ইউটিউব থেকে মাসে আয় করুন ৫০০ থেকে ১০০০ ডলার

আমি যদিও টাইটেলে ৫০০ থেকে ১০০০ ডলার লিখেছি আপনি কিন্তু এর থেকে অনেক অনেক বেশি আয় করতে পারেন ইউটিউব থেকে।

অনলাইনে আয়ের যতগুলো পথ আছে তার মধ্যে সবচেয়ে সহজ ও কার্যকরী পদ্ধতি হল ইউটিউব মার্কেটিং। বাংলাদেশেরও শত শত মার্কেটার আছেন যারা শুধু ইউটিউব মার্কেটিং করে মাসে হাজার ডলার আয় করছেন। খুব অল্প দক্ষতা, সামান্য একটু কৌশল, এক দুই ঘণ্টা প্রতিদিন কাজ করে যাওয়া- এতটুকু হলেই ইউটিউব মার্কেটিং করে অনায়াসে অনলাইনে আপনিও সফল হতে পারবেন।

কিভাবে ইউটিউব থেকে আয় করা শুরু করবেন তা আজ আমি আপনাদের ধাপে ধাপে দেখাবো।

নিচের ভিডিও টি দেখতে পারেন অথবা নিচের রুলস ফলো করতে পারেন ভিডিও দেখলে ভাল ভাবে বুজতে পারবেন

 

১ম ধাপঃ ‘সাইন আপ’ বা ‘সাইন ইন’

আপনার জিমেইল অ্যাকাউন্টে লগ ইন থাকা অবস্থায় আপনি সরাসরি youtube.com এ চলে যান। ডানপাশে উপরের দিকের ‘log in’ লিঙ্কে ক্লিক করলে এটি আপনাকে সরাসরি লগ ইন করে নিবে।

 

 

২য় ধাপঃ ভিডিও আপলোড

এখন আবার ডানপাশে উপরের দিকের ‘Upload’ বাটনে ক্লিক করুন। ‘Upload as…’ নামের একটা পপ আপ আসবে যেখানে আপনার কাছে আপনার চ্যানেলের নাম চাইবে। ফাস্ট এবং লাস্ট নেইম দিয়ে Create channel বাটনে ক্লিক করুন।

 

 

এখন আপনাকে সরাসরি ‘upload’ পেইজে নিয়ে যাবে। আপনি এখান থেকে আপলোড বাটনে ক্লিক করলে একটা উইন্ডো ওপেন হবে যেখানে আপনি আপলোড করার জন্য ফাইল দেখিয়ে দিবেন।

 

 

৩য় ধাপঃ ভিডিওর ইনফরমেশন প্রদান

ফাইল সেলেক্ট করে দেওয়ার সাথে সাথেই আপনার ভিডিও আপলোড শুরু হয়ে যাবে। ভিডিও আপলোড হওয়ার সময়েই নিচের ছবির মত যেখানে ভিডিওর যেই ইনফরমেশন দেওয়ার দরকার দিয়ে দিবেন –

 

৪র্থ ধাপঃ মানিটাইজেশন

ইউটিউবে আপনি ভিডিও আপলোড করলেই আপনার আয় হবে না। যখন আপনার ভিডিওতে অ্যাড দেখাবে তখন আপনার আয় হবে। আর অ্যাড দেখাতে হলে আপনার চ্যানেল এবং আপনার ভিডিওতে মানিটাইজেশন এনাবল করতে হবে।

চ্যানেল মানিটাইজেশন

চ্যানেল মানিটাইজেশনের জন্য Dashboard এ লগ ইন থাকা অবস্থায় আপনাকে চ্যানেল মেনুতে যেতে হবে এবং সেখানে নিচের চিত্রের মত মানিটাইজেশন এনাবল করতে হবে –

 

এরপর আপনাকে আরেকটা কাজ করতে হবে আর তা হচ্ছে আপনার একটা আডসেন্স অ্যাকাউন্ট খোলা এবং সেটাকে চ্যানেলের সাথে কানেক্টেড করা। এর জন্য প্রথমে আপনাকে ‘Channel’ থেকে ‘Monetization’ অপশনে যেতে হবে। এখানে দেখেন একটা প্রশ্ন আছে ‘How will I be paid?’. এর নিচের লাইনে ‘associate an AdSense account’ লিঙ্কে ক্লিক করুন। এটা আপনাকে AdSense account খোলার পেইজে নিয়ে যাবে সেখানে ইনফরমেশন সঠিক ভাবে দিলেই আপনার AdSense অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে যাবে এবং তা আপনার চ্যানেলের সাথে কানেক্টেড হয়ে যাবে। অর্থাৎ চ্যানেল থেকে আপনার আয় হওয়া টাকা সরাসরি এখানে চলে যাবে।

 

 

ভিডিও মানিটাইজেশন

ইউটিউব ভিডিও মানেটাইজেশন

ভিডিও মেনেজারে যান এবং যেই যেই ভিডিওতে মানিটাইজ এনাবল করবেন সেগুলোর বামপাশে চেক বক্সে ক্লিক করে চেক করুন। এরপরে উপরে থাকা ‘Action’ এ ক্লিক করুন এবং ‘Monetize’ সেলেক্ট করুন। মানিটাইজ এনাবল হলে ভিডিও মেনেজারের ভিডিও লিস্টে ভিডিও বরাবর $ (ডলার) সাইন দেখাবে এবং এটা গ্রিন থাকবে।

হয়ে গেল মানিটাইজেশন। এখন কেউ আপনার ভিডিও দেখলে তখন আপনার আয় জেনারেট হবে।

 

 

 

৫ম ধাপঃ আয় চেক

আপনার ভিডিওর ভিউ এবং আয় চেক করার জন্য Dashboard এ লগ ইন থাকা অবস্থায় Analytics এ যান। নিচের মত দেখতে পাবেন। এটা আমার একটা চ্যানেলের এই মাসের Statistics –

 

 

 

এই ছিল আমাদের আজকের ইউটিউব মার্কেটিং টিউন

 

 

Level 0

আমি শোআইব ইমরান। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 5 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 55 টি টিউন ও 13 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস