বিজ্ঞান ও বাংলাদেশ এবং ধর্ম ও বিজ্ঞান

বিজ্ঞান আমাদের এমন এক পর্যায়ে এনেছে যেখান থেকে আমারা পিছিয়ে গেলে দেখতে পাব ধর্মের প্রভাব। বাংলাদেশে আনেক বিজ্ঞানী জন্ম গ্রহন করেছেন। তারা আনেক কিছু আবিষ্কার করলেও সেটা পৃথিবীর সামনে বিশেষ কিছু হয় নি। কারণ বাংলাদেশ একটি সল্প উন্নত দেশ। যেমন একটা বিশেষ আবিষ্কার হল রেডিও। রেডিও এর নকশা আবিষ্কার করেছিলেন স্যার জগদীশ চন্দ্র বশু।

তিনি পরে উদ্ভিদ বিদ্যা তেও আবিষ্কার করেন যে উদ্ভিদের প্রান আছে, উদ্ভিদ দুঃখ পেলে কাদে, হাসে ইত্যাদি। রেডিও এর নকশা আবিস্কার করেন তিনি কিন্তু চুরি করে নিয়ে যায় ইটালিও কেউ। সেই নকশা থেকে তৈরি হওয়া রেডিও এর নামের পাশে লেখা হয় গুগলি এলমো মার্কনী-ইটালী। কিন্তু সেখানে হওয়ার কথা ছিল জগদীশ চন্দ্রের কথা।

এবার বলি ধর্ম সম্পর্কে।

https://www.techtunes.co/reports/tune-id/10830/

এখানের টিউনটি অনেকেই পড়েছেন। ধর্ম আমাদের জীবন ধারনের জন্য মহান স্রষ্টা তৈরি করেছেন। সব কিছুই তারই তৈরি। কিন্তু বিজ্ঞান বলছে স্রষ্টা বলতে কিছু নাই। বিজ্ঞান বলছে, "মানুষ বাদর থেকে তৈরি হয়েছে। ধর্ম বলে কিছু নাই। মানুষ পৃথিবী তে এসেছে একদিন এমনিতেই ধ্বংশ হয়ে যাবে।"

আস্তে আস্তে এমন দিন আসছে যেখানে থাকবে শুধু বিজ্ঞান ধর্ম থাকবে না। যারা পৃথিবী তে আগে এসেছে তাদের ধর্ম একরকম ছিল আমাদের ধর্ম আরেক রকম হয়ে গেছে। যে ধর্ম আগে এসেছে সে ধর্ম তত কঠিন। নাহলে কি আর মধুসূধন দত্তকে মাইকেল মধুসূধন দত্ত হতে হত।

মুসলীম গন ধর্ম ভীরু ছিল বলে তাদের অনেক পিছিয়ে যেতে হয়েছিল। যেখানে হিন্দুরা ইংরেজদের সাথে ভাল ভাবে কাজ চালতো সেখানে মুসলমান গন কাজ করতে ভয় পেত। তবে এটাও সত্য যে যদি হিন্দুরা ইংরেজ দের সহযোগীতা করতো তাহলে ইংরেজ দের কাছে থেকে দেশকে বাচানো কষ্ট কর হত একা মুসলমান দের। মুসলমানরা অনেক আবিষ্কার করেছে। সব ধর্মই কিছু না কিছু আবিষ্কার করেছে।

আমি জানিনা আপনাদের কেমন লাগবে। কোন ভুল ত্রুটি থাকলে জানাবেন।

Level 0

আমি Shanto sid। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 25 টি টিউন ও 239 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি ডিজিটাল ম্যান বিডি or Shanto Datta । আমি একজন ছাত্র । এখন কিছু টুকটাক ওয়েব ডিজাইন শিখছি । নিজের ব্যবহারের জন্য যে টুকু দরকার। আর সেই অল্প ঞ্জান আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চেষ্টা করব । (ধন্যবাদ)


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ইসলাম ধর্মের আরো কতোযে বিকৃত তথ্য পাব একমাত্র আল্লাহ্ পাক-ই ভাল জানেন। বর্তমানে ইসলামেক বিকৃত করতে পারলেই যেন পশ্চিমা তথাকথিত বিজ্ঞানীদের ষোলকলা পূর্ণ হয়। তাদের তথ্যানুযায়ী এককালে মানুষের নাকি লেজও ছিল, কালের বিবর্তে তা নাকি আবার মিশেও গেছে এরকম আরো কতো কি…………..

Disitalman. bd ভাই চালিয়ে যান।

Level 0

এজন্য বোধহয় মানুষের বলা হয় “বাদর মার্কা ছেলে”।পাশ্চাত্য ভাষা শিখে আমরাও বলব “আমাদের জন্ম বাদর থেকে আমাদের আগে লেজ ছিল”।

Level 0

‘ বিজ্ঞান বলছে স্রষ্টা বলতে কিছু নাই ‘ এ কথাটা ভূল, বরং উল্টাটাই ঠিক। ডাঃজাকির নায়েক সহ আরো অনেকে প্রমান করেছেন হাজার হাজার নাস্তিকদের সামনে…

একটা হচ্ছে তথ্য আরেকটা হচ্ছে প্রমান মানুষ বাদর থেকে এটা একটা তথ্য যা প্রমানীত নয় অন্য দিকে মানুষ স্রষ্টার তৈরী এক অনন্য অবিকৃত সৃষ্টি তার প্রমান বিদ্যমান এবং যুক্তি সম্মত, বিজ্ঞান পরিবর্তনশীল যা এখন ঘটছে তাহার বর্ননাতে ভবিষ্যতে ভুল ও ধরা পড়তে পারে, নিজেদের অস্তিত্ব নিয়ে টিটকারী ছাড়া আর কিছুই নয় যারা বলে আমরা বাদর এর বংশধর অথবা আমাদের লেজ ছিল। কই কোথায়তো মানুষের কোন জীবাশ্মন্ন পাওয়া যায়নি যেখানে তাদের লেজ থাকার প্রমান মিলেছে। লক্ষ বছরের পরিক্রমায় আমাদের লেজ হাওয়া তাই যদি হয় আমাদের পা টাও হাওয়া হয়ে যাবার কথা ওটার উপরই আমাদের চলন।