বাংলাদেশের সেরা ১০টি জব সম্পর্কে জেনে নিন!

অনেকেই হয়তো প্রশ্ন করে থাকেন কোন জবটি সবচেয়ে সেরা? কোন জবটিতে অধিক ফ্যাসিলিটি পাওয়া যায়? এই বিষয়ে আমাদের সমাজে তর্ক-বিতর্কেরও শেষ নেই। অনেকেই মনে করেন মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিই সেরা, আবার অনেকে মেডিকেল প্রফেশনকে মনে করে সেরা, আবার অনেকেই মনে করেন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রফেশনই সেরা।

তাই আজকে আমি আপনাকে বাংলাদেশের সেরা জব সম্পর্কেই বলব। এই আর্টিকেলটি পড়লে আপনি এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

আসলে কোন জবকেই আপাত দৃষ্টিতে সেরা বলা যায় না। আপনার দক্ষতা যদি খুব ভাল থাকে এবং কাজের প্রতি ভালবাসা থাকে, তাহলে যে কোন জবেই আপনার জন্য সেরা হয়ে উঠতে পারে। আমরা এখানে বেতন, সুযোগ-সুবিধা ইত্যাদির ভিত্তিতে বাংলাদেশের সেরা জব সম্পর্কে আলোচনা করব।

তাহলে চলুন আর দেরি না করে জবগুলোর কথায় যাওয়া যাক।

বাংলাদেশের সেরা ১০টি জব

best job

ফাইনানসিয়াল এনালিস্ট

একজন ফাইনানসিয়াল এনালিস্ট হিসাবে আপনার কাজ হবে কোন বিষয়ের উপর পরীক্ষা করা, তা যাচাই করা এবং সে বিষয়টি অর্থনৈতিকভাবে কতটা ইফেক্টিভ হবে, তা নিয়ে এনালাইসিস করা এবং ম্যানেজমেন্টকে সে বিষয়ে উপযুক্ত নির্দেশ প্রদান করা।

যে কোন অর্গানাইজেশনের জন্যই এই কাজটি করা অনেক কঠিন, কারণ একাজের জন্য কোম্পানিকে প্রচুর রিস্ক নিতে হয়। তাই একজন ফাইনানসিয়াল এনালিস্টকে সর্বনিম্ন একলাখ বেতন দেয়া হয়। দক্ষ এবং অভিজ্ঞতা থাকলে বেতন আরও বাড়তে পারে।

ফরেক্স ট্রেডার

ফরেক্স ট্রেডারও আরেকটি সেরা প্রফেশন যেখান থেকে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

আমাদের দেশে একজন অভিজ্ঞ ট্রেডারের বেতন ৯৫ হাজার পর্যন্ত হয়ে থাকে। কিন্তু এখানে অনেকেই ব্যতিক্রম থাকে, যারা এর চেয়ে অনেক বেশি ইনকাম করে থাকেন।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়াগুলো দারুণভাবে জনপ্রিয়তা লাভ করছে। তাই এখন বড় বড় কোম্পানিগুলোর প্রথম টার্গেট থাকে সোশ্যাল মিডিয়া। কারণ এখানে খুব সহজেই প্রোডাক্ট প্রমোশন করানো যায়।

একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটারের মাসিক ইনকাম প্রায় ৬০ থেকে ৬৫ হাজারের মতো হয়ে থাকে। এই পেশার জন্যে যেমন দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে জব পাওয়া যায়, তেমনি আয় করা যায় অনলাইন থেকেও।

সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার/ডেভেলপার

আমাদের দেশে একজন শিক্ষার্থী যখন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে পড়াশোনা করে বের হয় এবং প্রোগ্রামিং এ খুব দক্ষ হয়, তখন তার বেতন ৯৫ থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।

কিন্তু সমস্যা কেবল এক জায়গায়, তা হল আমাদের দেশে এই চাকুরীর সংখ্যাও অতি নগন্য। কিন্ত যে সকল কোম্পানী সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারদেরকে নেয়, তারা অনেক বেশি বেতনেই তাদেরকে রাখে।

তাই আপনি যদি সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হয়ে সফল হতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই প্রোগ্রামিং এ দক্ষ হতে হবে।

একাউন্টেন্ট

যদি আপনি বিজনেস রিলেটেড কোন কোর্স করে থাকেন, তাহলে এই সেক্টরেই কাজ করার জন্য আপনি পারফেক্ট। কোন প্রকার সন্দেহ ছাড়াই বলা যায়, বাংলাদেশের সবচেয়ে সেরা জবগুলোর মধ্যে এটিও একটি, যেখানে সর্বোচ্চ বেতন প্রদান করা হয়ে থাকে।

