পৃথিবী থেকে সৌরজগতের অন্যসব গ্রহদের দেখা যায় না কেন?

ছোটবেলায় আমরা বইতে নয়টি গ্রহ পড়লেও বর্তমানে প্লুটো কে বাদ দিয়ে আমাদের সৌরমণ্ডলে মোট আটটা গ্রহ আছে। যার মধ্যে বুধ হলো সব থেকে ছোট এবং বৃহস্পতি সব থেকে বড় গ্রহ। আকারের দিক থেকে বৃহস্পতি এত বিশাল যে তার মধ্যে আমাদের পৃথিবীর মতো তেরোশোটা গ্রহ প্রবেশ করতে পারবে শনি হলো দ্বিতীয় সব থেকে বড় গ্রহ। যার মধ্যে আমাদের পৃথিবীর মতো সাতশো ষাট খানা গ্রহ প্রবেশ করতে পারবে। এটা জানার পরে আপনাদের নিশ্চয়ই মনে হচ্ছে যে আমাদের সৌরমণ্ডলে এত বড় বড় গ্রহ থাকার পরেও আমরা কেন সেগুলোকে দেখতে পাই না কারণ আমরা রাতে যখন আকাশের দিকে তাকাই তখন শুধুমাত্র চাঁদ এবং তারাদেরই দেখতে পাই। আর দিনের বেলায় শুধুমাত্র সূর্যকে দেখতে পাই। আমাদের পৃথিবী থেকে কি এই সমস্ত গ্রহগুলোকে কোনভাবেই দেখা সম্ভব নয় এই গ্রহ গুলোকে দেখেও চিনতে পারি না।

  • খালি চোখে আমরা কতদূর দেখতে পাই?

আজকের টিউনে এই বিষয়ে আলোচনা করব এবং সত্যিটা জেনে নেব এই গ্রহগুলোকে দেখার আগে আমাদের এটা জেনে নিতে হবে যে বাস্তবে আমাদের চোখ কতদূর দেখতে পাই। আপনি কত দূর পর্যন্ত দেখতে পাবেন এটা অনেকগুলো বিষয়ের উপরেই নির্ভর করে। যেমন আপনি কতটা উচ্চতায় দাঁড়িয়ে আছেন আপনি কেমন পরিবেশে দাঁড়িয়ে আছেন? কারণ আপনি যত উচ্চতায় দাঁড়াবেন আপনি আরো বেশি দূর পর্যন্ত দেখতে পাবেন এর থেকেও বেশি জরুরি হলো আপনার চোখ যেন স্পষ্ট ভাবে দেখতে পাই যদি আপনি বইয়ের অক্ষর গুলো স্পষ্ট ভাবে দেখতে না পারেন তাহলে গ্রহ দেখা আপনার পক্ষে সম্ভব নয়। তবে একজন সাধারণ মানুষকে যদি সোজা সমান জায়গায় দাঁড় করিয়ে দেওয়া হয় তাহলে তিনি কুড়ি কিলোমিটার দূর পর্যন্ত দেখতে পাবেন যদি পরিবেশ একদম পরিষ্কার থাকে তাহলে এটা সম্ভব। নইলে ঢাকার মতো শহরে তো দু কিলোমিটারও দেখা অসম্ভব ব্যাপার। ঠিক একইভাবে যদি আপনাকে হিমালয়ের সব থেকে উঁচু শিখর অর্থাৎ মাউন্ট এভারেস্টটা ছেড়ে দেওয়া হয় আপনি তিনশো চল্লিশ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত দেখতে পাবেন। কিন্তু সেখানেও একই সমস্যা কখনো মাঝখানে মেঘ চলে আসে। আবার কখনো কুয়াশা। আপনি যদি রাতের আকাশের দিকে তাকান তাহলে আমাদের প্রতিবেশী galaxy Android এ আপনার চোখে পরবে যা আমাদের থেকে আড়াই মিলিয়ন আলোকবর্ষ দূরে আছে।

  • সৌরমণ্ডলের বাকি গ্রহ গুলোকে কি আমাদের পৃথিবী থেকে দেখা সম্ভব?

যদি এর উত্তর হ্যাঁ হয়, তাহলে সেটা কিভাবে আমরা আমাদের সৌরজগতে শনি পর্যন্ত গ্রহ গুলোকে দেখতে পাবো। কিন্তু তার পরবর্তী গ্রহ গুলো আমরা খালি চোখে কখনোই দেখতে পাবো না। কারণ এর পরের দুটো গ্রহ অন্ধকারে আছে। এই গ্রহগুলোকে দেখতে পাবো না। এটা বলা ভুল হবে কারণ আপনারা হয়তো এই গ্রহগুলোকে দেখেছেন। কিন্তু আপনারা বুঝতে পারেননি যে কোনটা গ্রহ আর কোনটা নক্ষত্র।

  • কখন কোথায় কোন গ্রহ দেখা যাবে

তাহলে চলুন আমি আপনাদের বলে দেবো যে কোন গ্রহের জন্য আপনাদের কোথায় তাকাতে হবে এবং কখন তাকাতে হবে। সবার প্রথমে বুধ ঘরের কথা বলব বুদ্ধ গ্রহ সূর্যের সব থেকে কাছের গ্রহ এই জন্য এটা সূর্যাস্ত বা সূর্যোদয় সময় দেখা সম্ভব। যখন আপনি দশ ডিগ্রি কোনে সূর্যোদয় বা সূর্যাস্তের সময় সূর্যের দিকে তাকাবেন তখন আপনি এই গ্রহটা দেখতে পাবেন যদি আপনি আরো পরিষ্কার হয়ে দেখতে চান তাহলে এটা এপ্রিল মে মাসে বিকেল বেলায় এবং অক্টোবর নভেম্বর মাসে সকালে দেখুন এই সময় আপনি গ্রহটাকে আরো স্পষ্ট ভাবে দেখতে পাবেন দ্বিতীয় গ্রহটা হল শুক্র এই গ্রহটা আপনি সহজেই দেখতে পাবেন। রাতের আকাশে আপনি সব থেকে উজ্জ্বল যে নক্ষত্রতা দেখতে পান সেটা কোন নক্ষত্র নয়। বরং শুক্র গ্রহ। আপনারা এই গ্রহটা বিকেলে পশ্চিম দিকে এবং সকালে পূর্ব দিকে দেখতে পাবেন তবে জুন মাসে আপনি এই গ্রহটাকে দেখতে পাবেন না। কারণ সেই সময় সূর্যের অতিরিক্ত আলোর কারণে এই গ্রহটা আড়ালে চলে যায়। তৃতীয় গ্রহটা হল মঙ্গল। এই গ্রহটা দেখা পাওয়া বেশ সহজ। একে তো এই গ্রহটা আমাদের প্রতিবেশী। তার উপর এই গ্রহটা অনেক বড় তাই এই গ্রহটা রাত থেকে সকাল পর্যন্ত সহজেই দেখা যায়। এই গ্রহটা ঠিক সূর্যের বিপরীতে চাঁদের একদম কাছে দেখা যায়। কিন্তু বর্তমানে দূষণের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারণে এই রং অনেক হালকা হয়ে দেখা যাচ্ছে। চার নম্বরে আছে বৃহস্পতি গ্রহ এই গ্রহটাকেও অনেক সহজেই দেখা যায় এর বড় আকারে কে রাতে একটা স্বতন্ত্র পরিচয় দিয়েছে রাতের আকাশে পশ্চিম দিকে এই গ্রহটা একেবারে অন্যরকম দেখতে লাগে জুন মাসে যখন সূর্য অতিরিক্ত আলোর কারণে লুকিয়ে যাই তখন বৃহস্পতির জন্য রাস্তা একেবারে পরিষ্কার হয়ে যায়। আর এই গ্রহটা অন্যদিনের তুলনায় অনেক বেশি উজ্জ্বল এবং পরিষ্কার লাগে। আপনার কাছে যদি কোনো সাধারণ টেলিস্কোপ ও থাকে তাহলে সেটার সাহায্যে আপনারাই গ্রহের উপগ্রহ গুলোকেও দেখতে পাবেন পঞ্চম গ্রহটা হলো শনি। শনি গ্রহ অনেক বড়। তবে এই গ্রহটা পৃথিবী থেকে অনেক দূরে থাকায় খুব একটা স্পষ্ট ভাবে দেখা যায় না। এই গ্রহটা মে জুন এবং জুলাই মাসে সব থেকে পরিষ্কারভাবে দেখা যায় এই সময় সূর্যাস্তের ঠিক পরে আপনি এই গ্রহটাকে পূর্ব দিকে দেখতে পাবেন। এই গ্রহটা পূর্ব দিক থেকে বেরিয়ে পশ্চিম দিকে যায়। তবে এই গ্রহগুলোকে দেখার আগে আপনাকে কয়েকটা বিষয় মাথায় রাখতে হবে যেমন সবসময় এমন জায়গায় দাঁড়িয়ে এই গ্রহগুলোকে দেখার চেষ্টা করবেন যেখানে আকাশের সাথে পৃথিবীকে মিশে যেতে দেখা যায়। এই প্রসঙ্গে আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো সবসময় পরিষ্কার পরিবেশে এই গ্রহগুলোকে দেখার চেষ্টা করবেন। দূষণযুক্ত পরিবেশে আপনি এই গ্রহগুলোকে দেখতে পাবেন না তবে আপনি যদি এরকম এলাকায় থাকেন যেখানে দূষণের মাত্রা অনেক বেশি। এবং সেখানে রাতের আকাশে চাঁদকেও পরিষ্কার হয়ে দেখা যায় না। তাহলে সেই জায়গা থেকে গ্রহদের দেখার ইচ্ছা হয়তো আপনার পূরণ হবে না। তবে আপনি যদি এই গ্রহগুলোকে শহরের পরিবর্তে গ্রামাঞ্চলে গিয়ে দেখার চেষ্টা করেন আপনার এই গ্রহগুলোকে অনেকে স্পষ্ট ভাবে দেখতে পাবেন।

এবার আমাকে টিউমেন্ট করে জানান, আপনি এই গ্রহগুলোর মধ্যে কোনটা কোনটা দেখেছেন? আর লেখাটি টা ভালো লাগলে একটা জোস করুন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। এরকম আরো লেখা পেতে techtunes.io এর সাথেই থাকুন।

Level 0

আমি রায়হান বাদশাহ। Asst. Manager, Palmal Group, Dhaka। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 2 মাস 3 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 7 টি টিউন ও 1 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস