স্মার্টফোন রিভিউঃ স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ১০ প্লাস

নতুন নতুন প্রযুক্তির মাধ্যমে সারা পৃথিবীতে আলোড়ন তুলেছে দক্ষিণ কোরিয়ার  প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। ২০১৯ সালের মার্চে স্মার্টফোনের জগতে যুক্ত হয়েছে নতুন স্মার্টফোন গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস। এই ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনটিতে সম্ভাব্য সবরকম উদ্ভাবনী প্রযুক্তি যুক্ত করছে এই টেক জায়ান্ট। দেখে নেওয়া যাক গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস স্মার্টফোনটিতে কি কি রয়েছেঃ 

হার্ডওয়্যারঃ

২০১৯ সালের আগস্ট মাসে Galaxy Note 10+ নিউইয়র্কে লঞ্চ করা হয়। অন্যদিকে Galaxy Note 10+ ফোনে রয়েছে 6.8 ইঞ্চি  ডিসপ্লে। এটাই আজ পর্যন্ত Galaxy Note সিরিজের সব থেকে বড় ডিসপ্লে।

Galaxy Note 10+ ফোনের ডিসপ্লে, ব্যাটারি ও মেমোরি আলাদা হলেও অন্যান্য স্পেসিফিকেশন একই। দুটি ফোনেই থাকছে ডাইনামিক AMOLED ডিসপ্লে। ডিসপ্লেটির চারপাশে একটি ছোট বেজেল রয়েছে।  5G ভেরিয়েন্টে Galaxy Note 10+ এ থাকছে 12GB RAM। অন্যদিকে Galaxy Note 10+ ফোনে মাইক্রো এসডি কার্ড স্লট রয়েছে। 1TB পর্যন্ত মেমোরি কার্ড সাপোর্ট করে এই ফোনে। থাকছে 12GB RAM আর 512 GB স্টোরেজ। Galaxy Note 10+ ফোনে থাকবে 4, 300 mAh ব্যাটারি। 5G ভেরিয়েন্টে পাওয়া যাবে এই ফোন। এই ফোনের হার্ডওয়্যারের নির্মাণ কৌশল অবিশ্বাস্য। ফোনটিতে রয়েছে ওয়াইড এঙ্গেল, আলট্রা ওয়াইড ও টেলিফটো লেন্স এর কম্বিনেশনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ। তবে নোট ১০ প্লাস ৫জি তে অতিরিক্ত হিসেবে টাইম অব ফ্লাইট বা টিওএফ সেন্সর রয়েছে যা ডেপথ ইনফরমেশন সংগ্রহ করবে। 

ক্যামেরাঃ

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ১০ পেছনে তিনটি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। এতে ১২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল অ্যাপারচার এফ/১.৫-২.৪ ওয়াইড লেন্স ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। অন্য দুটি হলো ২X অপটিক্যাল জুম প্রযুক্তিসম্বলিত ১২ (অ্যাপারচার এফ/২.৪) মেগাপিক্সেলের টেলিফটো লেন্স এবং ১৬ (অ্যাপারচার এফ/২.২) মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা ওয়াইড লেন্স।

ফোনটি দিয়ে ফোরকে এবং সুপার স্লো-মোশন ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। ফোনটির ক্যামেরা এতোটাই ভালো যে, এটি দিয়ে সম্প্রতি ‘ফেরার গান’ শীর্ষক একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র চিত্রায়ন করা হয়েছে যা বর্তমানে অনলাইন ষ্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম আইফ্লিক্সে দেখা যাবে। ব্যাক ক্যামেরা ছাড়াও প্রথমবারের মতো গ্যালাক্সি এস১০ প্লাসে ব্যবহার করেছে ইন-ডিসপ্লে ডুয়েল ফ্রন্ট ক্যামেরা আর এতে করে ফোনটির উপরিভাগের পুরোটাই ডিসপ্লে হিসেবে ব্যবহার করা যায়।

১০ মেগাপিক্সেল ও আরজিবি ডেপথ ক্যামেরার ৮ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে ডিভাইসটিতে যা দিয়ে অনায়াসে আল্ট্রা-এইচডি ভিডিও ক্যাপচার করা যায় এবং সেলফ-ফোকাসিং পোর্ট্রেট সেলফি ছবি তোলা যায়।

ডিসপ্লেঃ

স্মার্টফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে এইচডিআর১০ প্লাস ফিচারসমৃদ্ধ ৬.৪ ইঞ্চি কোয়াড এইচডি প্লাস ডায়নামিক অ্যামোলেড ডিসপ্লে। এর রেজ্যুলেশন ৩০৪০X১৪৪০ পিক্সেল। স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাতিক হার ৮৭.৫% এবং ১৯:৯। ডিসপ্লে সুরক্ষার জন্য ফোনটিতে গরিলা গ্লাস ৬ ব্যবহার করা হয়েছে। দিনে সূর্যের আলোতে স্বচ্ছ ও উজ্জ্বল ডিসপ্লের অভিজ্ঞতা সম্ভব হয়েছে ডিভাইসটির অটো ব্রাইটনেস ফিচারটির কারণে।

এছাড়া দিনের অত্যাধিক তাপমাত্রায় ব্যবহারকারীর অবস্থা বেগতিক হলেও গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস চলবে সমস্যা ছাড়াই দুর্দান্ত গতিতে। ডিভাইসটি ব্যবহারের সময় মনে হবে যেন প্রাণবন্ত একটি ডিসপ্লেতে আঙ্গুলের ছোঁয়া পড়ছে। গ্যালাক্সি এস১০ প্লাসে এখন পর্যন্ত মোবাইল ডিসপ্লেতে সেরা ডিসপ্লে ব্যবহার করেছে স্যামসাং।

Samsung Galaxy S10 plus front view damjanun.com

ডিজাইনঃ 

প্রিমিয়াম সিরামিক ব্যাক সহ এই ফোনটিতে আছে, পার্কস: রিভার্স ওয়্যারলেস, চার্জিং  এবং হেডফোন জ্যাক। নতুন এবং পুরানো মডেলের মিশ্রণে ডিজাইন করা হয়েছে এস 10 প্লাস। এর অ্যালুমিনিয়াম ফ্রেমটি স্যামসাং এস 9 প্লাসের চেয়ে পাতলা। এটিতে রয়েছে মসৃণ গরিলা গ্লাস 6। এর মধ্যে স্যান্ডউইচড এটি 'প্রিজম' সাদা, কালো এবং সবুজ রং এর।

চিপসেটঃ

এই ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে স্যামসাংয়ের নিজস্ব প্রসেসর এক্সিনোস ৯৮২০ (অক্টা-কোর)। এটিতে রয়েছে  স্ন্যাপড্রাগণ ৮৫৫ প্রসেসর। কাজের দুর্দান্ত গতির কাছে হার মানতেই হবে সমসাময়িক অন্যান্য ব্র্যান্ডের ডিভাইসগুলোকে। যত বড় গেম কিংবা অ্যাপ হোক না কেন গ্যালাক্সি এস১০ প্লাসের প্রসেসিং স্পিড এক কথায় অসাধারণ। গেম খেলার জন্য এই ফোনটি সেরা। 

র‍্যাম ও স্টোরেজঃ

স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। এছাড়াও মাইক্রোএসডি কার্ড ব্যবহার করে আরও মেমোরি আরও বৃদ্ধি করার সুযোগ।  ফলে স্টোরেজ নিয়ে কোন দুঃচিন্তা নেই। ইচ্ছে মতো অ্যাপ ওপেন করে মাল্টিটাস্কিং করলেও ফোনটিতে কোনো ধরনের ল্যাগিং পাওয়া যায় না।

Samsung Galaxy S10 plus bottom damjanun.com

ব্যাটারি এবং অপারেটিং সিস্টেমঃ 

ডিভাইসটিতে ৪১০০ মিলিঅ‍্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। এতে ফাস্ট ব্যাটারি চার্জিং ১৫ ওয়াট এবং ফাস্ট ওয়্যারলেস চার্জিং ১৫ ওয়াট সমর্থন করে। এছাড়া ফোনটিতে রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং এর ব্যবস্থা রয়েছে। রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং প্রযুক্তির মাধ্যমে এই ডিভাইস থেকে ওয়্যারলেস চার্জিং সুবিধাযুক্ত যেকোনো মোবাইল কিংবা পরিধানযোগ্য ডিভাইস চার্জ দেয়া যাবে, যার চার্জিং ক্ষমতা ৯ ওয়াট।

ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম অ‍্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই এবং স্যামসাংয়ের নিজস্ব ওয়ান ইউআই। পুরো সফটওয়্যার সিস্টেমটি এমনভাবে সমন্বয় করা হয়েছে যে, দীর্ঘ সময় ধরে ব্যাটারি পাওয়ার থাকার পাশাপাশি গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস নিজের সর্বোচ্চ কর্মদক্ষতা প্রমাণ করতে পারে।

Level 2

আমি আহমেদ তানভীর স্মরণ। , Dhaka। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 5 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 26 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস