ছোট দুটি টিপস ও একটি প্রশ্ন

আসসালামু আরাইকুম, কেমন আছেন টিউনার ভাইয়েরা । আশা করি ভাল আছেন । আমিও ভাল আছি । আজ আমি কম্পিউটার এর দুটি ছোট টিপস দিব । জানিনা এ বিষয়ে আগে কেউ টিউন করেছে কিনা । যদি করে থাকেন তবে আমি আগেই ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি । তাহলেল শুরু করি :
১ । আপনি কম্পিউটারে বসে কাজ করছেন । হঠাৎ দেখা গেল মাউস কাজ করছে না কিন্তু এখনই আপনাকে কাজটি শেষ করতে হবে । তাহলে উপায় কি ? উপায় হল উইন্ডোজের সেটিংস পরিবর্তন করে আমারা কার্সর এর মুভমেন্ট করে কাজ করতে পারি । এজন্য কিবোর্ড থেকে এক সঙ্গে left alt + left shift এবং num lock কি চাপুন । মনিটরে একটি পপ আপ উইন্ডো আসবে । ok করুন । তারপর num button সক্রিয় করুন । এখন ডান পাশের ১ ২ ৩ ৪ ৫ ৬ ৭ ৮ ৯ বাটনগুলো দিয়ে মাউসের কার্সর মুভ করানো যাবে । আর ৫ বাটন দিয়ে মাউসের লেফট ক্লিক এবং + বাটন দিয়ে মাউসের ডাবল ক্লিকের কাজ করা যাবে । আর ডানপাশের Ctrl বাটনের বামের বাটনটি মাউসের রাইট ক্লিক বাটন হিসেবে কাজ করবে । কাজ শেষে num lock অফ করলে মাউস কি সুবিধাটি ডিজ্যাবল হয়ে যাবে ।

২। ধরুন আপনি কোন ডকুমেন্ট লিখছেন আর মাত্র দুই লাইন বাকি এসময় আপনার কীবোর্ড কাজ করছেনা । কিন্তু লেখাটা তখনই শেষ করতে হবে । তবে উপায় ? উপায় হল উইন্ডোজের অন স্ক্রীন কীবোর্ড । অন স্ক্রীন কীবোর্ড চালু করার জন্য উইন্ডোজের start মেনুতে গিয়ে all program > Accessories > Accessibility > on screen keyboard এ ক্লীক করুন । এবার মনিটরে একটি ভার্চুয়াল কী বোর্ড হাজির হবে । যা লিখতে চান মাউসের সাহায্যে ওই কীবোর্ডের বাটনগুলোতে ক্লিক করে লেখার কাজ করতে পারবেন ।

একটি প্রশ্ন : বলুন একটি দেখি একটি বৈদ্যুতিক পাখা আস্তে ও জোরে ধুরলে উভয় ক্ষেত্রে কি একই বিদ্যুত খরছ হবে না কম বেশি হবে ?

Level 0

আমি ছাত্র ও শিক্ষক। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 12 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 54 টি টিউন ও 1010 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

তুমি যদি শিক্ষিত হও,অশিক্ষিতকে আলো দেবে। না পারলে তুমি অহংকার করবেনা,তুমি দূর্ব্যবহার করবেনা,বিনয়ের সঙ্গে কথা বলবে,তুমি শিক্ষিত বলেই এ তোমার অতিরিক্ত দায়।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

আস্তে ঘুরলে কম পাওয়ার খরচ হবে।

    প্রোগ্রামার আপনি ভুল বলেছেন।
    কারণ উত্তরটা হবে একই পরিমান বিদ্যুৎ খরচ হবে।

Level 0

প্রশ্নের উত্তরটি হচ্ছে,একটি Electric fan জোরে বা ধীরে যেভাবেই ঘুরুক না কেন বিদ্যুত্‍ কিন্তু একই খরচ হবে।Helo…? এই যে আপনাকেই বলছি আমার একটি Pertime job দরকার.যদি কেহ ভাল কোন Address দিতেন আজীবন মনে রাখব।cell phone 01723268324 অথবা Email: [email protected]

একটি বৈদ্যুতিক পাখা আস্তে ও জোরে ঘুরলে উভয় ক্ষেত্রে কি একই বিদ্যুৎ খরচ হবে। যদি ফ্যানটি কন্ট্রল করা হয় একটি রেগুলেটর দিয়ে যার কারনে এটি জোরে বা আস্তে ঘুরে। তাহলে এটিতে সমপরিমাণ বিদ্যুৎ খরচ হবে। কারন সমপরিমান বিদ্যুৎ খরচের মাঝে রেগুলেটরটি কেবলমাত্র বাঁধা হিসেবে কাজ করছে।

    বাঁধা হিসেবে ব্যবহার করলেন ভালো কথা …. তাহলে আবার সমান বিদ্যুৎ কিভাবে পাস হবে?

আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে বলে,
এখানে দুইটা দিক আছে,
১।পাখা যদি ২২০ এর হয় তাহলে বিদ্যুত আপনার ২২০ খরচ হবে পাখা আস্তে চললেও এতে কম হবেনা কারন মটর আপনার ২২০ এর।
২।আর যদি পাখা জোরে বা আস্তে চলে তা হলে আপনার এম্পেয়ার বেশী বা কম খরচ হবে এর ফলে আপনার মিটারও জোরে অথবা আস্তে ঘুড়বে এবং আপনার বিদ্যুৎ বিলও কম বা বেশী হবে সেই বিসাবে বিদ্যুতের খরচও কম বেশী হবে।

    আরেকটা কথা বলে দরকার ছিল,
    আপনার মটরের আউটপুট লোডিংয়ের উপর নির্ভর করে বিদ্যুৎ খরচ,
    লোডিং বেশী হলে বিদ্যুৎ বেশী আর কম হলে বিদ্যুৎ কম খরচ হবে।
    সেই হিসাবে পাখা জোরে ঘুরলে বিদ্যুৎ বেশী খরচ হওয়ার কথা আর আস্তে ঘুরলে কম খরচ হওয়ার কথা।

    এইটা টু দ্যা পয়েন্ট জবাব হয়েছে ………..

    sundor bolsen ataur vai 🙂

    আপনি কি ২০০ ভোল্ট বলতে চেয়েছেন ?

SORRY AMI BANGLATEI LIKHTE CHACCHHIILAM BUT LIKHTE KICHU PROBLEM HOWATE ENGLISHE LIKHSI.PLS MAF KORBEN.
JEHETU ELECTRIC FAN IS A CAPACITIVE START MOTOR, THATS WHY AT THE BEGINING IT WILL DRAW HIGH CURRENT….
BUT AFTER THAT AS THE FAN GETS UP TO SPEED ACCORDING TO LENZ LAW THERE WILL BE A
BACK EMF WHICH WILL HIGHY OPPSE THE MAIN FIELD CURRENT AND IT WILL REDUCE.
MANE AMAR MOTE EKHANE ELECTRICITY KHOROCH KOM HOBE.

Level 0

একটি Electric fan জোরে বা ধীরে যেভাবেই ঘুরুক না কেন বিদ্যুত্‍ কিন্তু একই খরচ হবে।কারন রেগুলেটর resistance হিসাবে কাজ করে ।ফ্যান জোরে ঘোরার সময় resistance কম থাকে।আর আস্তে ঘোরার সময় resistance বেশি থাকে।resistance বেশি থাকলে ফ্যানের মটরে বিদ্যুত কম পৌছায় ।আর তাই ফ্যান আস্তে ঘোরে।কিন্তু resistance (রেগুলেটর ) যেহেতু বিদ্যুত অপচয় করছে তাই মিটারে বিল কিন্তু ঠিকই উঠবে।

জি-বাংলায় সৌরভ গাঙ্গুলীর যে “দাদাগিরি” অনুষ্ঠানটি হয় সেখানে নিম্নোক্ত প্রশ্নটি করা হয়েছিল…

প্রশ্নঃ কখন বিদ্যুৎ বেশী খরচ হয়?
a) পাখা জোরে ঘুরলে b) পাখা আস্তে ঘুরলে

উত্তরঃ b) আস্তে ঘুরলে

পাখা আস্তে ঘুরলে বিদ্যুৎ বেশী খরচ হয়…

রহুল ভাই ও ইউসুফ ভাইয়ের ব্যাখ্যা যথার্থ হয়েছে । এখানে আমি একটু যোগ করি তাহলে বিষয়টা আরও ক্লিয়ার হবে । মনে করি একটি ফ্যান জোরে ঘুরছে তখন বিদ্যুত প্রবাহ হচ্ছে ২০ অ্যাম্পিয়ার ।
এখন রেগুলেটর ধুরিয়ে ফ্যানের পাওয়ার কমিয়ে দেয়া হলো । যেহেতু রেগুলেটর রেজিসটেন্স বা বাধা হিসেবে কাজ তাহলে তখন বিদ্যুত প্রবাহ ও কম হবে । মনে করি তখন বিদ্যুত প্রবাহ হচ্ছে ১৫ অ্যাম্পিয়ার।
তাহলে দেখা যাচ্ছে বিদ্যুত প্রবাহ ৫ অ্যাম্পিয়ার কম তবে তো বিদ্যুত খরচও কম হওয়ার কথা । এর ব্যাখ্যা হলো যখন রেগুলেটরের মাধ্যমে বিদ্যুত প্রবাহে বাধা দেয়া হয় তখন কিছু তাপ উৎপন্ন হয় । এই
তাপ উৎপন্ন হতে ওই ৫ অ্যাম্পিয়ার বিদ্যুত খরচ হয় । ফলে পাখা জোরে বা আস্তে যেভাবেই ঘুরুকনা কেন বিদ্যুত খরচ একই হবে ।

আমার চিন্তা ধরা অনুযায়ী বিদ্যুত খরচ কম হলেও রোধক কাজ করলে তা সম পরিমান বিদ্যুত খরচের পর্যায়ে আসে। {আপনাদের সকলকে সুন্দর মন্তব্য দেয়ার জন্য ধন্যবাদ} মুক্তা বগুড়া।

তবে পাখা জোরে বা আস্তে ঘুরুকনা কেন সম পরিমান বিদ্যুত খরচ হবে। এটি সঠিক , মুক্তা, বগুড়া।

সবাইকে অনেক ধন্যবাদ ।

সম পরিমান বিদ্যুত খরচ হবে।

———————————————-মোটরসাইকেল ফার্স্ট গিয়ারে চালালে তেল বেশি খায়—————————————— ফ্যান ধীরে ঘুরলে শক্তি বেশি লাগার কথা। সুতরাং বিদ্যুত খরচ একই হবে।

অনেক যুক্তি-তর্কের মাধ্যমে আমরা একটি সঠিক সিদ্ধান্তে উপনিত হতে পেরেছি। দেশের সব কিছু যদি এমন সুন্দর যুক্তি-তর্কের মাধ্যমে সমাধান করা সম্ভব হত!! 🙂

আমার মাথাই ঘুড়ায়!

Level 0

jodi ragulater lagona thaka thalo কম পাওয়ার খরচ হবে।