টেলিটকঃ প্রত্যাশা পুরণে ব্যর্থ এক মোবাইল অপারেটর-(২)

এটি একটি দুই পর্বের ধারাবাহিক লেখা
প্রথম পর্ব পড়ুন: টেলিটক প্রত্যাশা পুরণে ব্যর্থ এক মোবাইল অপারেটর-(১)


দেশের একমাত্র সরকারী মালিকানাধীন মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক নিয়ে অভিযোগের যেন অন্ত নেই। দূর্বল নেটওয়ার্ক, কল ড্রপ, কথা বলতে গিয়ে নিজের কথা নিজেই শুনতে পাওয়া (এক্ষেত্রে অবশ্য নিজের গাঁটের পয়সা খরচ করেই) সহ অসংখ্য অভিযোগের তীর তাদের দিকে প্রতি নিয়তই ছুঁড়ছেন তাদের গ্রাহকেরা। হেল্প লাইনে ফোন করলেও মিনিট গুনে ‘পয়সা’ কেটে নিলেও তাৎক্ষণিকভাবে কোন সমাধান দিতে পারছেনা হেল্প লাইনের ‘সৈন্য সামন্তরা’। বিশেষভাবে অনুরোধ বা কাকুতি মিনতি করেও গ্রাহকরা কোন ফল পাচ্ছেনা বলেই অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। সব কিছু মিলে টেলিটক গ্রাহকের দূভোর্গের মাত্রা সীমাহীন পর্যায়ে পৌঁছেছে।গ্রাহকদের জন্য সুযোগ সুবিধার সকল দরজা কৌশলগতভাবে বন্ধের 'পণ' বোধহয় করেই নিয়েছে টেলিটক। আর তাই অন্যান্য বেসরকারী মোবাইল অপারেটর যখন নিজেদের মধ্যে 'ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামেলি' নম্বরের সংখ্যা বাড়িয়ে দিচ্ছে এবং বিল কমাচ্ছে , তখন টেলিটক তার গ্রাহকের জন্য 'ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামেলি' নম্বরের সংখ্যা ৩ থেকে কমিয়ে ২ এ নামিয়ে এনেছে! তাদের যুক্তি হচ্ছে ৩টি ‘ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামিলি নম্বরের মধ্যে ট্যারিফ ছিল মিনিট প্রতি ৮৬ পয়সা (ভ্যাটসহ)। কিন্তু এখন ২ দুটি 'ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামেলি' নম্বরের মধ্যে বিল হবে মাত্র ২৯ পয়সা(ভ্যাটসহ)। এখানেই নাকি তাদের কৃতিত্ব! বিলের সাথে সাথে 'ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামেলি' নম্বরের সংখ্যা কমিয়ে টেলিটক তার গ্রাহকের সাথে যে প্রতারণা করেছে তা সত্যিই বিরল।

টেলিটক ব্যবহারকারীদের মতে একমাত্র সরকারী মালিকানাধীন মোবাইল অপারেটর হওয়ার গৌরবে তারা ‘ধরা কে সরা জ্ঞান' করে চলেছে। গ্রাহকদেরকে নূন্যতম সুযোগ সুবিধা দিতেও তাদের যেন যত আলসেমি। তুলনামূলকভাবে অন্যান্য যেকোন মোবাইল অপারেটরের চেয়ে দিনরাত ২৪ ঘন্টাই তারা বেশি বিল আদায় করছে গ্রাহকের কাছ থেকে। সিটিসেল নিজেদের অপারেটরে কোন বাড়তি চার্জ ছাড়াই দিনরাত সবসময় ২৫ পয়সা/মিনিট (ভ্যাটছাড়া) কল করার সুযোগ দিতে পারছে। অথচ টেলিটক সেখানে ভ্যাট ছাড়াই ৯৫ পয়সা বিকাল ৫টা পর্যন্ত কল করার সুযোগ দিচ্ছে। এছাড়া ওয়ারিদ টেলিকম অন্য যেকোন অপারেটরে দিনরাত ২৪ ঘন্টা মাত্র ৮৯ পয়সা/মিনিট কল করার সুযোগ দিচ্ছে। উপরন্তু এসএমএস চার্জও অন্যান্য অপারেটরের তুলনা বেশী নিচ্ছে টেলিটক। তাই সার্বিক বিচারে সবদিক থেকেই টেলিটক কর্তৃপক্ষ স্বেচ্ছাচারিতার চিত্রই ফুটে উঠছে গ্রাহকের সামনে।

টেলিটক গ্রাহকদের মধ্যে এসব বিষয় নিয়ে দিন দিন ক্ষোভ বাড়ছে। পুরনো গ্রাহকদের অনেকেই অভিযোগ করেছেন অনেক প্রত্যাশা ছিল টেলিটক কর্তৃপক্ষের কাছে। কিন্তু প্রত্যাশা পুরণের বদলে হতাশা আর ক্ষেত্রে ই জন্ম দিয়েছে টেলিটক। ভুক্তভোগী গ্রাহকদের অনেকেই জানিয়েছেন যে শুধুমাত্র তাদের ব্যবহৃত এ নম্বরটি দেশবিদেশে ছড়িয়ে যাওয়ায় এ মুহূর্তে তারা নম্বর পরিবর্তন করতে পারছেন না। তবে সুবিধার দিক থেকে বর্তমানে কেবল টেলিটক মোবাইল থেকে টিএন্ডটি কল ক্ষেত্রে বাড়তি কোন চার্জ দিতে হয়না, এটিই টেলিটক মোবাইলের একমাত্র সুবিধা বলে গণ্য হচ্ছে।

সার্বিক বিচারে গ্রাহকদের প্রত্যাশা পুরণে ব্যর্থতার দায়ভার কোনমতেই এড়াতে পারছে না টেলিটক কর্তৃপক্ষ। প্রথমে আলোচিত এবং সার্ভিসের শুরু থেকেই সমালোচিত মোবাইল ফোন অপারেটর হিসাবে টেলিটকের বিকল্প কেবল টেলিটকই। লাখো লাখো ভুক্তভোগি গ্রাহকদের জিজ্ঞাসা এখন একটিই, এসব ভোগান্তির থেকে কবে তারা মুক্তি পাবেন? কানে তুলো গোঁজা টেলিটক কর্তৃপক্ষ কী তাদের কানের তুলো বের করে ভুক্তোভোগীদের কথায় কান দেবেন?

Level 0

আমি দুরন্ত। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 16 বছর 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 9 টি টিউন ও 7 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

প্রযুক্তিতেই মুক্তি


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

বস! আপনি যা লেখেন না! এত সত্যিকথা সবাই কেন বলতে বা লিখতে সাহস পায় না?আপনার নামের সাথে লেখার চমৎকার মিল আছে। দুরন্ত আর দুর্দান্ত গতিতে লিখুন এসব প্রযুক্তি বিষয়ক অনিয়মের বিরুদ্ধে। ধন্যবাদ এমন ধারাবাহিক সুন্দর লেখার জন্য। আপনার লেখার উপর কেউ কেউ বিরুপ মন্তব্য করলেও পিছুপা হবেন না। টেকটিউনস এর জন্য এমন টিউনারেরই প্রয়োজন বলে আমি মনে করি। দুহাত খুলে লিখুন তো! টেলিটকের দিন বোধহয় শেষ হয়ে আসছে। কারণ জুলাই থেকে টিএন্ডটি বেসরকারী হয়ে যাচ্ছে এটা নিশ্চিত। তখন টেলিটকের বাহাদুরি আর থাকবে না বলেই মনে হয়। তাই জুলাই পযর্ন্ত অপেক্ষা করে দেখা যাক কোথাকার পানি কোথায় যায়।

দুরন্ত ভাই সেই প্রথম থেকেই দারুন সব প্রতিবাদী টিউন করে আসছেন। সত্যিই প্রশংশনীয়।

আমার মনে হয় দুরন্ত ভাইয়ের সাহসী লেখার কারনে টেকটিউনস এর ইমেজ দিন দিন বেড়েই চলেছে। লেখতে থাকুন বস।

সুন্দর পোস্ট! চালিয়ে যান!এদের নামে মামলা হওয়া উচিৎ! প্রতারণার কৌশলে পাকা হাত এদের। টেলিটক নাম না হয়ে টেলিফাঁদ হলে ভাল হত!!! আরও লিখুন এসব অন্যায়ের বিরুদ্ধে।