৫০% কোম্পানিই সাধারণত এই জবের জন্য একজন একাউন্টেন্টকে ৫০ হাজার টাকা দিয়ে থাকে। কিন্তু যখন আপনি একটু সিনিয়র পর্যায়ে যাবেন, তখন আপনার বেতন ১ লাখ পর্যন্ত চলে যাবে। love job

পরিসংখ্যানবিদ

পরিসংখ্যানবিদরাও তাদের কাজের জন্য খুব ভাল স্যালারী পেয়ে থাকেন। বিভিন্ন বিনিয়োগকারী সংস্থা এবং সরকারী ইন্সটিটিউশন তাদেরকে অনেক বেশি রিওয়ার্ড দিয়ে থাকে।

প্রফেশনাল কোয়ালিফিকেশন থাকলে এই জবের ক্ষেত্রে আপনার বেতন ১ লাখ থেকে ১ লাখ ২০ হাজার পর্যন্ত হতে পারে। তাই এটিও হতে পারে আপনার জন্য সুবর্ণ সুযোগ।

সিভিল ও ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার

প্রায় সব সেক্টরেই অভিজ্ঞতা খুব বেশি কাজে লাগে। আপনার কাজের অভিজ্ঞতা যত বাড়বে কোম্পানিতে আপনার দামও ততটাই বাড়বে। তাই চেষ্টা করুন প্রথম থেকে দক্ষতার সাথে কাজ করে যেতে।

একজন সিভিল কিংবা ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার ৩/৪ বছর কাজের অভিজ্ঞতা থাকলেই ৭০-৮০ হাজার টাকা মাসে ইনকাম করতে পারে।

ব্লগার

আগে আমরা যাদেরকে লেখক বলতাম, তারাই যখন বিভিন্ন সাইটে লেখালেখি করে, তখন তাকে বলা হয়ে থাকে ব্লগার। একজন দক্ষ ব্লগার তার লেখনীতে বাস্তবতাকেই ফুটিয়ে তুলেন।

মূলত ব্লগিং যে কোন বিষয়েই হতে পারে। সায়েন্স কিংবা সাহিত্য সবকিছুই এই ব্লগিং এর মধ্যেই চলে আসে। একজন সফল ব্লগার মাসে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারে।

মেডিকেল প্রফেশন

একজন এমবিবিএস ডাক্তার যদি কোন বিষয়ে বিশেষজ্ঞ হতে পারে কিংবা বিসিএস পাশ করে, তখন তার অনেকদিক থেকেই ইনকাম সোর্স থাকে। আমরা কেবল একজন মেডিকেলের অফিসারের কথাই এখানে বলব। সাধারণ একজন বিশেষজ্ঞ যখন পাবলিক মেডিকেলে কাজ করে, তখন তার মাসিক বেতন প্রায় ১ লাখ টাকা।

আবার প্রাইভেট মেডিকেলে কাজ করলে এরচেয়েও বেশি হতে পারে। মূলত আপনার কাজের দক্ষতা থাকলে টাকার পেছনে আপনাকে ঘুরতে হবে না, টাকা আপনাকেই খুঁজবে। তাই নিজের দক্ষতার উপরে জোর দেন।

আইনজীবী

আমরা অনেকেই জেনে থাকব আইন বিষয়ে পড়াশোনা করে বের হওয়া অনেক কষ্ট। কিন্তু আপনি যদি একবার আইন পাশ করে বের হতে পারেন, তাহলে আপনার বেতন হবে প্রায় ১ লাখ টাকারও অধিক।

আশাকরি সম্পূর্ন লেখাটি পড়ে বুঝতে পেরেছেন আপনার জব তখনি সেরা হবে, যখন আপনি সেরা হবেন। আপনার যদি খুব ভাল দক্ষতা থাকে, তাহলে জব পাওয়া কিংবা ভাল বেতনে চাকুরী করা কোন ব্যাপারেই হবে না। তাই ক্যারিয়ারে ভাল করতে চাইলে আপনার উচিত হবে সবার আগে নিজের দক্ষতাকে বাড়ানো।

ফেইসবুকে আমি

আমার ব্লগ সাইট

Level 0

আমি শওকত মাহমুদ। Graphics Designer, Mahmud's Work, Dhaka। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 2 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 11 টি টিউন ও 4 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

আমি শওকত মাহমুদ, কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে আমার বাড়ী, বর্তমানে ঢাকার যাত্রাবাড়ীতে আছি, ২০১৪ থেকে টেকটিউনস এর নিয়মিত পাঠক।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস