আইডিয়া চুরি রোধ করতে পারে ন্যাশনাল এবং ওপেন সোর্স আইডিয়া ব্যাংক

পৃথিবীতে সবাই আসেন খালি হাতে, কেউ কেউ ফিরে যান একরাস ব্যর্থতা নিয়ে আবার কেউ কেউ এই পৃথিবীর আলো বাতাস গায়ে মেখেই নিজেকে তৈরি করেন সুপার হিউম্যান রূপে। যেকোন সফল মানুষের পেছনে থাকে সহজ কিছু ধারণা বা আইডিয়া। যেগুলো তারা পরিশ্রম আর মেধা দিয়ে বাস্তবায়ন করে হয়ে যান অসাধারণ মানুষ, পৃথিবীর বুকে রেখে যান অনন্য কৃতিত্বের স্বাক্ষর।

একটা দারুন আইডিয়া বদলে দিতে পারে একজন মানুষ, কিছু সংখ্যক মানুষ, একটা জাতি এমনকি এই পৃথিবীর ভবিষ্যৎকে। স্বাভাবিক ভাবেই অামরা বাংলাদেশীরা  একটু বেশি ডাইনামিক। আমাদের প্রতিদিন বিভিন্ন ধরণের বিচিত্র অভিজ্ঞতার মধ্যেদিয়ে জীবন অতিবাহিত করতে হয় যা সাধারণত উন্নত বিশ্বে বিরল। কারণ উন্নত বিশ্বে মানুষের প্রতিদিনের জীবনযাত্রা প্রায় একই রকম এবং ছঁকে বাধা। আমাদের যতটা চ্যালেঞ্জ নিতে হয় অন্য কোন উন্নত দেশে তা নিতে হয় না। আবহাওয়ার বৈচিত্রতাও একটা অন্যতম কারণ আমাদের ডাইনামিক জীবনযাত্রার জন্য। তাই আমাদের চিন্তার জগৎ অন্য যেকোন জাতিসত্বার মানুষের থেকে বড় হয়। আমরা যে কোন সমস্যাকে বিভিন্ন ডাইমেনশনে চিন্তা করতে পারি। তাই নতুন নতুন আইডিয়া তৈরি করাটা আমাদের জন্য খুবই সহজ ব্যপার।

মূল বক্তব্যে আসা যাক।

বর্তমানে আইডিয়া এবং ইনোভেশন নিয়ে প্রায়ই বিভিন্ন ধরণের উদ্দোগ নেয়া হচ্ছে, বিভিন্ন ধরণের কম্পিটিশনের আয়োজন করা হচ্ছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে এই কর্মকান্ডগুলো পরিচালিত হচ্ছে দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার আর্থিক সহযোগিতায়। তাই আইডিয়া চুরির ঘটনা অস্বাভাবিক নয়। একটি দারুন আইডিয়া সৃষ্টিকর্তার অনন্য উপহার হতে পারে যেকারো জন্য। কিন্তু তাই বলেকি আমরা এই ধরণের পদক্ষেপ গুলোকে স্বাগত জানাবো না? আমরা কি আমাদের আইডিয়া কারো সাথে শেয়ার করবো না?

অবশ্যই করবো, কিন্তু একটু ভিন্নভাবে। আর এজন্যই প্রয়োজন ন্যাশনাল এবং ওপেন সোর্স আইডিয়া ব্যাংক।

ন্যাশনাল আইডিয়া ব্যাংক

দেশে বিভিন্ন ধরণের ব্যাংক আছে সবই অর্থসংক্রান্ত। সবাই তাদের অর্থ এবং মূল্যবান সম্পদ সেখানে জমা রাখেন। কিন্তু মহামূল্যবান আইডিয়া সমূহ জমা রাখার কোন ব্যবস্থা নেই। ন্যাশনাল  আইডিয়া ব্যাংক এর প্রয়োজনীয়তা কেন তা জানার আগে আইডিয়া ব্যাংকের কার্যক্রম কেমন হওয়া উচিৎ জেনে নেয়া দরকার।

ন্যাশনাল  আইডিয়া ব্যাংক হওয়া উচিৎ এমন একটা ওয়েবসাইট যেখানে যেকোন ব্যক্তি তার আইডিয়া জমা রাখতে পারবেন। প্রয়োজনে নিরাপত্তা বিধান করতে পারবেন, অন্যের প্রবেশাধিকার সংরক্ষণ করতে পারবেন এবং উপযুক্ত সময়ে জনসম্মুখে আংশিক বা সম্পূর্ণরূপে প্রকাশ এবং প্রচার করতে পারবেন।

যেকোন ব্যক্তি যখনই কোন আইডিয়া কোন ব্যক্তির কাছে শেয়ার করবেন তার পরবর্তী কাজ হবে ঐ আইডিয়াটি আইডিয়া ব্যাংকে সংযোজন করা। যাতে করে তার আইডিয়াটি চুরি হয়ে না যায়। যদি দেখা যায় দ্বিতীয় ব্যক্তি একই আইডিয়া নিয়ে কোন কাজ করছে বা নিজের বলে প্রচার করছে, তখন মূল ব্যক্তি আইডিয়া ব্যাংকের সহায়তা নিয়ে দ্বিতীয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রচলিত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।

কোন ব্যক্তি বা সংস্থা বিশেষ কোন আইডিয়ার সংক্ষিপ্ত অংশ পড়ে যদি আগ্রহ প্রকাশ করেন সেক্ষেত্রে ঐ ব্যক্তি বা সংস্থা মূল আইডিয়া প্রদানকারী ব্যক্তির কাছে প্রস্তাব পাঠাতে পারবেন। যদি তাদের মধ্যে কোন সমোঝোতা হয় তাহলে তারা একসাথে শর্তসাপেক্ষে আইডিয়া বাস্তবায়নে কাজ করতে পারবেন। কোন পক্ষ শর্ত পূরণ না করলে আইডিয়া ব্যাংকের সহায়তা নিয়ে  আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।

ওপেন সোর্স আইডিয়া ব্যাংক

এমন অনেক আইডিয়া থাকতে পারে যেগুলো সম্পূর্ণরূপে কোন শর্ত ছাড়াই আইডিয়া ব্যাংকের মাধ্যমে প্রকাশ করা যেতে পারে। এ ধরণের আইডিয়াকে বলা যেতে পারে ওপেন সোর্স আইডিয়া। এই আইডিয়া সমূহও কোন কোন ক্ষেত্রে বিশেষ কার্যকর হতে পারে। সাধারণত কোন রাষ্ট্রীয় বা সামাজিক সমস্যা বিষয়ে সমাধান হতে পাবে। এক্ষেত্রে শর্ত ছাড়াই যে কেউ আইডিয়া গুলো ব্যবহার করতে পারলেও নিজের বলে প্রচার করতে পারবেন না এবং আইডিয়া প্রদানকারী ব্যক্তি যথাযথ সম্মান এবং মর্যাদা পাবেন।

আসুন আমরা মেধার চর্চা করি। নতুন নতুন আইডিয়া তৈরি করি আর সেগুলো বাস্তবায়ন করার মাধ্যমে দেশের আধুনিকিকরণে আত্মনিয়োগ করি।


কোন বিষয় আমাকে জানানোর জন্য টিউমেন্ট করতে পারেন এর পাশাপাশি আমাকে ফেসবুকে ম্যাসেজ দিতে পারেন।

আপনার মতামত, জিজ্ঞাসা, সবার সাথে শেয়ার করুন। প্রতিদিন কিছু না কিছু শেখার চেষ্টা করুন,টিমওয়ার্ক করুন, নূন্যতম প্রতিদিন দুই ঘন্টা করে কোডিং করুন। আপনার ইচ্ছা আর সক্রিয় অংশগ্রহণই আপনাকে এ বিষয়ে অভিজ্ঞ করে তুলবে।

আজ এ পর্যন্তই। সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা। শুভকামনা রইলো।

Level 2

আমি অসীম কুমার পাল। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 12 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 147 টি টিউন ও 469 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 17 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি অসীম কুমার পাল। ইলেকট্রনিক্স এবং ওয়েব ডিজাইনকে অন্তরে ধারণ করে পথ চলতেছি। স্বপ্ন দেখি এই পৃথিবীর বুকে একটা সুখের স্বর্গ রচনা করার। নিজেকে একজন অতি সাধারণ কিন্তু সুখী মানুষ ভাবতে পছন্দ করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

আমার আইডিয়া টাও দেখছি ব্যাংক এ রাখতে হবে !!! আচ্ছা !! কত GB হস্টিং 😀

”যেকোন ব্যক্তি যখনই কোন আইডিয়া কোন ব্যক্তির কাছে শেয়ার করবেন তার পরবর্তী কাজ হবে ঐ আইডিয়াটি আইডিয়া ব্যাংকে সংযোজন করা” ব্যাপারটি হাস্যকর।

কোন ব্যক্তির জন্য সঠিক কাজটি হবে কোন আইডিয়া কোন ব্যক্তির কাছে শেয়ার/প্রকাশ করার পূর্বেই ঐ আইডিয়াটি আইডিয়া ব্যাংকে সংযোজন করা।

সুপ্রিয় অসীম কুমার পাল, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ এ ধরণের আইডিয়া ভিত্তিক টিউন প্রকাশের জন্য 🙂