অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর পদ্ধতি (Free & Without Web Site)

স্বাগতমআসসালামু আলাইকুম। আশা করি সকলে ভালো আছেন। কেন জানি মনে হচ্ছে ভালোই আছেন? আপনারা ভালো থাকেন এ দোয়াই করি। আজকে আমি আপনাদের কাছে এসেছি কি ভাবে ফ্রী তে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করা যায় তার সম্পর্কে বলতে। কারণ এর আগে আমরা জেনেছি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি এবং অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর পদ্ধতি সমূহ ব্যাপারে। তাই আমরা জানি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কয় ভাবে করা যায় এবং তা কি কি। তো আজ আমরা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর ফ্রী পদ্ধতির সম্পর্কে জানার চেষ্টা করবো। যারা নতুন এবং আগের টিউন গুলো পড়তে চান তারা নিচের দেয়া লিঙ্ক থেকে পড়ে নিতে পারেন

১, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি ।

২, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর পদ্ধতি সমূহ ।

তো শুরু করা যাক, যে কারনে আজ আমাদের এখানে আশা।

ইতি মধ্যে আমরা জেনেছি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং দুই ভাবে করা যায়। একটি হচ্ছে বিনামুল্যে মানে ফ্রীতে এবং অপরটি হচ্ছে বিনিময়ের মাধ্যমে মানে টাকা পরিষদের মাধ্যমে।

ফ্রী পদ্ধতিতে দুইভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করা যায়। এক নিজের ওয়েব সাইট ছাড়া এবং দুই নিজের ওয়েব সাইট দিয়ে। নিজের ওয়েব সাইট দিয়ে করাটাও কিছুটা বিনিময়ের মাধ্যম এর মধ্যে পরে। আর আমরা যারা নতুন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এ আসতে চাইছি তাদের তো নিজের ওয়েব সাইট থাকবে না। তাহলে কি তারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করবে না? তারাও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করবে। তাদের জন্যই হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর ফ্রী পদ্ধতি। এই ফ্রী পদ্ধতি তে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন কিন্তু এর মাধ্যমে আপনি সফল হতে একটু বেশি সময় লাগবে পেইড পদ্ধতির তুলনায়। কারণ ফ্রী পদ্ধতিতে আপনাকে কিছু জিনিস যোগার করতে হবে, পেইড পদ্ধতিতে আপনার যোগার করার ঝামেলাটা থাকেনা তাই পেইড পদ্ধতির তুলনায় ফ্রী পদ্ধতিতে সময়টা বেশি লাগে।

 

আফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য আমাদের নিছের ধাপ গুলো অনুসরণ করতে হবে।

 

উপরের ধাপ গুলো ১ - ৮ পর্যন্ত শেষ করতে পারলে তাহলে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য তৈরি। তারপর শুরু হবে আমাদের অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মূল কাজ মানে প্রচার এর কাজ।

 

তো আসুন আমরা ধাপ গুলো অনুসরণ করা চেষ্টা করি এবং অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর জন্য নিজেকে তৈরি করি।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর ধাপ সমূহ:

প্রথমেই রয়েছে একটি মার্কেট প্লেচে সাইন আপ করা। Market Place এর ক্ষেত্রে আমি ClickBank কে বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকি। কারণ ClickBank এর প্রোডাক্ট গুলো খুবই মান সম্মত হয়ে থাকে এবং তারা কোন প্রোডাক্ট প্রমট করার আগে তার মান সম্পর্কে সুস্পট ধারনা নিয়ে তারপর তা মার্কেট প্লেচে দিয়ে থাকে। তাই তাদের প্রোডাক্ট গুলো নিয়ে কোন প্রকার সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় না। তো আমাদের ১ম ধাপে মার্কেট প্লেচ বলতে আমরা ClickBank-কে নিতে পারে। এছাড়া আরও অনেক মার্কেট প্লেচ আছে। যেমনঃ ClickSure, jVjoo ইত্যাদি। আপনারা আমার কথা শুনেই মার্কেট প্লেচ নির্বাচন করবেন না। আমার কাছে যেটা ভালো লাগছে তা হইত আপনাদের কাছে ভালো নাও লাগতে পারে। তো আপনারা বিভিন্ন মার্কেট গুলো ভালো ভাবে দেখে তারপর নির্বাচন করবেন।

আজ এই পর্যন্ত, আগামী টিউনে বাকী ধাপ গুলো নিয়ে আলোচনার চেষ্টা করবো। আশা করি পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভালো থাকবেন এবং আমার জন্য দোয়া করবেন। হাতে যতটুকু সময় পেলাম তার মধ্যেই এইটুকু লিখলাম। যদি কোন ভুল হয়ে থাকে তাহলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।

 

পরবর্তী টিউনে আমন্ত্রণ জানিয়ে আজকের মত বিদায় নিচ্ছি। আল্লাহ হাফেজ।

 

সকলকে অগ্রীম ঈদ শুভেচ্ছা এবং ঈদ মুবারাক।

 

 

Facebook

Level 2

আমি মোহাম্মদ রিয়াদ। Front-end Designer and WP Developer, Soft Bucket, Chattogram। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 23 টি টিউন ও 14 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 4 টিউনারকে ফলো করি।

I'm a front-end designer and WordPress Developer. I've been working as a front-end design since 2015 and as a WordPress Developer since 2018. I've intermediate skills in Graphics Design and Digital Marketing.


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

koto porbe shesh hobe????