সকল সমাজ সচেতন মানুষ বিশেষকরে টেকিদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি ।

আসসালামু আলাইকুম,

আমি একজন ভারতীয় নাগরিক । আমি যখন প্রথম টেক-টিউনের পোষ্টগুলি দেখতাম তখন বিস্ময়ে হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম । বাঙ্গালিদের মধ্যে এতজন বিস্ময়কর প্রতিভা দেখে অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছি । এখান থেকে শিখতে পেরেছি অনেক কিছু সেইজন্য টেক-টিউন ও টিউনারদের অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই ,আল্লাহ্‌ আপনাদের উত্তম প্রতিদান দিন ।

কাজের কথাই আসি, এখন বর্তমান বিশ্বের সবথেকে জনপ্রিয় ও ব্যাবহারিক মিডিয়া হচ্ছে ইন্টারনেট মিডিয়া ।এর উপকারিতার কথা বলে শেষকরা যাবেনা । তবে এর উপকারিতাও যেমন অপকারিতাও যেন তার অধিক । এর অপকারিতার একটি বড় উদাহরণ হল Pron সাইট (অশ্লীল) গুলি । এখন  পৃথিবীর যুবক সম্প্রদায় মেতে উঠেছেন অশ্লীল ছবি,ভিডিও, পোষ্ট আপলোড ও ডাউন-লোড করতে এবং পড়তে । হাতের কাছেই পেয়ে যাচ্ছে নোংরা জিনিস গুলি । এর প্রভাবে সমাজে দ্রুত বাড়ছে ধর্ষণ , নারীপাচার, সমকামিতা,হস্তমৈথুন,ইফটেজিং । শুধু তাই নয় ধীরে ধীরে পুরুষেরা হারাচ্ছে তাদের পুরুষত্ব, কিশোররা  হারাচ্ছে তাদের কৈশোর-ত্ব । এর খারাপ প্রভাব পৌঁচে যাচ্ছে শহর থেকে গ্রামে ,গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে,প্রতিটি বাড়িতে ,প্রায় প্রতি জনের মধ্যে। এর ভবিষ্যৎ ফল অত্যন্ত মারাত্মক, ভয়াবহ। হয়তো সভ্যতার নামকরে  মানুষ তার মনুষ্যত্ব ভুলে যাবে এবং পশুত্ব রাজ করবে পৃথিবী ।

এই অশ্লীলতাকে কনও সভ্য ধর্মই স্বীকৃতি দেয় না । ইসলাম ধর্মে অশ্লীল ছবি দেখাটাকে জেনা (অবৈধ সঙ্গম)-এর সঙ্গে সমতুল্য। আর জেনার ভয়ঙ্কর কঠিন অত্যন্ত মারাত্মক শাস্তির কথা মুসলিম মাত্রই জানেন (ইসলাম ধর্মের কথাই বলছি কারণ আমি এক জন মুসলিম)।

তাহলে এই অশ্লীলতার সর্বনাশ থেকে পৃথিবী এবং মানুষকে বাঁচানোর জন্য চিন্তাশীল মানুষ হিসাবে আমাদের কছু কারা অবশ্যয় অবশ্যয় কর্তব্য । অসৎ কাজ প্রতিহত করার  প্রসঙ্গে একটি কোরানের আয়াত এবং হাদিস উল্লেখ করা যায় -"আর তোমাদের মধ্যে এমন একটা দল থাকা উচিত, যারা সৎকাজের প্রতি আহ্বান করবে, নির্দেশ করবে ভাল কাজের এবং বারণ করবে অন্যায় কাজ থেকে। আর তারাই হল সফলকাম।" (সূরা আলে ইমরান:১০৪)।। হাদিস- "আবু সাইদ খুদরী রা. বলেন. আমি রসূল সা.-কে বলতে শুনেছি। তোমাদের কেউ মন্দ কাজ হতে দেখলে (শক্তি প্রয়োগ করে) প্রতিহত করবে, সম্ভব না হলে (মুখের মাধ্যমে) প্রতিবাদ করবে। এও সম্ভব না হলে (মনে মনে) ঘৃণা করবে। আর এটি হচ্ছে ঈমানের সর্ব নিম্ন স্তর। "(সহি মুসলিম,হাদিস নং-৪৯)

এখন কথা হল এই অশ্লীলতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়া যায় কি ভাবে ?অনেক ভাবেই করা যেতে পারে,প্রথমত আমি টেকি ভাইদের আমার আবেদন করবো অনেক পোষ্টে অমি ওয়েব সাইট হ্যাকিং সম্বন্ধে পড়েছি,ঐ  ওয়েব হ্যাকাররা যদি অশ্লীলতার প্রচার প্রসারকারি ওয়েব সাইট ও একাউন্ট গুলি হ্যাক করে বন্ধ করতে পারেন তাহলে অনেকটাই সমাজ অশ্লীলতা মুক্ত হবে ।
এছাড়া অশ্লীলতার কুপ্রভাব গুলি সম্পর্কে আমাদের প্রচার করে সকলকে বোঝাতে হবে। দেশের সরকার যাতে বেশ্যাবৃত্তি ,অশ্লীল ছবির ব্যবসা,অশ্লীল সাইটের বীরুধে অত্যন্ত কঠোর আইন তৈরি তার জন্য অপ্রতিরোধ্য আন্দোলন গোড়ে তুলতে হবে। আমরা যদি সমাজকে মুক্ত করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যায় মহান সৃষ্টিকর্তা আমাদের উত্তম প্রতিদান দিবেন ইনশাল্লাহ ।।

ফেসবুকে আমি........https://www.facebook.com/nasim.firoz.5

Level 2

আমি নাসিম ফিরোজ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 7 টি টিউন ও 49 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস