[পর্ব-২৪] :: এই মুহূর্তে বাজারের সেরা 16GB RAM এর ফোন গুলো

টিউন বিভাগ রিভিউ
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 34
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

এই মুহূর্তে বাজারের সেরা

আসসালামু আলাইকুম টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? আশা করছি ভাল আছেন। বরাবরেই মত আজকেও চলে এসেছি নতুন টিউন নিয়ে।

ফোন কেনার আগে একেক জনের চাহিদা থাকে একেক রকম, কেউ ভাল ডিসপ্লে চায়, কেউ ছবি তুলার জন্য ভাল ক্যামেরার চায়। কেউ ব্যাটারি বা স্টোরেজকে গুরুত্ব দেয়। কিন্তু যারা মাল্টিটাস্কিং এ অভ্যস্ত তারা চায় ফোনের র‍্যাম যত বেশি নেয়া যায়৷ বর্তমান সময়ে মাল্টিটাস্কিং এর জন্য ১৬ জিবি র‍্যামের ফোন গুলো লিড দিচ্ছে৷ তাই আজকে আমরা বাজারের সেরা ১৬ জিবি ফোন গুলো সম্পর্কে জানব, একই সাথে ছোট করে আলোচনা হবে এই মুহূর্তে আপনার আসলে কত জিবি র‍্যাম দরকার।

আপনার আসলে কত জিবি র‍্যাম লাগবে?

বেশি র‍্যাম হলেই মাল্টিটাস্কিং ভাল হবে এমন কোন কথা নেই। ফোনের র‍্যাম ১৬ জিবি হলেই সেরা পারফরম্যান্স দেবে এমনটি নাও হতে পারে। ২০২১ সালে করা একটি অনলাইন পোলে ইউজারদের বলা হয়েছিল কত জিবি র‍্যামের ফোনকে তারা সেরা ভাবে, বেশিরভাগ ইউজার ৮ জিবি র‍্যামের ফোনকে জয়ী করেছে, দ্বিতীয় ছিল ৬ জিবি র‍্যামের ফোন। তাছাড়া অনেক ইউজারদের মত ছিল ১০ জিবি এবং ১২ জিবি র‍্যামের মধ্যে তেমন কোন পার্থক্যও খুঁজে পাওয়া যায় না।

২০১৯ সালে অনেক যাচাই বাছাই করে এক্সপার্টরা একটা সিদ্ধান্ত দিয়েছিল, স্মার্টফোনের জন্য ৬জিবি এবং ৮ জিবি র‍্যাম যথেষ্ট, এর উপরে গেলে তেমন আহামরি কোন পারফরম্যান্স পাওয়া যায় না। যাই হোক এ বিষয়ে আপনি বিস্তারিত জানতে আমার এই টিউনটি দেখে আসতে পারেন।

৬ জিবি এবং ৮ জিবি র‍্যাম যথেষ্ট হলেও যারা ১৬ জিবি র‍্যামের ফোন কিনতে চাচ্ছেন তারা ভুল করছেন না। এখন ১৬ জিবি ফোন কিনলে ভবিষ্যতে ফিচারের দিক থেকে আপনি সেইফ থাকতে পারবেন। কারণ আমরা জানি দিন যত যাচ্ছে ফোনের র‍্যাম বাড়ানো হচ্ছে, অ্যাপ আর গেম গুলোকেও সেই অনুযায়ী কনফিগার করা হচ্ছে। তাছাড়া আমি বিশ্বাস করি ১৬ জিবি ফোন গুলো একই সাথে হাই-এন্ড হার্ডওয়্যার দিয়ে তৈরি, রয়েছে প্রিমিয়াম সব কম্বিনেশন। সেক্ষেত্রে ১৬ জিবি ফোন কেনা ভাল তবে শুধু মাত্র র‍্যাম ভাল কিন্তু অন্য হার্ডওয়্যার দুর্বল এমন ফোন না নেওয়াই ভাল।

১৬ জিবি র‍্যামের সেরা ফোন গুলো

আজকে আমাদের লিস্টে যে ফোন গুলো রয়েছে,

  • Samsung Galaxy S21 Ultra 5G
  • Asus ZenFone 8
  • Oppo Find X3 Pro
  • Asus ROG Phone 5 and 5s
  • Xiaomi Black Shark 4S Pro
  • Nubia Red Magic 7
  • ZTE Axon 30 Ultra
  • Lenovo Legion Dual 2

