আর মাত্র ২ দিন – জয়েন করেই জিতে নিতে পারেন প্রায় ১৮০০০০ থেকে ৭০০০ টাকা

সবাইকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা। আর সেই সাথে দারুণ একটি সু-সংবাদ জানাচ্ছি। যারা ইতিমধ্যে বিট কয়েন মাইনিং করছেন বা করতে চাচ্ছেন তারা সবাই এই সুযোগ টি নিতে পারেন। এটি বিট কয়েন মাইনিং এর একটি বিশেষ ইভেন্ট ছিলো এবং এই ইভেন্ট টি আর দুদিন পরই শেষ হয়ে যাবে। সুতরাং যেহেতু টাকা পয়সা ইনভেস্টমেন্ট এর কোন বিষয় নেই- তো চেষ্টা করতে সমস্যা নাই।

যারা নতুন তাদের জন্য কিছু তথ্য জানিয়ে দেই-  যারা বিট কয়েন মাইনিং করতে চান তারা অনেক উপায়ে সেটা করতে পারেন তবে আমি যেভাবে করছি সেটা অনেক সহজ একটি উপায়। এই পদ্ধতিতে মাইনিং করার জন্য আপনার অনেক ভালো গ্রাফিক্স কার্ড যুক্ত কম্পিউটার প্রয়োজন নেই। সাধারণ যে কোন কম্পিউটারে এই মাইনিং করা যায়। আপনার শুধু মাত্র গুগল ক্রম অথবা ফায়ার ফক্স ব্রাউজার থাকলেই আপনি মাইনিং করতে পারবেন।

যেভাবে সেটআপ করবেন-

প্রথমেই আপনার গুগল ক্রম অথবা ফায়ার ফক্স ব্রাউজার টি ওপেন করে নিন। তবে আমি সাজেস্ট করবে গুগল ক্রম ব্যবহার করার জন্য। এই ব্রাউজার টিতে মাইনিং বেশি করা যায়। এবার নিচের লিংক টি আপনার ব্রাউজারে ওপেন করুন। এটি একটি মাইনিং এক্সটেনশন যা গুগল স্টোর ২০০০০ এর বেশি পজিটিভ রিভিউ আছে। সুতরাং নির্ভাবনায় আপনি মাইনিং শুরু করতে পারেন।

লিংক- https://goo.gl/fJnniH

মাইনিং এক্সটেনশনটি সেট আপ হয়ে গেলে সেটিংস থেকে আপনার Gmail দিয়ে লগ ইন করে নিন যাতে আপনি আপনার এই মেইল দিয়ে যে কোন কম্পিউটার থেকে মাইনিং করতে পারেন এবং মাইনিং করা কয়েন আপনার নিজের একাউন্টই থাকবে। আমার মাইনিং প্যানেল যা সেট আপ করার পর আপনার প্যানেল টিও প্রায় এরকম হবে-

আপনার আয় করা কয়েন পে আউট করার জন্য একটি মানিব্যাগ বা ওয়ালেট লাগবে যা আপনি ফ্রী করে নিতে পারেন নিচের লিংক থেকে-

ওয়ালেট লিংক - https://goo.gl/EiR329

যারা নিয়মিত ২ থেকে তিন ঘণ্টা ইন্টারনেট ব্রাউজ করেন তারা ছয় মাস থেকে একবছরে এক বিটকয়েন আয় করতে পারবেন এবং যারা একটু বেশি মানে ৪ থেকে ৫ ঘণ্টা ব্যবহার করে তারা তিন থেকে ছয় মাসে এক বিট কয়েন মানে প্রায় ৭০৪৯২৪ টাকা টাকা আয় করতে পারবেন। সম্প্রতি আমার পেআউট করা বিটকয়েন-

আসুন এবার জেনে নেই আপনি বিশেষ ইভেন্ট এ কিভাবে অংশ নিয়ে ১৮০০০০ থেকে ৭০০০ টাকা পর্যন্ত জিতে নিতে পারেন-

৪০ দিনের এই ইভেন্ট টি আর মাত্র ১দিন ১৪ ঘন্টা পর শেষ হয়ে যাবে- এই ইভেন্ট এ অংশ নিতে প্রথমেই আপনি আপনার মাইনিং প্যানেল এর উপরে ইভেন্ট এর বিস্তারিত জেনে নিতে পারেন-

মূলত এই ইভেন্ট এ অংশ নেওয়ার জন্য দুইটি কাজ আপনাকে করতে হবে- প্রথমত আপনাকে ইভেন্ট এ অংশ নেওয়ার জন্য সম্মতি জানাতে হবে যা আপনি ইভেন্ট ডিটেইলস এ পাবেন এবং এর পর আপনার রেফারেল লিংকই আপনার গুগল প্লাস অথবা আপনার ফেসবুক ওয়ালে শেয়ার করতে হবে এবং অবশ্যই সেটা ইভেন্ট শেষ না হওয়া পর্যন্ত আপনার ওয়ালে থাকতে হবে- (শেয়ার করার সময় শেয়ার অপশন যাতে Only me না থাকে)

আর দ্বিতীয় যে বিষয়টি আপনাকে এই ইভেন্ট এর জন্য করতে হবে তা হল আপনাকে মিনিমান দুইজন কে আপনার রেফারেল লিংক থেকে সাইন আপ করাতে হবে এবং সেই দুজন যাতে জয়েন করার পর তাদের রেফারেল লিংক টি তাদের ফেসবুকে শেয়ার করে সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। যদি এমন হয় যে ২ জন আপনার রেফারেল লিংক থেকে সাইন আপ করলো কিন্তু তারা তাদের লিংক ফেসবুক এ শেয়ার করলো না- তাহলে তারা আপনার রেফারেল হিসেবে গণ্য হবে ঠিকই এবং আপনি তাদের কমিশনও পাবেন কিন্তু এই ইভেন্ট এর রেফারেল হিসেবে গণ্য হবে না। সুতরাং আপনি ইভেন্ট টি মিস করে যাবেন।

আমার এই ইভেন্টে রেফারেল এর বিস্তারিত-

আমার সর্বমোট রেফারেল-

সেটআপ করতে কোন সমস্যা হলে টিউমেন্ট করে জানাতে পারেন আর জানতে বিস্তারিত ভিডিও টি আপনাদের সাহায্য করতে বলে আশা করছি-

ভিডিও লিংক- https://www.youtube.com/watch?v=v61JmBNdUCU&t=136s

সবাই ভালো থাকবেন আর একটি কথা বলে শেষ করছি - এটি অনেক ধীর গতির একটি মাইনিং পদ্ধতি। সুতরাং যারা তাড়াহুড়ো করতে চান তাদের জন্য আমার কাছে সহজ কোন রাস্তা নেই বললেই চলে। আমার জানা মতে অনলাইনে যে কোন আয়ের জন্য আপনাকে একটু সময় দিতেই হবে এবং যারা রাতারাতি আয়ের কথা বলবে ধরে নিতে পারেন তারা আপনাকে সঠিক তথ্যটি দিচ্ছে না। আর আপনার সাধারণ কম্পিউটার দিয়ে আপনি বছরে ১ বিট কয়েন মাইনিং করতে পারবেন যা টাকায় হিসেব করলে দাঁড়াবে প্রায় ৬৭৫২৯১ টাকার সমপরিমাণ। সুতরাং ভিবভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ করছি।

Level 0

আমি সীমান্ত সন্ন্যাসী। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 6 টি টিউন ও 9 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস