প্রকৃতির বৈচিত্র্য: ডারউইনবাদীদের নাইটমেয়ার-৯

[পর্ব-১|পর্ব-২|পর্ব-৩|পর্ব-৪|পর্ব-৫|পর্ব-৬|পর্ব-৭|পর্ব-৮] পা’র উপর ভিত্তি করে প্রকৃতিতে বিভিন্ন ধরণের প্রাণী পরিলক্ষিত হয়। যেমন পা-বিহীন প্রাণী (সাপ, জোঁক, কেঁচো) থেকে শুরু করে দ্বিপদী প্রাণী (মানুষ, পাখি), চতুষ্পদী প্রাণী (বাঘ, সিংহ, হাতি, ঘোড়া, গরু, ছাগল), ষষ্ঠপদী প্রাণী (কীট-পতঙ্গ), আষ্টপদী প্রাণী (মাকড়সা), ও বহুপদী প্রাণী (বিছা পোকা)। তবে অত্যন্ত আশ্চর্যজনক হলেও সত্য যে, প্রকৃতিতে স্বাভাবিকভাবে বেড়ে উঠা বেজোড় সংখ্যক পা বিশিষ্ট একটি প্রজাতিও নেই! ডারউইনবাদীদের অন্ধ-অচেতন ও উদ্দেশ্যহীন ‘প্রকৃতি’ একেবারে শতভাগ প্রজাতির ক্ষেত্রে জোড় সংখ্যক পা নির্ধারণ করলো কী করে! পা’র উপর ভিত্তি করে প্রাণীগুলোকে এভাবে সাজানো যায়:

[পা-বিহীন প্রাণী – দ্বিপদী প্রাণী – চতুষ্পদী প্রাণী – ষষ্ঠপদী প্রাণী – আষ্টপদী প্রাণী – বহুপদী প্রাণী]

এবার যৌক্তিক ও বাস্তবিক দৃষ্টিকোণ থেকে চিন্তা-ভাবনার পালা। প্রাকৃতিক নিয়ম অনুযায়ী পা-বিহীন প্রাণী থেকে পা-বিহীন প্রাণীই হয়, দ্বিপদী প্রাণী থেকে দ্বিপদী প্রাণীই হয়, চতুষ্পদী প্রাণী থেকে চতুষ্পদী প্রাণীই হয়, ষষ্ঠপদী প্রাণী থেকে ষষ্ঠপদী প্রাণীই হয়, আষ্টপদী প্রাণী থেকে আষ্টপদী প্রাণীই হয়, এবং বহুপদী প্রাণী থেকে বহুপদী প্রাণীই হয়। এর ব্যতিক্রম কিছু হলে সেটিকে প্রাকৃতিক বা স্বাভাবিক বলা যাবে না। অন্যদিকে বিবর্তন তত্ত্ব অনুযায়ী এককোষী ও পা-বিহীন একটি জীব থেকে যদি বিবর্তন শুরু হয় তাহলে বিবর্তনের কোন এক পর্যায়ে জীবের দেহে পা গজাতেই হবে। পা-বিহীন জীবের দেহে পা গজাতে হলে কিন্তু নতুন তথ্য লাগবে। সেই নতুন তথ্য আসবে কোথা থেকে? কেনই বা পা গজানোর দরকার পড়লো, যেখানে পা-বিহীন জীব এখনো রয়েই গেছে? পা-বিহীন জীবের দেহে কি ধাপে ধাপে নাকি এক লাফে পা গজিয়েছিল? এক লাফে যদি পা গজিয়ে থাকে তাহলে পা গজানোর পর জীবটা কি পূর্বের মতই ছিল নাকি সাথে সাথে বিবর্তিত হয়ে ভিন্ন কিছুতে রূপান্তরিত হয়েছিল? আর ধাপে ধাপে পা গজিয়ে থাকলে দেহটাও কি ধাপে ধাপে বিবর্তিত হয়েছিল? মধ্যবর্তী ধাপগুলো তাহলে কেমন ছিল?

পা-বিহীন জীবের দেহে প্রাথমিক অবস্থায় কতটা পা গজিয়েছিল? দুটি? চারটি? আটটি? নাকি অনেক? ডারউইনবাদীদের কাছে যেহেতু কোন প্রমাণ নাই সেহেতু ধরে নেয়া যাক দুটি। তো সেই দ্বিপদী প্রাণী থেকে চতুষ্পদী, ষষ্ঠপদী, অষ্টপদী, ও বহুপদী প্রাণী কেন ও কীভাবে ধাপে ধাপে বিবর্তিত হলো, যেখানে দ্বিপদী প্রাণী এখনো রয়েই গেছে? এমন যদি হয় যে পা-বিহীন জীবের দেহে প্রাথমিক অবস্থায় এক সাথে অনেক পা গজিয়েছিল। সেক্ষেত্রে সেই বহুপদী প্রাণী থেকে কী করে দ্বিপদী, চতুষ্পদী, ষষ্ঠপদী, ও অষ্টপদী প্রাণী ধাপে ধাপে বিবর্তিত হলো, যেখানে বহুপদী প্রাণী এখনো রয়েই গেছে? বহুপদী প্রাণীর পা-গুলো কি একবারে নাকি ধাপে ধাপে বিলুপ্ত হয়েছিল? ধাপে ধাপে বিলুপ্ত হয়ে থাকলে আনুমানিক কতগুলো ধাপ অতিক্রম করতে হয়েছিল? মধ্যবর্তী ধাপগুলো তাহলে কেমন ছিল? প্রতিবার শুধু জোড় সংখ্যক পা কী করে বিলুপ্ত হলো! নিচে পা-বিহীন ও পা-বিশিষ্ট কিছু প্রাণীর নমুনা দেয়া হলো।

পা-বিহীন প্রাণী

দ্বিপদী প্রাণী

চতুষ্পদী প্রাণী

ষষ্ঠপদী প্রাণী

অষ্টপদী প্রাণী

বহুপদী প্রাণী

পাঠক! এখানে কিন্তু আণবিক জীববিদ্যা আর জেনেটিক্স নিয়ে এসে অন্ধকে হাইকোর্ট দেখিয়ে কোনই লাভ হবে না। কেননা বাস্তবে যা সম্ভব নয় সেখানে আণবিক জীববিদ্যা, জেনেটিক্স, টরন্টো-ম্যাকগিল, অক্সফোর্ড-হার্ভার্ড, আর পশ্চিমা বিশ্বের বাঘা বাঘা অধ্যাপকদের নিয়ে এলেও সেটিকে সম্ভব করা যাবে না। অথচ বিজ্ঞানের নামে ও জনপ্রিয় মিডিয়ার কল্যানে ইতোমধ্যে মিলিয়ন মিলিয়ন অসচেতন লোকজনের মস্তক ধোলাই করা হয়েছে। এর ফলে তাদের যা শিখানো হয়েছে তার বাইরে তারা চিন্তা করতে উদ্বুদ্ধ হয় না।

উপসংহার: বিবর্তন তত্ত্ব সত্য হলে পা-বিহীন জীব থেকে প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে ধাপে ধাপে পা-বিশিষ্ট প্রাণী বিবর্তিত হতেই হবে, যেহেতু বিবর্তন তত্ত্ব অনুযায়ী দুটি প্রজাতির আলাদা উৎস থাকতে পারে না। কিন্তু পা-বিহীন জীব থেকে ধাপে ধাপে পা-বিশিষ্ট প্রাণী বিবর্তিত হওয়া যেমন সম্ভব নয় তেমনি আবার এই ধরণের বিবর্তনের পক্ষে কোন প্রমাণও নাই। ফলে পা-বিহীন ও পা-বিশিষ্ট প্রজাতির আলাদা আলাদা উৎস থাকতে হবে। আর আলাদা আলাদা উৎস থাকতে হলে বিবর্তন তত্ত্ব ভুল প্রমাণিত বলে গণ্য হবে।

Level 0

আমি এস. এম. রায়হান। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 27 টি টিউন ও 123 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

দারুণ। অনেক ভাল লাগল।
চালিয়ে যান।

বিবর্তন তত্ত্ব তো থিউরি, universal truths নয়। কোথাও এটা বলাও হয় নাই। আপনারটাও পড়া হতে পারে science বই গুলোতে, যদি আপনি তা প্রমান সহ উঠাতে পারেন কোন science academy তে …

    ডারউইনবাদীরা কিন্তু বিবর্তন তত্ত্বকে বৈজ্ঞানিকভাবে প্রতিষ্ঠিত তত্ত্ব বলেই দাবি করছেন।

অসাধারণ হইতেছে,
চালিয়ে যান আপনার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইল।

Level 0

চিন্তার বিষয়। আচ্ছা উপরের প্রানীটির পা কয়টি? ৪০টি? থুক্কু ভুলই মনে হচ্ছে।

    ঐ প্রাণীটার পা আমি নিজেও গুণতে পারিনি। এগুলোকে বহুপদী বা শতপদী প্রাণী বলা হয়। তবে যত সংখ্যক পা-ই থাক না কেন, অবশ্যই জোড় সংখ্যক হতে হবে!

Level 0

আপনার যুক্তিগুলো ভালো হচ্ছে। প্রকৃতিতে পা-বিহীন প্রানী থেকে পা-বিহীন প্রাণীই হয়ে থাকে আর পা-বিশিষ্ট প্রাণী থেকে পা-বিশিষ্ট প্রাণীই হয়। এটা Universal Truth. এটার ব্যতিক্রম হলে সেটাকে অস্বাভাবিক হিসেবে ধরে নেয়া হয় কিন্তু এর মাধ্যমে পুরো একটা প্রজাতি বিবর্তন হওয়া সম্ভব নয়।