অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য কোন বিষয়ে জানা প্রয়োজন?

টিউন বিভাগ আউটসোর্সিং
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং শব্দটির সাথে খুব সম্পৃক্ত হচ্ছে প্রচার, প্রমোশন এবং কেনা-বেচা শব্দ গুলো। মূলত, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল এক ধরনের পারফরম্যান্স-ভিত্তিক মার্কেট প্লেস যেমন অ্যামাজন, ক্লিক ডিলার, ইমপ্যাক্ট বা অন্য কোন কোম্পানী যারা এফিলিয়েট মার্কেটিং চালু রেখেছে। আপনি যদি এফিলিয়েট মার্কেটিং চালু রেখেছে এমন কোন কম্পানির সাথে সংযুক্ক হোন এবং সেখান থেকে আপনার পছন্দের কোন প্রোডাক্টের লিঙ্ক আপনার কোন ওযেবসাইট, ইউটিউব চ্যানেলে বা সোস্যাল প্রফাইলে প্রমোঠ করেন আর সেই লিঙ্কে ক্লিক করে কেউ যদি সেই প্রোডাক্ট কিনে নেয় তবে আপনি বিক্রিত ওই প্রোডাক্টের দামের উপর নির্দিষ্ট হারে কমিশন পাবেন।

তবে, এটা বোঝা গুরুত্বপূর্ণ যে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং দ্রুত ধনী হওয়ার কোনো স্কিম নয়। একটি সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ক্যাম্পেইন তৈরি করতে অনেকটা সময়, প্রচেষ্টা এবং উত্সর্গ লাগে। কিন্তু সঠিক কৌশল প্রয়োগ করে, এই সেক্টর থেকে আয় করা মূল্যবান উৎস হতে পারে।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য প্রথমেই আপনাকে একটি সঠিক অনুমোদিত মার্কেট প্লেস বেছে নিতে হবে৷ যেটা আপনার মূল্যবোধের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ এবং বাজারে একটি ভাল খ্যাতি আছে এমন মার্কেট প্লেস সন্ধান করতে হবে৷ মার্কেট প্লেসটি তার পণ্য বা পরিষেবাটি একটি ভালো কমিশন প্রদান করে তাও নিশ্চিত করা গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এটিই নির্ধারণ করবে যে আপনি একজন অ্যাফিলিয়েট হিসাবে কত টাকা উপার্জন করতে পারেন।

উপরন্তু, আপনি আপনার অ্যাফিলিয়েট পণ্য প্রচারের জন্য সেরা প্ল্যাটফর্ম বাছাই করতে চাইবেন। আমার দেখা কিছু জনপ্রিয় বিকল্পগুলির মধ্যে একটি ব্যক্তিগত ব্লগ, সোস্যাল মিডিয়া এবং YouTube ভিডিও তৈরি করা।

সবশেষে, এটা মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল একটি ব্যসায়ি এবং একটা গ্রাহকের মাঝে সম্পর্ক তৈরি করা। মনে রাখবেন, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য আপনাকে কোনও পণ্য বা পরিষেবার বিশেষজ্ঞ হতে হবে না - শুধু সঠিক কৌশল এবং ধৈর্যধারণ করে করতে পারলেই হবে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করতে কি কি প্রয়োজন?

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা আপনার জন্য একটি রোমাঞ্চকর এবং ফলসরুপ অভিজ্ঞতা হতে পারে, তবে এটি কিছুটা ভয়ঙ্করও হতে পারে। সর্বোপরি, এটি কেবল একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে পণ্য প্রমোঠ করে হাজার হাজার ডলার কামাবো এটা আশা করা নয়। এখানে কৌশল, জ্ঞান এবং উত্সর্গের একটি নির্দিষ্ট স্তর রয়েছে। তবে চিন্তা করবেন না, আমার কিছু নির্দেশিকা ফলো করে, আপনি আপনার নিজের বাড়িতে আরাম বজায় রেখে প্রতি মাসে এরটি প্যাসিভ আয় উপার্জনের পথ তৈরি করতে পারবেন।

প্রথমত, আপনি একটি মার্কেট প্লেস সন্ধান চয়ন করতে হবে, যা আমি উপরে আগেই বলেছি। এটি এমন একটি বিষয় বা শিল্প যা আপনি আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগের সাথে ফোকাস করবেন৷ এমন কিছু বাছাই করা গুরুত্বপূর্ণ যা সম্পর্কে আপনি আগ্রহী বা আপনার প্রচুর জ্ঞান রয়েছে৷ এটি কেবল বিষয়বস্তু তৈরির প্রক্রিয়াটিকেই সহজ করে তুলবে তাই-ই না, এটি আপনার ওয়েবসাইটকে একটি খাঁটি এবং বিশ্বস্থার জায়গা করে তুলবে৷ মনে রাখবেন একটি ভাল ওয়েবসাইট একটি ভাল পোশাকের মতো।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে ক্যারিয়ার শুরু করার ধাপপুলো তো জানলাম। তবে অবশ্যই মনে রাখবেন, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে শুধুমাত্র একটি মার্কেট প্লেস নির্বাচন করা এবং একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার চেয়ে এটিতে আরও অনেক কিছু আছে, তবে এটি হল ভিত্তি। মনে রাখবেন, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং একটি ম্যারাথন দৌড় নয়। সুতরাং, আপনি সময় নিন এবং সময় দিন - গবেষণা করুন, এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণভাবে, এটির সাথে লেগেথাকুন!

Level 0

আমি মিঃ সালভি। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 মাস 2 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 3 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 2 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস