আপনি কি ল্যাপটপের যত্ন নেন – জেনে রাখা খুবই দরকার

বর্তমানে ল্যাপটপ খুব জনপ্রিয়। বিশেষ করে এর বহন ক্ষমতাটা একে এ জনপ্রিয়তা এনে দেয়। তবে এ প্রিয় জিনিসটি ঠিকভাবে যত্ন নিতে না পারলে বা না জানলে অকালেই মৃত্যুর কোলে চলে যেতে পারে। বিশেষ করে যারা নতুন তাদের জন্য খুব খারাপ সংবাদ এটি। তাই আমি তাদেঁর জন্য এ লেখাটা লেখছি। সময়ের পরিবর্তনে ল্যাপটপের ফিচার বাড়ছেই। তাই এর গুরুত্ব বুঝে যত্ন নেয়া দরকার।

অত্যধিক গরমঃগরম হলো ল্যাপটপের সবচেয়ে বড় এবং কঠিন সমস্যা। ডেস্কটপের চেয়ে ল্যাপটপ খুব বেশি এবং তারাতারি গরম হয়ে যায়। এর ফলে হ্যাং হওয়া, ঘন ঘন রিস্টার্ট হওয়া সহ নানা সমস্যা দেখা দেয়। এমনকি কোন অভ্যন্তরীন পার্টস অতি তাড়াতড়ি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। ল্যাপটপের পার্টসগুলো কিন্তু খুব সহজলভ্য বা সস্তা নয়। তাছাড়া ডেস্কটপের মত ইচ্ছেমত যখন ইচ্ছা খোলা যায় না। তাই গরম থেকে সাবধান। নিন্মে কয়েকটি পদ্ধতি বললাম।

১। খোলামেলা, বাতাস চলাচল করতে পারে বা এসির ব্যবস্থা আছে এমন জায়গায় ল্যাপটপ ব্যবহার করুন। এর মাধ্যমে ল্যাপটপকে ২০% থেকে ৩০% পর্যন্ত ঠান্ডা রাখতে পারবেন।২। ল্যাপটপের কুলিং ফ্যান থাকে নিচে যেটা দিয়ে ভিতরের তাপ অপসারন করা হয়। সাইটেও থাকতে পারে। তাই ল্যাপটপ এমন জায়গায় বসান যেখানে নিচে তাপ চলে যাওয়ার ব্যবস্থা আছে। কারণ ল্যপটপের নিচে যে ফাঁকা জায়গা থাকে তা তাপ অপসারনের জন্য যথেষ্ট নয়। এতে সহজে এটি গরম হয়ে যায়। কখনো ল্যাপ/তোশকের উপর ল্যাপটপ চালাবেন না।

৩। ল্যপটপের জন্য এখন কতগুলি কোলার মেসিন এসেছে। দাম হাজার এর ভিতর। এটা ব্যবহার করতে পারেন। এর মাধ্যমে ল্যপটপকে কিছুটা ঠান্ডা রাখা  যায়। বিশেষ করে Compaq ব্রান্ডের মত ল্যাপটপগুলোর জন্য এটি ভাল কাজ করে। কারণ এ ব্রান্ডের পিসিগুলো অতিদ্রুত গরম হয়ে যায়।

৪। চার্জ দেওয়া অবস্থায় ল্যাপটপ চালালে ল্যাপটপ খুব তাড়াতাড়ি গরম হয়ে যায়। তাই অন্য কোন সমস্যা না থাকলে ব্যাটারিতে চার্জ দিয়ে ব্যাটারি থেকে ল্যাপটপ চালান। এতে ব্যাটারি ডিসচার্জ (ব্যাটারির চার্জ শেষ করা) করারও সুযোগ পাবেন। ( টিপসটি'র উপর আমাদের অভিজ্ঞ বন্ধুরা মতামত ব্যক্ত করেছেন। তাই নিচে সবার মন্তব্যগুলো পড়ার অনুরোধ করছি।)

৫। অনেকে কিপ্যাডের উপর ধূলাবালি না পড়ার জন্য কভার ব্যবহার করে থাকেন। এর কারণে ল্যাপটপ উপরের দিকে যে তাপ ছড়াই তা বের হতে পারেনা। তাই এটি অতি প্রয়োজনীয় না হলে ব্যবহার করবেন না।

৬। ল্যাপটপ বন্ধ করে সাথে ব্যাগে ঢুকাবেন না। ১০/১৫ মিনিট বাইরে রেখে দিন। এতে এটি ঠান্ডা হবে তাড়াতাড়ি।

ব্যাটারির যত্নঃঅনেকের মনে প্রশ্ন জাগে কোন ব্যাটারিতে চার্জ বেশি থাকে। আসলে চার্জ থাকা নির্ভর করে ব্যাটারির সেলের উপর। যে ব্যটারিতে যত বেশি সেল আছে তাতে তত দীর্ঘক্ষণ চার্জ থাকে। সাধারণত ব্যাটারি ৬ সেল (সম্ভবতঃ) বিশিষ্ট হয়। তবে আরও বেশি সেলের ব্যাটারিও আছে। যদিও প্রস্তুতকারকেরা এ ব্যাটারিগুলো সাপ্লাই দেয় না। এতে অনেক্ষণ ব্যাকআপ পাবেন ৬ সেলের ব্যাটারির চাইতে। তবে ব্যাটারিকে একটু যত্ন নিলে এর স্থায়িত্ব বাড়ে।

* নতুন যখন ব্যাটারি কিনবেন তখন একে নির্দেশনা অনুযায়ী ফুল চার্জ দিন যত ঘন্টা দরকার (সাধারণত ৩ ঘন্টা)। আর তা যদি একটানা দিতে পারেন (বাংলাদেশে তা একটু কষ্টকর বটে) তা হলে সবচেয়ে ভাল। প্রয়োজনে খুব ভোরে দিন যখন বিদ্যুত থাকে।

* চার্জ ফুল হয়ে গেলে চার্জার খুলে ফেলুন। অযথা চার্জে লাগিয়ে রাখবেন না। এতে ব্যটারির কার্যক্ষমতা তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়, মেশিনের জন্যও ক্ষতিকর।

* নতুন নেওয়ার পর অন্তত ৩/৪ বার ডিসচার্জ করে (চলতে চলতে চার্জ শেষ হয়ে একেবারে বন্ধ হয়ে যাওয়া) ফুল চার্জ দিন। আর তা সম্ভব হলে মাসে বা ২ সপ্তাহে ১ বার ডিসচার্জ করুন।

বিঃদ্রঃ মোবাইলের ব্যাটারিতে ও এপদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন।

সফটওয়ারগত সমস্যাঃল্যাপটপগুলো যেহেতু ভিস্তা পরবর্তী অপারেটিং সিস্টেম কমপেটিবল করে তৈরি করা হয়। তাই এতে ভিসতাপূর্ব ভার্সন যেমন এক্সপি সেটআপ হয়না। তাছাড়া আছে মাদারবোর্ড ইন্সটল করতে ঝামেলা। মেশিনের সাথে মাদাবোর্ড সিডি থাকেনা বিধায় মাদারবোর্ড নিয়ে ঝামেলা হয়। এজন্য আমার এক্সপি সেটাপ দিনযেকোন ল্যাপটপে পোষ্টটি দেখতে পারেন। তাহলে এক্সপি ভালভাবেই চালানো যায়।

আঘাত ও ধূলাবালি মুক্তঃল্যাপটপকে আপনি কাচের গ্লাসের সাথে তুলনা করতে পারেন। তাই যত সম্ভব একে যেকোন আঘাত থেকে মুক্ত রাখুন। বিশেষ করে এর পর্দা। এর পর্দা খুব আঘাত সেনসেটিভ। পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে এরকম জায়গা বা ছোট্ট বাচ্চা আছে এরকম জায়গায় না রাখাই ভাল। কারণ ল্যাপটপের পার্টসগুলো যেমন দামী তেমনি বদলানোও একটি জটিল কাজ। আলাদা কি প্যাড ব্যবহার করেন। শুধু জরুরী কাজ ছাড়া এর কী-প্যাডে কাজ না করায় ভাল। কারণ অরজিন্যালটা গেলেই মাথাই হাত দেবেন।

ধূলাবালির কথাতো না বললেই চলে। কারণ ধুলাবালি কোন জিনীসের জন্যই ভাল নয়। তাই একে ধূলাবালি মুক্ত রাখুন। মাঝে মধ্যে পরিস্কার করতে পারেন।

স্ক্রীনঃ ল্যাপটপের স্ক্রীনটা সবচেয়ে স্পর্শকাতর জিনীস। তাই এটাতে যেকোন আঘাত, চাপ বা ধাক্কা, আঙ্গুল দিয়ে টিপে দেখা হবে আপনার সবচেয়ে বোকা/অবুদ্ধিমান কাজের মধ্যে একটি। তাই স্ক্রীনটা যাতে সামান্য আঘাত থেকেও মুক্ত থাকে সে দিকে নজর রাখুন। আর না হয় কপাল দুঃখ আছে। মুছার প্রয়োজন হলে টিস্যু পেপার, তুলা বা মসৃন কাপড় যা ল্যাপটপের সাথে প্রস্তুতকারকেরা দিয়ে থাকে সেটি ব্যবহার করুন। খুব সাবধানে আঁচড়া না লাগে মত করে মুছে নিন।

Level 2

আমি Kamrul Cox। , Chittagong। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 12 বছর 9 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 71 টি টিউন ও 645 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

অসহায়দের সাহায্যে এগিয়ে আসুন।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level New

সাবধান করার জন্য | ধন্যবাদ

ভাল পরামর্শ! ধন্যবাদ 🙂

বর্তমানে ডেক্সটপেই আছি 🙂 ল্যাপটপ কিনলে প্রয়োগ করা হবে ইনশাল্লাহ, ধন্যবাদ

nice post, keep it up…….

অনেক ভাল পরামর্শ । মেনে চলার চেষ্টা করব ।

so many thanks……….

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ……

Level 0

৪ নাম্বারের সাথে পুরোপুরি দ্বিমত পোষণ করছি। বরং ব্যাটারি দিয়ে চালালে ব্যাটারির উপর চাপ পড়ে। ব্যাটারি তাড়াতাড়ি গরম হয়। সাথে ব্যাটারি weak হয় এবং wear level বেড়ে যায়। ত্রুটিটি এখনই ঠিক করুন। আপনার ভুলে অনেকে misguided হতে পারে…..

    Level 2

    @tech_no: http://www.zbattery.com/laptopbatterycare.html লিংকা দেখুন। এরা মোবাইল, ডিজিটাল ক্যামেরা, ল্যাপটপ সহ বিভিন্ন যন্ত্রের ব্যাটারি সম্পর্কে তথ্য ও সমাধান দিয়ে থাক।

Pleaes help me. amr laptop ar skin a dag ( moyla) porese,,, please aktu bolen kivabe ami ata clean korte pari ( kono crash sara)

    Level 2

    @Masum Rahman: দাগ বলতে ময়লা পড়ে যদি জমে থাকে তাহলে ল্যাপটপ বন্ধ অবস্থায় টিস্যুকে সামান্য ভিজিয়ে হালকা ঘষা দিয়ে তুলার চেষ্টা করতে পারেন। আর যদি মোবাইলের মত সরাসরি স্ক্রীনে কাটা কাটা দাগ পড়ে থাকে তাহলে তুলার সুযোগ নেই। বরং ভবিষ্যতের জন্য সতর্কতা অবলম্বন করতে পারেন।

অনেক ভাল লাগলো

Level 0

THNX,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,

thanks for tune.bro amar compaq c712 laptop ache.atar avarage temp 75-80 degree .amar ta last 3 month khub kom shomoy blue screen death hoy jetar karon show kore je new hardaware or software install hoyeche.kintu ami last 4 years jabot kono software or hardware install korini.atar karon ki over temp?jodi ta hoy tahole laptop dhulabalu clean korte koto charge hobe?

    Level 2

    @cool.dx.rip: blue screen death এর যে কয়টা কারণ আছে তার মধ্যে একটি হলো ড্রাইভার কাজ না করা। কম্পিউটারের প্রতিটি কাজ সমাধা করে এক বা একাধিক কোন না কোন হার্ডওয়ার। আর ঐ হার্ডওয়ার কাজ করতে গিয়ে যখন তার ড্রাইভার হঠাৎ কাজ করা বন্ধ করে দেয় তখন blue screen death আসে। এর সামাধান হিসেবে নির্দিষ্ট ব্রান্ডের সাইট থেকে ডাউনলোড করে নতুন ভার্সনের ড্রাইভার ইনস্টল করা যেতে পারে। অনেক সময় ভাইরাস কোন ড্রাইভারকে অকেজো করে দিলে তখনো সে ড্রাইভার কাজ করে না। আর compaq ব্রান্ডটা গরম হয়ে যাওয়ার জন্য একদম হটলিস্টে। তাই যতটুকু সম্ভব ঠান্ডা রাখার চেষ্টা করুন।

Level 0

So many thanks.

ভাল লাগলো…………

* চার্জ ফুল হয়ে গেলে চার্জার খুলে ফেলুন। অযথা চার্জে লাগিয়ে রাখবেন না। এতে ব্যটারির কার্যক্ষমতা তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়, মেশিনের জন্যও ক্ষতিকর।

ভাই, সমস্যা হলো গিয়ে আপনার উক্ত কথার সাথে আমি আংশিক একমত।
তবে, চার্জার লাগিয়ে রাখা কোন ভাবেই মেশিনের জন্য ক্ষতিকর না!! আর, চার্জার লাগিয়ে রাখলে ব্যাটারির কার্যক্ষমতা নষ্ট হয়ে যায়, সহমত!!

আর হ্যাঁ , আপনাকে ধন্যবাদ সুন্দর কার্যকরী টিউনের জন্য!!

Thanks

Level 0

ভাই Dell এর website এ FAQ তে কিছু তথ্য পেলাম যা এরকমঃ

Q Should I totally discharge, then recharge my Dell laptop battery occasionally to make it last longer?

A No, discharging and charging does not increase the life of a Lithium Ion technology battery.

এবং
Can a Dell laptop battery be “overcharged”?

A No, the battery is designed to stop using the charger when it reaches full charge.

Q What can I do to make my battery last longer?

A 1. There are several things you can do to make your battery last longer:
Choose the right battery. Under the same use conditions, a lower capacity battery will wear out faster than a higher capacity battery because it has to be charged more often.
2. Use the notebook’s power saving controls to reduce battery use in your normal day. For example, turn the Bluetooth off if it is not needed; reduce the screen brightness when conditions permit.
3. Avoid exposure to extreme temperatures. If the system is exposed to extreme cold or hot temperatures, allow it to warm up/cool down before use and before charging.
4. Contrary to last decades’ batteries, modern lithium ion batteries do not need to be fully discharged to maintain health.
5. All batteries wear with use and time. When you find the runtime is no longer satisfactory, it may be time to purchase a new Dell battery.

Last উত্তর এর 4 নম্বর পয়েন্ট টা খেয়াল করুন। ধন্যবাদ।

    @aftub: আমি আসলে এই কথাগুলোই বলতে চেয়েছিলাম।

    Level 2

    @aftub: @রেজভী শোভন: আপনাদের সুন্দর মতামতের জন্য ধন্যবাদ। আপনাদের ধারণাটি পুরোপুরি মিথ্যে নয়। আমি এ বিষয়ে HP, Acer, Dell সহ আরো বেশ কিছু সাইটের রিভিউ দেখেছি। সবগুলো বিশ্লেষণ করে আমার ধারণাটি অধিকতর নিরাপদ বলে মনে হয়েছে। বছর তিনেক আগে ডেল প্রায় দুই লক্ষের বেশি ল্যাপটপ ব্যাটারি ফিরিয়ে নিয়েছিল যা তৈরি করেছিল বিশ্ব বিখ্যাত জাপানি কোম্পানি সনি। ব্যাটারিগুলোর ত্রুটি ছিল- দীর্ঘক্ষণ চার্জে থাকার ফলে অত্যাধিক গরম হয়ে যেত এবং পরবর্তীতে অনেক ল্যাপটপ এ কারণে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। অভিযোগ পাওয়ার পর ডেল আর সনি প্রযুক্তিগত ক্রটি দেখিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছিল এবং ভবিষ্যতে এর সমাধানের আশ্বাসও দিয়েছিল। সনির প্রযুক্তিতে হয়ত এর চেয়ে বড় কোন ত্রুটি কখনো ছিল না এবং তারা এটি অভারকাম করতে সক্ষমও হয়। কিন্তু সব কোম্পানি এখনো এ প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পেরেছে বলে আমার মনে হয় না। তাই ব্যাটারি দীর্ঘস্থায়ী আর মেশিনের সুরক্ষার জন্য আমার টিপসটি ছিল সতর্কতা মূলক। তবে চার্জ দীর্ঘক্ষণ থাকার ব্যাপারে আমি কোন টিপস দিয় নি। আর ডিসচার্জ এর ব্যাপারে আপনার মতামতটা দেখলাম। কিন্তু ডিসচার্জের বিপক্ষে এখনো কোন মতামত পায় নি তবে অসম্ভব নয়। তাছাড়া প্রযুক্তির উন্নয়ন এ সমস্যাগুলোকে আজীবন সমস্যায় রেখে দেবে তা নয় বরং এগুলো নিয়ে দিন দিন গবেষণা হচ্ছে। তাই হয়ত এ সমস্যা একদিন দূর হবে।
    আপনাদের মতামত পোষ্টটিকে আরো অর্থবহ ও গুরুত্বপূর্ণ করেছে। তাই আপনারা দুজন সহ যারা নিজের অভিজ্ঞতা বিনিময় করেছেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ।

এই পোস্ট এ ২টি তথ্য সঠিক নয় তা হল:

৪ নং tips: চার্জ দেওয়া অবস্থায় ল্যাপটপ চালালে ল্যাপটপ খুব তাড়াতাড়ি গরম হয়ে যায়। তাই অন্য কোন সমস্যা না থাকলে ব্যাটারিতে চার্জ দিয়ে ব্যাটারি থেকে ল্যাপটপ চালান। এতে ব্যাটারি ডিসচার্জ (ব্যাটারির চার্জ শেষ করা) করারও সুযোগ পাবেন।

এবং এই টিপসটিও সঠিক নয়:
চার্জ ফুল হয়ে গেলে চার্জার খুলে ফেলুন। অযথা চার্জে লাগিয়ে রাখবেন না। এতে ব্যটারির কার্যক্ষমতা তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়, মেশিনের জন্যও ক্ষতিকর।

    Level 2

    @মোঃ আনিসুর রহমান: আপনার ধারণা অবশ্যই ঠিক। প্রযুক্তি হয়ত সমস্যা সমাধানে দিন দিন অগ্রসর হচ্ছে। তবে নিচের লিংকগুলো আপনি দেখতে পারেন। এতে অভার হিটিং সম্পর্কে কিছু তথ্য পেতে পারেন। আর আপনার মতামতের জন্য ধন্যবাদ। আমাদের অভিজ্ঞতা বিনিময় দরকার। এত নতুন কিছু অবশ্যই বেরিয়ে আসবে।
    https://forum.sel.sony.com/viewtopic.php?f=112&t=12529#comment-p33979
    http://www.eweek.com/c/a/Mobile-and-Wireless/Sony-Recalls-Vaio-Laptops-Due-to-Overheating-100533/
    http://www.zbattery.com/laptopbatterycare.html

      @Kamrul Cox: কামরুল ভাই, আপনার মন্তব্য আমার ভাল লেগেছে । আসলেই শেখার জন্য আমাদের অভিজ্ঞতা বিনিময় এবং আপনার-আমার মত ইতিবাচক মানসিকতা দরকার। আপনার দেয়া লিংকগুলোর জন্য ধন্যবাদ। লিংকগুলো ভিজিট করে আমি যা পেলাম তা একটু শেয়ার করি। ভুল হলে ধরিয়ে দিবেন।

      লিঙ্ক ১) এটি একটি ফোরাম সাইট। এখানেও আমাদের মত একেকজন একেক কথা বলছে। একজন sony website এর একটি লিঙ্ক শেয়ার করেছে। সেখানে যা পেলাম তা উল্লেখ এবং ব্যাখ্যা করা প্রয়োজন:
      #Heat will build up in the battery while it is in use or being charged. This is normal and is no cause for concern. But if the tablet device or AC adapter becomes abnormally hot, unplug the AC power cord from the AC adapter.
      বলা হয়েছে, ব্যাটারি charging অবস্থায় গরম হবে এবং এটি Normal। আর যদি ডিভাইস অথবা চার্জার অতিরিক্ত গরম হয় তাহলে এটি নরমাল নয় কোন ফল্ট বা ত্রুটি। এমতাবস্থায় চার্জার খুলে ফেলতে বলা হয়েছে(আমি বলব শুধু চার্জার কেন ব্যাটারিও খুলে ফেলা দরকার)

      লিঙ্ক ২) এটি একটি News লিঙ্ক যা পাবলিশ হয়েছে ৩০.০৬.২০১০ অর্থাৎ আজ থেকে প্রায় ২ বছরের আগে। কিছু সংখ্যক Sony Vaio Laptops ওভার হিটিং ত্রুটির কারণে Sony কোম্পানি তা সমাধানের ঘোষণা দিয়েছে। ওভার হিটিং এর কারণ BIOS firmware ত্রুটি। BIOS firmware update করে সমস্যা সমাধান সম্ভব।

      লিঙ্ক ৩) Laptop Battery Care এর উপর একটি আর্টিকেল যা পাবলিশ হয়েছে ১.০৫.২০০৬ অর্থাৎ আজ থেকে প্রায় ৬ বছর আগের পোস্ট। আধুনিক টেকনোলজির তৈরি লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির যত্নে ৬ বছর আগের দেওয়া টিপস কতটা সহায়ক তা ভেবে দেখা দরকার। সেখানে তেমন কিছু পেলাম না, তারপরও একটি বিষয় উল্লেখযোগ্য যা কনফিউশন তৈরি করতে পারে।
      #Li-Ion batteries have a self-discharge rate of about 1% per day so you need to be sure to charge them at least every 6 months.
      অর্থাৎ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি বাবহার করা না হলেও প্রতিদিন প্রায় ১% চার্জ শেষ হতে থাকে। আগের টেকনোলজির তৈরি ল্যাপটপ এই ডিসচার্জ মনিটরিং করতে পারে না এবং সবসময় ব্যাটারি ফুল মনে করে। এক্ষেত্রে দীর্ঘদিন একটানা চার্জার লাগিয়ে কাজ করলে ব্যাটারি ডিসচার্জ হতে হতে একসময় বিকল হয়ে যেতে পারে। তাই অন্তত ৬ মাসে ব্যাটারি একবার ব্যাবহার ও ফুল চার্জ করা দরকার। আমাদের বাংলাদেশে এই লোড শেডিং এর দেশে একটানা ৬ মাস তো দূরের কথা ৬ দিনও কি চার্জার লাগিয়ে রাখা সম্ভব বলেন?

      কোন ভুল হলে ক্ষমা করবেন। ভাল লাগলে জনস্বার্থে আপনার টিউন আপডেট করবেন।

        Level 2

        @মোঃ আনিসুর রহমান: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ সুন্দর ব্যাখ্যার জন্য। আপনার মতামতগুলো খুবই ভাল লেগেছে। আপনাদের মতামতের উপর ভিত্তি করে ৪নং টিপসটিতে সামান্য এডিট করেছি।

আমি ও ৪নং এর সাথে এক মত হতে পারলাম না । কারন যখনি ব্যাটারি পুল চাজ হবে তখনি চাজার খুলে ফেললে এই ভাবে প্রতিদিন কতবার কাজটা করতে হবে । তখন কি ব্যাটারির উপর বেশি চাপ পরবেনা ।আর প্রথেকটি ব্যাটারির নিদিষ্ট লাইপটাইম আছে । আমি জানি যেটা মোবাইল ব্যাটারি গুলো কম বেশি ১০০০ বার চাজ করা যাই ।লেপটপ এর টা ও তার কাছাকাছি ।

    @শাহ্‌পরান: আপনি ঠিকই বলেছেন। প্রত্যেকটি ব্যাটারির নির্দিষ্ট লাইফটাইম আছে। এর পর থেকে ব্যাটারি দুর্বল হতে থাকে। তাই ব্যাটারি যত কম ব্যবহার হবে তত বেশি দিন ভাল থাকবে। তাই সঠিক তথ্য দিয়ে টিউন আপডেট করার জন্য লেখকের প্রতি অনুরোধ রইল।

Level 0

vaia valo laglo………vaia bortoman somoye mobile ar onek prosar gotece tai asa kori mobile ar jabotio inportent bisoy somporke kicu bole amader upokritp korben.

খুব সুন্দর পোষ্ট ভাই দরকারি পোষ্ট