কোন ডিগ্রি বা অভিজ্ঞতা ছাড়াই গুগলে কর্মী নিয়োগের দারুণ কৌশল

Level 31
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

আসসালামু আলাইকুম টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? আশা করছি ভাল আছেন। বরাবরেই মত আজকেও চলে এসেছি নতুন টিউন নিয়ে। তো বেশি কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

এটা বলার অপেক্ষা রাখে না বর্তমানে বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে লোভনীয় জব অফার করছে গুগল। অন্যান্য টেক কোম্পানি ভাল জব অফার করেও গুগলের গ্রহণযোগ্য অন্য যেকোনো কোম্পানি থেকেই বেশি। এক সময় সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে পরিচিত হলেও বর্তমানে কোটি তরুণের ড্রিম হচ্ছে গুগলে চাকরি করা।

গুগল কর্মী নিয়োগে নতুন ফর্ম-ওয়ার্ক তৈরি করেছে। গুগলের প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্টে চাকরি পেতে এখন লাগবে না কোন ডিগ্রি, চোখ ধাঁধানো কোন সিভি, কাভার লেটার বা অভিজ্ঞতা। গুগল এখন নিয়োগ দেবে সম্পূর্ণ মেধা ও দক্ষতার ভিত্তিতে।

Google এর এই পদক্ষেপ অনেকটাই Elon Musk এর "Two Hands Test" এর মত যেখানে ডিগ্রি ছাড়াই টপ ট্যালেন্টদের খোঁজে বের করা হয়। তবে গুগল এখানে অভিজ্ঞতা ছাড়াই চাকরির সুযোগ দিচ্ছে। Google Project Management Certificate, নামের একটি অনলাইন কোর্স অফার করছে যা Coursera তে ফ্রিতে পাওয়া যায়। আর এর মাধ্যমে গুগল কর্মী নিয়োগের ট্র্যাডিশনাল পদ্ধতি কিছুটা বাদ দিয়েছে।

এই কোর্সটি শেষ হলে গুগল শিক্ষার্থীদের একটি প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্টের দায়িত্ব দেবে এবং কাজের দক্ষতার মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থী নির্ধারণ করবে, এখানে দেখা হবে না এডুকেশনাল ব্যাকগ্রাউন্ড বা পূর্বের কাজের অভিজ্ঞতা।

এর মাধ্যমে গুগল শুধু মাত্র বিশ্বসেরা প্রজেক্ট ম্যানেজার পাবে এমনটিই নয় একই সাথে সেরা প্রজেক্ট ম্যানেজার দিয়ে নেক্সট লেবেল টিম গঠন করতে পারবে।

গুগল এই পদ্ধতিতে তিনটি মুল উপাদানের উপর ভিত্তি করে বিশ্বসেরা ট্যালেন্ট খুঁজার পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে। আর গুগলের এই ফর্মওয়ার্ক অন্য যেকোনো কোম্পানিও চাইলে গ্রহণ করতে পারে।

বিশাল অডিয়েন্স থেকে যোগ্য ব্যক্তি বের করা

গুগলের এই ফ্রি প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট সার্টিফিকেশন কোর্স, প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট পজিশনটি সবার জন্য উন্মুক্ত করে দিয়েছে। উচ্চ শিক্ষা বা পূর্ব অভিজ্ঞতার মত বাধা গুলো এখানে থাকছে না, ফলে বিশাল একটা জনগোষ্ঠী থেকে যোগ্য কাউকে নির্বাচন করা যাবে।

বাস্তবতা হল এমন অনেক প্রফেশন যেখানে কাজ করতে ডিগ্রির কোন প্রয়োজন নেই। ডিগ্রির বিষয়টি বাদ দিলে কোম্পানির জন্য যোগ্য লোকটি খোঁজে পেতে সহজ হতে পারে। আমরা প্রায়ই দেখি নির্দিষ্ট বিষয়ে ডিগ্রীধারীরা অনেক সময় ভিন্ন ভিন্ন বিষয়ে পারদর্শী হয়। গুগলের এই পদক্ষেপটি তাদেরকেই খুঁজে আনতে সহায়তা করে।

এবার যদি অভিজ্ঞতার দিকে আসি, এমন অনেক ক্ষেত্র আছে যেখানে কোম্পানি অভিজ্ঞদের তুলনা অনভিজ্ঞদের থেকে বেশি সুবিধা পায়। এর উদাহরণ হতে পারে বিভিন্ন উদ্ভাবনী কাজ। যখন কোন কোম্পানি নতুন কোন কিছু উদ্ভাবন করতে চায় তখন সেই টিমে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ব্যক্তির তেমন দরকার নেই কারণ সেখানে নতুন কিছু তৈরি করা হবে। কোন কোম্পানি যখন প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে একেবারে ভিন্ন কিছু তৈরি করতে চায় তখন এই ধরনের টিমের সাহায্য নেয়। তাছাড়া ফ্রেশারদের মাথা থেকে ফ্রেশ চিন্তাধারা বের হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তাছাড়া অনেক ক্ষেত্রে দেখা গেছে সেলসে ১০ থেকে ১৫ বছরের সেলস অভিজ্ঞদের চেয়ে নতুনরা আরও ভাল পারফর্ম করে।

দক্ষতাকে বেশি প্রধান্য দেয়া

বিশাল পরিমাপ এপ্লিকেশন পাওয়া গুগলের এই ফার্মওয়ার্কের উদ্দেশ্য নয়, এর উদ্দেশ্যই হচ্ছে নির্দিষ্ট রুলের জন্য সঠিক ক্যান্ডিডেট খুঁজে বের করা। আবার এত এত এপ্লিকেশন থেকে সেরা ক্যান্ডিডেট বাছাই করা গুগলের জন্য কঠিনও হবে না। কারণ এই অনলাইন কোর্সের ফলে প্রতিটি ক্যান্ডিডেট নিজেদের পোর্টফলিও সেখানে প্রকাশ করতে পারবে।

কোর্স শেষ হবার পর সবাইকে যে এসাইনমেন্ট দেয়া হবে সেখানেই সবাই, নিজেদের চিন্তা ধারা, লিডারশীপ স্টাইল, কমিউনিকেশন স্কিল, পোর্টফলিও এর মাধ্যমে প্রকাশ করতে পারবে। যার ফলে গুগল খুব সহজেই সেরা এবং দক্ষ লোক বাছাই করার সুযোগ পাবে। সর্বোপরি কোর্সটিতে একজন ব্যক্তির রিয়েল টাইম কর্মপন্থা প্রকাশ পাবে এবং এটি নির্ধারণ করবে সে এই কাজের জন্য আসলেই দক্ষ কিনা।

আর এই ভাবে যেকোনো বিজনেস যেকোনো একাউন্টের ক্যান্ডিডেটকে খুব সময়ে স্ক্রিনিং করতে পারবে। আর এভাবে প্রশ্নের ফার্ম-ওয়ার্ক তৈরি করার মাধ্যমে কোম্পানি ক্যান্ডিডেটদের সম্পর্কে অতিরিক্ত তথ্যও সংগ্রহ করতে পারবে

কর্মী ট্রেনিং এ ইভেস্ট করা

ফর্মাল শিক্ষা ব্যবস্থার উদ্দেশ্য এমন নয় যে আপনি কোন ডিগ্রি অর্জন করেই কোন প্রতিষ্ঠানের যেকোনো রুলের জন্য যোগ্য হয়ে উঠবেন এবং কোন বিষয়ে পূর্ব অভিজ্ঞতা হয়ে যাবে। প্রতিটি বিজনেসই ভিন্ন ভিন্ন ভাবে কাজ করে আর এজন্য আপনি যেখান থেকে ডিগ্রী নিয়ে আসুন না কেন, প্রতিষ্ঠানে ঢুকার পর আপনাকে নির্দিষ্ট বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিতেই হবে। আর তাই গুগলের কোর্সের মাধ্যমে কর্মী বাছাই করা দারুণ পদক্ষেপ হতে পারে। এখানে কর্মীরা আগে থেকেই তার রুল সম্পর্কে জানতে পারবে।

এটা ঠিক যে অন্য কোম্পানি চাইলেই গুগলের মত এমন অনলাইন কোর্স সুবিধা প্রদান করতে পারবে না। তবে চাইলেই তারা কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া ট্রেনিং এবং অভিজ্ঞতার আলোকে অপটিমাইজ করতে পারে। তারা নতুন কর্মীদের দিয়ে যে কাজ করাবে আগে সেটার আগে থেকে প্রশিক্ষণ দিতে পারে।

শেষ কথা

মোট কথা নিজের মার্কেট তৈরি করতে এবং প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে এগিয়ে থাকতে আপনাকে ভিন্ন ভাবে কিছু করতেই হবে। কর্মী নিয়োগ, ফর্মাল এডুকেশন এবং অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে লিমিট না করে রেখে দক্ষতা এবং যোগ্যতাকে গুরুত্ব দিতে হবে। আর এটি করতে পারলে নতুন নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে বাজারে নিজেদের আলাদা ব্র‍্যান্ড তৈরি করা সম্ভব হবে।

Level 31

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 558 টি টিউন ও 195 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 79 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস