যেকোন ওয়েবপেজকে PDF এ রূপান্তরিত করুন অপ্রয়োজনীয় অংশ বাদ দিয়ে এবং ইন্টারনেট ডেটা খরচ ছাড়াই

ওয়েবপেজকে PDF বানানো নিয়ে কিছু কথা:

বাংলা ব্লগ হোক কিংবা ইংরেজি ওয়েবসাইট, বিভিন্ন পোস্ট আমাদের ভীষণ কাজে লাগে এবং অনেকেই সেই পোস্ট html করে সেভ করে রাখেন পিসিতে অথবা pdf তৈরি করে নেন। কিন্তু সমস্যা হল, সাধারণভাবে html এ সেভ করে রাখলে আপনার কিলোবাইট খরচ হবে অর্থাৎ যারা লিমিটেড ইন্টার্নেট ব্যবহার করেন তাদের ডাউনলোডে ইন্টারনেট কিছুটা হলেও খরচ হয়।

কিন্তু যাঁরা পিডিএফ প্রিন্টার ব্যবহার করে সুকৌশলে পোস্ট পিডিএফ করে রাখেন তাঁদের নেট খরচ হয় না ঠিকই কিন্তু অনেক অপ্রয়োজনীয় অংশ চলে আসে, যা বেশ বিরক্তিকর। আবার অনেকে আছেন যাঁরা ওয়েবসাইট থেকে লেখা কপি করে ওয়ার্ড প্রসেসরে আনেন। এটি বেশ সময় সাপেক্ষ ব্যাপার এবং কপি পেস্ট করাও ঝামেলার কাজ। তবে সেই চিন্তাভাবনার দিন আপাতত শেষ।

আমি আপনাদের জন্য এমন এক উপায় এনেছি যার মাধ্যমে সহজেই অপ্রয়োজনীয় অংশ বাদ দিয়ে এবং নেট খরচ না করেই আপনার পছন্দের পোস্টটি পিডিএফ আকারে রাখতে পারবেন লেখার আকার বৃদ্ধি করে। টেকটিউন্সের অনেক পোস্টই আছে যেগুলো বেশ জ্ঞানগর্ভ এবং শিক্ষণীয়। অনেকেই হয়ত প্রিয়তে এ রাখেন কিন্তু নেট না থাকার কারণে বিশেষ অবস্থায় আর সেটা নাও পড়তে পারেন। আমি আশা রাখছি এই পদ্ধতি আপনাদের এসব সমস্যা সমাধান করতে পারবে। ভূমিকাটা বিরক্তিকর হতে পারে তাই আর না এগিয়ে সোজা আজকের বিষয়বস্তুতে চলে যাচ্ছি।

আমি এই টিউনকে মোট তিনটি ভাগে বিভক্ত করেছি:

  • ১। সাধারণ নিয়ম
  • ২। পিডিএফ প্রিন্টার ইন্সটল (যদি না থাকে তাহলে এটা ইন্সটল করে নিবেন)
  • ৩। প্রিন্টফ্রেন্ডলিকে বুকমার্কলেটে পরিণত করে সহজেই যেকোন পোস্টকে পিডিএফে রূপান্তরকরণ

 সাধারণ নিয়ম:

  • ➡ যে পোস্টটি pdf করতে চান সেই পোস্টে যান, লিঙ্কটি কপি করুন:

  • ➡ Print Preview বাটনে ক্লিক করুন:

  •  ➡ কিছুটা সময় অপেক্ষা করুন:

  • ➡ দেখুন আপনার পোস্টের পিডিএফ এর প্রিভিউ দেখাচ্ছে:

  • ➡ মাঝেমধ্যে পোস্টে আজাইরা অংশবিশেষ অথবা বিজ্ঞাপন থাকতে পারে, পিডিএফে এগুলা নেওয়ার কোন মানে নেই, আপনার মাউজের লেফট বাটন চাপ দিয়ে যেকোন অংশ মুছে দিতে পারেন নিমেষেই:

 

  • ➡ মুছতে গিয়ে যদি প্রয়োজনীয় অংশ বাদ পড়ে যায় তাহলে কী করবেন? কিছুই না খালি উপ্রের প্যানেলের Undo বাটনে ক্লিকান:

  • ➡ আপনি চোখে ভাল দেখতে পান না? কী হয়েছে? ফন্টের সাইজ বাড়িয়ে নিন:

  • ➡ কাটাকুটি, টেক্সট সাইজ ইত্যাদি ঠিক ঠাক হলে pdf ফাইল বানানোর জন্য Print বাটনে ক্লিকান:

  • ➡ প্রিন্টার থেকে একটা pdf Printer নির্বাচন করুন (না থাকলে এই পোস্টের একটু নিচে গেলেই পাবেন), তারপর OK বাটনে ক্লিক করুন:

  • ➡ PDF বানানোর জন্য কিছুটা সময় দিন:

  • ➡ এবার নতুন উইন্ডো এলে ফাইল নেম পছন্দমত দিন ও Save বাটনে ক্লিক করুন:

  • ➡ এইবার দেখুন আপনার কাঙ্ক্ষিত pdf ফাইলটি, দেখতে ভালই, কী বলেন?:

(যাদের PDF Printing Software নাই তাঁরা নিচের অংশ দেখুন, লিনাক্স ইউজারদের বিল্ট-ইন Pdf printer দেওয়া থাকে)

Pdf প্রিন্টিং সফটওয়্যার ডাউনলোড এবং ইন্সটলেশন:

নানা ধরণের Pdf printing সফটওয়্যার গুগল মামুকে জিজ্ঞাসা করলে এমনিতেই পাইবেন, তবে আমার সবচেয়ে পছন্দের Pdf printing সফটওয়্যার হল Bullzip Pdf printer। কারণ, ফ্রি এডিশন হলেও এতে চরম সব ফিচার্স আছে, হাই কোয়ালিটি pdf ফাইল বানাতেও এর জুড়ি নাই। উল্লেখ্য, Do PDF ও চমৎকার ফ্রি সফটওয়্যার।

  • ➡ ডাউনলোড শেষে যে zip ফাইলটি পাবেন সেটাকে এক্সট্র্যাক্ট করুন:

  • ➡ যদি উইন্ডোজ ৭ ব্যবহার করেন তাহলে এর উপ্রে রাইট ক্লিক করে Run as administrator বাটনে ক্লিকান:

  • ➡ নতুন ছোট্ট উইন্ডো ওপেন হবে, OK বাটনে চাপুন:

  • ➡ নেক্সট বাটনে ক্লিকান:

  • ➡ I accept the agreement এ টিক দিন ও Next বাটনে ক্লিক করুন:

  • ➡ এই সফটওয়্যারটির শর্টকাট কোন কাজেই লাগবে না, তাই টিক উঠিয়ে দিয়ে Next বাটনে ক্লিক করুন:

  • ➡ কিচ্ছু করবেন না শুধু Next বাটনে চাপেন:

  • ➡ Install বাটনে ক্লিক করুন:

  • ➡ ইনস্টল হচ্ছে:

  • ➡ Ghostscript নামাচ্ছে তাই ওকে এটা নির্বিঘ্নে নামাতে দিন (৯ মেগাবাইট):

  • ➡ ওগো ওয়েবসাইটে গিয়া লাভ কী? টিক উঠিয়ে Finish বাটনে ক্লিক করুন:

এই ১৪ মেগাবাইট ডাউনলোড আপনার অনেক ব্যান্ডউইডথ বাঁচাবে তাই যাদের pdf printer সফটওয়্যার নাই এবং কিপ্টামি করে এইটা নামান নাই তাঁরা নিশ্চিৎ পস্তাইবেন!

যেকোন পোস্টকে Print Friendly দিয়ে সাইজ করে pdf বানানোর সহজ নিয়ম:

অনেকেই বলতে পারেন, এইটা আমি শুরুতে দিলাম না কেন? আসলে কখন কোন জিনিসটা কাজে লাগবে সেটা যেমন আপনিও জানেন না তেমনি আমিও জানিনা। এমন পরিস্থিতিতে পড়তে পারেন যেখানে Pdf printer পাবেন না অথবা বুকমার্কলেট করার সময় সুযোগ পাবেন না। সেকারণেই প্রথমে ভেজাল পদ্ধতি এবং পরে সহজ পদ্ধতি।

  • ➡ আপনি যে ব্রাউজার ব্যবহার করেন সেটা ওপেন করুন এবং উপ্রের দিকে রাইট ক্লিক করে Bookmarks Toolbar এ ক্লিক করেন (ক্রোমেও একই সিস্টেম):

  • আবারও এখানে যান এবং দেখবেন একটু নিচের দিকে “Print Friendly” নামের একটা বাটন আছে, ঔটার কান ধরে টেনে নিয়ে এসে আপনার ঔ Bookmark toolbar এর উপ্রে ছেড়ে দিন:

  • ➡ এখন আর কিছুই করা লাগবে না, যে পোস্টটা pdf করতে চান সেখানে থাকা অবস্থায় Print Friendly নামক ঔ বাটনটাতে ক্লিকাবেন; তাহলেই হবে:

  • ➡ এবার আসেন ইট্টু কাটাকুটি খেলি, প্রয়োজন হইলে লেখকের নাম, বিজ্ঞাপন ও অপ্রয়োজনীয় অংশ মুছে দিন:

  • ➡ ঠিক প্রথমে যেভাবে দেখানো হয়েছে সেভাবেই pdf printer চয়েস করে OK বাটনে ক্লিক করুন:

  • ➡ নাম দিন, তারপর Save বাটনে ক্লিক করুন: 🙂

  • ➡ এবার দেখুন মূল লেখা আর আপনার Print Friendly দিয়ে বানানো pdf এর মধ্যে তফাৎ কতখানি?  :mrgreen:

ডিসক্লেইমার:

এই পোস্ট করার জন্য printfriendly.com থেকে কোন আর্থিক লভ্যাংশ দেওয়া হয় নি, আমার কাছে সাইটটাকে বেশ কাজের মনে হয়েছে তাই আপনাদের কাছে শেয়ার করলাম। এমন আরও কিছু সাইট আছে যেমন: printliminator.com এবং printwhatyoulike.com, তবে সাইটগুলো ব্যবহার করা বেশ ঝামেলার। 🙁

সবাই ভাল থাকবেন এবং সুস্থ থাকবেন। কোন এক পোস্টে আবার দেখা হবে। পোস্টটি পড়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। 😀

কৃতজ্ঞতা স্বীকার:

যাদের পোস্ট এই টিউনে উদাহরণ হিসেবে ব্যবহার হয়েছে।

ধন্যবাদান্তে-

Level 0

আমি নিওফাইটের রাজ্যে। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 12 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 13 টি টিউন ও 1392 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

শ্রবণ, মনন , অনুশীলন


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

জমিয়ে দিছো তো 🙂

পুরাই চরম। তোমার সব টিউনেই প্রিন্টারের কথা চলে আসে। 😆

    @হাসান যোবায়ের (আল-ফাতাহ্): লোল, আসলেইতো? প্রিন্টার নিয়ে আরেকদফা বাকি আছে, নেট মাস্টারের সাথে চুক্তিবদ্ধ; তাই আরেকবার প্রিন্টার-ক্যাচাল হজম করতে হবে আশা রাখি। 😀 😛 :mrgreen:
    এইটাতো ভার্চুয়াল প্রিন্টার। 😆

Kajer Tune.Etodin Pore Kano:-)

Level 0

Osadharon akta jinis dilen…thanks

Level 0

খুব সু্ন্দর একটা টিউন। এখন আপনার টিউনটা pdf করে নিলাম। Thanks …

জটিল! ফিরে এল আমাদের টিটির স্টিভ জবস! 🙂
এবার দেখাবে টিউনের ইন্দ্রজাল!! 😀 😀

এত কথা বাদ সবচেয়ে উপরে আর থাম্বনেইলে GIF ইমেজগুলির যে ইফেক্ট দেওয়া হইছে এটা কোন সফটওয়্যার দিয়ে করছেন? কিভাবে করেছেন? এইটা নিয়া পোষ্ট চাই !

পোস্টে পিলাচ +

Level 2

vai amr to
“an error occurred.
Error 1005:unable to locate Ghostscript installation.
Source : GUI
inaternal hint: run converter to create PDF file”
ai lekhata show kortese jokhon ami print dei ami ki korbo jodi bolten……………

    @Ni: হায়রে ভাই, এই লেখা শো করবে না কেন? আপনি ওকে Ghostscript ডাউনলোড করতে দিয়েছিলেন তো? 😕 ছবির মধ্যে বলে দিলাম, তারপর আবার লিখেও দিয়েছি। 😐 ভুল হওয়ার কথা না। 🙁
    আপনি আবার ইন্সটল দিন এবং ইন্টারনেট কানেকশন অন রেখে ছবিতে দেখানো কাজগুলো করে নিন।
    সমস্যা হলে আবার কমেন্ট দিয়েন। ধইন্ন্যা। 🙂

good post

দারুন নিও ভাই… অসাধারন অনেক ধন্যবাদ…

ফেচবুক এ রিকু দিছি একসেপট করেন 🙂

যাক, এইখানে তাইলে কৃতজ্ঞতা পাইলাম 😛

সুন্দর !

সত্যিই অসাধারণ টিউন! পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্যেও আমাদের জন্য এতবড় একটা কাজের পোস্ট দেয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ রইল। আমি ইতোমধ্যেই এই টিউনের পিডিএফ ডাউনলোড করে নিয়েছি। (লেখকের নাম ঠিকানা সহ) 🙂

Level 2

lots of thnx vai kaj hoise….really u r great………..

    @Ni: ওয়েলকাম ভাই। অনেকে সমস্যা সমাধান হওয়ার পরে জানানোর প্রয়োজনবোধ করে না। সেদিক থেকে আপনাকে আমার তরফ থেকে ধন্যবাদ জানাই। 😀 :mrgreen:

চমৎকার

Level 0

ফাটাফাটি!!!

Level 0

dada,ami apnar ei post ti kei uporer rule a succesul vabe pdf a transfer koreci…kintu..screenshoot er vetorer lekhagulo bangay asce..but screenshot er bairer lekha sob unsupported…sudu box hoye ace choto choto

    @ayus: বাংলা ইউনিকোড ফন্ট, অভ্র, Windows XP হলে iComplex ইন্সটল করা থাকলে এই সমস্যা হওয়ার কথা না। ধরে নিলাম, আপনার এগুলো সব ঠিক আছে। তাহলে আপনি এক কাজ করুন, ফায়ারফক্স ব্যবহার করলে Options>Content>এ গিয়ে Font & Colors ট্যাগের নিচে Font এর পাশে দেখবেন Advanced।
    সেখানে ক্লিক করে এই ছবি এবং এই ছবির মত সেটিংসগুলো ঠিক করুন।
    এরপরও সমস্যা থাকলে কমেন্ট দিয়ে জানাবেন। ধন্যবাদ।

গরমে এক গ্লাস লেবুর সরবত ………জটিল টিউন……….

    @rasel japan: সরবতটাতো ঠান্ডা ছিল না 🙁
    গরমে দুক্ষু বাড়ায়া দিলেন। 😥
    সরবত সরবতই, তা ঠান্ডা হোক অথবা গরম। ধন্যবাদ :mrgreen:

Level 0

ভাই চমৎকার গরম post….. ধন্যবাদ দেয়ার ভাষা নাই…।

আরে মিয়া________আপনি একখান জিনিষ_____________জটিল টিউনাইছেন!!

চিত্য চমৎকৃত হইয়া গেল।

অসাধারণ পোস্ট।

এতদিন ফায়ারফক্সে pdfit এ্যাডঅন টি ব্যবহার করছিলাম। তবে আপনার দেখানো পদ্ধতিতে বেশ কিছু সুবিধা পাবো!
অনেক ধন্যবাদ আপনাকে!
আপনার দেখানো পদ্ধতিতে আপনার টিউন টিই pdf করলাম! 😀
…ভাল থাকবেন, সব সময়!

Level 0

অসাধারণ টিউন। এটাই আমি খুজতেছিলাম। তবে, আপনার পদ্ধতিকে আরেকটু সহজভাবে ব্যাবহার করছি এবং এতে আপনার পদ্ধতির সময়কালের চেয়ে আরেকটু কম সময় লাগবে। এখানে দেখতে পারেন

    @dolar: আপনার দেখানো একটা ছাড়া বাকি সবই টিউনে উল্লেখ আছে। আপনার স্ক্রিনশটের পয়েন্ট বাই পয়েন্ট ধাপে ধাপে ব্যাখ্যা করি:

    ১। প্রথমত, সবাই আনলিমিটেড নেট ব্যবহার করে না, সেকাণে তারা যদি সব ওয়েবসাইটে গিয়ে পেজ PDF আকারে ডাউনলোড করতে চায় তাহলে ইন্টারনেট ডেটা খরচ হবে। তাদের কথা চিন্তা করেই আমি PDF Printer এর ধারণার সূত্রপাত ঘটাই। এতে করে নেট ডেটা খরচ হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই নেই। তাই যারা লিমিটেড নেট ব্যবহার করেন তাদে‌রও সমস্যা হবে না এবং যারা আনলিমিটেড নেট ব্যবহার করেন তাদেরও সমস্যা হবে না। অর্থাৎ, ১৪ মেগাবাইটের সফটওয়্যারটি আপনার হাজার হাজার মেগাবাইট সেভ করবে।

    ২। এক্সটেনশন বা প্লাগিন যাই বলুন না কেন, এগুলো ইনস্টল করলে ব্রাউজার স্লো হবেই। তাই আমি এসব ঝামেলায় না গিয়ে সরাসরি Bookmarklet পদ্ধতিতে যাই। এতে ঔ বাটনে ক্লিক করলেই হবে এবং এটি প্লাগিন কিংবা এক্সটেনশনের মত জায়গা জুড়বে না। তাই আপনার ব্রাউজার থাকবে ফাস্ট। আমরা সবাই কোন না কোন কারণে Bookmark রাখি। তাই এটা বুকমার্ক রাখা এড-অন ইন্সটলেশন এর ঝামেলা থেকেও কম। আবার আপগ্রেড ভার্সনের ব্রাউজারের সাথে প্লাগিন কাজ নাও করতে পারে কিন্তু এক্ষেত্রে মিস হওয়ার সম্ভাবনা একদম নেই।

    ৩। কপি পেস্ট ইত্যাদি করার দরকার নেই সেটা আমার টিউনেই লিখা আছে। সবক্ষেত্রে সব সম্ভব না হওয়ার কারণে আমাদের প্রত্যেকটি উপায় সম্পর্কে ধারণা রাখা উচিৎ তাই আমি শুরুতে একটি ঝামেলাযুক্ত পদ্ধতি এবং পরে সহজ পদ্ধতি দেখিয়েছি।

    এখন আপনার ইচ্ছা আপনি কোন পদ্ধতিতে করবেন। আরেকটা কথা বলি, আমি প্রতিটি টিউন করার আগে সেগুলো পরীক্ষা নিরীক্ষা করেই করি। কারণ শুধু শুধু ভিসিটরদের হয়রানি করাটা আমার স্বভাবের মধ্যে পড়ে না।

    আশা করি পুনরায় পোস্টটি পড়ে আমার ব্যাখ্যাকৃত পয়েন্ট সম্পর্কে ধারণা নিবেন। ধন্যবাদ 🙂

      Level 0

      ভাই, পুরো পোস্ট পড়েই কমেন্ট করেছিলাম। আর আমি তো বলিনি যে আপনার সব পদ্ধতিগুলোই ঝামেলাপূর্ণ। শুধু বলেছিলাম যে আমি যেভাবে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি-সেটার কথা। ধন্যবাদ।

        @dolar: যেহেতু বলেছেন আরও সহজ পদ্ধতি বের করেছেন তাই ভাবলাম পুরো পোস্ট পড়েন নি। 🙄 কারণ শুরুর দিকে সময়সাপেক্ষ পদ্ধতি দেখানো হয়েছে। শেষের পদ্ধতিটা আর আপনার এড অনের পদ্ধতিটার মধ্যে কোন পার্থক্য খুঁজে পেলাম না 🙄

        আমি যেভাবে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি-সেটার কথা।

        সেটাই, যার যেটা পছন্দ! 🙂

          Level 0

          সহজ পদ্ধতি আমার জন্য বের করেছিলাম, আপনাদের জন্য না 🙂 কারন আমি বুকমার্ক করে রাখি না কিছুই। ওটার দরকার হয় না। আর খুব বেশি এক্সটেন্সনও ইন্সটল করি না। যেগুলা যেগুলা আসলেই দরকার আমার শুধু সেগুলোই ইউজ করি। তাই, অল্প কয়েকটা এক্সটেন্সনের জন্য আমার ব্রাউজারও স্লো হয় না। আর ওয়েবপেজকে পিডিএফ কনভার্ট করার জন্য আগে যেই প্লাগিন ইউজ করতাম সেটা অনেক ভাল ছিল। সেটার বিকল্প আরেকটা ভাল প্লাগিন ইউজ করাই আমার জন্য স্বাচ্ছন্দের ছিল। আর এজন্যই ঐটার এক্সটেন্সন ইউজ করছি। আর জিনিসটা আপনার সাথে শেয়ার করেছি কারন কেউ কেউ তো আমার স্বভাবেরও থাকতে পারে 🙂 তো এক্সটেন্সন এর মাধ্যমেও যে এই জিনিসটা করা যায়-সেটা জাস্ট তাদের জানা থাকল-এই আর কি।

অসাধারণ

PDF Printer Software এর কাজ কি???
printfriendly থেকে pdf generate করে ডাউনলোড করে pdf তো এমনিতেই print দেয়া যায়। আর PDF Printer Software যদি pdf generate ই করে থাকে তাহলে printfriendly এর কি দরকার? কিছুই বুঝলাম না।

@লুলীয় ব্লগার: প্রশংসা করার জন্য ধন্যবাদ। 🙂 😀
অফটপিক: আপনার নিক টার মর্যাদা মনে হয় না টেকটিউন্সে রাখতে পারবেন। 😛 😆