মোবাইল ফোনের অন্ধকার দিক: ৫ টি ক্ষতি যা আপনার জীবন নষ্ট করতে পারে

Level 2
শিক্ষার্থী, শের এ বাংলা সরকারি মহাবিদ্যালয়, রানীনগর, নওগাঁ, রাজশাহী

আমাদের দৈনন্দিন জীবনের এক অতি প্রয়োজনীয় সঙ্গীত মোবাইল ফোন। মোবাইল ফোন প্রযুক্তি আমাদের জীবনকে যেমন করেছে সহজ তেমনি করেছে অনেক স্বল্প সাময়িক। সকালে ঘুম থেকে উঠার জন্য এলার্ম দেওয়া থেকে শুরু করে আমাদের জীবনের সকল কাজেই আমরা এই মোবাইল ফোন প্রযুক্তি ব্যবহার করে থাকি। তবে মোবাইল ফোন আমাদের জীবনকে যেমন করেছে সহজ ঠিক তেমনি এর অনেক ভয়ঙ্কর প্রভাব ও আমাদের বাস্তব জীবনে রয়েছে। আর আজকে আমি এই মোবাইল ফোনের সেই ক্ষতিকারক কিছু অন্ধকার দিক নেই আপনাদের সাথে আলোচনা করব।

শুরুতেই বলে রাখি আজকে আমি আপনাদের সাথে মোবাইল ফোন ব্যবহারের যে ৫ টি ক্ষতিকারক দিক তুলে ধরব সেগুলো বিজ্ঞানের রিসার্চ ও ডাক্তারদের মতামতের ভিত্তিতে নেওয়া। এগুলো কোনটিই আমি নিজে থেকে বানিয়ে বলিনি। তো চলুন আর বেশি দেরি না করে এবার জেনে নেওয়া যাক যে, মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষতিকারক অন্ধকার ৫ টি দিক কী কী সেগুলো।

১. শারীরিক ক্ষতি

মোবাইল ফোন আমাদের দৈনন্দিন জীবনে অনেক বড় ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলছে। আর এর মধ্যে সবচেয়ে বড় ক্ষতিকারক প্রভাব হলো এটি আমাদের বিভিন্ন রকমের শারীরিক ক্ষতি করে থাকে। চলুন সংক্ষিপ্ত আকারে মোবাইল ফোন ব্যবহারের কিছু শারীরিক ক্ষতিকারক দিকগুলো জেনে যাওয়া যাক:

  • চোখের ক্ষতি: বর্তমানে মোবাইল ফোন ব্যবহারের সবচেয়ে বড় শারীরিক ক্ষতিকারক দিক হলো এই চোখের ক্ষতি। মোবাইল ফোনের ব্লু লাইট মানুষের চোখে বিশেষভাবে প্রভাব ফেলে। দীর্ঘক্ষণ ধরে মোবাইল ফোনের স্কিনের আলোতে তাকিয়ে থাকলে চোখ জ্বালাপোড়া করে, চোখ দিয়ে ঝাপসা দেখা যায়, চোখ দিয়ে পানি ঝরে পড়ে এবং এভাবে বহুদিন চলতে থাকলে আমাদের চোখের দৃষ্টিশক্তি ধীরে ধীরে কমতে থাকে।
  • ঘুমের ক্ষতি: দীর্ঘক্ষণ মোবাইলের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকলে আমাদের চোখের ক্ষতির পাশাপাশি ঘুমেরও ক্ষতি হয়। মোবাইল থেকে বের হওয়া ব্লু লাইট যখন আমাদের চোখে দীর্ঘক্ষণ প্রভাব ফেলে তখন এটি আমাদের ঘুমের হরমোন উৎপাদনে বাধা তৈরি করে। যার ফলে আমাদের ঘুম ধরতে সময় লাগে, ঘুম হলেও ঘুমের মান ভালো হয় না ইত্যাদি ঘুম বিষয়ে সমস্যা হয়।
  • ঘাড় ও মেরুদন্ডের ক্ষতি: আমরা বেশিরভাগ সময়ই মোবাইল ফোন ব্যবহারের সময় দাঁড়িয়ে ও বসে থেকেই মোবাইল ফোন ব্যবহার করি। তারপরে আমাদের মেরুদন্ড ও ধারে প্রাণ পরে ও ব্যথা হয়। আর এভাবে বহুদিন চলার ফলে আমাদের মেরুদন্ড ও ঘাড়ে দীর্ঘস্থায়ী সমস্যা দেখা দিতে পারে।
  • শ্রবণশক্তির ক্ষতি: যদিও এটি মোবাইল ফোন ব্যবহারের কারণে হয় না। কিন্তু, আমরা যারা মোবাইল ফোন ব্যবহার করি তারা অবশ্যই হেডফোনও ব্যবহার করেই থাকি। আর হেডফোন ব্যবহারের ফলে আমাদের প্রবলেম শক্তির অনেক ক্ষতি হয়। দীর্ঘদিন এমনভাবে হেডফোন ব্যবহার করতে থাকলে আমাদের শ্রবণশক্তি দিন দিন কমতে থাকে।

২. মানসিক ক্ষতি

মোবাইল ফোন ব্যবহারের ফলে যেমন আমাদের হয় শারীরিক ক্ষতি ঠিক তেমনি এর সাথে আমাদের মানসিক ক্ষতিও হয়। মোবাইল ফোন সবসময় ব্যবহারের ফলে আমাদের মনোযোগের অভাব, একাকীত্ববোধ ও আগ্রহ হারানোর মতো মানসিক ক্ষতি দেখা দেয়। এছাড়াও মোবাইল ফোন ব্যবহারের ফলে আমাদের শারীরিক ক্ষতি হয় যার কারণে আমাদের শরীর সুস্থ না থাকা আমাদের মন মানসিকতাও ঠিক থাকে না।

৩. শিক্ষাগত ক্ষতি

বর্তমানে মোবাইল ফোন ব্যবহারের কারণে শিক্ষাগত ক্ষতি একটি বিশাল বড় মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষতিকারক দিক হয়ে উঠেছে। বর্তমানে শিক্ষার্থীরা মোবাইল ফোনে এমন আসক্তিকর গেম ও বিনোদন খুঁজে পাচ্ছে যার কারণে তারা তাদের আসল লক্ষ্য পড়াশোনা থেকে মনোযোগ সরিয়ে নিচ্ছে মোবাইল ফোনের দিকে। আর এ কারণে তারা পড়াশোনায় মনোযোগ দিতে পারছে না যার ফলে তাদের জীবনের অনেক বড় ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও স্কুল-কলেজের শিক্ষা বাদেও তারা তাদের জীবনে নতুন কিছু শিখা থেকেও মনোযোগ হারিয়ে ফেলছে। যার কারণে তাদের ভবিষ্যৎ জীবনে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে।

৪. সামাজিক ক্ষতি

সব সময় মোবাইল ফোন ব্যবহারের ফলে আমরা এখন একজন আরেকজনকে সময় দেই না এবং আমাদের মধ্যে থেকে একটি সামাজিকতার বিষয়টি ধীরে ধীরে উঠে যাচ্ছে। এছাড়াও এখন ঘরে ঘরে ইন্টারনেট হয় সবাই এখন ঘরে ঘরে মোবাইল ফোন ব্যবহার করে যার কারনে তারা কোন অনুষ্ঠান উৎসবে অংশগ্রহণ করে না এবং ঘর থেকে বের হয় না যার কারণে তাদের মানসিক ক্ষতির পাশাপাশি সামাজিকতাও তাদের মধ্যে থেকে চলে যাচ্ছে। এবং প্রযুক্তি যেভাবে এগোচ্ছে সে অনুযায়ী একদিন সবকিছুই ঘরে ঘরে হয়ে যাবে তাই সামাজিকতা বর্তমানে এই মোবাইল ফোনের কারণে অনেক বড় ঝুঁকিতে রয়েছে।

৫. আসক্তি

মানুষ সমাজে একটি কথা আছে যে কোন জিনিস যদি ভালোও হয় তারপরেও সেটির আসক্তি আমাদের জন্য খুবই খারাপ। এছাড়াও বলা হয় যে অতিরিক্ত সবকিছুই খারাপ। আর বর্তমানে মোবাইল ফোন ব্যবহার আমাদের অনেক বড় আসক্তি হয়ে উঠেছে। যার ফলে আমরা আমাদের জীবনের বাকি কাজগুলো থেকে পিছিয়ে পড়ছি। আর যার পরিণাম আমাদের নিজেদেরকেই ভবিষ্যতে দিতে হবে।

এ বিষয়ে আমার ব্যক্তিগত মতামত

দেখুন বন্ধু, প্রযুক্তি তৈরি করা হয়েছে আমাদের জীবনকে উন্নত ও সহজ করার জন্য। তাই সেই প্রযুক্তি যতক্ষণ আমাদের জীবনকে উন্নত করছে ততক্ষণ সেটির ব্যবহার ঠিক আছে কিন্তু এটি যদি আমাদের জীবনে ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলে তাহলে এক্ষুনি আমাদের নিজের উন্নতির স্বার্থে এটির ব্যবহার সম্পর্কে সচেতন হওয়া উচিত। নিঃসন্দেহে মোবাইল ফোন আমাদের জীবনকে অনেক উন্নত করেছে ও সহজ ও করেছে। তবে অবশ্যই এটি আমাদের ভেবেচিন্তে ব্যবহার করতে হবে যেন এটি আমাদের বাজে আসক্তিতে পরিণত না হয়। তাই অবশ্যই এক্ষুনি আপনার মোবাইল ফোন ব্যবহারের বিষয়টি নিয়ে ভাবা উচিত।

Level 2

আমি মো মিনহাজ। শিক্ষার্থী, শের এ বাংলা সরকারি মহাবিদ্যালয়, রানীনগর, নওগাঁ, রাজশাহী। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 23 টি টিউন ও 21 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 3 টিউনারকে ফলো করি।

"Welcome to TechTunes! I'm Md Minhaj, your guide to the dynamic world of technology. As an avid tech enthusiast, I'm dedicated to uncovering the latest trends, innovations, and insights in the tech realm. Through my words on TechTuness, I aim to decode intricate tech jargon, provide thoughtful analysis, and offer...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস