নিয়নবাতি [পর্ব-০১] :: বিদেশে না গিয়ে ঘরে বসেই ইন্টারনেট থেকে ইনকাম করুন আর স্বাবলম্বী হয়ে সফল জীবন গড়ুন [মেগাটিউন]

বেশীরভাগ মানুষ কল্পনা করেন যে বিদেশী গেলেই অঢেল টাকার মালিক হওয়া যায়, কথাটা আংশিক সত্য কেননা চিরায়ত বাংলাতে বিদেশী ফেরত মানেই কোটিপতি কথাটা পুরোটা তো আর ফেলনা নয়। তবে এখানেও দুইটা সত্য লুকিয়ে আছে (১)বিদেশে আপনার কাজের ধরনে আপনি নিম্নতর সুইপারও হতে পারেন (২)সেখানে কাজের মূল্যটা অপেক্ষাকৃত বেশী হলেও পরিশ্রমও কম নয়।

এখন আপনি হয়তো ভাবছেন কাজ তো কাজই তাতে মুচি-মেথর- সুইপারে কি যায় আসে? তাহলে দেশে থাকতে কেন আপনি সুইপারের চাকুরী করেননি?
আবার হয়তো ভাবতে পারেন বিদেশী সুইপার হলে কি যায় আসে কেননা দেশে তো আর কেউ জানতে আসছে না তাইনা?
অথচ সম্মান বস্তুটা কালের সাথে স্থান ভেদাভেদ নির্ভরশীল নয় একবার আত্মসম্মান গেলে সেটা সারাজীবনেও ফিরে আসবে না, সুতরাং কর্মকে সম্মান করুন কিন্তু আত্মসম্মান বজায় রাখতে ভুলবেন না।

সাধারণত বাংলাদেশ হতে বিদেশ হউক তা মালয়েশিয়া কিংবা সৌদিআরব, কানাডা কি আমেরিকা তাতে সর্বনিম্ন ১.৫ লক্ষ টাকা তো লাগবেই কেননা ভিসা-পাসপোর্ট আর দালালের দালালীতে লক্ষ লক্ষ টাকা চোখের পলকে পকেট থেকে পালায়!
এখন এই ১.৫ লক্ষ টাকা ম্যানেজ করতে আপনাকে হয়তো ঋন নয়তো জমি, বাড়ী বন্ধক-বিক্রি করতে হয় তাইতো?

আশাকরি, কথার কথা আপনি ১.৫ লক্ষ টাকা খরচ করে বিদেশী গিয়েছেন এবং সেই টাকা উপার্জন করতে কমপক্ষে ১ বছর সময় লাগবে। তাহলে আপনি ১ বছর পরিশ্রম করে যেই ১.৫ লক্ষ টাকা ইনকাম করছেন সেটা শুধুৃমাত্র ঐ বিদেশ যাত্রার খরচ উঠাবেন আর বাকি সময়ে যা ইনকাম করবেন সেটাই হলো লাভ।
এখন ২ টা প্রশ্ন করি আপনাকে.
(১) ঐ ১.৫ লক্ষ টাকা ইনকাম করতে কি আপনার সময় লাগেনি? আপনি কি পরিশ্রম করেননি? তাহলে সেই সময় আর শ্রমের মূল্যটা কোথায়? ঐ ১.৫ লক্ষ টাকা তো আপনি খরচের খাতায় বহু আগেই তুলে দিয়েছেন তাহলে সময় আর শ্রমের মূল্যটা কিভাবে পেলেন?
(২) বাকি সময়টুকু আপনি হয়তো ভাবছেন অনেক টাকা ইনকাম করবেন কিন্তু কোন কারণে যদি সেটা আর সম্ভব না হয় যেমন ভিসা জটিলতা কিংবা কোন দূর্ঘটনা(আল্লাহ না করুন) হয় তাহলে কি করবেন?

আপনি হয়তো বলবেন বিদেশী না গেলে তো আর দেশের চাকুরীতে ঐরকম টাকা ইনকাম করতে পারতেন না তাইনা?
এটাই একটা ভুল কথা কেননা "টাকা ইনকাম করতে পরিশ্রম লাগে না লাগে ব্রেইন" সেটা আপনি বিশ্বাস করতে না পারলে আপনি আজীবন কলুর বলদ হয়েই রইবেন তাতে বিদেশী বলদ আর দেশী বলদে তফাত নেই।
আপনি হয়তো দেখবেন বাংলাদেশী বড় বড় বিজন্যেসম্যানেরা কিংবা অফিসারেরা কিন্তু কেবলমাত্র একটা কলমের খোচায় কোটি টাকার কনসেপ্ট সাইন করেন তারা কিন্তু মাথাতে আটার বস্তা বয়ে টাকা ইনকাম করেন না, তাহলে আপনি কেন পারবেন না?
আপনি হয়তো আবার ভাবছেন তারা খুব শিক্ষিত তাই তাদের এমন উন্নতি অথচ সত্যতা হলো সিংহভাগ ধনী মানুষেরা আহামরি ডিগ্রীধারী নয় বরং তারা তীক্ষ্ণ বুদ্ধিসম্পন্ন বটে।

দেশে বসেই বিদেশের মতোন ইনকাম করুন:
আপনি হয়তো বাস্তবে বিদেশী আছেন সেখানে কি আশ্চর্য কিছু আছে যেমন টাকার খনি কিংবা টাকার গাছ? বিদেশে যা আছে সেটা বাংলাদেশেও সেটা আছে তবে পার্থক্য হলো মূল্যবোধের তাই বাংলাদেশে কাজের মূল্যায়ন'টা কম।
আপনি কিন্তু দেশে থেকেও বিদেশ ভ্রমণ করতে পারেন কোন প্রকার পাসপোর্ট/ ভিসা ছাড়াই তাও আবার ফ্রি'তে! এমনকি চাইলে বিদেশী টাকাও ইনকাম করতে পারেন দেশে বসেই সেটা শুধুমাত্র সম্ভব ইন্টারনেটেই। এই যে আমি দিগন্তের শেষ সীমা হতে টিউন লিখছি আর সেটা আপনি এখন পড়তে পারছেন সেটাও শুধুমাত্র ইন্টারনেটের কারণে সম্ভব হয়েছে আসলে ইন্টারনেটে Impossible = I am Possible সেটা তখন সম্ভব যখন আপনি নিজেকে তেমন যোগ্য করে তৈরী করতে পারবেন।

অনলাইনে ইনকাম শুরু করুন:
অনলাইনে ইনকাম শুর করার জন্য সবার আগে প্রয়োজন জ্ঞান আর সেটা অর্জন করার জন্য ধৈর্য্য, একাগ্রতা এবং নিষ্ঠা।
অনলাইন ইনকাম বা আউটসোর্সিং একটি মুক্ত পেশা তাই এখানে চাকুরীর মতোন ধরাবাধা কোন বাধ্যবাধকতা নেই আর স্বাধীন পেশা হওয়ায় সেখানে আপনি আপনার যোগ্যতা এবং দক্ষতা অনুযায়ী ইনকাম করতে পারেন, সেটা সংখ্যার বিচারে মাসে লক্ষ টাকাও হতে পারে [বিশ্বাস না হলে গুগল সার্চ করে দেখুন একজন সফল ফ্রিল্যান্সারের ইনকামের সত্যতা]।

অনলাইনে কি কি কাজ পাওয়া যায়?
যদিও অনলাইনে কাজের কোন প্রকারভেদ কিংবা লিমিটেশন নেই তবুও অনলাইনে নিম্নবর্ণিত কাজগুলা হতে অনায়েসে আপনি ইনকাম করতে পারেন:
★ এডসেন্স [মূলত আপনার ওয়েবসাইটে গুগল কর্তৃক বিজ্ঞাপণের বিনিময়ে আর্নিং]
★ সোস্যাল মার্কেটিং, সিপিএ মার্কেটিং, এফিলিয়েট মার্কেটিং
★ আর্টিকেল রাইটিং, কনটেন্ট রাইটিং, রিপোর্ট- রিভিউ
★ ওয়েব ডেভলপিং
★ ওয়েব ডিজাইন
★ সফটওয়ার ডেভেলপিং
★ গ্রাফিক্স- ডিজাইন
★ ক্রিপ্টো ট্রেডিং এন্ড ক্রিপ্টোকারেন্সি
★ ফ্রিল্যান্সিং

কিভাবে কাজ শুরু করবেন?
সবার আগে আপনাকে জ্ঞান অর্জন করতে হবে কেননা উইথআউট নলেজ ইউ আর এ বিগ জিরো। তবে আউটসোর্সিং শেখার জন্য আপনাকে আলাদা করে উচ্চ শিক্ষিত হওয়ার প্রয়োজন নেই বরং আপনার চেষ্টা এবং উদ্দ্যম থাকলে একজন স্বল্পশিক্ষিত মানুষও অনলাইন ইনকামে সফল হতে পারেন।
আপনি কোন বিষয়ে শিখতে চাচ্ছেন সেটা আপনার ওপর নির্ভর করবে ধরুন আপনি ওয়েবসাইট তৈরী এবং ডেভলপিং বিষয়ে শিখতে আগ্রহী তাহলে সবার আগে আপনাকে জানতে হবে ডোমেইন কি, হোস্টিং কি, ডোমেইন সেটআপ কিভাবে করতে হয়, সি প্যানেল কি, মাইএসকিউএল ডাটাবেজ কি, কিভাবে ওয়েবসাইটকে ভার্নাবিলিটি মুক্ত রাখা যায় তথা কিভাবে ওয়েবসাইটকে সিকিউর করা হয় ইত্যাদি ইত্যাদি।
আবার আপনি যদি ওয়েন ডিজাইন শিখতে চান তবে আপনাকে ওয়েবসাইট টেম্পলেট তথা এইচটিএমএল, সিসি, সিসি প্লাস কোডিং জানা আবশ্যক।

কে আপনাকে কাজ শেখাবে?
যেহেতু আপনি ইন্টারনেটে কাজ করবেন তাই ইন্টারনেটকেই আপনার টিচার হিসেবে গ্রহণ করুন কেননা একমাত্র Google ই নিঃস্বার্থভাবে আপনাকে সহায়তা করতে পারে। আপনি কি শিখতে চান সেটা গুগলে সার্চ করে ডিটেইল জানা এবং প্র্যাকটিস করা হতে পারে সুন্দর স্বশিক্ষা। প্রথম প্রথম আটকে গেলেও একটা সময় শেখার নেশা আর আগ্রহে শুরুর কষ্টটা ভুলে যাবেন।
আবার চাইলে আপনি নির্ভরযোগ্য কোন প্রতিষ্ঠান হতেও আউটসোর্সিং কোর্স করতে পারেন তবে সত্য কথা হইলো বেশীরভাগ কোর্সের উদ্দেশ্যই থাকে আপনার থেকে টাকা ইনকাম করার ধান্দা তাতে আদতে আপনি কিছু শিখলেন কিনা কিংবা ভবিষ্যতে সেটা হতে ইনকাম করার উপযুক্ত রাস্তা দেখিয়ে দেবার বেলায় তারা থোরাই কেয়ার সুতরাং এমন প্রতারক চক্র হতে সাবধান!
তথাপি আমি চেষ্টা করবো এরপর থেকে ধারাবাহিকভাবে আউটসোর্সিং টিউটোরিয়াল দেবার মাধ্যমে আপনাকে সত্যিকারের অনলাইন ইনকামে সফল হতে সাধ্যমতো চেষ্টা করতে নিজেকে উজার করে দিবো তবে শেখার কাজটা একান্তই আপনার আপনার আর আপনার ব্রেইনের দায়িত্ব!

কোথায় কাজ করবেন?
ইন্টারনেটে যেমন কাজের অভাব নেই তেমনি কর্মক্ষেত্রেরও অভাব নেই তবুও প্রসিদ্ধতার দিক থেকে ফ্রিল্যান্সার, ওডেস্ক'কে বেছে নিতে পারেন। এছাড়াও বিভিন্ন কোম্পানি তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে তাদের কাজের অফার দিয়ে থাকেন।
আবার নিজে নিজে স্বাধীন ইনাকাম করতে আপনি কনটেন্ট রাইটিং কিংবা আর্টিকেল রাইটিং হতেও ইনকাম করতে পারেন। মাত্র একটি লেখার বিনিময়ে আপনি লক্ষ টাকাও ইনকাম করতে পারেন এমনও সত্যাসত্য ওয়েবসাইট এই ইন্টারনেটেই আছে!

শেষকথা: অনলাইন ইনকামে সফলতা নির্ভর করবে আপনার নিজের চেষ্টা, পরিশ্রম, সততা, নিষ্ঠা এবং একাগ্রতার ওপর সুতরাং শিক্ষার শুরু আজ হতে আরম্ভ করলে আগামীকাল আপনিও হয়তো হয়ে যেতে পারেন সাকসেসফুল সেলিব্রেটি কেউ!
ভাগ্যের ওপর ভরসা করে অবহেলতা সময় নষ্ট না করে নিজের লাইফ আর ক্যারিয়ার গড়ার যুদ্ধটা আজ হতেই শুরু করে দিন, অবেলায় আপনার পাশে আর কাউকে না পেলেও আমাকে নিশ্চিত পাবেন, প্রমিস!

ফেসবুকে আমার বন্ধু হওয়ার আমন্ত্রণ রইলো→ নিশান আহম্মেদ নিয়ন
আল্লাহ হাফেজ

Level 2

আমি নিশান আহম্মেদ নিয়ন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 41 টি টিউন ও 15 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 26 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 2 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস