ইলেকট্রিক সার্কিট নিয়ে সংক্ষিপ্ত টিউটরিয়াল [পর্ব-৫]

[পর্ব-১|পর্ব-২|পর্ব-৩|পর্ব-৪] এই পর্বে সুপারপজিশন নীতি (Superposition Principle) নিয়ে আলোচনা করা হবে। সুপারপজিশন নীতি অনুযায়ী কোন লিনিয়ার সার্কিটে যদি একাধিক সোর্স থাকে তাহলে কোন একটি রোধকের আড়াআড়ি বিভব পার্থক্য হবে প্রত্যেক সোর্স দ্বারা স্বতন্ত্রভাবে উৎপন্ন বিভব পার্থক্যের বীজগণিতীয় যোগফলের সমান। কারেন্টের ক্ষেত্রেও একই নীতি প্রযোজ্য, তবে পাওয়ারের ক্ষেত্রে এই নীতি প্রয়োগ করা যাবে না। যে সকল সার্কিটে একাধিক সোর্স থাকে সেই সকল সার্কিটেই কেবল সুপারপজিশন নীতি প্রয়োগ করা হয়। সুপারপজিশন নীতি প্রয়োগের ক্ষেত্রে নিম্নের ধাপগুলো অনুসরণ করতে হবে:

ধাপ-১: একটি সোর্স ছাড়া বাকি সোর্সগুলোকে নিষ্ক্রিয় বা শূন্য করতে হবে। ভোল্টেজ সোর্সকে নিষ্ক্রিয় করতে হলে সোর্সটিকে সার্কিট থেকে খুলে ফেলতে হবে, যাকে বলে ওপেন সার্কিট। আর কারেন্ট সোর্সকে নিষ্ক্রিয় করতে হলে সোর্সটিকে সার্কিট থেকে খুলে ফেলে একটি তার দিয়ে টার্মিনাল দুটি যুক্ত করে দিতে হবে, যাকে শর্ট সার্কিট বলা হয়। উল্লেখ্য যে, ডিপেনডেন্ট সোর্সকে নিষ্ক্রিয় করা যাবে না।

ধাপ-২: যে সোর্সটি থেকে গেল তার জন্য কারেন্ট অথবা ভোল্টেজ বের করতে হবে।

ধাপ-৩: প্রত্যেক সোর্স এর জন্য আলাদাভাবে ধাপ ১ ও ২ পুনরাবৃত্তি করতে হবে।

ধাপ-৪: সবগুলো সোর্স এর জন্য কারেন্ট অথবা ভোল্টেজ এর বীজগণিতীয় যোগফল করে মোট কারেন্ট অথবা ভোল্টেজ পাওয়া যাবে।

সুপারপজিশন নীতি প্রয়োগের একটি উদাহরণ দেয়া যাক। নিচের সার্কিটে একটি কারেন্ট সোর্স, একটি ভোল্টেজ সোর্স, এবং তিনটি রোধক আছে। সুপারপজিশন নীতি প্রয়োগ করে 2 Ω রোধের আড়াআড়ি বিভব পার্থক্য তথা v0 এর মান বের করতে হবে। সার্কিটে যেহেতু দুটি সোর্স আছে সেহেতু শুধু ভোল্টেজ সোর্সের জন্য 2 Ω রোধের আড়াআড়ি বিভব পার্থক্য ধরা যাক v'0 এবং শুধু কারেন্ট সোর্সের জন্য 2 Ω রোধের আড়াআড়ি বিভব পার্থক্য v''0. তাহলে দুটি সোর্সের জন্য মোট বিভব পার্থক্য হবে, v0 = v'0 + v''0. এবার v'0v''0 এর মান বের করতে হবে।

প্রথমে ভোল্টেজ সোর্সকে রেখে কারেন্ট সোর্সকে নিষ্ক্রিয় করলে নিচের এক লুপ বিশিষ্ট সরল সার্কিট পাওয়া যাবে। এই সার্কিটের ক্ষেত্রে v'0 এর মান হবে 4 V.

এবার কারেন্ট সোর্সকে বিবেচনায় নিয়ে ভোল্টেজ সোর্সকে নিষ্ক্রিয় করলে নিচের সার্কিট পাওয়া যাবে। যে কোন পদ্ধতি (যেমন কারেন্ট ডিভাইডার রুল) প্রয়োগ করে v''0 এর মান পাওয়া যাবে 8 V.

দুটি সোর্সের জন্য মোট বিভব পার্থক্য হবে, v0 = v'0 + v''0 = 4 + 8 = 12 V. একইভাবে তিন বা ততোধিক সোর্সের ক্ষেত্রে সুপারপজিশন নীতি প্রয়োগ করা যায়। সোর্স এর সংখ্যা বেড়ে গেলে সময় একটু বেশী লাগতে পারে, তবে প্রতিবার একটি করে সোর্স বিবেচনা করা হয় বিধায় এই পদ্ধতি খুব সহজ-সরল এবং ভুল হওয়ার সম্ভাবনাও কম থাকে।

Level 0

আমি এস. এম. রায়হান। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 27 টি টিউন ও 123 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ধন্যবাদ রায়হান ভাই নিয়মিত চালাইয়া যাওয়ার জন্য।
আপনার লেখা গুলো সুন্দর ও বোধগম্য হচ্ছে।
ভালো থাকবেন।

চালিয়ে যাওয়ার জন্য আমার পক্ষ থেকেও আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ এবং শুভকামনা।

Level 0

অসংখ ধন্যবাদ আপনাকে, এই ধরনের একটা ধারাবাহিক টিউন চালানোর জন্য।
(আপনি কি করেন এটা যদি দয়া করে জানাতেন তবে আপনার কাছে একটা সাহায্য চাইতাম। আপনি কি করেন না জেনে কথাটা বলতে পারছি না। যদি অসুবিধা না থাকে তাহলে জানাবেন আশাকরি)

কঠিন
ধন্যবাদ