাধান নিয়ে এসেছি।

উইন্ডোজ ইউজাররা প্রায়ই একটি কমন সমস্যা ফেস করি আর এটা হল স্লো হয়ে যাওয়া। নতুন করে সেটআপ দেবার পর কিছুদিন ভাল মত চললেও, কয়েক মাস যাবার পর হটাৎ করেই সেটা স্লো হয়ে যায়। কেন বা কী কারণে আপনার পিসি স্লো হয়ে যায় সেটা নিয়ে আজকে আর কথা বলব না, আজকে আমরা দেখব কিভাবে দ্রুত সময়ের মধ্যে আপনার পিসিকে ফাস্ট করে ফেলতে পারবেন।

পিসি ফাস্ট করার অনেক উপায়ই রয়েছে তবে সব উপায়  সব সময় উপযোগী নাও হতে পারে। দ্রুত সময়ের মধ্যে পিসি ফাস্ট করতে আজকের তিনটি ট্রিকস আপনাকে দারুণ ভাবে সাহায্য করতে পারে। তাহলে চলুন কথা না বাড়িয়ে মূল আলোচনায় চলে যাওয়া যাক।

১. থার্ডপার্টি এন্টিভাইরাস রিমুভ করুন

উইন্ডোজ ইউজারদের মধ্যে যুগ যুগ ধরে চলে আসা একটি বড় মিথ হচ্ছে, এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার পিসিতে অবশ্যই থাকতে হবে। আগেকার সময় এই কথাটা সত্য হলেও এখন আর এটার কোন প্রয়োজন নেই। রেগুলার ইউজে এখন আর আপনার থার্ডপার্টি এন্টিভাইরাস ব্যবহার করার কোন দরকার নাই, উইন্ডোজে ডিফল্ট ভাবে দেয়া Windows Defender যথেষ্ট। Windows Defender নিয়মিত আপডেট রাখলে এটি আপনার সিস্টেমকে নিরাপদ রাখতে পারে।

এন্টিভাইরাস যেহেতু পুরো সিস্টেমের কন্ট্রোল নিয়ে নেয় সেহেতু এটি আপনার সিস্টেমকে স্লো করে দিতে পারে। এন্টিভাইরাস অধিক র‍্যাম এবং সিপিইউ ইউজ করার ফলে এই সমস্যাটি হয়।

২. সকল Bloatware রিমুভ করুন

আমরা সবাই জানি Windows 10, 11 এ ডিফল্ট ভাবে কিছু অ্যাপ দেয়া থাকে, যেগুলা আসলে কোন কাজে আসে না। এগুলাকে বলা হয় Bloatware। এই অ্যাপ গুলো একদিকে যেমন অনেক স্টোরেজ দখল করে রাখে অন্যদিকে র‍্যামও রিজার্ভ করে রাখে। তাই আপনার উচিৎ এই সমস্ত অ্যাপ ডিজেবল করা।

তো কিভাবে ডিজেবল করবেন চলুন দেখে নেয়া যাক,

প্রথমে “powershell” লিখে সার্চ করুন, অ্যাপটি খুঁজে পেলে  Run as Administrator এ ক্লিক করুন।

এবার নিচের কমান্ড কপি করে পেস্ট করুন এবং Enter দিন

iwr -useb https://git.io/debloat|iex

এটি প্রয়োজনীয় ফাইল ডাউনলোড করবে, একই সাথে ব্যাকআপ হিসেবে System Restore Point তৈরি করবে।

ফাইল ডাউনলোড হয়ে গেলে নতুন একটি উইন্ডো আসবে। এখান থেকে আপনি সহজে কিছু বিষয় ডিজেবল করে দিতে পারবেন। যেমন Cortana ডিজেবল করতে চাইলে Disable ক্লিক করে দিন।

এবার “Uninstall OneDrive” ক্লিক করে ওয়ান ড্রাইভ ডিজেবল করে দিন

এর পর  “Disable Telemetry/ Tasks“ এ ক্লিক করুন। এটা করার ফলে ব্যকগ্রাউন্ডে মাইক্রোসফটের ট্র্যাকিং ডিজেবল হয়ে যাবে। এতে রিসোর্স ইউজও কমবে এবং প্রাইভেসি ইস্যুতেও এটি কাজে আসবে।

সব শেষে আমরা Bloatware রিমুভ করব। প্রথমেই আপনি Debloat নামে অপশনটি পাবেন। Remove All এ দিলে সব অ্যাপ রিমুভ হয়ে যাবে, এটা করা উচিৎ হবে না। “Customize Blocklist“ এ ক্লিক করুন।

যেগুলো রিমুভ করতে চান সেগুলো টিক দিন। সর্বশেষ “Remove Bloatware with Custom Blocklist” এ ক্লিক করুন। কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন।

এই মেথডের পরেও কিছু অ্যাপ আনইন্সটল নাও হতে পারে যেমন ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম ইত্যাদি সেগুলো আপনি ম্যানুয়ালি আনইন্সটল করে দিতে পারেন।

৩. স্টার্ট-আপ প্রোগ্রাম ডিজেবল করুন

প্রায় সময় পিসি অন করার পর পুরোপুরি কাজের উপযোগী হতে বেশ কিছুটা সময় লাগে। আর এর অন্যতম কারণ হল, স্টার্ট-আপ প্রোগ্রাম চালু হওয়া। পিসি অন হবার সাথে সাথে এমন কিছু প্রোগ্রাম আছে যেগুলো অটোমেটিক অন হয়। আর এই জন্য অন হবার পর পরই পিসি স্লো কাজ করা শুরু করে। আপনি যদি অকাজের স্টার্ট-আপ প্রোগ্রাম অফ করে দিন তাহলে অনেকটা ফাস্ট রান হবে আপনার পিসি।

স্টার্ট-আপ প্রোগ্রাম অফ করতে, সার্চ বারে যান এবং startup লিখে সার্চ দিন > Startup Apps এ ক্লিক করুন, এবার এখান থেকে প্রয়োজনীয় অ্যাপ গুলো ছাড়া বাকি গুলোর স্টার্টআপ ডিজেবল করে দিন।

শেষ কথা

উপরের এই তিনটি কাজ করা আপনি আপনার পিসিকে আগের চেয়ে ফাস্ট করে তুলতে পারবেন। তো আপনার পিসি যদি স্লো কাজ করা শুরু করে তাহলে এখনি রিমুভ করে দিন এন্টিভাইরাস, Bloatware এবং ডিজেবল করে দিন স্টার্ট-আপ অ্যাপ।

আশা করছি এই ফোন গুলো আপনার কাছে ভাল লেগেছে, তো আজকে এই পর্যন্তই পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভাল থাকুন আল্লাহ হাফেজ।

Level 34

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 625 টি টিউন ও 198 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 93 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস