আজ আমি ‘গরম বরফ’ তৈরী করব..এবং শেখাবো..কি হাসি পাচ্ছে..তা হলে হাসুন..হা হা..হো হো হো…

আজ আমি 'গরম বরফ' তৈরী করব..এবং শেখাবো..কি হাসি পাচ্ছে..তা হলে হাসুন..হা হা..হো হো হো...

কি চোখ গুলো বড় বড় হয়ে গেলো.....

আপনার হয়তো ভাববেন বরফ তাও আবার গরম..........তা হয় নাকি...

কিন্তু আমি বলছি মন্তব্য করার সময়....আপনি হাসতে পারবেন না...

আপনি সিরিয়াস মন্তব্যই করবেন................................

এবার ভনিতা ছেড়ে আসল কথায় আসি....

উপকরণ:-

ক/ একটি গ্যাস ওভেন বা স্টোভ

খ/ একটি পাত্র

গ/ দুটি কাঁচের গ্লাস

ঘ/ একটি মিশ্রণ নাড়ার কাঠি

ঙ/ ১ লিটার সাদা ভিনিগার (মুদিখান থেকে পেয়ে যাবেন)

চ/ ৪ টেবিল চামচ বেকিং সোডা (মুদিখান থেকে পেয়ে যাবেন)

ছ/ রেফ্রিজেটার বা ফ্রিজ

জ/ একটা প্লেট

পদ্ধতি:-

*১

একটি পাত্রে ১ লিটার ভিনিগার ঢালুন...তারপর গ্যাস ওভেন অন করুন...

এবার গরম ভিনিগারের মধ্যে ধীরে ধীরে ৪ চামচ বেকিং সোডা মেশান...

*২

সর্তকতা- একসাথে চার চামচ বেকিং সোডা দেবেন না..তাহলে ভিনিগার উথলে উপচে পড়ে যাবে

মেশানোর সময় মিশ্রণটি কাঠি দিয়ে নাড়াবেন।

কিছুক্ষণ পর ফুটতে শুরু করবে মিশ্রণ টি...এবার আঁচটা একদম কমিয়ে দিন...এবং ১০মিনিট কম

আঁচে বসিয়ে রাখুন....

১০ মিনিট পর দেখবেন...তরল মিশ্রণের উপর পাতলা ক্রিস্টালের স্তর পড়েছে..অনেকটা দুধের সরের মত..তাহলে জানবেন হয়ে গেছে....

*৩

এবার মিশ্রণটি দুটি কাঁচের গ্লাসে ঢালুন........তারপার মিশ্রণটি ফ্রিজের মধ্যে রাখুন...মনে রাখবেন

ডিপ ফ্রজে রাখবেন না...দু ঘন্টা রাখতে হবে..

*৪

এবার গ্লাস দুটো খুব সাবধানে আস্ত আস্তে টেবিলের উপার রাখুন

আপনার হয়তো ভেবেন তরল জমে বরফ হয়ে গেছে....কিন্তু না তরল তখনো তরলই আছে

এবারই তো আসল মজা............

গ্লাসের তরলে এবার আঙ্গুল ছোঁয়ান...

*৫

এবার ম্যাজিক দেখবেন.........আঙ্গুল ছোঁয়ানোর সাথে সাথে তরল বরফ হয়ে গেছে..

5

একদম বরফের মত..অসচ্ছ এবং কঠিন....

এবার দ্বিতীয় ম্যাজিক.....এবার দ্বিতীয় গ্লাসটি একটি প্লেটের মধ্যে তরল ঢালার মতো ঢালুন

*৬

প্লেটে তরল পড়ার সাথে সাথে জমে কঠিন হয়ে যাবে.....প্লেটের উপর উচু হয়ে উঠছে বরফের পাহাড়..

8

এবার আপনার বলবেন...বরফ তো হলো...কিন্তু গরম কই...?

তাহলে আমি বলবো...বরফটা একবার স্পর্শ করেই দেখুন...না না ভয় পাবার কিছুই নেই..

গ্লাসের মধ্যে তরল অবস্থায় এর উষ্ণতা ১৫ডিগ্রি সেন্টিগ্রেট...

আর জমে কঠিন হলে এর উষ্ণতা ৪৬ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেট........

কি এবার আর হাসি পাচ্ছে ...........নাকি???????????????????????

একটি সুন্দর 'গরম বরফের' চিত্র
7
***************************************************************************************************
যদি আরোও রহস্য রোমাঞ্চকর পরিবেশে / মমির দেশে যেতে চান তবে এখানে ক্লিক করুন................
***************************************************************************************************

Level 0

আমি কলকাতা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 23 টি টিউন ও 534 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

মানুষের চেয়ে বড় কিছু নাই, নহে কিছু মহিয়ান্‌ । নাই দেশ-কাল-পাত্রের ভেদ, অভেদ ধর্মজাতি, সব দেশে সব কালে ঘরে-ঘরে তিনি মানুষের জ্ঞাতি।- ---ফেসবুকে আমি http://www.facebook.com/pages/Kolkata-India/100002338894158 আমার ব্লক http://kolkata12345.blogspot.com/


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

করে দেখতে হবে।
তবে আসলেই জটিল লেখেছেন।

”কিন্তু আমি বলছি মন্তব্য করার সময়….আপনি হাসতে পারবেন না…
আপনি সিরিয়াস মন্তব্যই করবেন…………………………..”

আপনার উক্তি সত্য আমি সিরিয়াসলি মন্তব্য করছি।

ধন্যবাদ আপনাকে।

ভাইরে এবার noble price আপ্নার।আমরাও যাব আপনার সাথে।

    সবে মিলে করি কাজ, হারি জিতি নাই লাজ
    ধন্যবাদ

ধারুন হয়েছে।

জনাব রসয়ন বিষেশ-অজ্ঞের কাছে আমার প্রশ্ন ওই পানি কি আর পানি আছে?
সেটা আমার মাথা ব্যাথা না। কলকাতা থেকে গরম বরফ আসছে এটাই আমার বড় আনন্দের ব্যাপার 😆 যদি গত মাসে আসত, তবে বন্ধুদের দেখতাম ভর দুপুরে হাড় কাপেনো শীতে আইসক্রিম খাচ্ছি 😀
না ভাই “নো বেল” না আপনাকে “সোনার বেল” দেওয়া উচিত।

    সোনার বেল চুরি হয়ে যাবে……………ওটা আপনাকে দিলাম………………

দারুন মজার

অসাধারণ টিউন। টেকটিউনস এ ধরনের লেখা খুব কমই আসে।

Level 0

খুবই সুন্দর tune.
কিন্তু ভাই, আপনার সেই ঐতিহাসিক tune এর অপেখ্খায় আছিতো …………….

    তৈরী আছে………………..এখন স্বাদ বদলাচ্ছি….সময় বুঝে প্রকাশ করবো
    ধন্যবাদ

বেকিং সোডা কি বস্তু??

    সোডিয়াম বাই কার্বোনেট, যাকে আমরা বেকিং পাউডার হিসেবে জানি…
    বেকারীর খাবার তৈরীতে এটি ব্যবহৃত হয়…

    আপনাদের দুজনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ

Level 0

ভাই আপনি কাজ টা বেসি কষ্টে করে ফেলছেন। আর সহজে করা জায় এই কাজটা যেমন আপনি নরমাল পানি তে অল্প কিছু sodium sainet mix করে গোলালেন তার পর কিছু খন পর রেখে আপনার আঙ্গুলে একটু sodium sainet দিয়ে স্পরশ করালে সাথে সাথে গরম বরফ হয়ে যাবে।

    sodium sainet কোথা থেকে কিনবেন………?
    বলাটা সহজ করাটা কঠিন….ধন্যবাদ

Level 0

if any one want to do online data entry job and have good typing speed u can add me [email protected] or mobile:01821285170,01197102568

আসলে এটি সম্ভবত গ্লাসিয়াল অ্যাসিটিক এসিড বা বিশুদ্ধ ইথানয়িক এসিড (কঠিন) যার গলনাঙ্ক ১৭ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড…
রসায়নে Magic-এর শেষ নেই…
ধন্যবাদ, কলকাতা ভাই, এরকম আরও Tune করুন…

সত্যিই ভাই মজা পাইলাম। এখন এরকম কেন হয় তা জানতে ইচ্ছে হচ্ছে।
ধন্যবাদ ভাল টিউন হইছে।

এত রাতে টেকটিউনসে ঢুকে একি টিউনস দেখলাম !!!!!!!
বাকরুদ্ধ !

    আপনাকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ

Level 0

আমিও বাকরুধ্য

ভাই ব্যাখ্যাটা দিলে উপকার হত। মজার জিনিস।

    ভিনিগার হলো (অ্যাসেটিক অ্যসিড)
    আর বেকিং সোডা বা পাওডার হলো (সোডিয়াম বাই কার্বনেট)
    =
    গরম বরফ

Level 0

তাহলে তো তৈরি করত হয়………………………………।

অসাধারন। আপনার জন্য হাত তালি… 🙂 একদিন সময় করে ম্যাজিকটা করতে হবে দেখছি। gooooooooood job

আপনাকে ধন্যবাদ এমন অসাধারন টিউনের জন্য। কিন্তু বরফটা কত সময় থাকবে?