স্ক্যাম কিংবা সন্দেহজনক মাস্টার কার্ডে লেনদেন ও ক্রয়ের পূর্বে একটিবার ভাবুন! Qcard সাইট নিয়ে প্রতিবেদন ও আমার তিক্ততা!!

অাসসালামু আলাইকুম।

😆  টেকটিউনস কমিউনীতি সাইটের সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা। আশা করি কুশলেই আছেন সবাই। এইচ.এস.সি পরীক্ষা জনিত কারনে কয়েকটা দিন টিটি হতে দূরে ছিলাম। পরীক্ষা প্রায় শেষের দিকে, ২/৩ টি বিষয় এখনো বাকি আছে। আলহামদুলিল্লাহ পরীক্ষা গুলো ভালই হয়েছে। যাইহোক এবার কাজের কথাতে আসি! আজকের টিউনে আপনাদেরকে একটি সাইট সম্পর্কে রিভিউ করব এবং কিছু জিজ্ঞাসাবাদ থাকবে।

টিটি সহ বেশকিছু ব্লগ সাইট সহ অনেকেই একটি  সাইট বিষয়ে টিউন করেছিলেন। সেটি হল মুলত একটি মাস্টার কার্ড  এবং অন্তভূক্ত তাদের সাইট বিষয়ে যথারুপঃ Qcard Virtual Visa/Master Card.

Qcard টিউন সম্পর্কে অভিমত

হ্যা প্রথমেই বলেছি অনেক টিউনারগণ তাদের অভিজ্ঞতা কিংবা অনভিজ্ঞতাতেই হোক Qcard সম্পর্কে নানাবিধ ইতিবাচক টিউন গুলো করেছেন। যেমনঃ

  • ক। গ্রাহকরা যারা একবার QCard ব্যবহার করেছেন, তারা একবাক্যে স্বীকার করেছেন Qcard বেশ ভাল অনলাইন পেমেন্ট সলিউশন। QCard এর রয়েছে বেশ কিছু দারুণ ও সুবিধাজনক ফিচার যা এটিকে আর সকল পেমেন্ট সিস্টেম থেকে করেছে সম্পূর্ণ আলাদা। QCard এর কয়েকটি অসাধারন সুবিধার মধ্যে রয়েছে- কোন ব্যাংক একাউন্ট ছাড়াই যে কেউ রেজিস্ট্রেশন করতে পারে, সহজ ভেরিফিকেশন শেষে অল্প সময়ের মধ্যে কার্ড হাতে পাওয়া যায়, বিশ্বের যেকোনো স্থান থেকে অনলাইনে পেমেন্ট করা যায়, কোন প্রকার মাসিক বা বাৎসরিক ফি দিতে হয় না।

  • খ। কোন ফিস নেই

QCard ব্যবহারে সবথেকে বড় সুবিধা হল আপনাকে কোন প্রকার মেইন্টেনেন্স চার্জ দিতে হবে না। একবার নির্দিষ্ট পরিমান পেমেন্ট করলেই আপনার কার্ডটির আজীবন মেয়াদ সৃষ্টি হবে। এই ক্ষেত্রে কোন প্রকার মাসিক, বাৎসরিক কিংবা হিডেন চার্জ দিতে হবে না।

  • গ।  কোন ক্রেডিট চেক প্রয়োজন নেই
  • ঘ। কোন প্রকার ঝুঁকি ছাড়াই পেমেন্ট করা যায় ইত্যাদি ইত্যাদি কত সব কথা!

অবশ্য বিষয়গুলো আমিও পড়েছি ও ভাল লেগেছে। আমিও অনেকের মত ভূক্ত ভোগী। কারন, আমিও চাই এই রকম কার্ড যেখানে কিছুটা হলেও ফ্রিল্যান্সার ও ব্লগারদের আয়েশ মিটাবে! তথাপি অনেকের কাছ জানতে পেরেছি কার্ডটিতে মোটামোটি কাজ করা যাচ্ছে। ৫/৭ ব্যস্ততার কারনে কার্ডটি আমার গ্রহন ও ব্যবহার করা হয়ে ওঠেনি। বর্তমানে সময়ের আরেকটি মজার বিষয় হলঃ ডিজিটাল যুগে হাইব্রীড বাটপারের উপদ্রব উদ্ভব হয়েছে। নিশ্চয় বিষয়টা আঁচ করতে পেরেছেন। হ্যা বর্তমানে মাস্টার কার্ড/ভিসা কার্ডও জালিয়াতি হচ্ছে। নামহীনভাবে কিছু ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানের যোগ সাজশে কোন একটি নাম দিয়ে প্রতিষ্ঠানের ওয়েব সাইট চালু করছে। কিছুদিন পরেই দেখা যাচ্ছে লাপাত্তা! পরিশেষে কি পাচ্ছি? দেখা যাচ্ছে আমার মত বেকার যুবকদের কষ্টের অর্থটা পাচার কিংবা নষ্ট হচ্ছে!! এই তো আপনারা বোধ হয় দেশে এটিএম জালিয়াতির কথাটা পড়েছেন ও শুনেছেন। ব্যক্তিগত ভাবে আমি QCard নিতে আগ্রহী ছিলাম। কিন্তু বেশ কয়েকটি বিষয় আমায় ভাবিয়েছে বলে নেবার আগ্রহি মনে করছিনা। বিষয়গুলো নিচে আলোচনা করব। অবশ্য বিজ্ঞগণ যারা আছেন তারা আমাকে রিভিউ করতে পারেন। এই তো গত বছর এই রকম একটা কোম্পানী এসেছিল তাদের ওয়েব সাইট ছিল (Mastercards.co) নামে। কিছুদিন পর দেখা গেল লাপাত্তা হয়েছে।

সাইট সম্পর্কে পরিচয় ও কিছু জড়তা

যে সাইট নিয়ে এতক্ষন কথা বলছি ও সরগরম তার ঠিকানাটি হচ্ছেঃ http://www.qcardasia.com/

সাইটের ডোমেইন নাম ও হুইস রেকর্ড

http://whois.com/ রেকর্ড হতে জানতে পারলাম সাইটের বয়স বেশী নই। ২০১৭ সালের ২৩ ফ্রেব্রুয়ারীতে রেজিঃ করা হয়। মূলত গোড্যাডি হতে সার্ভিসটি নেওয়া হয়েছে। তথ্যরুপ হিসাবে যে নামগুলো রয়েছে সেটা অবশ্য ফেইক হিডেন হিসাবে শো করা আছে। আপনারা পরীক্ষাটি করতে পারেন।

সাইটের মালিকানা ও ঠিকানা

সাইটের প্রকৃত মালিক/পরিচালক/মডারেট গণ কারা তা বোধগম্য নই। তবে এই কথা নিশ্চত যে, সাইটের এডমিন বাংলাদেশী কিংবা ভারতীয়। তথাপি তাদের সাইটেও বিস্তারিত কিছু দেওয়া নাই যেমনঃ কারা পরিচালনা করছেন, হেড অফিস কোথায়? ইত্যাদি। যেখানে অন্য সকল গেটওয়ে পেমেন্টে সাইটে কিন্তু তথ্যগুলো দেওয়া থাকে।

সাইটের ডিজাইন

সাইটের ডিজাইন তেমন ভাল নই, মোটামোটি অর্থাৎ ব্লগ সাইটের ডিজাইন। অারেকটি বিষয় তাদের সাইট কিন্তু ওয়ার্ডপ্রেস প্লাটফর্মে অপারেট করছে এবং ব্যবহৃত স্ক্রীপ্ট গুলোও সহজলভ্য। নিচের চিত্রটি দেখুন-

সাইটের সার্ভার ও কনটেন্ট

সাইটের সার্ভারও তেমন সুবিধাজনক দেখছিনা। যেমনঃ আধুনিক NGnix বাদ দিয়ে Apache ব্যবহার করছে।

সাইটে SSL সার্টিফিকেট না থাকা

এখানেই বিস্ময়টা আমাকে অবাক করেছে। হয়ত আপনাদেরও হাসি পাবে। বিশ্বের যেখানে এই রকম ভিসা কার্ড/মাচেন্ট জাতীয় সাইট তাদের সাইটে নিরাপত্তা জনিত কারনে SSL সার্টিফিকেট ব্যবহার করছে। এমনকি নতুন আর্বিভূত সাইটও SSL ব্যবহার করছে। সেখানে তারা এটি থেকে বাদ রয়েছে কেন তা আমার বোধ গম্য নই। তাহলে তাদের সাইট কিভাবে নিরাপত্তাতে রয়েছে কিংবা হ্যাকার আক্রমন হবে না এটার কি নিশ্চয়তা?? উপরন্তু সাইটে কিন্তু ডিডস প্রটেকশনের অভাব আছে।

সাইট অসম্পূর্ণ থাকাটা ও ভাষা ইন্টারফেস

মজার বিষয় হল তাদের সাইট কিন্তু এখনো অসম্পূর্ণ। মানেটা হল তাদের সাইটের হোম পেজের সোস্যাল আইকনে ক্লিক করলেই বুঝবেন। যেমনঃ টুইটার লিংক নাই। তথাপি সাইটে বেশ কয়েকটি ভাষার ইন্টারফেস আছে (বাংলা সহ)। এখানে দেখছি হিন্দি ও উর্দু প্যাটার্ন বাদ আছে। বিশ্বের অন্যান্য সাইটে হিন্দি ও উর্দু ভাষা যুক্ত থাকবেই কারনটা হলঃ পৃথিবীতে হিন্দী ভাষী লোক প্রায় ৪২ কোটি। এবং মধ্য প্রাচ্যে দেশে উর্দুগুলো বিদ্যমান।

