কম্পিউটার এ থাকা সব রকমের ভাইরাস দূর করার উপায়!

কম্পিউটার ব্যবহারকারীর মধ্যে আমরা অনেকেই জানি উইন্ডোজ সেটাপ দিলে শুধু সিস্টেম ড্রাইভ অর্থাৎ যে ড্রাইভে অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করা আছে সেটি ফরম্যাট হয়। অন্য ড্রাইভগুলো অপরিবর্তিত থাকে। ফলে সিস্টেম ড্রাইভে যদি ভাইরাস থাকে, তা ডিলিট হয়ে যায়, কিন্তু অন্য ড্রাইভের ভাইরাস গুলো আগের মতই পিসিতে সংসার বেঁধে বসে থাকে। তার উপর অনেক ভাইরাস এতই মারাত্বক হয় যে, তার জন্য এন্টিভাইরাসই ইন্সটল করা যায় না, তাহলে পিসির এসব ভাইরাস পিসিতেই থাকবে।

আপনার প্রশ্নঃ তাহলে কি পিসি ফরম্যাট করা (কম্পিউটারের সব ডাটা জলাঞ্জলি দেয়া) ছাড়া কোনো উপায় নেই?

উত্তরঃ অবশ্যই আছে। সাধারণত যে সকল ভাইরাস আপনার পিসিতে এন্টিভাইরাস ইন্সটল করতে দেয় না বা আপনার এন্টিভাইরাস দিয়েও যায়না তার কারণ, তারা আপনার পিসিতে সক্রিয় আছে বলেই তারা আপনাকে এন্টিভাইরাস ইন্সটল করা থেকে বিরত রাখতে পারে আর আপনার এন্টিভাইরাস এর ক্ষমতাকেও হারাতে পারে। সুতরাং, এমন কিছু করতে হবে যেনো, ভাইরাসগুলো সক্রিয় না থাকে।

পিসিতে ভাইরাস তখনই সক্রিয় হয়, যখন আপনি আপনার পিসির ড্রাইভগুলো ওপেন করেন। ধরুন, আপনার পিসিতে সিস্টেম ড্রাইভ ছাড়া অন্য ড্রাইভে ভাইরাস আছে। এখন আপনি যদি ওইন্ডোজ সেটাপ দিয়ে আবার আপনার ড্রাইভগুলো ওপেন করেন, তাহলে ভাইরাসগুলো আবার সক্রিয় হবে।

ভাইরাস দূর করার উপায়

১) প্রথমেই আপনি উইন্ডোস সেটাপ দিন।

২) এখুনি মাদারবোর্ডের সিডির সফটওয়্যারগুলো (সাউন্ড, ল্যান, চিপসেট, ভিডিও) ইন্সটল করবেন না।

৩) ওইন্ডোজ সেটাপের পরে প্রথম যখন কম্পিউটারটি অন করবেন তখন “MY Computer” এ বা এর কোনো ড্রাইভেও যাবেন না। এর ফলে আপনার পিসির ভাইরাসগুলো সক্রিয় হবে না।

৪)এখন এন্টিভাইরাসের সিডি অথবা পেনড্রাইব থেকে এন্টিভাইরাস সফ্টওয়্যারটি ইন্সটল করুন। পেনড্রাইভ কম্পিউটারে প্রবেশ করানোর সময় shift প্রেস করে রাখুন যেনো তা নিজ থেকেই ওপেন না হয়।

৫) এখন “MY Computer” থেকে প্রত্যেকটি ড্রাইভ থেকে স্ক্যান করলেই ভাইরাস গুলো মুক্ত হয়ে যাবে। তবে সতর্ক থাকতে হবে যে স্ক্যান করার আগে যেন কোন ড্রাইব ওপেন না হয়। এতে অন্যড্রাইভের ভাইরাসগুলো সক্রিয় হয়ে যেতে পারে।

এই নিয়মে আপনার কম্পিউটারের অনেক ভাইরাস চলে যাবে আশা করি। আর আপনার উইন্ডোস এর সিডি যদি Auto-MotherBoard Software গুলো ইন্সটল করে তবে আপনাকে এমন এক সিডি নিতে হবে যেটা তা করেনা। একবার কাজটা করে ফেলে আপনি আবার আপনার পছন্দের ভার্সন এ চলে যেতে পারেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

এই পদ্ধতি একেবারে বেসিক নিয়মে ভাইরাস দূর করার উপায়। ভাইরাস দূর করার আরও অনেক এডভান্স নিয়ম ও কৌশল আছে। আমি একেবারে Newbie ইউসারদের জন্য এই পদ্ধতি উল্লেখ করলাম এবং ভবিষ্যতে Advance নিয়ম নিয়ে টিউন করার চেষ্টা করবো। 

♥ এন্টিভাইরাস এর ক্ষেত্রে আমি সাজেশন দেবো "Avira Antivirus" নিতে যদি আপনি বিনামূল্যে পেতে চান আর যদি টাকা দিয়ে নিতে হয় তবে "Kesparsky" অথবা "Bitdifender" নিয়ে নিন।

OFF Topic - ক্যাকটাস টিম

২১শে ফেব্রুয়ারী ক্যাকটাস টিম এর কার্যক্রম শুরু হয়েছে যারা আপনাকে বিনামূল্যে অনলাইন বিষয়ক কাজ শেখাবে। তাদের প্রশিক্ষণের অন্তর্ভুক্ত কিছু কাজঃ ♥ বাংলা ব্লগ ♥ বাংলা সাবটাইটেল ♥ উইকিপিডিয়া বাংলা ♥ গুগল ম্যাপ ইন বাংলাদেশ ♥  বাংলা ডাবিং অফ ইংলিশ মুভি ইত্যাদি।  আপনি যদি এসব কাজে আগ্রহী হন, আপনার যদি এসব কাজ করতে কোন সমস্যায় পড়েন বা আপনি যদি এসব কাজ শিখাতে ইচ্ছুক হন তাহলে আপনাকে এসব শিখতে/অন্যদের শিখাতে সাহায্য করবে বাংলাদেশ ক্যাকটাস টিম এই টিম আপনাকে পথ দেখাবে আপনার লক্ষ্য পূরণে এক পা সামনে আগাতে আর তা সফল করতে। ফেসবুকে এই গ্রুপ আপানাকে এসব বিষয় ছাড়াও বাংলা বিষয়ক অনলাইন শিক্ষা দেবে আর যারা এসব বিষয় এর যেকোনো একটি বিষয় সম্পর্কে ধারণা রাখে তাদের এক করে একটি দল তৈরি করবে। এই টিম সম্পর্কে বিস্তারিত গ্রুপে দেওয়া আছে। আপনি যদি আগ্রহী হন তাহলে যুক্ত হতে পারেন এই গ্রুপে।

Cactus Team

Level 0

আমি আদিল শাহরিয়ার। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 9 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 20 টি টিউন ও 113 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি একটু বেশিই অসামাজিক।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Best Anti Virus:
MSE for XP and 7
Defender for Windows 8
ভাইরাসের দিন শেষ! গত ৪ বছরে আমি এটাকে অনুভবই করি নাই! =D