ব্লগিং কি? কিভাবে শুরু করব? এবং কেন করব?

টিউন বিভাগ টিপস এন্ড ট্রিকস
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

ইন্টারনেট জগতে “ব্লগ” এর বয়স প্রায় ২৩ বছর শেষ হয়েছে। বর্তমানে এমন লোক খুব কমই খুঁজে পাওয়া যাবে যে ব্লগ সর্ম্পকে কিছু জানে না বা এখনো শুনে নাই। আজকে আলোচনা করব ব্লগিং এর ইতিহাস, ব্লগিং কি, কেন ব্লগিং করবেন। ব্লগিং করে কি হবে, এবং ব্লগিং কিভাবে শুরু করব ইত্যাদি বিষয়গুলো নিয়ে।

ব্লগ কি?

ব্লগ হলো এক ধরনের অনলাইন ভিত্তিক ব্যক্তিকেন্দ্রিক পত্রিকা বা সামাজিক যোগাযোগের একটি মাধ্যম। যেখানে লেখা, ছবি, ভিডিও এবং অন্য ওয়েব সাইটের লিংক ইত্যাদি থাকে। ব্লগাররা নিয়মিত তাদের সাইটে কনটেন্ট টিউন করেন আর ব্যবহারকারীরা তাদের প্রয়োজনীয় তথ্য দেখেন এবং মন্তব্য করেন।

ব্লগিং কেন করবেন?

বর্তমান সময়ে আয় করার ভালো একটি মাধ্যম ব্লগিং। ব্লগিং করে বিভিন্ন উপায়ে আয় করা যায়। যেমন: গুগল অ্যাডসেন্স, অ্যাফিলেট মার্কেটিং, বিজ্ঞাপণের জায়গা বিক্রয় করে এছাড়াও অনেক উপায় রয়েছে। উন্নত দেশগুলোতে ব্লগিং একটি জনপ্রিয় পেশা। সেখানে প্রায় সব শ্রেনীপেশার মানুষই ব্লগিং এর সাথে জড়িত। আবার অনেক ব্লগার শুধু তাদের শখের বিষয় নিয়ে ব্লগিং করে থাকে।

ব্লগিং শুরু করার ধাপ সমুহ

নতুন যারা ব্লগিং শুরু করি তাদের প্রতেকেরই প্রশ্ন থাকে ব্লগিং কিভাবে শুরু করব? আশাকরি আজকে এই আর্টিকেলটি পড়ার পরে আর এমন প্রশ্ন থাকবে না।

১. নিশ সিলেক্ট করুন

আপনি যে টপিক/বিষয়ের উপর ব্লগিং করতে চাচ্ছেন তা নির্ধারন করুন। যেমন: Health and fitness, Sports,  Technology, Science, Product review, Fashion, Travel, Lifestyle, Marketing ইত্যাদি। মানে ব্লগিং নিশ সর্ম্পকে বলে শেষ করা যাবে না। সব থেকে ভালো হচ্ছে আপনি যে বিষয় সর্ম্পকে ভালো জানেন কিংবা ভালো লাগে সে টপিক নিয়ে কাজ করুন।

২. ব্লগিং প্ল্যাটফর্ম

প্রথমেই আপনি কোন প্ল্যাটফর্মে ব্লগিং করবেন তা বেছে নিতে হবে। ব্লগিং করার অনেক অনেকগুলো প্ল্যাটফর্ম আছে। নিম্নে আমি ৪ টি সেরা ব্লগিং প্ল্যাটফর্ম সর্ম্পকে সংক্ষিপ্তভাবে আলোচনা করব।

৩. ডোমেইন নাম এবং হোস্টিং নির্ধারণ

আপনার ব্লগ সাইটের জন্য ডোমেইন নাম নির্ধারণ করাও একটি গুরুত্বপূর্ন বিষয়। কেননা এই নামেই ব্লগটি মানুষের কাছে জনপ্রিয়তা পাবে। ডোমেইন নাম আপনার নিশের সাথে মিল রেখে নেওয়াই ভালো। যতটা সম্ভব ছোট নাম নেয়ার চেষ্টা করবেন। ডোমেই নিবন্ধন করার জন্য বিভিন্ন কম্পানি বা প্রতিষ্ঠান আছে।

৪. ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করুন

যেহেতু আমি ব্লগিং প্লাটফর্ম হিসেবে ওয়ার্ডপ্রেসকে রিটিউমেন্ট করেছি। হোস্টিং সার্ভারে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করতে হবে। প্রথমে cPanel লগিন করতে হবে, Application list থেকে WordPress Manager ক্লিক করুন। তারপর Install ক্লিক করুন। ইন্সটল হওয়ার পর WordPress Admin Panel লগিন করুন।

৫. ওয়ার্ডপ্রেস থিম ইন্সটল এবং কাস্টমাইজ করুন

ওয়েবসাইট দেখতে কেমন হবে তা নির্ভর করে থিম এর উপার। আপনার ওয়েবসাইট যেভাবে দেখতে চাচ্ছেন ঠিক ওই রকম ডিজাইনের থিম ইন্সটল করতে হবে। বিভিন্ন ধরনের ফ্রি এবং প্রিমিয়াম থিম রয়েছে।

Level 1

আমি সাইদুল ইসলাম। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 9 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 10 টি টিউন ও 1 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 4 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

দাদা প্রথমেই নিজের ব্লগে টানাটানি ?