ব্যাটে হালকা টাচে ছক্কা হয় কী করে- দেখে নিন

Level 2
১ম বর্ষ, ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজ, ঠাকুরগাঁও

আসসালামুয়ালাইকুম বন্ধুরা। আশাকরি, সকলে ভালো আছেন। বন্ধুরা, আজকে আমি আপনাদেরকে একটা প্রশ্ন করছি। আচ্ছা, আপনারা তো সকলেই কমবেশি ক্রিকেট খেলা দেখেছেন বা অনেকে খেলেছেনও। আপনারা কি একটা বিষয় খেয়াল করেছেন- যখন বল খুব জোরে আসে, তখন ব্যাটে হালকা টাচ লাগলেই বলটা এত দূরে কী করে যায়? আপনি তো কম বল প্রয়োগ করেছেন ব্যাট দিয়ে। তাহলে যেপাশ থেকে বল আসে, সে পাশে বল এত উপর দিয়ে কী করে ছক্কা হয়?

১. ক্রিকেট খেলা

ক্রিকেট খেলা

অনেকেই বলবেন, বল জোরে হয়েছে, তাই হালকা টাচে ছক্কা হয়েছে। কিন্তু, বন্ধুরা আপনারা কি জানেন, বল জোরে করার সময় বেগ যত থাকে, সেই বেগে কখনোই ব্যাটে হালকা টাচে ছক্কা হবে না? আপনারা হয়তো জানেন, আবার অনেকেই জানেন না, যে বেগে বল আসে, তার থেকে দিগুণ বেগে বলটি ছক্কা হওয়ার সময় দেখা যায়। অর্থাৎ, আপনারা যদি বল করার সময় বলের গতি বা বেগ মাপেন, তাহলে যত পাবেন- ব্যাটে হালকা টাচে ছক্কা মারার সময় সেই বলের বেগ মাপলে, আপনারা পূর্বের বেগের দিগুণ বেগ পাবেন। কী দারুণ ব্যাপার না!

এখানে আসলে কী ঘটে? কীভাবে ক্রিকেট বলের বেগ দিগুণ হয়ে যায়?
এটা বুঝতে হলে আমাদের সকলের ভরবেগের জ্ঞান থাকতে হবে। তো চলুন জেনে আসি, কী এই ভরবেগ?

২. ভরবেগ

ভরবেগ

সাধারণভাবে বললে, ভর ও বেগের গুণফলকে ভরবেগ বলে। ভর কী, তা তো আমরা সকলেই জানি। আমরা সাধারণভাবে আমাদের ওজনকেই ভর বলি। যদিও পদার্থবিজ্ঞানের ভাষায় ভর ও ওজন ২টা ভিন্ন রাশি, তবুও ব্যবহারিক অর্থে আমরা ভর ও ওজনকে একই হিসেবে ব্যবহার করি। আর বেগ হলো একক সময়ে অতিক্রান্ত দূরত্ব। তো এই বেগ আর ভরকে গুণ করলে আমরা ভরবেগ পাব।

এবার আসি, এই ভরবেগ কোথায় কাজে লাগে, তা নিয়ে। আপনারা যখন ক্রিকেট খেলেন, তখন দেখতে পান, যে একজন বল করে তো আরেকজন ব্যাট করে।

৩. উদাহরণ

উদাহরণ

ধরেন, যে বল করছে, সে পূর্ব দিকে অবস্থিত। আর যে ব্যাট করছে সে পশ্চিম দিকে অবস্থিত। তার মানে যে বল করবে, সে পূর্ব থেকে পশ্চিম দিকে বল করবে। তো আমাদের এই বোলার মহাশয় একজন ফাস্ট বোলার। সে অনেক দূর হতে দৌড়াতে দৌড়াতে শক্তি অর্জন করে খুব জোরে বল করল। তো, তার এই বলের একটা ভর আছে নিশ্চয়ই। আর বল করার ফলে বলটার একটা বেগও অর্জন হয়েছে নিশ্চয়ই।

ফলে বলটার একটা ভরবেগ অর্জন হয়েছে। আর সেটা কোনদিকে কাজ করছে? নিশ্চয়ই যেদিকে বল করা হয়েছে, সেদিকে। তার মানে বলের ভরবেগ পূর্ব থেকে পশ্চিম দিকে ক্রিয়া করছে।

তো এই বল কিছুক্ষণের মধ্যেই ব্যাটসম্যানের ব্যাটে লাগলো। ধরলাম, ব্যাটসম্যান হালকা করে ব্যাট উঁচিয়ে রেখেছিল। অর্থাৎ, ব্যাটসম্যানের ক্রিয়াকে আমরা ধরলাম না। ধরে নিলাম সে কিছুই করে নি। শুধু ব্যাটটা ধরেছিল। সে বল মারেই নি।
এবার যখনই বল, ব্যাটে ক্রিয়া করল, তখনই নিউটনের ৩য় সূত্রানুসারে আমরা বলতে পারিঃ সকল ক্রিয়ারই একটি সমান ও বিপরীতমুখী প্রতিক্রিয়া রয়েছে। তার মানে বল যে ভরভেগে ব্যাটে ক্রিয়া করেছে, ব্যাটও সেই পরিমাণ ভরবেগে প্রতিক্রিয়া দেখাবে। কিন্তু, তা হবে বিপরীত। যেহেতু বল ক্রিয়া করেছে পূর্ব থেকে পশ্চিম দিকে, তাই ব্যাট একই পরিমাণ ভরবেগ প্রতিক্রিয়া করবে পশ্চিম দিক থেকে পূর্ব দিকে।

৪. ভরবেগের পরিবর্তন

ভরবেগের পরিবর্তন

দিক যেহেতু বিপরীত, তাই পূর্ব থেকে পশ্চিম যদি ধনাত্মক হয়, তাহলে পশ্চিম থেকে পূর্ব দিক হবে ঋণাত্মক। তার মানে বলের ক্রিয়ার মান= ভরবেগ। আর ব্যাটের প্রতিক্রিয়ার মান= -ভরবেগ। তাহলে ভরবেগের পরিবর্তন= ভরবেগ- (-ভরবেগ)= ভরবেগ + ভরবেগ= ২ভরবেগ।

যেহেতু বলের ভর একই। তার মানে বলের বেগ পূর্বের বেগের দিগুণ হয়ে যাবে। ফলে বলটি উপর দিয়ে চলে যাবে সীমানার বাইরে। যেটাকে আমরা ছক্কা বলি।

আশাকরি, সকলে বুঝতে পেরেছেন। টিউনটি ভালো লাগলে জোস দিন।
আপনারা যদি আরও কিছু জানেন এই ব্যাপারে, তবে টিউমেন্ট করে জানিয়ে দিতে পারেন।
ধন্যবাদ সকলকে।

Level 2

আমি মো মিরাজ ইসলাম। ১ম বর্ষ, ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজ, ঠাকুরগাঁও। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 18 টি টিউন ও 25 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 7 টিউনারকে ফলো করি।

আমি মোঃ মিরাজ ইসলাম। আমি আর্টিকেল লিখতে ও পড়তে ভালোবাসি। এছাড়া ইউটিউবে ভিডিও কন্টেন্ট তৈরিও করি। আমি টেকটিউনসে টিউন লিখে আয় করার জন্য একাউন্ট ক্রিয়েট করেছি। ধন্যবাদ।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস