বাংলাদেশ এখন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দারপ্রান্তে। আসেন আমরা সবাই এই অর্জনে অবদান রাখি, বিজয়ের মুহূর্তকে উপভোগ করি

সারা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে, বাংলাদেশ পৌঁছে গেছে ‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ ২০১৬’ এর ফাইনালের শীর্ষে। বাংলাদেশী হিসেবে আমাদের ১৬ কোটি মানুষের প্রত্যেকের জন্য এটা একটা গৌরবের বিষয়। সারা পৃথিবী এখন তাকিয়ে আছে আমাদের বাংলাদেশের দিকে। আমরা আমাদের প্রাণের বাংলাদেশ কে নাম্বার ১ দেখতে চাই। এখন ১৬ কোটি মানুষ, একটাই স্বপ্ন,একটাই চাওয়া বাংলাদেশ হবে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। আর তার জন্য প্রয়োজন আপনার ভোট।আজই শেষ দিন, শীর্ষ অবস্থান আমাদের ধরে রাখতেই হবে। আপনার শেষ ভোটটা দিয়ে বাংলাদেশকে বিজয়ী করুন। ভুলে গেলে চলবে না

ভোট দেয়ার পদ্ধতিঃ
https://2016.spaceappschallenge.org/ লিংকটিতে গিয়ে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।

তাহলে একাউন্ট করা হয়ে যাবে।

https://2016.spaceappschallenge.org/vote এই লিঙ্কে গিয়ে লগইন করে নিতে হবে।

লগইন করার পর এমন দেখাবে।

 

এখন MartianOasis কে ভোট দেয়া যাবে। একটু স্ক্রল করে নিচে যেতে হবে। তারপর MartianOasis খুজে বের করে Vote Now বাটনে ক্লিক করলেই ভোট দেয়া হয়ে যাবে।

ভোট দেয়া হয়ে গেলে রাত 12:00 পর্যন্ত দেখাবে

পরের দিন আবার ভোট দিতে পারবেন
বিঃদ্রঃ একটি অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতিদিন একটি করে ভোট দেয়া যাবে। এভাবে আগামী কাল রবিবার পর্যন্ত ভোট দিতে পারবেন।

 

আসুন একটা হিসেব মেলানো যাক....

বর্তমানে

১ নং অবস্থানে আছে ইউক্রেন (যার মোট জনসংখ্যা- ৪ কোটি ৫৫ লাখ) তারা ভোট দিয়েছে (5,151 votes)

২ নং অবস্থানে আছে মেসিডোনিয়া (জনসংখ্যা মাত্র– ২১ লাখ!!!) ভোট দিয়েছে (4,842 votes)

৩ নং অবস্থানে আছে আমাদের বাংলাদেশ (জনসংখ্যা মাত্র– ১৬ কোটি যার মধ্যে তরুণদের সংখ্যা ১২ কোটি এবং টেকটিউনার ৩ কোটি+) ভোট দিয়েছি মাত্র (4,543 votes)

১ নং দের থেকে আমরা পিছিয়ে আছি মাত্র ১১৯৯ ভোটে

https://2016.spaceappschallenge.org/awards এখান থেকে বর্তমান র‌্যাংক চেক করা যাবে।

আমাদের ৩ কোটির টেকটিউনস পরিবার। আমাদের সম্পূর্ণ পরিবারের যদি

১% সদস্য ভোট দেয় তাহলে ভোট হবে ৩,০০,০০০ ভোট। এতো ভোট আমাদের দরকার নেই জেতার জন্য।

০.১% সদস্য ভোট দেয় তাহলে ভোট হবে ৩০,০০০ ভোট। এতো ভোট আমাদের দরকার নেই জেতার জন্য।

০.০১% সদস্য ভোট দেয় তাহলে ভোট হবে ৩,০০০ ভোট। এটাই যথেষ্ট আমাদের বিজয় নিশ্চিৎ করার জন্য।

আমাদের টেকটিউনার পরিবার সচেতন হলে মাত্র দশ মিনিটেই আমরা নং ১ নিশ্চিৎ করে চ্যাম্পিয়ন হতে পারি।

বাংলাদেশ কে চ্যাম্পিয়ন করার এই সুযোগ আমাদের হাতছাড়া করা কি ঠিক হবে? আপনারাই বলুন।

আমি মনে করি বাংলাদেশের যেকোন অনলাইন কমিউনিটির থেকে টেকটিউনস কমিউনিটি অনেক বড় এবং সক্রিয়। আমরা কি পারি না দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে বাংলাদেশ কে ১ নং এ আনতে?

গেইম এর মিনিমাম ভার্সন এবং সোর্স কোড ডাউনলোড করা যাবে https://github.com/AKsheemul/MartianOasisGame এখান থেকে। পূর্ণাঙ্গ ভার্সন পাওয়া যাবে কিছুৃ দিনের মধ্যেই।

 

‘মার্সিয়ান ওয়েসিস’ প্রজেক্টের জন্য শুভকামনা রইলো। আমরা ভোট দিলেই প্রকল্পটি বিজয়ী হতে পারবে বাংলাদেশ। তাই আমাদের প্রত্যেকের দায়িত্ব ভোট দিয়ে বাংলাদেশকে বিজয়ী করা।


কোন বিষয় আমাকে জানানোর জন্য টিউমেন্ট করতে পারেন এর পাশাপাশি আমাকে ফেসবুকে ম্যাসেজ দিতে পারেন। আপনার মতামত, জিজ্ঞাসা, সবার সাথে শেয়ার করুন। প্রতিদিন কিছু না কিছু শেখার চেষ্টা করুন,টিমওয়ার্ক করুন, নূন্যতম প্রতিদিন দুই ঘন্টা করে কোডিং করুন। আপনার ইচ্ছা আর সক্রিয় অংশগ্রহণই আপনাকে এ বিষয়ে অভিজ্ঞ করে তুলবে।

আজ এ পর্যন্তই। সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা। শুভকামনা রইলো।

Level 2

আমি অসীম কুমার পাল। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 12 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 147 টি টিউন ও 469 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 17 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি অসীম কুমার পাল। ইলেকট্রনিক্স এবং ওয়েব ডিজাইনকে অন্তরে ধারণ করে পথ চলতেছি। স্বপ্ন দেখি এই পৃথিবীর বুকে একটা সুখের স্বর্গ রচনা করার। নিজেকে একজন অতি সাধারণ কিন্তু সুখী মানুষ ভাবতে পছন্দ করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ভোট দিয়ে আসলাম।

    দারুন কাজ করেছেন, আমরা চ্যাম্পিয়ন হলে আগামী প্রজন্ম আর বেশি উৎসাহিত হবে এ ধরণের বড় বড় কম্পিটিশনে অংশ গ্রহণ করতে। আর তাহলেই ভালো ভালো প্রজেক্ট বেড়িয়ে আসবে। আমরা প্রযুক্তিতে সমৃদ্ধ হতে পারবো। যারা বলে ভোট দিয়ে লাভ নাই, তারা আসলে নিজের কথাই শুধু ভাবে, আগামীর প্রজন্মের ভালো চায় না।

Level 0

ভাই ইলেকশনের মত ভোট চেয়ে নিয়ে এক নাম্বারে এ গিয়ে কোন লাভ নাই। এমন কিছু করেন জেনো ভোট চাওয়া না লাগে। শুধু দেশের মানুষ নয় বিদেশের মানূষ রাও জেন ভোট দেয়। ভাল মন্দ জাচাই না করে শুধু আন্ধার মত নিজের জিনিস বলে ভোট দেওয়াও খারাপ কাজ। যেটা ভাল তারই ভোট প্রাপ্য হওয়া উচিত।

    রাতুল ভাই,আপনার মতামতকে আংশিক সমর্থন করি। কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন কথা বলে। যেটা চলছে এটা অনৈতিক নয়। NASA যারা আয়োজক তারাও এটা চাই। আপনি ভালো প্রজেক্ট বানিয়ে বসে থাকলে কোন লাভ হবে না। সেটাই করা উচিৎ যেটা নৈতিকতার পাশাপাশি বাস্তবতা, সামাজিকতা, নিজের দায়িত্ব এবং কতৃব্য কে সমর্থন করে। মার্সিয়ান ওয়েসিস টিমের কারো সাথেই আমার ব্যক্তিগত সম্পর্ক নেই। কিন্তু সত্যকথা হচ্ছে ওরা পেরেছে, আমার আপনার প্রজেক্ট কিন্তু পারেনি। কি পারেনি জানেন বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে নিয়ে যেতে। ভালো উদ্দেশ্যকে প্রশংসা করতে না পারলে অন্তত নিরুৎসাহিত করবেন না। আর লাভ লসের কথা বললেন না , এই অর্জনটা শুধু মার্সিয়ান ওয়েসিসের অর্জন হিসেবে না চিন্তা করে দেশের অর্জন হিসেবে ভাবুন। এর সুফল পাবে আমাদের আগামী প্রজন্ম। খালি নিজের টা ভাবলে চলেবে?

এখন কার অর্জন গুলোই আগামীর পথ তৈরি করবে

এখন কার অর্জন গুলোই আগামীর পথ তৈরি করবে। টিক বলেছেন।

প্রযুক্তি হবে সবার জন্য উন্মুক্ত। শুধু নিজের টা ভাবলে কি আর টেকটিউনস হত? হত না। টেকটিউনস আমাদের কে শিখাচ্ছে। যা আমরা বড় ভাই বলেন, আর যে বলেন কেউ শিখায় না। টেকটিউনস এ সবাই ফ্রী তে খুভ ভাল কিছু শিখায়। বিনিময় তারা পায়। গ্লানির ঝালনি। অসীম ভাই আপনি , আসলেই অসীম। আপনার মত অসীম কয়েক জন ব্যক্তি এই টেকটিউনস এ আছে বলেই। আজকে এর মেম্বর ৩ কোটী

মাত্র ভোট দিয়ে অাসলাম- যদিও দেবার কোনই ইচ্ছে ছিল না 👿
হ্যাঁ, ঠিকই বলছি, দেশের সামাজিক-রাজনৈতিক পরিস্থিতি এত জঘন্য থাকে যে ওসব অনাচারের চেয়ে প্রযুক্তির ভালবাসাও মাঝে মাঝে খুব ছোট মনে হয়……ভাবটা এমন যে নিজেরটা না হলে অার পরেরটায় সময় দেবার চিন্তা করতে ইচ্ছা করে না। যদিও এটা পরমুহূর্তেই ভাবি, তবে অামার বেলায় অন্যে সময় কেন দেবে? 😉

যা হোক অাপনার সুন্দর টিউন অার কমেন্টের জন্য (যদিও যৌক্তিকতাগুলো অামার অজানা নয়), অার টপাটপ ভোট কাউন্ট বাড়তে দেখে অামিও ভোট দিলাম…..যারা দেশকে উপরে নিয়ে গেছে- তাদের অার দেশের স্বার্থে অন্তত এতটুকু সময় দেয়া যায়। ধইন্যা থাকল টিউনে 🙂

******* দারপ্রান্ত->দ্বারপ্রান্ত; নিশ্চিৎ->নিশ্চিত

প্রিয় টিউনার ,

আমি টেকটিউনস কমিউনিটি ম্যানেজার, শোয়াইব, টেকটিউনস থেকে আপনার সাথে অফিসিয়ালি যোগাযোগ করতে চাচ্ছি।

টেকটিউনস থেকে আপনার সাথে অফিসিয়ালি যোগাযোগ করার জন্য http://techtun.es/2obSQxE লিংকটিতে ক্লিক করে আপনার সাথে যোগাযোগের প্রয়োজনীয় তথ্য সাবমিট করে আমাদের সাহায্য করবেন আশা করছি।

সাবমিট করার পর আমাদের এই ম্যাসেজের রিপ্লাই আপনার কাছ থেকে আশা করছি।

ধন্যবাদ আপনাকে।