মোবাইলে সঠিকভাবে চার্জ দিবেন যেভাবে

টিউন বিভাগ টিপস এন্ড ট্রিকস
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 6
এইচএসসি ২য় বর্ষ, জুমারবাড়ী আর্দশ ডিগ্রি কলেজ, গাইবান্ধা

বন্ধুরা সবাই আশা করি আল্লাহ'র রহমতে সকলেই ভালো আছেন। আমিও আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি। বর্তমানে প্রতিদিন মোবাইল না হলে যেন এক মুহূর্ত ও চলেই না। আর এই অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহারের ফলে এর ব্যাটারি ওপর অতিরিক্ত চাপ পড়ে যায়। যার ফলে কিছুক্ষণ পরপরই দিতে হয় চার্জ। কিন্তু কিভাবে আপনি সঠিকভাবে চার্জ দিবেন?

আপনি জানেন কি আপনার ফোনটিতে ভুল ভাবো অতিরিক্ত চার্জ দিলে আপনার ফোনের ব্যাটারি এবং সেইসাথে আপনার ফোনটিও ড্যামেজ হয়ে যেতে পারে। যার ফলে আপনারা দোষারোপ করেন ফোনের নির্মাতাদের। তাই আজকে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব কিভাবে আপনি সঠিক ভাবে আপনার ফোনটিতে চার্জ করবেন এবং বাঁচাতে পারবেন আপনার স্বাদের স্মার্টফোনটি। জানতে হলে সম্পূর্ণ টিউনটি মনোযোগ দিয়ে পড়তে থাকুন।

১. সব সময় ফোনের চার্জ 20% থেকে 80% এর মধ্যে রাখবেন

কেননা এখনকার বেশিরভাগ স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয় লিথিয়াম আয়ন এবং পিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। আর এ ব্যাটারিগুলো কিন্তু একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ পর্যন্ত রিসাইকেল হতে পারে। সেটি হতে পারে কোন কোন ব্যাটারি ক্ষেত্রে ৩০০ বার ৫০০ বার ইত্যাদি। এই নির্দিষ্ট পরিমাণ পর্যন্ত ফুল চার্জ হওয়ার পর ব্যাটারি ড্যামেজ হতে থাকে। চার্জিং লেভেল আপনার ফোনে 20 থেকে 80 পার্সেন্ট এর মধ্যে রাখলে এই রিসাইকেল শেষ হতে পারে না।

আপনারা অনেক আগে শুনেছেন যে, মোবাইলের চার্জ সবসময় ০% করে তারপর ১০০% করার। যেটি একেবারে সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। এতে করে আপনার মোবাইলের ব্যাটারির ওপর মারাত্মক প্রভাব পড়ে। বরং আপনি সবসময় চেষ্টা করবেন ২০% থেকে ৩০% এর মধ্যে মোবাইলটি চার্জে দেওয়ার এবং ৮০% হলেই চার্জ থেকে ডিসকানেক্ট করার। তবে আপনি অতিরিক্ত 90% পর্যন্ত চার্জে রাখতে পারেন। তবে ভালো হয় যদি আপনি ৮০% চার্জ করার পর চার্জারটি খুলে ফেলেন।

এখন আপনার মনে হতে পারে তাহলে কি আমি কখনোই চার্জ ১০০% করবো না? অবশ্যই করবেন, তবে সেটি হতে হবে একমাস কিংবা দুইমাস পরপর। এতে করে আপনার ব্যাটারি আবার আগের অবস্থায় ফিরে যাবে। যদিও নতুন অবস্থায় ব্যাটারি যেরকম পারফর্ম করে এটা আস্তে আস্তে পুরাতন হওয়ার পর সে রকম করে না। তবে আপনি ব্যাটারিতে চার্জ করার সময় যদি এ নিয়ম অনুসরণ করেন, তবে আশা করা যায় দীর্ঘদিন আপনার ফোনের ব্যাটারি ভালো থাকবে।

২. ফোনে চার্জ দেওয়া শেষ হলে ফোন থেকে চার্জার ডিসকানেক্ট করা

ফোনে চার্জ দেওয়া শেষ হলেও অবশ্যই ফোন থেকে চার্জারটি ডিসকানেক্ট করতে হবে। কেননা আমাদের বেশিরভাগই ফোন ওভারচার্জ প্রোটেক্টেড না। সুতরাং আপনার ফোনটির যদি চার্জ ফুল হয়ে যাওয়ার পরেও চার্জার কানেক্টেড থাকে, তাহলে ওভার চার্জ হবে এবং সেইসাথে আপনার ব্যাটারি ও ক্ষতিগ্রস্থ হবে।

অনেকেই কিন্তু রাতে মোবাইল চার্জে দিয়ে ঘুমিয়ে যায় এবং সকালে চার্জ থেকে মোবাইল টি চার্জার থেকে ডিসকানেক্ট করে। এ কাজটি কিন্তু আপনারা কখনোই করবেন না। এতে করে আপনার ফোনটি ওভার চার্জিং হবে এবং আপনার ফোনের ব্যাটারি এবং হার্ডওয়ার ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

৩. মোবাইলে সবসময় অরিজিনাল চার্জার দিয়ে চার্জ করা

mobile original charger

মোবাইলে চার্জ দেওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই অরিজিনাল চার্জার দিয়ে চার্জ করা উচিত। এক্ষেত্রে আপনার মোবাইলের সঙ্গে যে চার্জারটি দেওয়া হয়েছে সেটি দিয়ে চার্জ করুন। আসল চার্জার ব্যবহার না করলে ধীরে ধীরে ব্যাটারির চার্জ ধরে রাখার ক্ষমতা কমতে থাকে।

এছাড়া অনেককেই দেখা যায় তার ফোনের অরিজিনাল চার্জার নষ্ট হয়ে গেলে বা হারিয়ে গেলে, বাজার থেকে কম দামি একটি চার্জার কিনে নেয়। কম দামি সস্তা চার্জারগুলোতে কম নিরাপত্তাপদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। সবসময় কম দামি বা সস্তা চার্জার বর্জন করুন। কারণ এ সব সস্তা চার্জারে কোনো নিরাপত্তাপদ্ধতি ব্যবহার করা হয় না। এতে করে আপনার মোবাইলটি অতিরিক্ত গরম হয়ে যেতে পারে। যেটি আপনার ফোনের ব্যাটারির জন্য মারাত্মক প্রভাব ফেলে। শুধু ব্যাটারিই নয় বরং এটি আপনার মোবাইলের হার্ডওয়্যার এর জন্যও ক্ষতিকর।

এছাড়া সস্তা চার্জার ব্যবহারে ফলে আপনি আপনার স্মার্টফোন ও ব্যাটারির বিপদ ডেকে আনতে পারেন। এতে করে অনেক সময় আপনার ফোনে বিস্ফোরণ ও ঘটতে পারে। যদিও অরিজিনাল চার্জার সহজে নষ্ট হয়না। তবুও যদি কোনো কারণে আপনার চার্জারটি নষ্ট হয় কিংবা হারিয়ে যায়, তবে আপনি আপনার ফোনের ব্রান্ডের সাথে মিল রেখে একটি চার্জার কিনে নিবেন। আর যদি তা না পান, তবে বাজার থেকে ভালো মানের একটি চার্জার কিনে চার্জ দিবেন।

দ্রুতগতির বা ফাস্ট চার্জার ব্যবহারে সতর্ক থাকুন

আপনার ফোনে যদি ফাস্ট চার্জিং এর সুবিধা না থাকে তবে আপনি কখনোই ফাস্ট চার্জার ব্যবহার করবেন না। দ্রুতগতিতে চার্জ হয় এমন চার্জার কিন্তু মোটেও সুবিধাজনক নয়। আপনার স্মাটফোনের ব্যাটারি এবং মোবাইল ভালো রাখতে অবশ্যই দ্রুতগতির চার্জার ব্যবহারের সময় সতর্ক থাকতে থাকুন। কারণ ফাস্ট চার্জার বা দ্রুতগতির চার্জার ফোনের ব্যাটারিতে উচ্চ ভোল্টেজ পাঠায় যা ফোনের ব্যাটারি এবং ফোনের তাপমাত্রা দ্রুত বাড়ায়।

৪. মোবাইল চার্জের সময় সুরক্ষা কেস খুলে রাখুন

mobile case

অনেকেই তার মোবাইলকে সুরক্ষার জন্য কেসিং ব্যবহার করে থাকে। আপনি যখন ফোন চার্জে দিবেন, তখন অবশ্যই সুরক্ষা কেস খুলে রাখবেন। কেননা চার্জের সময় ফোন অতিরিক্ত গরম হয় এবং সে সময় যদি আপনি কেসিং ব্যবহার করেন, তবে তাপ আটকে যেতে পারে। আর ফোনে তাপমাত্রা বাড়া মানে ফোনের ব্যাটারির উপর প্রভাব পড়া। তাই আপনি ফোন চার্জিং এর সময় সুরক্ষা কেস খুলে তারপর চার্জে দিবেন।

সর্বশেষে যে কথাটি না বললেই নয়, সেটি হলো চার্জে দেওয়া অবস্থায় কখনোই আপনার ফোনটি ব্যবহার করা উচিত নয়। এর ফলে আপনার ফোনে একসঙ্গে চার্জিং এবং ডিসচার্জিং এর ফলে আপনার ফোনের ব্যাট্যারির কর্মক্ষতা কমতে থাকে।

বন্ধুরা এই ছিল ফোন চার্জিং সম্পর্কে ছোট্ট একটি টিউন। আশা করছি টিউনটি আপনাদের কাছে অনেক ভালো লেগেছে। দেখা হবে পরবর্তী টিউনে আরো নতুন কিছু নিয়ে ইনশাআল্লাহ। সম্পূর্ণ টিউনটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

Level 6

আমি আতিকুর ইসলাম। এইচএসসি ২য় বর্ষ, জুমারবাড়ী আর্দশ ডিগ্রি কলেজ, গাইবান্ধা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 123 টি টিউন ও 51 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 13 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 2 টিউনারকে ফলো করি।

মানুষ পৃথিবীতে জন্মগ্রহণ করে। তারপর কিছুদিন সুখ-দুঃখ ভোগ করে। তারপর মৃত্যুবরণ করে। এটাই মানুষের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস। আমিও সেরকম একজন


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

টিউন শেয়ার করে সাবমিট করা হয়নি। টিউন শেয়ার করে সাবমিট করুন।