এই চ্যাটবটগুলি আপনার মাথা ঘুরিয়ে দিবে

প্রকাশিত
জোসস করেছেন

এই চ্যাটবটগুলি আপনার মাথা ঘুরিয়ে দিবে

চ্যাটজিপিটি
AI বা ARTIFICIAL INTELLIGENCE বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বর্তমানে, সাধারন নাম হলেও আগে তা এরকম ছিল না। বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তির যুগে মানুষের জীবনমান উন্নয়নে ব্যাপক ভুমিকা রাখছে AI। যেরকম কয়েকবছর আগে ফোন মোবাইল জনপ্রিয় ছিল না বর্তমানে তা সবার হাতে হাতে, হয়তোবা কয়েক বছর পর AI ও সকলের কাছে সাধারন নাম হবে। আজকের সময়ে এসব AI আরও প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে এবং আরও নতুন নতুন AI ও তৈরি হচ্ছে। জীবনমান উন্নয়ন এর সাথে সাথে মানবজীবনের জন্য হুমকির কারনও হতে পারে এই AI। তবে আমি আজ এই বিষয়ে নয় বরং পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ৩ টি AI চ্যাটবট সম্পর্কে কথা বলবো। যা বর্তমানে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে। কয়েকটি AI মানুষের জীবনমান উন্নয়ন এর জন্য, আবার কয়েকটি AI কাজকে সহজ করার জন্য। তাহলে চলেন বেশি কথা না বলে শুরু করি।

১.চ্যাটজিপিটি(Chat-gpt):-

-
বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ব্যাবহৃত AI হলো চ্যাটজিপিটি। এটি বাংলাদেশেও সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। ২০২২ সালের নভেম্বরে ওপেনএআই কর্তৃক এটি চালু করা হয়। এটি ওপেন এআই এর মালিকানাধীন একটি প্রতিষ্ঠান। ২০১৫ সালে ইলন মাস্ক সহযোগী মিলে এই প্রতিষ্ঠানটি শুরু করেন, পরে ইলন মাস্ক এই কোম্পানি থেকে পদত্যাগ করলে এই প্রজেক্ট টিতে বিপুল পরিমাণে বিনিয়োগ করে মাইক্রোসফট। এটি চ্যাটজিপিটির ৩.৫ এর মডেলে নির্মিত। বর্তমান সংস্করণটি হলো ৪.০। বিভিন্ন সোর্স থেকে প্রায় ৫৭০ জিবির বেশি ডাটা সমৃদ্ধ এই চ্যাট জিপিটি। এবং এটি প্রতিনিয়ত আরো সমৃদ্ধ হচ্ছে যাতে আরও নির্ভুল উত্তর দিতে পারে। এই চ্যাটবটটি বর্তমানে শুধু টেক্সট ম্যাসেজের উত্তর দিতে পারলেও আগামীতে তা ছবি কীংবা ভিডিও চেনার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে। এই চ্যাটবট আপনার জন্য কবিতা লিখে দিতে পারে, আপনার পরীক্ষার প্রশ্নের উত্তর লিখে দিতে পারে, অর্থনীতি-রসায়ন থেকে শুরু করে একাধিক প্রশ্নের উত্তর দিতে সক্ষম এই চ্যাটবট। তবে এই নয় যে এটি সব সময় নির্ভুল বা এটি কখনো ভুল করেনা, আপনি যদি কোনো প্রশ্ন করেন এবং তার উত্তর যদি সে ভুল দেয় তাহলে সেই উত্তর তাদের কর্মী দ্বারা ঠিক করা হয়। ফলে এর জ্ঞানের পরিধি দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।
এই এআই ব্যবহারের জন্য আপনাকে সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ দিতে হবে Chat-gpt অথবা কোনো ব্রাউজারে যেয়ে (তাদের লিংক: https://chat.openai.com/) তাদের ওয়েবসাইট এবং তাদের এপের মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে আপনি ফ্রিতে শুধুমাত্র চ্যাটজিপিটির ৩.৫ ভার্সনটি ব্যবহার করতে পারবেন। তাদের ওয়েবসাইট টা অথবা অ্যাপে যেয়ে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে এই এআইটি ব্যবহার করতে পারবেন।

২.জেমিনি (gemini) :-

জেমিনি যার পূর্ব নাম বার্ড গুগলের তৈরি একটি কথোপকথনমূলক কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার চ্যাটবট যা ভাষা মডেল ল্যামডার উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে। জেমিনি হলো google deep mind দ্বারা তৈরি একটি AI। আগে বার্ড নাম থাকা এআই টি আগে তৈরি হলেও সে সময়ে যথেষ্ট জনপ্রিয়তা পায়নি এই চ্যাটবটটি। পরে চ্যাটজিপিটির উত্থান এর পর গুগলের কর্মকর্তা রা এই এআই টিকে আরও সমৃদ্ধ করার পরিকল্পনা করেন। এটি ২০২৩ সালের ৬ ডিসেম্বর ঘোষনা করা হয়েছিল এবং এটিকে চ্যাটজিপিটির প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে ধারনা করা হচ্ছে। এটি বর্তমানে তৈরি হচ্ছে এবং এটি থেকে বর্তমানে ভালো কিছু আশা করা না গেলেও আগামী তে এটি আরও উন্নত হবে। তাদের লিংক: (https://gemini.google.com)। তাদের একটি এপও রয়েছে কিন্তু তা এখনো পুর্ন নয়।

৩.বিং এআই (Bing-Ai):-

-
এই বিং এআই টি মাইক্রোসফট দ্বারা তৈরি। এটি একটি বৃহৎ ভাষার মডেলের উপর ভিত্তি করে তৈরি। একটি ২০২৩ সালে ৭ই ফেব্রুয়ারি চালু করা হয়েছে। এটি চালু হওয়ার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রায় ১০ লক্ষ মানুষ এটাতে জয়েন হয়। এটিও চ্যাট জিপিটি বা জেমিনির মতোই আরেকটি চ্যাটবট। এই এ আই টি আপনার অনুভূতি কিংবা কল্পনার সাথে সহানুভূতিশীল হওয়া, আপনার যেকোনো ধরনের প্রশ্নের উত্তর দেওয়া, কথোপকথনে জড়িত থাকা, তথ্য প্রদান এছাড়াও এই এই আইডি কবিতা গল্প প্রবন্ধসহ আরো অনেক কিছু তৈরি করতে পারে। বিং এর চ্যাট বট অর্থাৎ কপিলটে আপনি হয়তোবা ইমেজ জেনারেট করতে না পারলেও বিং এর নিজস্ব ইমেজ জেনারেটর আছে। এছাড়াও আরো অনেক সুবিধা আপনি এই এআই এর মাধ্যমে পাবেন। তাদের ওয়েবসাইট এর লিংক (https://www.bing.com/?/ai)। এছাড়াও তাদের নিজস্ব অ্যাপ আপনি প্লে স্টোরে পেয়ে যাবেন। যেখানে আপনার সহজ ভাবে এসব ফিচার গুলো খুব ভালোভাবে উপভোগ করতে পারবেন।

শেষ কথা:-

এছাড়াও আরও অনেক AI ওয়েবসাইট রয়েছে এবং আরও তৈরি হচ্ছে। আর বর্তমান যেগুলো রয়েছে তা প্রতিদিন আরও প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে বা হবে। সবসময় এই এআই এর উপর নির্ভরশীল না থেকে এআই ও মানবজীবনের মধ্যে ব্যালেন্স করে চলতে না পারলে খারাপ কিছুও হতে পারে। নতুন নতুন প্রযুক্তি আবিষ্কার হবে এবং এই এআই এর ব্যবহারও বাড়বে তাই আরও নতুন নতুন সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। সবকিছুরই ভালো ও খারাপ দিক থাকে তাই সবসময় ব্যালেন্স করে চলা জরুরী। এই আর্টিকেল টি এখানেই শেষ করলাম ধন্যবাদ

Level 1

আমি মাসুমা মিরা। Field officer, Sfdf, Ishwardi। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 মাস 3 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 9 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

আমি টেকটিউনস এ আর্টিকেল লিখি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস