আজ ২৫ শে ফেব্রুয়ারী : কলংকময় যে দিনটি হয়তো আমরা ভুলে যাবো

জাতি হিসেবে আমরা অনেক অদ্ভুত আমরা দ্রুত সবকিছু ভুলে যেতে পারি,সেই স্বভাবের কারণেই হোক অথবা অন্য কারণেই হোক ২৫ শে ফেব্রুয়ারি তারিখটা মনে হয় অনেকেই ভূলে গেছে ।

আজ ২৩ ই ফেব্রুয়ারি একদিন পরেই ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ১৯৭১ সালের পর বাংগালি জাতির সবচেয়ে কলংকময় অধ্যায় ।এই দিনে বিডিআরের কিছু সদস্যের বিদ্রোহ এবং তাতে সরকার এবং বিরোধীদল সংশ্লিষ্ট রাজনীতিবিদদের ষড়যন্তের বলি হয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাহসী ৫৭ জন অফিসার সহ মোট ৭৩ জন শহীদ হয় ।

২৫ শে ফেব্রুয়ারী সকালে যখন আমি টিভি অন করি তখন সকল চ্যানেলেই দেখি বিদ্রোহ নিয়ে ব্রেকিং নিউজ দেখাচ্ছে তবে আমার মনে পড়ছে আমি প্রথম যে নিউজটি দেখেছিলাম তা হলো "রাইফেলস মার্কেটের ভিতরে বিডিআর অবস্হায় নিয়েছে"
তার কিছুক্ষণ পরেই বিডিয়ারের কিছু জওয়ান টিভি মিডিয়াকে জানালো তারা বিদ্রোহ করেছে এবং বিদ্রোহী জওয়ানরা তাদের বিদ্রোহের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে সেনাবাহিণীর অফিসারদের বিরুদ্ধে নানা ক্ষোভ জানাচ্ছে কিন্তু ভেতরে যে তারা কত বড় গণহত্যা চালিয়েছে তা তারা বেমালুম চেপে গেলো ।

এরই মাঝে আমরা আমাদের স্বভাবে ফিরে গেলাম শুধুমাত্ত বিডিআরের কথা শুনেই দেশের মানুষও আর্মির বিরুদ্ধে ফুসে উঠলো কিছু ব্লগার আর্মির বিরুদ্ধে পোস্ট দিতে থাকলো,কিছু মানুষ দেখা গেলো বিডিআরের সমর্থনে পিলখানার গেটে মিছিল করতে থাকলো ,টিভি মিডিয়াগুলোও একতরফা বিডিআরের পক্ষে ব্রেকিং নিউজ দিতে থাকলো আমার মনে হলো দেশে উৎসব শুরু হয়ে গেছে এবার সেনাবাহিনী মুক্ত সোনার বাংলাদেশ গড়বে এদেশের মানুষ ।এরই মাঝে দেশের বিভিন্ন স্হানে বিডিআর সেক্টরেও বিদ্রোহ শুরু হলো ,সারাদেশে গৃহযুদ্ধের আশংকা দেখা দিলো ।

আমি টিভির সামনেই বসে রইলাম বিকেল পযর্ন্ত কিন্তু কোন কুল কিনারা করতে পারলাম না কি হচ্ছে তবে এতটুকু প্রথম থেকেই নিশ্চিত ছিলাম বিদ্রোহ করার মতো কিছুই হয়নি তবে যুদ্ধের দামামা আমার মনেও বেজে উঠেছিলো যে আর্মি পিলখানাতে এ্যাটাক করে ১০ মিনিটেই সব ক্লিয়ার করে দিবে কিন্তু হায় আমার মনে যে দামামা বেজে উঠেছিলো তা আমাদের সরকার বা সেনাপ্রধানের মনে জেগে উঠেনি ।

২৫ শে ফেব্রুয়ারী রাত কাটলো অস্হির ভাবে কি হচ্ছে কি হচ্ছে এরই সরকারের কিছু মন্তী পিলখানা পরিদর্শন করেছে বিডিআরকে আত্নসমপর্ন করানোর চেষ্টা করলো কিন্তু কিছুতেই কিছুই হলোনা ,প্রধানমন্তীর সাথে বিদ্রোহীদের একটি গ্রুপও দেখা করে কিন্তু অগ্রগতি কিছুই হলোনা ।

২৬শে ফেব্রুয়ারি আমি আমার ফ্যামিলির সাথে চলে গেলাম কক্সবাজার কিন্তু কিসের অবকাশ যাপন আমার মাথায় সারাক্ষণ শুধু বিডিআর বিদ্রোহ । গাড়িতে রেডিও অন করে প্রতি মুহুর্তে আপডেট শুনতে ছিলাম হোটেলে উঠে টিভিতে আপডেট দেখতেছিলাম ।

অবশেষে ২৬শে ফেব্রুয়ারি দুপুরের দিকে কয়েকজন সেনা কর্মকতা জিম্মিদশা থেকে মুক্ত হয়ে বেরিয়ে আসেন অবশেষে সরকারের ঘুম ভাঙ্গে প্রধানমন্তী শেখ হাসিনা জাতির উদ্দেশ্যে ভাষনে বিডিআর সদস্যদের হুশিয়ারী দেওয়ার পর ধীরে ধীরে পরিস্হিতি শান্ত হয়ে আসে বিদ্রোহীরা আত্নসমর্পন করে এবং পুলিশ পিলখানার ভিতরে প্রবেশ করে ।


পুলিশ,র‍্যাব আর সেনাবাহিনী পিলখানাতে প্রবেশ করার পর ৭১ সালের পর দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় কলংময় গণহত্যা প্রকাশ হতে থাকে । পিলখানার বিভিন্ন নর্দমায় ভেসে উঠে সেনাকর্মকতাদের লাশ ।মাটি খুড়ে পাওয়া যায় গণকরব, সেনা কর্মকর্তাদের গলিশ খন্ডিত পচাগলা লাশ পাওয়া যায় বিভিন্ন নর্দমায় ।
স্বজনের আর্তনাদে ভারি হয়ে উঠে পিলখানার আকাশ বাতাশ ।সন্তানের আর্তনাদ বাবার জন্য, স্ত্রীর আর্তনাদ স্বামীর জন্য, মায়ের আর্তনাদ সন্তানের জন্য চারদিকে শুধুই হারানোর আর্তনাদ।গলিত আর ক্ষত বিক্ষত লাশ দেখে নিজের চোখের পানি আমি নিজেই ধরে রাখতে পারিনি ।

একে একে ৫৭ জন অফিসারের শহিদী লাশসহ মোট ৭৩টি লাশ উদ্ধার করা হয় পিলখানা থেকে

পরিবর্তীতে জানা যায় বিদ্রোহের ২৫ ফেব্র”য়ারি দরবার শুরু হলে সিপাহি মইনুদ্দীন প্রথমে মেজর জেনারেল শাকিল আহমেদের দিকে অস্ত্র তাক করলে উপস্থিত কর্মকর্তারা তাকে নিরস্ত্র করে। এর পরপরই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে বিদ্রোহীরা। বিদ্রোহীদের আরেকটি অংশ এর আগেই অস্ত্র ও গোলাবারুদ লুট করে। হলের ভেতর একজন ‘জাগো’ বললেই শুরু হয়ে যায় গোলাগুলি। এরপর বিদ্রোহীরা পাইকারিহারে হত্যাকাণ্ড ও লুটপাট চালায়।

ব্যাক্তিগত মতামত

বিদ্রোহের প্রথম দিকে আমাদের দেশের মিডিয়া এক তরফাভাবে সংবাদ পরিবেশন করেছে এবং শেষের দিকে বার বার অফিসারদের গলিত লাশগুলো মিডিয়াতে প্রদর্শন করেছে যা আমার একেবারেই পছন্দ হয়নি ।এতবড় বিদ্রোহের ঘটনা যেহেতু ঘটে গেছে তাই তথ্য পরিবেশেনের বেলায় সরকারের নিয়ন্তণ থাকার দরকার ছিলো ,বিদ্রোহীরা যদি টিভি মিডিয়ার মাধ্যমে বাইরের সব খবরই জেনে যায় তাহলে বিদ্রোহ দমন আমরা করবো কি করে।

আমাদের এত বড় চৌকষ সেনাবাহিনী থাকার ফলেও যদি দেশের সন্তানেরা ৩৩ ঘন্টা টানা জিম্মি থাকে তাহলে তার জন্য কে দায়ী সেটাও একটা দেখার ব্যাপার ।

আমাদের আছে সেনাবাহিনী র‍্যাব পুলিশ তারপরেও কি করে পিলখানা থেকে বিদ্রোহীরা সহজে পালিয়ে যায় ? একটা পিলখানা যদি আমরা ঘেরাও করে রাখতে না পারি তবে এই বাহিনী রেখে কি লাভ ?

যারা আড়াল থেকে কলকাটি নাড়াচাড়া করেছেন তাদেরও বিচার হবে ইনশাল্লাহ ।

আমি চিৎকার করে কাদিতে চাহিয়া করিতে পারিনি চিৎকার
বুকের ব্যাথা বুকে চাপায়ে নিজেকে দিয়েছি ধিক্কার

[পুরো লেখাটা আমার ব্যক্তিগত মতামতের ভিত্তিতে লিখেছি ,আমি কখনোই আমার মতের সাথে সহমত প্রকাশ করার জন্য কাউকে উৎসাহিত করিনা

আমার নিজস্ব ব্লগেও প্রকাশিত

Level 0

আমি বিল্লাহ মামুন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 15 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 142 টি টিউন ও 1447 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

করি মায়ের ভাষায় চিৎকার........ http://bloggermamun.com


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

হাহ কিছুই বলার নায়।
আমাদের সবই আছে কিন্তু আমরা ঠিক সময়ে ঠিক কাজ করতে পারি না।

আমি চিৎকার করে কাদিতে চাহিয়া করিতে পারিনি চিৎকার
বুকের ব্যাথা বুকে চাপায়ে নিজেকে দিয়েছি ধিক্কার

এটি জাতির কলংকিত আদ্যায় ।টিউন পড়ে মন খারপ হয়ে গেল।

এতগুলো সুদক্ষ অফিসারদের হত্যাকারীদের বিচার একদিন হবে ইনশাআল্লাহ্‌। 🙁

এই দিনটি স্মরন করিয়ে টিউন করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।সত্য কখনো মিথ্যা দিয়ে ঢাকা ্যায় না।আমরা চাই এই হত্যার সত্যতা ফুটে উঠুক।

ব্যাক্তিগত মতামত,
ঐ দিনটি যেমন কলঙ্কিত তেমনি বর্মান বিচারটিও কলংকিত হইতেছে,
প্রথমত,বিদ্রহীরা সাধারন ক্ষমা পেয়েও বিচারের সম্মুক্ষিন হইতে হইছে তাই ভবিষ্যতে এই ধরনের সাধারন ক্ষমায় কোন বিদ্রহ বন্ধ হওয়ার সম্ভাবনা থাকবেনা,
যদিও খুন এবং অন্যন্য পৌজধারি অন্যায় গুলুর বিচার হওয়া উচিৎ,তাই আমি শুধু বলেছি বিদ্রহের সাধারন ঘোষনাটার কথা,তাছাড়া দেশের সর্বচ্চ পদ থেকে সাধারন ঘোষনা দিয়ে প্রতারনা ভবিষ্যতের জন্য ভাল উদাহরন নয় মোটেও।
দ্বীতিয়ত,বিচারটার কিছু অংশতে রাজনীতি প্রবেশ করেছে যা মোটেও ভাল দেশের জন্য।
তৃত্বীয়ত,বিচারের নামে হাজার হাজার বিডিয়ারের(তৎকালিন)চাকরি চলে যাচ্ছে অথচ নতুন কোন নিয়গ নাই এতে কি আমাদের সীমান্ত রক্ষি বাহিনী দুর্বল হয়ে যাচ্ছেনা?এবং ইহার বাস্তব ফলতো আমাদের ফেলানির লাশ।
সবশেষে এই হত্যাকান্ডকে ঘৃনা করি মনে করি এমন হত্যার দৃষ্টান্ত মুলক বিচার হওয়া উচিত।
এবং সবার সকল ক্ষেত্রে আরো সহনশীল হওয়া উচিৎ।
আর ধন্যবাদ টিউনের মাধ্যমে বিষয়টা উপস্থাপন করার জন্য।

good job mamun …. we need some more brave tuner like you … keep going 🙂

কতগুলো লোভির জন্য এত সৈনিকের মৃত্যু এবং বিডিয়ার বাহিনী ধ্বংসের পথে।
প্রধান আসামি এর পিছনের মানুষ নামের পশুরা!

একটু আগে একটা কথা মাথায় আসল। ছোট ছোট দেশে এরকম অনেক সমস্যায় হয়। বিশেষ করে যখন আশেপাশের দেশগুলো অনেক বেশি এগিয়ে থাকে। আসলে আমরা আমাদের দেশকে বড় বেশি ভালোবাসি, তাই ভুলে যায় ব্যবধানগুলো। ব্যাপার না। ইনশাল্লাহ সব ঠিক হয়ে যাবে সব একদিন। কোনভাবে আমাদের রাজনীতিটা স্থিতিশীল হলেই হবে। এত প্রাণ, এত ত্যাগ বৃথা যাবে না নিশ্চয়ই।

😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥

ইনসাআল্লাহ দেশদ্রহিদের অবশ্যই বিচার হবে। 🙂

Level 0

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ জানাই কারন আজ আমদের মনে করিয়ে দেওার জন্য ? আর জেন সঠিক বিচার হয় বাংলার মাটিতে –রুবেল

Level 0

আপনি একেবারে খাটি কথা বলেছেন ।আমি এক বাসায় প্রাইবেট পড়াতাম তখন । ছাত্রের বাবা তখন সিলেটে ।উনার ৩বছরের জেল হয়েছে ।ওনার পিতা [বেচে নাই] ছিলেন আর্মি । তাদের সব কিছু শেষ হয়ে গেছে । এভাবে শতশত পরিবার যে নিরবে শেষ হয়ে যাচ্ছে তার খবর কেন সংবাদ হয়না ? একজন প্রধানমন্ত্রীর সাধারন ক্ষমার কোন মুল্য নেই। এ বিষয়ে এখন সবাই নিরব কেন ! প্রথমে সারা দেশ যখন বিডি আর এর পক্ষে ছিল তখন অন্যান্য এলাকার বিডিআর বিদ্রোহ ঘটবে এটাই স্বাভাবিক ।তাই বলে এত বড় সাজা !তবে আমার মনে হয় শুধু পিলখানা হত্যাকারীদের বিচার হওয়া উচিত ।

সত্যি আমাদের জন্য লজ্জার একটি দিন আমাদের সেনাবাহিনি যেমন ধংস হয়েছে তেমনি বিডিআর ধংস হয়েছে নিচে আমি ইউটিউবের ৫টা লিকং দিলাম শুনুন তাতে বুজতে পারবেন রাজনিতির চাল কি জিনিশ?????????????………
Open Secrets of BDR mutiny – Prime Minister Sheikh Hasina meets Bangladesh Army officers
http://www.youtube.com/watch?v=Wpmr4gKFHww&feature=related ( Part 01 )
http://www.youtube.com/watch?v=eWI3Ybe2hfs&feature=related ( Part 02 )
http://www.youtube.com/watch?v=a6wt4wt2HNE&feature=related ( Part 03 )
http://www.youtube.com/watch?v=Kk9BukzKe70&feature=related ( Part 04 )
http://www.youtube.com/watch?v=zYNtSyryIhs&feature=related ( Part 05 )

Asole amrai socheton na. Socheton hole bidrohider bicharer dabite michil hoto andolon hoto. Ek din amra sobai kadhe kadh milie sokol onnayer birodhe rokhe darobo, Santi o mongolmoy hobe amader sonar Bangladesh.