কুর’আনে প্রযুক্তি [পর্ব-১৭] ::Finger Print সিষ্টেম আমাদের কিভাবে সনাক্ত করে?

আসসালামুআলাইকুম ও শুভেচ্ছা সবাইকে 🙂 ।সবাই ভাল আছেন আল্লাহর রহমতে আশা করি।

কুর’আনে প্রযুক্তি [পর্ব-১৭] :: Finger Print সিষ্টেম আমাদের কিভাবে সনাক্ত করে?

আবিষ্কার:-

ইংল্যান্ডের অধিবাসী Sir Francis Gold আবিষ্কার করেন পৃথিবীর প্রতিটি মানুষের আঙ্গুলের ছাপ ভিন্ন রকম, কেবল গত ঊনবিংশ শতাব্দিতে এ গুরত্বপূর্ণ বিষয়টি অর্থাৎ অঙ্গুলির ছাপের অনন্য বৈশিষ্ট্যগুলো আবিষ্কৃত হয়েছে। মানুষ এর আগে এগুলোকে কোন সাধারণ গুরত্বহীন বক্ররেখা হিসেবেই ভাবতো। শরীরের অন্যান্য প্রত্যঙ্গের মতো অতি স্বাভাবিক এক অস্তিত্ব রুপে গ্রহন করেছিল মানব সমাজ ,এর গভীরতম তাৎপযের্র প্রতি তেমন কেউ ভ্রুক্ষেপ করেনি। যুগান্তকারী এ আবিষ্কারের পর অর্থাৎ ১৮৮০ সাল হতেই আঙ্গুল-ছাপ একটি বৈজ্ঞানিক সনাক্তকরন সংকেতরুপে বিভিন্ন কাজে ব্যবহ্রত হতে শুরু করে।

প্রতিটি মানুষের আংগুল বহন করে ভিন্ন ডিজাইন:-

এমন কোনো ব্যক্তি পৃথিবীতে পাওয়া যাবে না যার আঙ্গুলে ছাপ অন্য কোনো ব্যক্তির সাথে সম্পূর্ন মিলে যাবে। এমনকি হুবহু একই রূপ যমজ সন্তানের পর্যন্ত প্রত্যেকেরই রয়েছে অনন্য সাধারণ ভিন্ন অঙ্গুলের রেখাসমূহ। ভিন্ন-দৃষ্টিতে বলা যায় মানুষের স্বরুপ তাদের অঙ্গুলি সমূহে সংকলনভুক্ত অর্থাৎ সংকেতিক কোডের সাহায্যে লেখা রয়েছে। আধুনিক কম্পিউটার জগতে ব্যবহৃত রেখা-সঙ্কেত অথবা  Bar code সিস্টেমের সঙ্গে তুলনা করা চলে মানুষের আংগুলের সংকলনের এই সুচারু গঠনটিকে। ফিঙ্গার-প্রিন্টের রেখা সমূহের উপর গুরত্ব প্রদান করার ব্যাপারে একটি বিশেষ অর্থ একটাই প্রত্যেকের অঙ্গুলীর রেখাসমূহ অমিশ্র ও অদ্বিতীয়। প্রতিটি মানুষ, মৃত কিংবা জীবিত , এরূপ প্রত্যেকেরই ভিন্ন ডিজাইনের অনন্য আঙ্গুলের আঁকিবুকি রয়েছে। আর তাই অত্যন্ত গুরত্বপূর্ণ প্রমাণ হিসেবে উক্ত রেখাসমূহকে মানুষের পরিচয়ের জন্য সন্দেহাতীতভাবে গ্রহন করে নেয়া হয়েছে আর বহুমাত্রিক উদ্দেশ্যেই তা পৃথিবীর সর্বত্র ব্যবহার করা হয়।

কি কাজে ব্যবহ্রত হচ্ছে?-

এই আঙ্গুলের ছাপের মাধ্যমে পৃথিবীর বড় গোয়েন্দা সংস্থা যেমন- FBI, RAW, MOSAD, PCI, kGB, BCI- অপরাধী সনাক্ত করতে অথবা সঠিক মানুষের ধরন সনাক্ত করতে সমর্থ হয়েছে, সম্প্রতিকালে বাংলাদেশ সরকার আঙ্গুলছাপ ব্যবহার করছে ভোটের র্কাড, জাতীয়তা কার্ড, পাসপোর্ট ও বিদেশে লোক পাঠানোর জন্য, অফিসিয়াল ডাটাবেস বানানোর জন্য ও ডিবি অপরাধী চিহ্নিতকরনের লক্ষ্যে  টেকনোলজী ব্যবহার করতে শিখছে (সামান্যতম)।

কিভাবে এ-টেকনোলজীটি ব্যবহ্রত হয়?-

দৃষ্টান্ত বিভিন্ন আঙ্গিকে বিস্তারিত বলা যায় । আমি একটা ছোট ব্যাখ্যা - অপরাধের X-ample produce করছি---উদাহরন স্বরুপ ধরা যাক 1 দিন বা 6 মাস আগে অথবা তারও আগে কোন স্থানে একটি খুন হলো সাধারন মানুষজন খুনীর কোন চিহ্ন বের করতে সমর্থ হলোনা। এখানে যখন গোয়েন্দা বিভাগের লোকজন এসে অপরাধী সনাক্ত করার চেষ্টা করবেন দৃশ্যক প্রমানের পাশাপাশি তারা FIT (Finger Identification Technology) ব্যবহার করবেন। প্রত্যেক দেশের গোয়েন্দাদের সিষ্টেম ডাটাবেসে অপরাধীদের সহজে চেনার বিভিন্ন পদ্বতি থাকে তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো- Finger Identification মেথড। কিভাবে তারা আংগুল ছাপ বের করার চেষ্টা করেন তার কিছু নমুনা দেয়া হল-

1) খুনির অস্ত্রের (ছুরি, লাঠি, পিস্তল...) মধ্যে হাতের ছাপ পাওয়ার সমুহ সম্ভাবনা থাকে।

2) যাকে হত্যা করা হয়েছে তার দেহে আংগুলের দাগ খাততে পারে

3) অপরাধী ঘরে ঢোকার সময় দরজায় ছাপ রেখে যেতে পারে

4) গ্লাসে পানে খেলে গ্লাসে আংগুলের ছাপ পাওয়া যায় সহজে।.........

গোয়েন্দাগন এক বিশেষ স্প্রে ব্যাবহার করেন , যে স্থানে স্প্রে করা হবে সেখানের আংগুলের ছাপ ফুটে উঠবে । এছাড়া ল্যাবে ক্যামিকেল টেষ্টের কথা নাইবা বললাম।

আসুন দেখা যাক কুরআন কি বলছে?-

নাস্তিকরা আগের যুগেও ছিল এখনো আছে তবে বর্তমান সময়ে এদের সংখ্যা অনেক বেশি পরিলক্ষিত হয়, এরা বলে মানুষ পচে-গলে সম্পূর্ন মাটির সাথে মিশে যাবে তখন তাকে কে উত্থিত করবে? কে তাকে সম্পূর্ন অবিকল দেহ ফিরিয়ে দেবে? যখন কোরআনে বলা হয় যে, মৃত্যুর পর মানুষকে পূর্বাবস্থায় ফিরিয়ে আনা আল্লাহ তাআলার জন্য অতি সহজ কাজ, তখন মানুষের আঙ্গুলের রেখাসমূহের (ছাপের) উপর বিশেষভাবে জোর দেয়া হয়েছে। কোরআনে এই অঙ্গুলী রেখাসমূহের প্রতি ইঙ্গিত করা হয়েছে যা সে সময়ে কারো মনোযোগ আকর্ষণ করতে পারেনি এবং আল্লাহ এই গুরত্বটির প্রতি আমাদের গভীরভাবে মনোযোগ দেয়ার জন্য আয়াতের (টেলিগ্রাফিক ম্যাসেজ) মাধ্যমে আহবান করেছেন- যে প্রয়োজনীয়তার কথা অবশেষে টেকনোলজীর যুগে মানুষ অনুধাবন করতে পারছে, সামান্য হলেও। আল্লাহপাক বলেন –

075.003 أَيَحْسَبُ الإنْسَانُ أَلَّنْ نَجْمَعَ عِظَامَهُ

075.004 بَلَى قَادِرِينَ عَلَى أَنْ نُسَوِّيَ بَنَانَهُ

Al-Qur'an, 075.003-004 (Al-Qiyama [The rising of The dead, resurrection])

মানুষ কি ধারণা করে যে, আমি তার হাড়সমূহ একত্র করতে পারব না ? হ্যাঁ, অবশ্যই আমি একত্র করব। কেননা আমি তার অঙ্গুলির অগ্রভাগ পর্যন্ত যথাযথভাবে ঠিক করে দিতে সক্ষম। ( কোরআন, ৭৫: ৩-৪) (অনুবাদ:-মাওলানা সালাহউদ্দীন ইউসুফ, পাকিস্তান)

 

ভাবুন একবার ১৪০০ বৎসর আগে এই গুরুত্বপূর্ন তথ্য কার জানা ছিল?-

দুই ব্যক্তির আঙ্গুলের ছাপের পার্থক্য এতই আপেক্ষিক ও সূক্ষ্ম যে, কেবল অভিজ্ঞ ব্যক্তিই উপযুক্ত যন্ত্রপাতির মাধ্যমে তা শনাক্ত করতে পারে। এটি কুরআন মাজিদের অপর এক মুজিজা যে তা এই বাস্তবতার বর্ণনা দিয়েছে মানুষ তা ধারণা করারও বহু আগে। আমাদের জীবন অতি সংক্ষিপ্ত আরো অনেক কিছু আবিষ্কার হবে ভবিষ্যতে কিন্তু ততোদিন আমরা মাটির সাথে মিশে যাবো ,কিন্তু যখন বিচার-দিবস উপস্থিত হবে আমাদের অবিকল শরীর দিয়ে মাটি হতে উঠানো হবে এবং আল্লাহ বলছেন এত অবিকল দেহ ফিরে পাবে যে নিজের আংগুলের ছাপ সহ সে সনাক্ত করতে পারবে। আসুন আল্লাহর দিকে আমরা ঈমান আনি তারঁ দেয়া বিধান নিঃসঙ্কোচে , নির্ভিকভাবে অন্তরের অন্তন্থল হতে মেনে নেই। সৃষ্টিকর্তা আমাদের Super Brain দিয়েছেন বন্য প্রানির মতো খেয়ে-দেয়ে বিয়ে-বাচ্চা লালন ও মরার সময় আসলে মরার জন্য নয়!! দুনিয়াতে প্রায় 700 কোটি মানুষের অস্তিত্বের অবশ্যই উদ্দেশ্য আছে, ভাবুন একবার ১৪০০ বৎসর আগে এই গুরুত্বপূর্ন তথ্য কার জানা ছিল? কেন তিনি এতথ্য আমাদের দিলেন?

আল্লাহ আমাদের সুবুদ্ধি আনয়ন করুন। আমিন।

আপনাকে ধন্যবাদ সময় নিয়ে পোষ্টটি পড়ার জন্য।

-------------------------------------------------------

একটি উদ্যেগ ও আহবান:

আসুননা আমরা সমম্বিতভাবে উদ্বেগ নিয়ে বাংলা সহিহ হাদিসের Unicode Software সৃষ্টি করি। ইনশাআল্লাহ প্রথমে আমরা সহিহ বুখারীর হাদিস নিয়ে কাজ শুরু করবো। chm ফরমেটে, ইনষ্টলের কোন ঝামেলা নেই। 1 click – এ উইন্ডো ওপেন হবে এবং সহজেই ডাটা কপি,পেষ্ট করা যাবে, এছাড়াও রয়েছে পাওয়ারফূল সার্চ ও কিওয়ার্ড অপশন। যেহেতু প্রায় 5000 হাদিস নিয়ে সহিহ বুখারী এর জন্য অবশ্যই টিম ওর্কের প্রয়োজন যার নামকরন করা হয়েছে সংক্ষেপে DBHT-(Degital Bangla Hadith team)। সম্মানিত ভাই/ বোন যারা সদস্য হতে চান এ টিমের কর্মপদ্বতি হবে নিম্নরুপ-

1)যারা অংশ নেবেন Software Contribution- এ তাদের নাম ও প্রোফাইল লিংক থাকবে।

2) প্রত্যেককে সদস্য হতে হলে কমপক্ষে 100 হাদিসের ডাটা এন্ট্রি করে নিম্নলিখিত এড্রেসে পাঠিয়ে দিতে হবে।(সময় খুব বেশি হলে মাত্র তিন ঘন্টার একটা কাজ)

3)পিডিএফ ফরম্যাটে হাদিস দেয়া হবে আপনি MS Word-এ টাইপ করে মেইলে এটাচ করে পাঠিয়ে দেবেন, আপনার প্রোফাইল লিংক যদি দেন ভাল হয়।

4) আপনার হাদিস পাবার পর সেটা আপডেট করে ফেসবুকে লিংক দেয়া হবে যেখান থেকে আপনি ডাউনলোড করে কাজের অগ্রগতি দেখতে পাবেন।

আশা করি আপনারা এ মহান কাজে অংশ গ্রহন করবেন।কমপক্ষে 100 হাদিসের ডাটা এন্ট্রি করে DBHT সদস্য হয়ে যান। পিডিএফ হাদিসের জন্য যোগাযোগ করুন।

বিঃদ্রঃ:- কারও কাছে হাদিস সফট কপি থাকলে অনুরোধ থাকবে পাঠিয়ে দেয়ার জন্য। এটি কোন কর্মাশিয়াল উদ্যেগ নয়। শধুমাত্র ভলান্টিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে DBHT-এর হাদিসের Digital interface তৈরি করার একটা যৌথ প্রচেষ্টা। ধন্যবাদ। যোগাযোগ করুন।

শাহরিয়ার আজম

B.Sc.IT (S. M University,India),/ M.A & Ph.D (Paris University, France), DEW, Belgium

মেইল এড্রেস- [email protected]

Mob-01714351057

DBHT-(Degital Bangla Hadith team)

http://www.facebook.com/pages/DBHT/603417713008497

http://www.facebook.com/pages/Al-Quran-Modern-Science/140069416050931

http://muslim.zohosites.com/ http://www.quranic-science.blogspot.com

Level 0

আমি Sharear Azam। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 42 টি টিউন ও 365 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

অনেক ভালো একটি টিউন ।

Level 0

সুন্দর টিউন ।

অনেক সুন্দর টিউন ধন্যবাদ Sharear Azam

Level 0

uddeg valo but abar onktai kharap ta holo apni j karo kastheke hadis collect korte chassen ja kina onk somoy typing vul johi hadis / banoat hadis o hote pare ata onktai real er moto but mittha hadis hote pare tokhon ki korben ? aktu vabun amar kotha @All

    @ronynill: donnobad rony:)…Amra to bukhari sahih hadither kaj korci johih ba mauju hadith kota teke asbe? Ar hadith pdf dicci ami nijer icce moto keu hadith type korcena…Ami check kore kore so hadith entry korci …gotokal 100 hadith check korci 4 gonta lagce shudu 100 hadich deker jonno…:)

সুন্দর টিউন, অনেক ধন্যবাদ…

অনেক ভাল হয়েছে। ধন্যবাদ ভাইয়া।

Thanks for this post

Level 0

মহান আল্লাহর কাছে অনেক অনেক শুকরিয়া এই জন্য যে তিনি আমাদের আপনার মত একজন টিউনারের টিউন পড়ার সুযোগ করে দিয়েছেন।

    @Udoy: অনেক ধন্যবাদ…পড়ার জন্য:)

Level 0

আপনার এই প্রচেষ্টাকে স্বাগতম জানায়। সাথে আপনার টিউনকেউ। আপনার টিউনগুলি পড়ে যা বুঝলাম কুরআন হাদিস সম্পর্কে আপনার জ্ঞান ভালো। তাই আপনার কাছে ছবি নিয়ে একটা প্রশ্ন ছিল। পূর্বে দেখতাম মানুষ ছবি ব্যাবহার করলেও একে হারাম হিসেবে ব্যাবহার করত। কিন্তু বর্তমানে সবাই ছবিকে জায়িজ মনে করছেন। বর্তমানে আলেমগণ ও ছবির পক্ষে ঝুকছেন। কিন্তু কুরআন এবং হাদিস দ্বারা এটা সহিহ ভাবে এটা প্রমাণিত যে ছবি হারাম। যেমন কুরানে সৃষ্টির পরিবর্তনকে হারাম বলা হয়েছে ।তাছাড়া ছবি সম্পর্কে অনেক গুলি হাদিস রয়েছে, যার সবগুলিতে হারাম করা হয়েছে। যেমন হযরত মুহাম্মদ(স) বলেন, “প্রত্যেক ছবি প্রস্তুতকারী জাহান্নামি”। “মূর্তি এবং বাঝনা ধংস করার জন্যই আমার জন্ম”। আবার প্রাণির ছবি অংকিত থাকাই হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা (স) ঘরে জিব্রাইল (আ.) প্রবেশ করতে পারিনি । এভাবে আরো অনেক। তাহলে বর্তমানে সবাই ছবির দিকে কেন ঝুকছে । আশা করি উত্তর পাবো।

    @marahim: আপনাকে অনেক ধন্যবাদ , এ সম্পর্কে বিস্তারিত বলতে হয় কিন্তু সময়ের সংকুলান তবে সংক্ষেপে বলবো পয়েন্ট আকারে–
    1) মানুষ বা জীব জন্তু ছবি বা মূর্তি হারাম করা হয়েছে , কিন্তু ফুল, পাহাড় গাছ (যদিনা পূজা তরা হয়) গ্রহনযোগ্যতা রয়েছে।
    2) যেমন আমরা টিভি দেখি এগুলো কিন্তু হাজার ছবি সংযোযিত হয়ে রানিং পিকচার সৃষ্টি করে…যদিও এটির 99% হারাম কাজে ব্যবহ্যত হচ্ছে তবে কিঞ্চৎ হালাল ব্যবহারও আমরা প্রত্যক্ষ করি।
    3) আল্লাহপাত সবাইকে সর্বজ্ঞানে গুনাম্বিত করেননা, আমাদের দেশে দেখা যায় অনেক মাওলানা আছেন যারাঁ সায়েন্স সম্পর্কে জানেনা কিন্তু মসজিদে দাড়িয়ে বিভিন্ন অপব্যাখ্যা দিচ্ছেন, দেখা যায় কেউ ফতোয়া সম্পর্কে জানেনা কিন্তু অন্য বিষয়ে তার দক্ষতা আছে। এটা বলার মূল কারন হল এ বিষয়ে আমার জানা মতে অভিজ্ঞ ও গ্রহনযোগ্য, বৈজ্ঞানিক ও শরীয়া সম্মতযুক্তি উত্তর প্রদান করেছেন সৌদি আরবের গ্রান্ড মুফতি শেখ সালেহ আল উসাইমিন। প্রত্যেকটা জিনিষেরই ভালো ও খারাপ দুটি দিক আছে দে?খতে হবে আমাদের উদ্দেশ্য কি।
    4) ড. জাকির নায়েকের উত্তর শুনলাম গতকাল পিস টিভিতে ডেয়ার টু আসক-এ আপনি সেখানে একটু বিস্তারিত পাবেন। ধন্যবাদ 🙂