কাজের মাঝেই কম্পিউটার হ্যাং? এই ট্রিক্সের পরে নিমেষে PC ছুটবে ঝড়ের গতিতে

​কী কারণে কম্পিউটার হ্যাং হয়?

কম্পিউটার হ্যাং হওয়ার পিছনে রয়েছে বেশ কয়েকটি কারণ। শুধু মাত্র যে স্টোরেজ ফুল হলেই PC বারবার হ্যাং হয় এই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। এখানে জেনে নিন কী কী কারণে আপনার কম্পিউটার হ্যাং হতে পারে।

    • 1) কম্পিউটার স্টোরেজ যত বেশি হবে ততই কম্পিউটার হ্যাং হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
    • 2)একটানা কাজ করলে কম্পিউটারের RAM এর উপর মাত্রাতিরিক্ত চাপ পড়ে। যার ফলে কম্পিউটার হ্যাং হতে পারে।
    • 3) কম্পিউটারের মধ্যে প্রচুর টেম্প ফাইল জমলে কম্পিউটার হ্যাং হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
    • 4)কোনও ভাইরাস অ্যাটাক হলে হ্যাং হতে পারে।
  • 5) কম্পিউটার যেখানে চালানো হচ্ছে সেই স্থান অতিরিক্ত গরম হলে কম্পিউটার সমস্যায় ফেলতে পারে।

সমাধানের উপায়-

স্টোরেজ বৃদ্ধি-

প্রতিটি কম্পিউটারের নির্দিষ্ট পরিমাণ স্টোরেজ থাকে। কিন্তু যত দিন যায় ফাইল স্টোর করতে করতে সমস্যা তৈরি করতে হয়। কারণ স্টোরেজের পরিমাণ কমতে থাকে। সেই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে স্টোরেজের পরিমাণ বাড়াতে হবে। প্রয়োজনে ক্লাউড স্টোরেজ ব্যবহার করতে পারেন। সঙ্গে RAM-এরও পরিমাণ বৃদ্ধি করতে হবে।

ভাইরাসের আক্রমণ-

ভাইরাস আক্রমণ করলে কম্পিউটার হ্যাং হতে পারে। ফলে কম্পিউটারে সবসময় কোনও অ্যান্টি ভাইরাস ব্যবহার করতে পারেন। কারণ কোনও ভাইরাস আক্রমণ করলে অ্যান্টি ভাইরাসের মাধ্যমে তা মুছে ফেলা সম্ভব।

​নির্দিষ্ট তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা-

কম্পিউটারের প্রসেসিং ইউনিট সহ প্রতিটি যন্ত্রাংশ নির্দিষ্ট পরিমাণ তাপমাত্রা সহ্য করতে পারে। তার থেকে বেশি তাপমাত্রা হলে কম্পিউটার হ্যাং করে। সেকারণে এমন জায়গায় কম্পিউটার ব্যবহার করুন যেখানে কম্পিউটার প্রসেসিংয়ে কোনও সমস্যা না হয়।

টেম্প ফাইল-

টেম্প ফাইলের জন্য একাধিক সমস্যা হতে পারে। সেকারণে কম্পিউটারের টেম্প ফাইল ফোল্ডার নিয়মিত দেখা প্রয়োজন। এবং কম্পিউটারের টেম্প ফাইল ডিলিট করাও দরকার।

OS আপডেট রাখা দরকার-

প্রতিটি OS নির্দিষ্ট সময় অন্তর আপডেট করে। Windows এবং iOS এর ক্ষেত্রেই আপডেট পেতে পারেন গ্রাহকরা। ফলে কোনও আপডেট এলে ব্যবহারকারীদের উচিত সেই আপডেট করা উচিত। কারণ কম্পিউটারের একাধিক সমস্যার কারণে স্লো হলে OS আপডেটের মাধ্য়মে তা সমাধান করা সম্ভব। ফলে কম্পিউটার স্লো হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

Level 1

আমি শ্রাবন মজুমদার। Manager, Reputed Company, Dhaka। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 সপ্তাহ 3 দিন যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 10 টি টিউন ও 3 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 2 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস