মেটাভার্স কী? এটা কি শুধু ভার্চুয়াল রিয়্যালিটি, নাকি এর থেকেও বেশি কিছু?

টিউন বিভাগ প্রযুক্তি কথন
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

হ্যালো টেকটিউনস জনগণ, কেমন আছেন আপনারা সবাই? আশাকরি সবাই ভাল আছেন। এখন থেকে নিয়মিত আবার নতুন টিউন নিয়ে আমরা হাজির হলাম আপনাদের কাছে। আর টেকটিউনসের নিত্যনতুন টপিক আর সার্ভিস নিয়ে ভালো না থেকে আর উপায় আছে? আর এই নিত্যনতুন টপিক আর সার্ভিসের ধারা বজায় রাখার নিমিত্তে, আজকে আমি আপনাদের সাথে একদম নতুন একটি টপিক নিয়ে হাজির হলাম। আর আপনারা এই টিউনের মাধ্যমে জানতে পারবেন অনেক নতুন নতুন সব তথ্য।

টেক কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা বর্তমানে "মেটাভার্স" সম্পর্কে কথা বলছে। আর মার্ক জুকারভার্গ জোর দিয়ে বলেছেন ফেসবুককে সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানির পরিবর্তে "মেটাভার্স কোম্পানি" তে রূপান্তর করা হবে। আর Satya Nadella ঘোষণা করেছেন মাইক্রোসফট এন্টারপ্রাইজ "মেটাভার্স স্ট্যাক" তৈরি করছে। আমরা এই টিউনে Snow Crash থেকে শুরু থেকে কি ঘটছে তা ব্যাখ্যা করব।

১. "মেটাভার্স" এর উৎস: Snow Crash

লেখক নীল স্টিফেনসন ১৯৯২ সালে প্রকাশিত একটি ডাইস্টোপিয়ান সাইবারপাঙ্ক উপন্যাস Snow Crash এ "মেটাভার্স" শব্দটি তৈরি করেছিলেন।

উপন্যাসে, মেটাভার্স হচ্ছে এক ধরনের 3D ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ড। এটি শুধু ভার্চুয়াল রিয়্যালিটির গেমই নয় বরং এটি একটি স্থায়ীভাবে শেয়ার করা ভার্চুয়াল বিশ্ব। অথবা, মেটাভার্স হচ্ছে শেয়ার করা একটি ভার্চুয়াল স্পেসগুলোর একটি যা সম্পূর্ণ মহাবিশ্বকে আপাতদৃষ্টিতে একত্রে যুক্ত করেছে।

আপনি যদি মনে করেন যে এগুলো কিছুটা Ready Player One বা  Second Life এর থেকেও উন্নত প্রযুক্তির মতো তাহলে আপনি ঠিক ধরেছেন।

প্রকৃতপক্ষে, ২০১১ সালে, Stephenson ফোর্বসকে বলেছিলেন যে তিনি World of Warcraft এর মতো ভিডিও গেমসগুলোকে বাস্তব মেটাভার্স হিসাবে দেখছেন: এই ভার্চুয়াল বিশ্বে আপনি আপনার বন্ধুদের সাথে বসবাস করতে পারবেন। ২০২১ সালে, Minecraft এবং Fortnite এর মতো গেমসগুলোতে সম্ভবত তিনি যে মেটাভার্স দেখেছেন তা আরও বেশি বাস্তব মনে হয়েছে।

২. "মেটাভার্স" কি শুধু ভার্চুয়াল রিয়্যালিটি কনসেপ্টকে রিব্র্যান্ড করছে?

মার্ক জুকারবার্গ যখন মেটাভার্স সম্পর্কে কথা বলেন, তখন এই ভার্চুয়াল রিয়্যালিটিকে রিব্র্যান্ড করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। না এটি শুধু Facebook Oculus VR হেডসেটে গেম বা সোশ্যাল অ্যাপ চালানোর জন্য তৈরি করা হয়নি: বরং এটি তৈরি করা হয়েছে মেটাভার্সে অ্যাক্সেস করার জন্য।

২০১৭ সালে, স্টিফেনসন Vanity Fair এর সেই কেসটি তুলে ধরেন যা virtual reality (VR) এবং augmented reality (AR) এই ধরনের দৃষ্টিভঙ্গির জন্য অপ্রয়োজনীয় ছিল:

আপনি যদি AR অ্যাপ্লিকেশানে থাকেন তাহলে আপনি বর্তমানে যেখানে আছেন আপনি সেখানেই আছেন অবস্থানের কোন পরিবর্তন নেই। আপনি আপনার ফিজিক্যাল পরিবেশে আছেন, আপনি আপনার চারপাশের সবকিছুই স্বাভাবিকভাবে দেখছেন কিন্তু অতিরিক্ত ফিচার যুক্ত করা হচ্ছে। আর তাই VR থেকে AR আপনাকে সম্পূর্ণ ভিন্ন এক কাল্পনিক জায়গায় নিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা রাখে - Snow Crash যে ধরনের জিনিস মেটাভার্স হিসাবে বর্ণিত হয়েছে। আপনি যখন মেটাভার্স দুনিয়ায় যাবেন তখন আপনি রাস্তায় আছেন, আপনি কালো সূর্যের মধ্যে আছেন এবং হঠাৎ আপনার চারপাশ অদৃশ্য হয়ে যাবে। আর উপন্যাসে হিরো একটি জীর্ণশীর্ণ একটি শিপিং কন্টেইনারে বসবাস করে, কিন্তু যখন সে মেটাভার্স দুনিয়ায় যায় তখন সে একটি বড় এবং বিলাসবহুল একটি রিয়েল এস্টেটে সে বসবাস করে।

৩. হতে পারে মেটাভার্স নতুন "ওয়েব 2.0" এর কনসেপ্ট

আসলে মেটাভার্স -টা কি! এটি একটি বিশাল ডিজিটাল সিমুলেশনের বিকল্প, আমরা যা VR হেডসেট ব্যবহার করার মাধ্যমে অ্যাক্সেস করে আমরা একটি ভাল জীবনযাপনের ভান করতে পারি যদিও আমরা জড়সড় শিপিং কনটেইনারে বসবাস করবো একদমই উপন্যাসের মত করে।

মার্ক জুকারবার্গের মতে যাইহোক না কেন, তিনি The Verge কে যা বলেছিলেন তা নিম্নে দেওয়া হল:

মেটাভার্স এমন একটি ভিশন যা অনেকগুলো কোম্পানিকে একত্রিত করে - এমনকি পুরো ইন্ডাস্ট্রিকে। আপনি এই কনসেপ্টকে মোবাইল ও ইন্টারনেটের উত্তরসূরি হিসেবে ভাবতে পারে. আপনি মেটাভার্সকে মূর্ত ইন্টারনেট হিসেবে ভাবতে পারেন, যেখানে শুধু কন্টেট দেখার পরিবর্তে আপনি নিজেই কন্টেন্টের মধ্যে থাকবেন। এবং আপনি অন্য লোকদের সাথে উপস্থিত বোধ করবেন যে আপনি ভিন্ন কোন জায়গায় আছেন, বিভিন্ন এক্সপেরিন্স রয়েছে যা আপনি 2D অ্যাপ বা ওয়েব পেইজে করতে পারেন না, যেমনঃ ড্যান্স।

আমি মনে করি অনেক লোক, যখন মেটাভার্স নিয়ে চিন্তা করে তখন তারা শুধুই ভার্চুয়াল রিয়্যালিটি সম্পর্কে ভাবে - তবে আমি মনে করি ভার্চুয়াল রিয়্যালিটি মেটাভার্সের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হতে চলেছে। তবে মেটাভার্স শুধুই ভার্চুয়াল রিয়্যালিটি নয়। এটি আমাদের বিভিন্ন কম্পিউটিং প্ল্যাটফর্ম জুড়ে অ্যাক্সেস করা যোগ্য করে তৈরি করা হচ্ছে, VR, AR থেকে শুরু করে PC এবং এছাড়াও মোবাইল ডিভাইস এবং গেমিং কনসোল ইত্যাদি।

জুকারবার্গ এভাবেই তার কথা বলতে থাকলেন, তিনি জোর দিয়ে বলেছেন যে, "মেটাভার্স" ভবিষ্যতে বড় জিনিস হতে চলেছে এবং আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে ফেসবুককে সোশ্যাল মিডিয়ার পরিবর্তে মেটাভার্স কোম্পানি হিসাবে দেখা যাবে।

জুকারবার্গ এবং অন্যান্য প্রযুক্তির প্রধান নির্বাহীদের কাছে "মেটাভার্স" কনসেপ্টটি "ওয়েব 2.0" এর সাথে অনেক বেশি মিল রয়েছে বলে মনে করেন। এটি হচ্ছে অনেকগুলো নতুন প্রযুক্তির সমন্বয়ে তৈরিঃ VR হেডসেট, উপস্থিতি এবং ক্রমাগত ডিজিটাল বিশ্ব! একটু ভাবুন তো আপনি বাড়ি থেকে কাজ করার সময় VR-এ একটি অফিস মিটিং করছেন - কিন্তু ভাববেন না আপনি VR হেডসেট বাদ দিয়েও ল্যাপটপের মাধ্যমে মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করবেন।

যখন আপনি বুঝতে পারবেন যে Facebook Oculus-এর মালিক, তখন কোম্পানির ভবিষ্যৎ VR ভিত্তিক প্ল্যাটফর্মে জোরালো ভাবে ঠেলে দেওয়ার চিন্তা বেশ যুক্তিসম্মত।

৪. মাইক্রোসফট এবং "ডিজিটাল টুইনস"

মাইক্রোসফটের মেটাভার্স নিয়ে যে দৃষ্টিভঙ্গি তা হচ্ছে “Digital Twins” এবং “Mixed Reality” কে ডিজিটাল প্রযুক্তির সাহায্যে বাস্তবরূপ দেয়া। আর এটি করতে মাইক্রোসফট তাদের Azure ক্লাউড ব্যবহার করতে পারে।

আর হ্যা, আমরা উইন্ডোজ ১০ এ “Mixed Reality” হেডসেট সম্পর্কে জানতে পেরেছি, তাছাড়া এই শব্দটি দিয়ে মাইক্রোসফট প্রায়শই ভার্চুয়াল রিয়্যালিটিকে বুঝিয়ে থাকে। সে যাইহোক, এই শব্দটির অর্থ আরও বিসৃত হতে পারে: এবং মাইক্রোসফটের HoloLens নামের একটি হেডসেট আছে যা আপনি চাইলে কিনতে পারেন।

শেষ কথা

মেটাভার্স শব্দটি আমাদের কাছে প্রায় নতুন। তাছাড়া মেটাভার্স আমার কাছে মনে হয় ভার্চুয়াল বক্সের আপডেট ভার্সন বা দ্বিতীয় প্রজন্মের ভার্চুয়াল বক্স। এই মেটাভার্স দিয়ে আমরা আমাদের কল্পনার জগতে হারিয়ে যেতে পারবো মুহূর্তেই। আর আপনি মেটাভার্স দিয়ে অনেক কিছুই উপভোগ করতে পারবেন যা এখন আমরা চিন্তাও করতে পারিনা।

কেমন লাগবে যদি আপনি ঘরে বসেই আপনার পছন্দের জায়গাটি ভ্রমণ করতে পারেন? তাও আবার বাস্তবের মত করেই। খুবই আশ্চর্যজনক লাগছে! তাই নয় কি? এই প্রযুক্তিটি অন্যসকল প্রযুক্তিকে হারিয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠবে খুব সহজেই এই আশা ব্যক্ত করে আজকের টিউন এখানেই শেষ করছি।

টিউন জোসস করুন, আমার টিউন শেয়ার করুন, টেকটিউনসে আমাকে ফলো করুন, আপনাদের মতামত জানান

আমি এরকম নিত্যনতুন কাজের সফটওয়্যার নিয়ে টেকটিউনসে হাজির হবো নিয়মিত। তবে সে জন্য আপনার যা করতে হবে তা হলো আমার টেকটিউনস প্রোফাইলে আমাকে ফলো করার জন্য 'Follow' বাটনে ক্লিক করুন। আর তা না হলে আমার নতুন নতুন টিউন গুলো আপনার টিউন স্ক্রিনে পৌঁছাবে না।

আমার টিউন গুলো জোসস করুন, তাহলে আমি  টিউন করার আরও অনুপ্রেরণা পাবো এবং ফলে ভবিষ্যতে আরও মান সম্মত টিউন উপহার দিতে পারবো।

আমার টিউন গুলো শেয়ার বাটনে ক্লিক করে সকল সৌশল মিডিয়াতে শেয়ার করুন। নিজে প্রযুক্তি শিখুন ও অন্য প্রযুক্তি সম্বন্ধে জানান টেকটিউনসের মাধ্যমে।

Level 8

আমি রায়হান ফেরদৌস। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 175 টি টিউন ও 131 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 68 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস