কিভাবে শুরু করবেন ইউটিউব মার্কেটিং: টিপস এবং ট্রিকস

বর্তমানে সরা বিশ্বে ভিডিউ প্রকাশক অনলাইন মাধ্যম হিসেবে ইউটিউব সবথেকে জনপ্রিয়। প্রচুর দর্শক প্রতিদিন ইউটিউবে গান, মুভি, টিউটরিয়াল ইত্যাদিসহ সহ নানাবিধ ভিডিও দেখতে আসে। সুতরাং আপনি যদি অনলাইন এর মাধ্যমে কোন পণ্য বা সেবার মার্কেটিং করতে চান তবে ইউটিউব একটি অন্যতম মাধ্যম। 

 

ইউটিউব মার্কেটিং কি?

 

ইউটিউব মার্কেটিং হলো ইউটিউব প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে প্রমোট এবং বিপণনের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত মার্কেটিং পদ্ধতিগুলোর সমষ্টি। এটি ব্যক্তিগত ইউটিউব চ্যানেল বা কোম্পানি চ্যানেলের মাধ্যমে সামগ্রিকভাবে ব্র্যান্ড প্রমোশন, পণ্য বা পরিষেবা বিপণন, উপস্থাপনা করে। এটি আরও একটি সাধারণ মার্কেটিং চর্চার অংশ হিসাবে গণ্য হতে পারে, যেখানে পাঠকদের সংগঠনের মাধ্যমে মার্কেটাররা প্রমোট এবং পরিবেশন করেন তাদের বিষয়বস্তু বা সেবা।

 

ইউটিউব মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে একটি ব্র্যান্ড তাদের পণ্য বা পরিষেবার বিষয়বস্তুগুলির উপর ভিডিও বানাতে পারে, টিউটোরিয়াল, পণ্য পর্যবেক্ষণ বা ডেমনস্ট্রেশন, ব্র্যান্ড প্রচার, পরিচিতি তৈরি এবং প্রেমপ্রতিষ্ঠা সৃষ্টি করতে পারে। 

 

যেভাবে শুরু করবেন ইউটিউব মার্কেটিং:  

ইউটিউব মার্কেটিং শুরু করতে নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করতে পারেন:

 

১। একটি ইউটিউব চ্যানেল: 

 

একটি প্রোফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করুন যাতে আপনি আপনার ভিডিওগুলি আপলোড করতে পারেন। এটা আপনি ইউটিউবে বিভিন্ন টিউটরিয়াল দেখে করে নিতে পারবেন। 

 

২। ভিডিও তৈরি করার সম্প্রতি দক্ষতা:

 একটি ভাল কোয়ালিটির ভিডিও তৈরির জন্য একটি ভিডিও সম্পাদনা সফটওয়্যার শেখে নিন এবং ভিডিওর জন্য উপযুক্ত টুলসসমূহ ব্যবহার করুন। এর জন্য আপনার একটি ভালে মানের ক্যামেরা অথবা স্মার্টফোন থাকতে হবে। 

 

৩। লক্ষ্য নির্ধারণ করুন

প্রথমেই, আপনার ইউটিউব মার্কেটিং এর জন্য  লক্ষ্য নির্ধারণ করতে হবে। আপনি  আপনার ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে কোনো পণ্য বা সেবা প্রচার করতে চান, আপনার ইউটিউব চ্যানেল থেকে কি পরিমান আয় করতে চান কিংবা শুধুমাত্র আপনার বিষয়বস্তু প্রকাশ করতে চান সেটা নির্ধারণ করুন।

 

৪।  অন্যদের চ্যানেল পর্যবেক্ষণ করুন

আপনার প্রতিযোগিতামূলক ইউটিউব চ্যানেলগুলির পর্যবেক্ষণ করুন যাতে আপনি এই প্লার্টফর্ম টিকে থাকতে পারেন। পর্যবেক্ষণ করুন তাদের ভিডিওগুলির আপনার ভিডিওগুলোর সাথে কেমন মিল আছে এবং তাদের গ্রাহককে  কী উপায় আপনার গ্রহকে পরিনত করতে পারেন আছে। 

 
৫।  সঠিকভাবে ইউটিউব ভিডিও এসইও (SEO) করান 
 

আপনার ভিডিও নির্মাণের আগে অনুসন্ধান করে দেখুন যে কীওয়ার্ড ব্যবহার করে ব্যবহারকারীরা ইউটিউবে অনুসন্ধান করেন। তারপর আপনার ভিডিওতে সেই কীওয়ার্ডগুলি ব্যবহার করুন।

আপনার ভিডিওর শিরোনামে প্রধান কীওয়ার্ডগুলি ব্যবহার করুন। এটা ইউটিউবের অ্যালগরিদমে সাহায্য করে আপনার ভিডিওকে সঠিক পাবলিসিটির জন্য প্রাথমিকতা দেয়ার জন্য।

আপনার ভিডিওর বর্ণনায় প্রধান কীওয়ার্ডগুলি ব্যবহার করুন। এটা আপনার ভিডিওর বিষয়বস্তু সম্পর্কে বিস্তারিত বলে দিয়ে ইউ

 
৬। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও প্রমোশন করুন:
 

আপনার আদর্শ দর্শকদের সম্পর্কে ধারণা পেলে সম্ভবত তারা কোন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে বেশি সময় ব্যয় করেন। সেই প্ল্যাটফর্মগুলির মধ্যে নির্বাচন করুন এবং আপনার ভিডিওগুলি প্রমোট করার জন্য তাদের বিজ্ঞাপণ ও স্বতন্ত্র মার্কেটিং উপায় ব্যবহার করুন। উদাহরণস্বরূপ, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার ইত্যাদি। 

 
৭।  স্বতন্ত্র টিউন এবং বিজ্ঞাপণ। 
সম্ভবত বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম স্বতন্ত্র টিউন এবং বিজ্ঞাপণের উপায় সরবরাহ করে। আপনি একটি বিজ্ঞাপণ ক্যাম্পেইন সেট করতে পারেন যেখানে আপনার ভিডিওগুলির প্রচার করা হয়। আপনি একটি লক্ষ্যমূল

কনটেন্টটি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। এর থেকে বেশি কিছু জানার থাকলে টিউমেন্ট বা ইনবক্স করতে পারেন। 

 

 

 

Level 0

আমি মোঃ পারভেজ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 1 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস