বায়োমেট্রিক কী? বায়োমেট্রিক কত ধরনের?

Level 2
১ম বর্ষ, সরকারি দোহার-নবাবগঞ্জ কলেজ, নবাবগঞ্জ

বর্তমান আধুনিক যুগে  বায়োমেট্রিক পদ্ধতি নিরাপত্তা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে প্রয়জোনীয়  হয়ে উঠছে। সহজ কথায় বলতে গেলে বায়োমেট্রিক এক ধরনের নিরাপদ ব্যবস্থা। বায়োমেট্রিক ব্যবহার করা হয় কোনো ব্যক্তির শারীরিক বা জৈবিক বৈশিষ্ট যেমন আঙুলের ছাপ, চোখের আইরিস, মুখচ্ছবি, কন্ঠস্বর, সনাক্ত

করার জন্য। এ পদ্ধতি অনেকটা নিরাপদ আমাদের জন্য  পাসওয়ার্ড বা আইডি কার্ডের থেকে।

বায়োমেট্রিক কত ধরনের?


বিভিন্ন ধরনের শারীরিক ও জৈবিক বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করে বায়োমেট্রিক প্রযুক্তি। কয়েকটি প্রধান ধরন আমরা জানবো:

শারীরিক বৈশিষ্ট্য-ভিত্তিক বায়োমেট্রিক


সবচেয়ে (পিও ডেমোফিলিস্ট) জনপ্রিয় বায়োমেট্রিক। আমাদের শরীরে ব্যবহারিত বিভিন্ন অংশের গঠনগত বৈশিষ্ট্য, যেমন -

১.আঙুলের ছাপ(Fingerprint):সব থেকে প্রচলিত বায়োমেট্রিক পদ্ধতি। অনন্য কুঁচকিরে ভরা ডিজাইন আমাদের সবার প্রতিটি আঙুলে থাকে। যা কিনা অন কারো সাথে মিলথাকে না।

২.চোখের আইরিস(Iris Recognition): আঙুলের মতো চোখের আইরিসের গঠনটিও ভিন্নধরনের। এই পদ্ধতি ব্যবহার করে উচ্চমানের ক্যামেরা ধারা আইরিসের ছবি থেকে ডাটাবেজের সাথে মিলিয়ে সনাক্তকরণ করা হয়।

৩.মুখচ্ছবি সনাক্তকরণ (Facial Recognition): বর্তমানে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে মুখের গঠন, কাঠামো, এবং অন্যান্য সকল বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণ করে তাকে চিহ্নিত করা হয়।

 
জৈবিক বৈশিষ্ট্য-ভিত্তিক বায়োমেট্রিক


 এই ধরনের বায়োমেট্রিক ব্যবস্থায় আমাদের শরীরের কিছু জৈবিক বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করা হয়, যেমন :

১.কন্ঠস্বর সনাক্তকরণ (Voice Recognition): এখানে ব্যক্তির কণ্ঠস্বরের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য, যেমন স্বরতন্ত্রের কম্পন এবং কথার ছন্দ, বিশ্লেষণ করে সনাক্তকরণ করা হয়।

২.ভেন সনাক্তকরণ (Vein Recognition): এই নতুন পদ্ধতিতে আঙুলের বা হাতের নির্দিষ্ট কিছু অংশের শিরা উপব্যবস্থার গঠন বিশ্লেষণ করে ব্যক্তিকে চিহ্নিত করা হয়।

বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির ব্যবহার


দিন যত যাচ্ছে বর্তমানে বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির ব্যবহার বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশালভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এখন বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা উন্নীত করার জন্য এটি ব্যবহার করা হচ্ছে।

১.ব্যাংক: ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অ্যাক্সেস নিয়ন্ত্রণ, এটিএম ব্যবহার, অনলাইন লেনদেন নির্ভরযোগ্য করার জন্য।

২.বিমানবন্দর: যাত্রীদের সনাক্তকরণ, তাদের টিকিট ও পাসপোর্ট যাচাই করার জন্য।

৩.সরকারি দপ্তর: জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরি, ভোটার তালিকা গঠন, কর্মচারীদের হাজিরা নিয়ন্ত্রণের জন্য।

৪.স্মার্টফোন: লক স্ক্রিন খোলার জন্য, মোবাইল পেমেন্ট করার জন্য।

৫.অফিস: কর্মচারীদের প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ, ডেটা ও সিস্টেমের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য।

বায়োমেট্রিক ব্যবস্থার সুবিধা


বায়োমেট্রিক পদ্ধতি ব্যবহারের বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে, যেমন -

 

১.উচ্চ নিরাপত্তা: পাসওয়ার্ড বা আইডি কার্ডের চেয়ে বায়োমেট্রিক বৈশিষ্ট্য অনুলিপি করা বা ভুলে যাওয়া অনেক কঠিন তাই বেশি নিরাপদ।

২.সুবিধাজনক: পাসওয়ার্ড মনে রাখার বা আইডি কার্ড বহন করতে হয় না।

৩.দ্রুত: বায়োমেট্রিক সনাক্তকরণ ব্যবস্থা  খুব দ্রুত কাজ করে যা আমাদের সময় বাঁচায়।

৪.নির্ভুল: বায়োমেট্রিক প্রযুক্তি বর্তমানে অনেক উন্নত এবং নির্ভুল হওয়া ভুল সনাক্তকরণের সম্ভাবনা কম।

৫.ব্যবহারকারী-বান্ধব: বায়োমেট্রিক ব্যবস্থা ব্যবহার করা বেশ সহজ।

বায়োমেট্রিক ব্যবস্থার অসুবিধা


যদিও বায়োমেট্রিক ব্যবস্থার অনেক সুবিধা রয়েছে, তবে কিছু অসুবিধাও রয়েছে, যেমন -

 

১। উচ্চ খরচ: কিছু বায়োমেট্রিক সিস্টেম উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারকারী সিস্টেমগুল অনেক বেশি ব্যয়বহুল হতে পারে।

২। গোপনীয়তা সংক্রান্ত উদ্বেগ: আমরা অনেকের মনে হয় যে বায়োমেট্রিক ডেটা সংগ্রহ এবং সংরক্ষণ ব্যক্তিগত গোপনীয়তার জন্য হুমকি সৃষ্টি করতে পারে।

৩। প্রযুক্তিগত ত্রুটি: যেকোনো প্রযুক্তিগত ব্যবস্থার মতো, বায়োমেট্রিক সিস্টেমও ত্রুটিপূর্ণ হতে পারে এবং ভুল সনাক্তকরণের ঘটনা ঘটতে পারে।

৪। সর্বজনীন না: সকলের শারীরিক বৈশিষ্ট্য স্পষ্টভাবে সনাক্তযোগ্য নাও হতে পারে।

বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির ভবিষ্যৎ


বর্তমানে বায়োমেট্রিক প্রযুক্তি আমাদের মাঝে দ্রুত বিকাশ হচ্ছে এর ভবিষ্যৎ অনেক বেশি উজ্বলময়। বিজ্ঞানীরা আরও উন্নত, নির্ভুল এবং ব্যবহারকারী বায়োমেট্রিক সিস্টেম তৈরির জন্য ক্রমাগত গবেষণা চালাচ্ছেন।

 

আগামীতে আমরা বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির আরও ব্যাপক ব্যবহার দেখতে পাবো। ধারণা করা হচ্ছে যে -

১.আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বায়োমেট্রিক ব্যবস্থা আরও বেশি সহজ হবে। আমাদের ঘর, গাড়ি, অফিস, এমনকি আমাদের পোশাক খোলার জন্য বায়োমেট্রিক সিস্টেম ব্যবহার করতে পারি।

২.বায়োমেট্রিক পেমেন্ট ও আমাদের মাঝে আরো জনপ্রিয় হয়ে উঠবে। আমরা আমাদের আঙুলের ছাপ, মুখের ছবি, এমনকি আমাদের চোখের আইরিস ব্যবহার করে কেনাকাটা করতে পারবো।

৩.আইন প্রয়োগকারী সংস্থা অপরাধীদের সনাক্ত করতে বায়োমেট্রিক প্রযুক্তি ব্যবহার করবে।

৪.স্থ্যসেবা ক্ষেত্রে রোগীদের সনাক্তকরণ চিকিৎসা ইতিহাস ট্র্যাক করার জন্য বায়োমেট্রিক ব্যবস্থা ব্যবহার করা হবে।

শেষকথা


আমাদের জীবনে বায়োমেট্রিক প্রযুক্তি বিপ্লবী পরিবর্তন এনেছে। এটি একটি অত্যন্ত কার্যকর হাতিয়ার নিরাপত্তা ব্যবস্থা উন্নত করার জন্য।

বায়োমেট্রিক ব্যবস্থার কিছু অসুবিধা রয়েছে তবে বিশ্বাস করা যায় যে প্রযুক্তিগত উন্নয়নের সাথে সাথে এই সমস্যাগুলো সমাধান করা সম্ভব হবে। ভবিষ্যতে বায়োমেট্রিক প্রযুক্তি আরও বেশি উন্নত এবং ব্যবহারকারী-বান্ধব হবে এবং আমাদের জীবনকে আরও নিরাপদ, সুবিধাজনক এবং দক্ষ করে তুলবে।

Level 2

আমি ইমন সিকদার। ১ম বর্ষ, সরকারি দোহার-নবাবগঞ্জ কলেজ, নবাবগঞ্জ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 23 টি টিউন ও 6 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস