কম্পিউটার প্রোগ্রামিং[পর্ব-০৩] :: ডাটা টাইপ, ইনপুট এবং আউটপুট

আসসালামু আলাইকুম। কম্পিউটার প্রোগ্রামিং শেখার তৃতীয় লেসনে আপনাকে স্বাগতম। আশা করি আপনারা ভালোই আছেন, আমিও আল্লাহর রহমতে বেশ ভালোই আছি। সেইজন্যই তো আপনাদের মাঝে চলে এলাম কম্পিউটার প্রোগ্রামিং শেখার তৃতীয় লেসন নিয়ে। এই লেসনে আমরা কি শিখবো সেটা নিশ্চই আপনারা বুঝে গেছেন। আমি এই লেসনে সি প্রোগ্রামিং এর ডাটা টাইপ এবং ইনপুট-আউটপুট নিয়ে বিস্তারিতোভাবে আলোচনা করবো। আমার মনে হয় সবাই বুঝতে পারবেন - আর বুঝতে না পারলেও সমস্যা নেই , টিউমেন্ট বক্স আছে না?

ডাটা টাইপঃ

সি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজে ঠিক কত ধরণের ডাটা টাইপ আছে আমি নিজেই জানি না, তবে যতটুকু জানি তা দিয়ে আপনি জটিল সব প্রোগ্রাম তৈরী করে ফেলতে পারবেন। প্রোগ্রামিং এর ক্ষেত্রে কোন কিছু মুখস্ত রাখতে হয়না - সব কিছু বুঝতে হয় আর কোডিং করে দেখতে হয়। সেইজন্য আমি আপনাদের আগেও বলেছি আবার এখনও বলছি যে আপনারা প্রতিটি প্রোগ্রাম কম্পিউটারে লিখে সেগুলো কম্পাইল করে রান করাবেন। গল্পের বই পড়ার মতো করে আমার টিউনটি পড়ে যাবেন না। আমি আমার এই লেসনে তিন ধরণের ডাটা টাইপ নিয়ে আলোচনা করবো ...

  • int
  • double
  • char

int এর কাজঃ  int ডাটা টাইপের ক্ষেত্রে আপনি শুধু পূর্ণ সংখ্যা ব্যবহার করতে পারবেন। যেমন 40 , 41, 42 ইত্যাদি। কিন্তু আপনি কখনোই দশমিক যুক্ত কোন সংখ্যা ব্যবহার করতে পারবেন না। আপনি যদি দশমিক যুক্ত কোন সংখ্যা int ডাটা টাইপের ক্ষেত্রে ব্যবহা করে থাকেন তাহলে কম্পাইলার আপনার লেখা প্রোগ্রামটি কম্পাইল করার ক্ষেত্রে দশমিকের পরের অংশটুকু বাদ দিয়ে দিবে। আপনার কম্পাইলারে নিচের প্রোগ্রামটি লিখুনঃ

#include <stdio.h>
int main ()
{
int a,b,sum;
a = 50;
b = 60;
sum = a+b;
printf("%d+%d = %d", a, b, sum");
return 0;
}

কোডের ব্যখ্যাঃ প্রতিটি প্রোগ্রামে অবশ্যই একটি মেইন ফাংশন তথা int main () অংশটুকু থাকতে হবে। প্রোগ্রামের মূল অংশটুকু সেকেন্ড ব্র্যাকেটের মধ্যে আবদ্ধ থাকবে। প্রোগ্রামের সমস্ত কোড লেখা শেষ হয়ে গেলে অবশ্যই সেকেন্ড ব্র্যাকেট ক্লোজ করতে হবে। ক্লোজ না করলে প্রোগ্রাম Build করা সম্ভব হবে না। আরো অন্যান্য যে কাজগুলো করতে হবে তা আমি আগের লেসনে বলে দিয়েছি। আমার এই লেসনটি বুঝতে হলে আপনাকে অবশ্যই আগের লেসনগুলি পড়তে হবে। আপনি যদি আগের লেসনগুলো না পড়ে এইখানে আসেন তাহলে ধরে নিন আপনি ভুল জায়গায় এসেছেন। শুধু শুধু সময় নষ্ট।

প্রোগ্রামের মূল অংশের প্রথমেই int ফাংশন দিয়ে তিনটি ভেরিয়েবল a,bএবং sum ডিক্লেয়ার করে দিয়েছি। পরবর্তী অংশে আমরা এই ভেরিয়েবল গুলো নিয়েই কাজ করবো। তবে আপনাকে অবশ্যই মানে রাখতে হবে শুধু ভেরিয়েবলগুলো ডিক্লেয়ার করে দিলেই হবে না, প্রতিটি ভেরিয়েবলের মান অবশ্যই এসাইন করে দিতে হবে। দুইভাবে ভেরিয়েবলের মান এসাইন করা যায় 1. প্রোগ্রামারের ইনপুট ব্যবহার করে    2. ব্যবহারকারীর কাছে থেকে ইনপুট নিয়ে।

এক্ষেত্রে আমরা প্রোগ্রামারের ইনপুট নিয়েই মান এসাইন করেছি। আমরা a , b এবং sum এর মান বলে দিয়েছি।

পরের লাইনে printf() নির্দেশটির মাধ্যমে আমরা কোনকিছু প্রিন্ট করার নির্দেশ দিয়েছি। প্রোগ্রামার ইচ্ছেমত এই নির্দেশ দিতে পারবেন। কি প্রিন্ট করা হবে তা অবশ্যই printf("ekhane print kora hobe") এইভাবে লিখতে হবে। প্রোগ্রামার ইচ্ছেমতো ekhane print kora hobe লেখাটি পরিবর্তন করে নিতে পারেন। তবে অবশ্যই লেখাটি ডাবল কোটেশনের মধ্যে লিখতে হবে। আপনি চেষ্টা করে দেখতে পারেন ডাবল কোটেশনের মধ্যে না লিখে স্ক্রীণে কোন কিছু প্রিন্ট করতে - তারপরে অবশ্যই আমাকে জানাবেন কি ঘটেছিলো সেটা।

যেকোন int টাইপ ভেরিয়েবলের মান স্ক্রীণে প্রিন্ট করার জন্য %d ব্যবহার করা হয়। আপনি উপরের প্রোগ্রামটি কম্পিউটারে চালালেই বুঝতে পারবেন যে কোন কোড দিয়ে কি বোঝানো হচ্ছে, আপনাকে আর আলাদা করে বলে দিতে হবে না।

এখন ঝটপট আমাকে বলে ফেলুন তো নিচের প্রোগ্রামটির আউটপুট কি হবে? 

#include <stdio.h>

int main()
{
int a;
int b;
int sum;

a = 7900;
b = 60456;

sum = a + b;
printf("The Result is %d", sum);

return 0;
}

তবে ইন্টিজার ডাটা টাইপ হোক আর যে ডাটা টাইপই হোক না কেন আপনি ইচ্ছে করলেই সব ভেরিয়েবলগুলো একসাথে লিখতে পারবেন। আমরা উপরের প্রোগ্রামটি যেভাবে লিখেছি আমরা ইচ্ছে করলে আরো অনেকভাবে লিখতে পারি। আমি আরো দুইটি পদ্ধতি নিচে দেখাচ্ছি। প্রোগ্রামিং করার সময় আপনার ইচ্ছেমতো আপনি লিখবেন ...

#include <stdio.h>

int main()
{
int a, b, sum;

a = 7900;
b = 60456;

sum = a + b;

printf("Sum is %d", sum);

return 0;

}

আবার এইরকম ...

#include <stdio.h>

int main()
{
int a = 7900, b = 60456, sum;

sum = a + b;

printf("Sum is %d", sum);

return 0;
}

তবে আপনি ইচ্ছে করলে যখন ইচ্ছা তখন ভেরিয়েবলের মান পরিবর্তন করতে পারেন। যেভাবে খুশি সেভাবে আপনি ইন্টিজার ভেরিয়েবলকে ব্যবহার করতে পারেন। তবে কোডিং করার সময় আপনাকে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে। কারণ আপনি প্রথমে যেই ভেরিয়েবলটি ব্যবহার করবেন কম্পাইলার সবসময় সেটিকেই ভেরিয়েবলের মান হিসেবে ধরে নিবে। আপনি নিচের প্রোগ্রামটি কম্পাইলারে চালিয়ে দেখেন ...

#include <stdio.h>

int main()
{
int a;
int b;
int sum;

a = 7900;
b = 60456;
a = 8459;

sum = a + b;
printf("The Result is %d", sum);

return 0;
}

কি ফলাফল পেলেন আমাকে অবশ্যই জানাবেন। আমি অপেক্ষায় থাকলাম ...

আমার ওয়েবসাইট ভিজিট করতে এখানে ক্লিক করুন

আমাকে ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন

পরের পর্বে আমি Double ডাটা টাইপ এবং Char ডাটা টাইপ নিয়ে আলোচনা করবো। আপনারা যারা প্রোগ্রামার তাদেরকে দুই-একটি কথা না বলে নিজের কাছে শান্তি পাচ্ছি না ...

পৃথিবীতে দুই দলের মানুষ বাস করে । একদল প্রোগ্রামিং পারে আর অন্য দলটি প্রোগ্রামিং পারে না। যারা পৃথিবীতে আজ উন্নত ... যারা পৃথিবীটাকে আজ শাসন করছে তারা অন্যান্য বিষয়ের মতো প্রোগ্রামিং এ খুব দক্ষ। দক্ষ প্রোগ্রামার ছাড়া কোনো জাতি এতটা উন্নতি করেছে বলে আমি শুনিনি ... দেখিনি ...

প্রায় দুইশ বছর আগে পৃথিবীতে শিল্প বিপ্লব হয়েছিলো ... সেই শিল্প বিপ্লবে আমরা অংশ নিতে পারিনি। তাই অন্য জাতি আমাদের আজ নিয়ন্ত্রণ করছে... কিন্তু বর্তমান যুগে তথ্য প্রযুক্তির যুগে প্রুযক্তির এই বিপ্লবে আমরা অবশ্যই অংশ নিবো ... আমরা দেখিয়ে দিবো অন্যান্য জাতিকে ... আমরা বেঁচে থাকতে কখনোই আমাদের দেশকে অন্যের হাতে তুলে দিতে পারি না ...

দেখিনি আমি শুনিনি আমি জানিনা কোন কিছু

শপথ করেছি থাকবো নাকো কোন মাতব্বরের পিছু ...

Level 0

আমি দেলোয়ার হোসেন দিহান। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 18 টি টিউন ও 79 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

আমি নতুন যুক্ত হলাম, আপনার সাথে আছি

thanks brother.i am new.i cant not find next tune.