এবার আসি অন্য প্রসঙ্গে

  • প্রথমে বলা হয়েছে আপনাকে কোন প্রকার মেইন্টেনেন্স চার্জ দিতে হবে না। একবার নির্দিষ্ট পরিমান পেমেন্ট করলেই আপনার কার্ডটির আজীবন মেয়াদ সৃষ্টি হবে। এই ক্ষেত্রে কোন প্রকার মাসিক, বাৎসরিক কিংবা হিডেন চার্জ দিতে হবে না। এটা কেমন কথা ভাইয়া? কোন প্রকার চার্জ না থাকলে আপনাদের প্রতিষ্ঠান চলবে কিভাবে?? কারন বিশ্বে অন্য সকল প্রতিষ্ঠান চার্জ গ্রহন করার একটা কারন তো থাকে! সুতরাং চার পয়সা কিংবা চার আনা হলেও চার্জ থাকা উচিত ছিল।
  •  সাইটের যেহেতু নিরাপত্তা নাই সেহেতু সাইট ম্যানটেইন্স কেমন হতে পারে?? ভিজিটর বন্ধুরাই ভাল বলতে পারবেন!
  • আরেকটি বিষয় আপনার কার্ডে কিংবা ভার্চুয়াল সিস্টেমে কিভাবে কিংবা কোথা হতে অর্থ লোড করবেন সেই বিষয়ে ক্লিয়ারলি কিছু বলা হয়নি।
  • আমি অবশ্য বেসিসে এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, প্রতিত্তর ছিল তাদের বিষয়টি জানা নাই।
  •  😳 হ্যা সাইটটি যদি বাংলাদেশী কারোর হত এবং সেই হিসাবে সঠিক নির্দেশনা, নীতিমালা ও বিফ্রিং থাকতো তাহলে বিষয়টা অন্যরুপ হতে পারত। এখানে কেউ উদ্যোক্তা হিসাবে ভাল কোন কাজ করলে তাকে মূল্যায়ন করতেই হবে! কিন্তু তেমন কোন রুপরেখা দেখা যায় না। 🙄

উপসংহার

😆 সত্যিকার অর্থে উক্ত সাইট ও কিউকার্ড সম্পর্কে আমার বেশ কয়েকটি বিষয়ে কৌতুহল ছিল বিধায় জানানোর চেষ্টা করলাম। তথাপি কিউ কার্ড ক্রয় কিংবা লেনদেনের বিষয়ে আমিও কাউকে নিষেধ করতে পারবনা। এটি সম্পূর্ণ আপনার ইচ্ছ। মূলত যেখানে অর্থ ট্রানজেকশন হবে সেখানে সব কিছু যাচাই বাছাই, পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ। এতক্ষণ ধৈর্য্য সহকারে যারা টিউনটি পড়লেন তাদের সকলকে অশেষ ধন্যবাদ এবং টিউন সম্পর্কে কোন রিভিউ থাকলে টিউমেন্ট করতে পারেন। সবাই ভাল থাকুন 🙄

Save

Level 1

আমি এএমডি আব্দুল্লাহ্। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 157 টি টিউন ও 1047 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

সম্মানীয় ভিজিটর বন্ধুগন! সবাইকে আন্তরিক সালাম ও ভালবাসা। আশা করি ভাল আছেন। পর সংবাদ যে, আমরা একটি ব্লগ সাইট তৈরি করেছি। সাইটটি সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম শিক্ষা ও প্রযুক্তি নির্ভর। প্রযুক্তি, শিক্ষা, কম্পিউটার বিষয়ক যেমনঃ অনলাইন ইনকাম, ফ্রিল্যান্স, টিউটোরিয়াল, মুভি, গেমস, সফটওয়্যার, ভ্রমন, ইতিহাস, ভূগোল, কার্টুন, ধর্ম, টেক সংবাদ, এবং সংবাদপত্র ফিউচার...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

প্রিয় টিউনার ,

আমি টেকটিউনস কমিউনিটি ম্যানেজার, শোয়াইব, টেকটিউনস থেকে আপনার সাথে অফিসিয়ালি যোগাযোগ করতে চাচ্ছি।

টেকটিউনস থেকে আপনার সাথে অফিসিয়ালি যোগাযোগ করার জন্য http://techtun.es/2obSQxE লিংকটিতে ক্লিক করে আপনার সাথে যোগাযোগের প্রয়োজনীয় তথ্য সাবমিট করে আমাদের সাহায্য করবেন আশা করছি।

সাবমিট করার পর আমাদের এই ম্যাসেজের রিপ্লাই আপনার কাছ থেকে আশা করছি।

ধন্যবাদ আপনাকে।

আপনার টিউনগুলো আমার কাছে সবসময় খুব ভালো লাগে। ধন্যবাদ এই বিষয়ে বিস্তারিতো লিখার জন্য।

খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন।
ধন্যবাদ।

আমি অনলাইনে মাস্টারকার্ডের জন্য এপ্লাই করবো, টিউনার ভাই এর কাছে বিস্তর সাহাজ্যের আবেদন করছি।
অনুগ্রহ পূর্বক আপনার ফেসবুক আইডির লিংক প্রদান করতে আগ্রহ প্রকাশ করার জন্য আহবান করছি।

SSL nai. R kisu buja lagbo na. 😛