১. Samsung Galaxy S21 Ultra 5G

আপনি যদি ১৬ জিবি র‍্যামের সেরা ফোন চান তাহলে আপনার জন্য রয়েছে Samsung Galaxy S21 Ultra 5G। শুধু র‍্যামের জন্যই এই ফোন কিনবেন এমনটি নয় এই ফোন কেনার অন্যতম আরেকটি কারণ হতে পারে ইন্ডাস্ট্রি লিড করা সেরা ব্র‍্যান্ড। আর স্পেসিফিকেশন, ডিজাইন যেকোনো ইউজারকে আকৃষ্ট করতে পারে। এই লিস্টের বেস্ট ভ্যালু ফোনও বলা যায় এটিকে।

১৬ জিবি র‍্যামের সাথে সাথে এই ডিভাইসে থাকবে ৫১২ জিবি স্টোরেজ। সাথে রয়েছে 6.8 ইঞ্চি Dynamic AMOLED ডিসপ্লে যার রিফ্রেশ রেট 120Hz। ডিভাইসটিতে থাকছে পাওয়ারফুল প্রসেসর এর সাথে কোয়াট ক্যামেরা সেট আপ, 5, 000mAh ব্যাটারি।

শুধু তাই নয় এই ফোনটি Samsung এর প্রিমিয়াম লাইনআপ এর একটি ফোন, বুঝতে পারছেন দেখতে কেমন হবে এই স্মার্টফোনটি।

Samsung Galaxy S21 Ultra 5G এর স্পেসিফিকেশন

Display: 6.8-inch, QHD+
SoC: Snapdragon 888 or Exynos 2100
RAM: 12/16GB
Storage: 128/256/512GB
Cameras: 108, 12, 10, and 10MP
Front camera: 40MP
Battery: 5, 000mAh
Software: Android 11

২. Asus ZenFone 8

Asus Zenfone 8 স্মার্টফোনটি দামের দিক থেকে ১৬ জিবি র‍্যামের সেরা ফোন হতে পারে। এটা হাই-এন্ড ফোন না হতে পারে তবে লো বাজেটের প্রিমিয়াম ফোন গুলোর মতই কাজ করবে।

ফোনটিতে দেয়া হয়েছে পাওয়ারফুল Snapdragon 888 চিপ-সেট, ৫.৯ ইঞ্চি 120Hz Super AMOLED প্যানেল, ডুয়েল সিম এবং ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ। সাথে থাকছে 4, 000mAh ব্যাটারি এর রয়েছে IP68 র‍্যাটিং।

এই Asus Zenfone 8 এর একটি অসুবিধা হল ১৬ জিবি র‍্যাম পেতে আপনাকে Specced-out ভার্সন নিতে হবে। এই ফোনটির একই সাথে রয়েছে 6GB, 8GB, এবং 12G র‍্যাম ভার্সন।

Asus ZenFone 8 এর স্পেসিফিকেশন

Display: 5.9-inch, Full HD+
SoC: Snapdragon 888
RAM: 6/8/12/16GB
Storage: 128/256GB
Cameras: 64 and 12MP
Front camera: 12MP
Battery: 4, 000mAh
Software: Android 11

৩. Oppo Find X3 Pro

Oppo আমেরিকার মার্কেটে কম জনপ্রিয় হতে পারে কিন্তু চীনা কোম্পানি ভাল করেই জানে কিভাবে ফোনকে আকর্ষণীয় করে তুলা যায়। কিছুটা দামী এই Oppo Find X3 Pro ফোনটিতে কোন কমতি রাখা হয় নি। ১৬ জিবি র‍্যামের অন্যতম সেরা একটি ফোন বলা যায় এটিকে।

এতে রয়েছে দারুণ সব ফ্ল্যাগ-শিপ ফিচার। ফোনটিতে দেয়া হয়েছে 120Hz এর QHD+ LTPO AMOLED ডিসপ্লে, কোয়াট ক্যামেরা সেটআপ, গ্লাস ডিজাইন এবং IP68 রেটিং।

১৬ জিবি র‍্যামের পাশাপাশি ফোনটিতে থাকছে ৫১২ জিবি স্টোরেজ। ফোনটির ৮ জিবি এবং ১২ জিবি ভার্সনও রয়েছে।

ফোনটির সম্প্রতি নতুন আরেকটি মডেল লঞ্চ হয়েছে যার নাম Oppo Find X5 Pro, তবে এটি শুধু মাত্র ১২ জিবি র‍্যাম অফার করে।

Oppo Find X3 Pro এর স্পেসিফিকেশন

Display: 6.7-inch, QHD+
SoC: Snapdragon 888
RAM: 8/12/16GB
Storage: 256/512GB
Cameras: 50, 50, 13, and 3MP
Front camera: 32MP
Battery: 4, 500mAh
Software: Android 11

৪. Asus ROG Phone 5, 5s series

Asus বর্তমান সময়ে বিশ্বব্যাপী গেমিং স্মার্টফোন বাজারে লিড দিচ্ছে। সুতরাং তাদের ১৬ জিবি র‍্যামের ফোন আছে শুনলে অবাক হবার কিছু নাই।

Asus ROG Phone 5 ফোনটিকে দানব ফোনও বলা যেতে পারে৷ এতে দেয়া হয়েছে Snapdragon 888 চিপ-সেট, বিশাল 6, 000mAh ব্যাটারি, 65W চার্জিং, ত্রিপল ক্যামেরা সেটআপ, এবং 144Hz এর AMOLED ডিসপ্লে। ফোনটিকে গেমিং এর জন্যও বেশ উপযুক্ত করে তৈরি করা হয়েছে, দেয়া হয়েছে একাধিক গেমিং সুবিধা।

Asus ROG Phone 5 এবং 5 Pro দুইটি ফোনেরই 16GB র‍্যাম ভেরিয়েন্ট রয়েছে। আপনি যদি আরও ভাল পারফরম্যান্স চান তাহলে ১৮ জিবি র‍্যামের ROG Phone 5 Ultimate ও দেখতে পারেন। এটি 5G ফোন। এতে ১৮ জিবি র‍্যামের পাশাপাশি দেয়া হয়েছে একটু ভাল Snapdragon 888 Plus চিপ-সেট এবং 360Hz টাচ রেসপন্স রেট।

Asus ROG Phone 5 এর স্পেসিফিকেশন

Display: 6.78-inch, Full HD+
SoC: Snapdragon 888
RAM: 8/12/16GB
Storage: 128/256GB
Cameras: 64, 13, and 5MP
Front camera: 24MP
Battery: 6, 000mAh
Software: Android 11

Asus ROG Phone 5 Pro এর স্পেসিফিকেশন

Display: 6.78-inch, Full HD+
SoC: Snapdragon 888
RAM: 16GB
Storage: 512GB
Cameras: 64, 13, and 5MP
Front camera: 24MP
Battery: 6, 000mAh
Software: Android 11

Asus ROG Phone 5s এর স্পেসিফিকেশন

Display: 6.78-inch, Full HD+
SoC: Snapdragon 888 Plus
RAM: 8/12/16/18GB
Storage: 128/256/512GB
Cameras: 64, 13, and 5MP
Front camera: 24MP
Battery: 6, 000mAh
Software: Android 11

৫. Xiaomi Black Shark 4s Pro

এবার আমরা আরেকটি গেমিং ফোন দেখব। এবারের ফোনটি হচ্ছে Xiaomi এর Black Shark ব্র‍্যান্ডের। Xiaomi Black Shark 4s Pro ফোনটি সব সময় গেমিং এ হাই পারফরম্যান্স দিতে প্রতিশ্রুতিবন্ধ। ফোনটির একটি সুবিধা হচ্ছে এটি প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে কম মূল্যেই আপনি কিনতে পারবেন।

Xiaomi Black Shark 4s Pro ফোনটি ১৬ জিবি র‍্যামের অন্যতম একটি গেমিং ফোন। ফোনটিতে রয়েছে Snapdragon 888+ চিপ-সেট, ত্রিপল ক্যামেরা সেটআপ, 6.67 ইঞ্চি 144HZ এর AMOLED ডিসপ্লে, এবং 120W এর চার্জিং সহ 4, 500mAh ব্যাটারি। Xiaomi এর দাবী ফোনটি মাত্র ১৫ মিনিটে ১০০% চার্জ হয়ে যাবে।

এই ফোনটির একটি অসুবিধা হল সব দেশে ফোনটি এভেইলেবল নয়।

Xiaomi Black Shark 4s Pro এর স্পেসিফিকেশন
Display: 6.67-inch, Full HD+
SoC: Snapdragon 888 Plus
RAM: 8/12/16GB
Storage: 256/512GB
Cameras: 64, 8, and 5MP
Front camera: 20MP
Battery: 4, 500mAh
Software: Android 11

৬. Nubia Red Magic 7

আপনি যদি এভেইলেবিলিটি ইস্যু ফেইস করতে না চান এবং কিছু টাকা বাচাতে চান তাহলে Red Magic 7 ফোনটি নিতে পারেন। এটি ZTE এর মালিকানাধীন একটি কোম্পানি। যে ব্র্যান্ডই হোক না কেন ১৬ জিবি র‍্যামের অন্যতম সেরা একটি ফোন এটি। আপনি যদি ১০০০ ডলারের মধ্যে হাই-এন্ড ফোন চান তাহলে এটি আপনার জন্য চমৎকার হতে পারে। আপনি চাইলে এর ১২ জিবি এবং ১৮ জিবি ভার্সনটিও দেখতে পারেন।

প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে কম মূল্যে ফোনটি অফার করা হলেও ফোনটিতে আপনি পাবেন, Snapdragon 8 Gen 1 চিপ-সেট, ৫১২ জিবি স্টোরেজ, 6.8 ইঞ্চি 165Hz ডিসপ্লে, ত্রিপল ক্যামেরা সেট আপ, 120W চার্জিং এর সাথে 4, 500mAh ব্যাটারি।

গেমিং ফোন হওয়াতে গেমিং এর জন্য পাবেন ইন্টিগ্রেটেড কুলিং সিস্টেম, এবং অপশন আরও এক্সাসোরিজ।

Nubia Red Magic 7 এর স্পেসিফিকেশন
Display: 6.8-inch, Full HD+
SoC: Snapdragon 8 Gen 1
RAM: 12/16/18GB
Storage: 128/256/512GB
Cameras: 64, 8, and 2MP
Front camera: 8MP
Battery: 4, 500mAh
Software: Android 12

৭. ZTE Axon 30 Ultra

অনেক তো গেমিং ফোন দেখা হল এবার আসুন সাধারণ ফোনে আসা যাক। এলিগেন্ট ডিজাইন এবং সেরা স্পেসিফিকেশনের ZTE Axon 30 Ultra ফোনটি আপনি পছন্দ করতে পারেন। ১৬ জিবি র‍্যামের আরেকটি সেরা ফোন এটি। এর চমৎকার ডিজাইন এবং স্পেসিফিকেশন দিয়ে এটি অন্যদের সাথে সহজেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারে।

ফোনটির ভেতরে পাচ্ছেন Snapdragon 888 চিপ-সেট, কোয়াট ক্যামেরা সেটআপ, 144Hz রিফ্রেশ রেটের 6.67 ইঞ্চি AMOLED ডিসপ্লে এবং 4, 600mAh ব্যাটারি।

ফোনটির একটি অসুবিধা হল ১৬ জিবি র‍্যামের ফোনটি পেতে আপনাকে অনেক টাকা গুনতে হবে, কারণ হাই-এন্ড ফোনটিতেই কেবল ১৬ জিবি র‍্যাম দেয়া হয়েছে। তবে এই ভার্সনে আপনি 1TB স্টোরেজও কিন্তু পাবেন।

ZTE Axon 30 Ultra এর স্পেসিফিকেশন
Display: 6.67-inch, Full HD+
SoC: Snapdragon 888
RAM: 8/12/16GB
Storage: 128/256/1, 024GB
Cameras: 64, 64, 64, and 8MP
Front camera: 16MP
Battery: 4, 600mAh
Software: Android 11

৮. Lenovo Legion Duel 2

Lenovo Legion Duel 2 ফোনটি ১৬ জিবি র‍্যামের একটা গেমিং ফোন যা আমাদের লিস্টের শেষ স্মার্টফোন। এই লিস্টের সব গুলো ফোনের চেয়ে ইউনিক ডিজাইনের এই ফোন এটি। হরিজন্টালি ব্যবহার উপযোগী করে এটি তৈরি করা। গেমিং এর প্রতিটি বিষয় মাথায় নিয়ে এই ফোনটি তৈরি করা হয়েছে। বিল্ড-ইন ফ্যানের সাথে ফোনটিতে দেয়া হয়েছে 144Hz এর AMOLED ডিসপ্লে। তবে ফোনটিতে আইপি র‍্যাটিং এবং ওয়ারলেস চার্জিং এর সুবিধা রাখা হয় নি, পুরোপুরি গেমিং এর উপর ফোকাস করা হয়েছে।

ফোনটিতে পারফরম্যান্স এর জন্য দেয়া হয়েছে Qualcomm Snapdragon 888 প্রসেসর। রয়েছে 5, 000mAh এর ব্যাটারি, এতে ডুয়েল চার্জ সহ 90w স্পিড পাওয়া যাবে। Legion Duel 2 ফোনটিতে আপনি আরও পাবেন পপআপ সেলফি ক্যামেরা।

Lenovo Legion Duel 2 এর স্পেসিফিকেশন
Display: 6.92-inch, Full HD+
SoC: Snapdragon 888
RAM: 12/16/18GB
Storage: 256/512GB
Cameras: 64 and 16MP
Front camera: 44MP
Battery: 5, 000mAh
Software: Android 11

শেষ কথা

মাল্টিটাস্কিং এবং গেমিং এ ১৬ জিবি র‍্যামের ফোনই লাগবে এমন কোন কথা নেই তবে আপনি যদি ১৬ জিবি র‍্যামের ফোনই কিনতে চান এবং ভাল বাজেট থাকে তাহলে এই ফোন গুলো দেখতে পারেন। এই মুহূর্তে বাজারের সেরা ফোন গুলো নিয়েই আলোচনা করা হয়েছে।

তো আজকে এই পর্যন্তই পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভাল থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।

Level 34

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 645 টি টিউন ও 198 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 97 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস