প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রামের ৪টি উদ্যোগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার টানা তৃতীয়বারের মতো ডব্লিউ এস আই এস পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশ

তথ্য প্রযুক্তি খাতে একটি মর্যাদা সম্পন্ন পুরস্কার  ওয়ার্ল্ড সামিট অন দ্য ইনফরমেশন সোসাইটি (ডব্লিউএসআইএস) পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশ। টানা তৃতীয়বারের মতো ‘ডব্লিউএসআইএস প্রাইজ চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড-২০১৬’ জয় করলো বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের ৪টি উদ্যোগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মাধ্যমে এই পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশ।

বুধবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় অবস্থিত ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের (আইটিইউ) সদর দপ্তরে এ পুরস্কার   ঘোষণা করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের উদ্যোগগুলো ছিলো

  • সরকারি সেবা পদ্ধতি সহজিকরণ-এসপিএস
  • পরিবেশ অধিদফতরের অনলাইন ছাড়পত্র
  • শিক্ষক বাতায়ন  এবং
  • কৃষকের জানালা

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের নেতৃত্বে,  অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের পলিসি এডভাইজার আনিচ চৌধুরী, অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের ইনোভেশন পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান এবং বিএনএনআরসির প্রধান নির্বাহী এ এইচ এম বজলুর রহমানের উপস্থিতিতে এই পুরস্কার বাংলাদেশের পক্ষ থেকে গ্রহণ করা হয়।

২০১৫ সালে এটুআইয়ের ন্যাশনাল ওয়েব পোর্টাল  প্রকল্পের মাধ্যমে এবং  ২০১৪ সালে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার প্রকল্পের মাধ্যমে এই পুরস্কার পায় বাংলাদেশ।

২০০৭ সালে জনগণের দোর গোড়ায় সেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষে UNDP এবং USAID এর সহযোগিতায় শুরু হয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম। এই প্রোগামের আওতায় পরিচালিত ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার, সার্ভিস ইনোভেশন ফান্ড, ন্যাশনাল ওয়েব পোর্টাল, ই-সেবা, ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা ইত্যাদি উদ্যোগ গুলো ইতোমধ্যেই দেশে ও বিদেশে প্রশংসা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

ইনোভেশন ফান্ড প্রকল্পের আওতায় দেশের সকল অঞ্চলের উদ্ভাবনী দক্ষতা সম্পন্ন উদ্ভাবকদের আর্থিক সহযোগিতা সহ প্রকল্প সফল করতে সকল প্রকার সহযোগিতা প্রদান করা হয়।
জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর, শেরেবাংলা নগর, আগারগাঁওতে "ইনোভেশন ল্যাব" নামে একটি বিশেষায়িত ল্যাব তৈরির প্রক্রিয়া চলছে, যেখানে তরুণ প্রজন্ম, প্রযুক্তিবিদ, গবেষক, শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা তাদের উদ্ভাবনী ধারণা সমূহকে বাস্তবায়ন করার জন্য সকল ধরণের গবেষণা করতে পারবেন এবং সার্বিক সহযোগিতা পাবেন।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের উদ্যোগগুলের সাথে আমাদের সকলের সম্পৃক্ততা বাড়ানো সম্ভব হলে ডিজিটাল বাংলাদেশ স্বপ্ন বাস্তবায়ন খুব দ্রুত সম্ভব হবে বলে মনে করি। আমরা যে যে মতাদর্শেরই হইনা কেন দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের স্বার্থে সরকারের সকল জনকল্যাণমুখী  উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডকে সমর্থন করি আর জনকল্যাণ বিরোধী পদক্ষেপ সমূহের গঠন মূলক সমালোচনা করি তাহলেই দেশ আগাবে।


কোন বিষয় আমাকে জানানোর জন্য টিউমেন্ট করতে পারেন এর পাশাপাশি আমাকে ফেসবুকে ম্যাসেজ দিতে পারেন। আপনার মতামত, জিজ্ঞাসা, সবার সাথে শেয়ার করুন। প্রতিদিন কিছু না কিছু শেখার চেষ্টা করুন,টিমওয়ার্ক করুন, নূন্যতম প্রতিদিন দুই ঘন্টা করে কোডিং করুন। আপনার ইচ্ছা আর সক্রিয় অংশগ্রহণই আপনাকে এ বিষয়ে অভিজ্ঞ করে তুলবে।

আজ এ পর্যন্তই। সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা। শুভকামনা রইলো।

Level 2

আমি অসীম কুমার পাল। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 12 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 147 টি টিউন ও 469 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 17 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি অসীম কুমার পাল। ইলেকট্রনিক্স এবং ওয়েব ডিজাইনকে অন্তরে ধারণ করে পথ চলতেছি। স্বপ্ন দেখি এই পৃথিবীর বুকে একটা সুখের স্বর্গ রচনা করার। নিজেকে একজন অতি সাধারণ কিন্তু সুখী মানুষ ভাবতে পছন্দ করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস